দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে মাওলানা মামুনুল হকের ফেসবুক স্ট্যাটাস

অনলাইন ডেস্ক

দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে মাওলানা মামুনুল হকের ফেসবুক স্ট্যাটাস

রাজধানীর অদূরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় রয়েল রিসোর্টে গতকাল বিকেলে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে ঘেরাও করে রাখা হয়। নারী নিয়ে রিসোর্টে উঠেছেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়। 

তবে মাওলানা মামুনুল হক বলেছেন, তিনি তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে সোনারগাঁওয়ে আসেন। জাদুঘর ঘুরে দেখে বিশ্রাম নেওয়ার জন্য রিসোর্টটিতে উঠেন।

তার দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে যে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। সে বিষয়টি নিয়ে আজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন মামুনুল হক। 

নিউজ টোয়েন্টিফোর বিডি ডট টিভির- পাঠকের জন্য স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

একটি মানবিক বিয়ের গল্প- ‘হাফেজ শহিদুল ইসলাম আমার ঘনিষ্ঠ সহকর্মীদের একজন। সাংগঠনিক কাজে আমার দু-চারজন সহযোগীর অন্যতম। বেশ পুরোনো আমাদের সম্পর্ক। সম্পর্কের গভীরতা পারিবারিক পরিধি পর্যন্ত। পরিবারসহ একে অপরের বাসায় যাতায়াত আমাদের দীর্ঘদিনের। সেই সূত্রে তার পারিবারিক অভিভাবকত্ব করতাম আমি। পারিবারিকভাবে খুঁটিনাটি বিষয়ে পরামর্শের জন্য তারা আমার দ্বারস্থ হত। দুই সন্তানের ছোট সংসার নিয়ে চলছিল তাদের জীবন।

একটাপর্যায়ে এসে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে শুরু হয় মনোমালিন্য। মনোমালিন্য থেকে বাদানুবাদ এবং সম্পর্কের টানাপোড়েন শুরু। আজ থেকে তিন বছর আগের কথা। তখন তাদের সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য অনেক চেষ্টা করেছি আমি। তাদের উভয়ের সাথে কথা বলি। কিন্তু কোনোভাবেই আর সেটি সম্ভব হয়নি। ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তাদের। ছাড়াছাড়ির পর দ্বিতীয় সংসার শুরু করেন হাফেজ শহিদুল ইসলাম। সেই বিবাহ আমি পড়াই। তিনি তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে সুখে শান্তিতে দিনাতিপাত করছেন। সেই ঘরে জন্ম নিয়েছে ফুটফুটে আরেকটি সন্তান। 

অপরদিকে হাফেজ শহিদ ভাইয়ের স্ত্রী হয়ে যায় অনেকটা অসহায়। এক রকমের কূলকিনারাহীন। রাগের মাথায় সংসার ভেঙে গভীর সংকটে পড়ে যান তিনি। ওই পরিস্থিতিতে তার জীবিকা নির্বাহ করা কঠিন হয়ে পড়ে। স্বাভাবিকভাবেই তিনি আমার শরণাপন্ন হন।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে করণীয় বিষয়ে পরামর্শ নেন। আর সেই দুঃসময়ে সহযোগিতা করার মতো আমি ছাড়া আর কেউ ছিল না তার। ইসলামী দৃষ্টিকোণ এবং অভিভাবকত্বের জায়গা থেকে আমি তার অর্থনৈতিক দায়িত্ব গ্রহণ করি। জীবনের করণীয় বিষয়ে দিক-নির্দেশনার জন্য নিয়মিতই আমার সাথে যোগাযোগ রাখতে হয় তাকে। এমতাবস্থায় একজন বেগানা নারীর সাথে এভাবে সম্পর্ক রাখাকে শরিয়তের দৃষ্টিকোণ থেকে আমার কাছে ঝুঁকিপূর্ণ মনে হয়। তখন আমি সিদ্ধান্ত নেই, যত দিন তার অভিভাবকত্বের প্রয়োজন হবে আমার, তাকে বেগানা হিসেবে রেখে অভিভাবকত্ব করবনা, বরং ইসলামী শরিয়তের আলোকে বৈধ একটা সম্পর্ক তৈরি করে নেব।


 দেশে আরও ৭ হাজার ৮৭ জনের করোনা শনাক্ত

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ৫৩ জনের মৃত্যু

ওই নারী মামুনুল হকের স্ত্রী নন: সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

এই দুর্বলতা কেন, কিসের সমস্যা?: হেফাজত প্রসঙ্গে ইনু


বিষয়টি নিয়ে ঘনিষ্টজনদের সাথে কথা বলি এবং এ বিষয়ে তাদের জানিয়ে শরিয়তের বিধান অনুযায়ী বিবাহের কালেমা পড়ে বিবাহ করে নেই। দু’বছর যাবত এভাবেই মানবিক ও ইসলামী দৃষ্টিভঙ্গির আলোকে আমি তার অভিভাবকত্ব করছি এবং একজন অসহায় নারীর দায়িত্ব গ্রহণ করে একটি পুণ্যের কাজ করেছি বলে বিশ্বাস করি। আমি যা বললাম, এটা আল্লাহর নামের হাজার বার শপথ করে বলতে পারব। বিষয়টি বিশ্বাসযোগ্য করার জন্য কুল্লামার শপথও করতে পারি।

বিষয়টি খোলাসা করার পরেও যুবলীগ, আওয়ামী লীগের গুন্ডারা আমার সাথে যে অমানবিক আচরণ করেছে এবং হামলা করেছে, গায়ে হাত তুলেছে, আমি এর বিচার চাই আল্লাহর কাছে, প্রশাসনের কাছে এবং জনগণের কাছে। পুলিশের উপস্থিতিতে তাদের এই হামলা ও আচরণ প্রমাণ করে বর্তমানে বাংলাদেশে মান-সম্মান কিংবা জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে চলাফেরা করা সম্ভব না। ’

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

দোকানপাট-শপিংমল বন্ধ না খোলা থাকবে, সিদ্ধান্ত কাল

অনলাইন ডেস্ক

দোকানপাট-শপিংমল বন্ধ না খোলা থাকবে, সিদ্ধান্ত কাল

লকডাউনের সময় বাড়ানোর কারণে দোকানপাট, শপিংমল বন্ধ রাখা হবে কিনা সে বিষয়ে আগামীকাল সোমবার সিদ্ধান্ত জানাবে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি।

সংগঠনটির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘ঈদের আগে সরকার ১৬ মে পর্যন্ত লকডাউন বা বিধি-নিষেধের সময় নির্ধারণ করেছিল। তবে আজ চলমান লকডাউনের (বিধিনিষেধ) মেয়াদ আরও সাতদিন অর্থাৎ ১৭ থেকে ২৩ মে পর্যন্ত আরেক দফা বাড়ানো হয়েছে। এখন সরকারি প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী আমরাও সিদ্ধান্ত জানাবো আগামীকাল।’

এদিকে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ এবং ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের কারণে চলমান লকডাউন বা বিধি-নিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনও জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আগামীকাল

অনলাইন ডেস্ক

যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আগামীকাল

নারায়ণগঞ্জ, ফতুল্লা, মুন্সিগঞ্জসহ আশপাশের এলাকায় আগামীকাল গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। রোববার (১৬ মে) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সিদ্ধিরগঞ্জ সিজিএসের জরুরি রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য সোমবার (১৭ মে) সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার (১৮ মে) সকাল ৮টা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ শহর এলাকা, সিদ্ধিরগঞ্জ, আদমজী ইপিজেড, গোদনাইল, নারায়ণগঞ্জ বিসিক, পাগলা, ফতুল্লা, পঞ্চবটি থেকে মুক্তারপুর পর্যন্ত এলাকা , মুন্সিগঞ্জ সদর, মুন্সিগঞ্জ বিসিক, রেকাবী বাজার এবং এর আশপাশের এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। এছাড়া কোথাও কোথাও গ্যাসের চাপ কম থাকবে বলে তিতাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

এসব এলাকার আবাসিক, বাণিজ্যিক, শিল্প ও সিএনজিসহ সব শ্রেণির গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। গ্রাহকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

বাড়ছে প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি

অনলাইন ডেস্ক

বাড়ছে প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি

করোনা পরিস্থিতির কারণে সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটিও আগামী ২৯ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। রবিবার (১৬ মে) বিকেলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা রবীন্দ্রনাথ রায় এ তথ্য জানান।

গতকাল (১৫ মে) মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটিও ওইদিন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছিল।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার লক্ষ্যে আগামী ২৯ মে পর্যন্ত সব ধরনের সরকারি, বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেন বন্ধ থাকবে। এ সময়ে নিজেদের এবং অন্যদের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষার লক্ষ্যে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ বাসস্থানে অবস্থান করবে। এ সময়ে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

এছাড়া আরো বলা হয়, ‘শিক্ষার্থীদের বাসস্থানে অবস্থানের বিষয়টি অভিভাবকরা নিশ্চিত করবেন এবং স্থানীয় প্রশাসন তা নিবিড়ভাবে পরিবীক্ষণ করবেন। এ সময়ে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ তাদের নিজ নিজ শিক্ষার্থীরা যাতে বাসস্থানে অবস্থান করে নিজ নিজ পাঠ্যবই অধ্যয়ন করে সে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট অভিভাবকদের মাধ্যমে নিশ্চিত করবেন।’

বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনা ও অনুশাসনগুলো মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনা সংক্রমণ শনাক্তের পর ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। বেশ কয়েক ধাপে ছুটি বাড়ানোর পর ২৩ মে খুলে দেওয়ার কথা থাকলেও সেই ছুটি বাড়িয়ে ২৯ মে করা হয়।

পরবর্তী খবর

সরকারের নতুন প্রজ্ঞাপনে হোটেল-রেস্তোরাঁয় বসে খেতে মানা

অনলাইন ডেস্ক

সরকারের নতুন প্রজ্ঞাপনে হোটেল-রেস্তোরাঁয় বসে খেতে মানা

বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালানো করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার।

এ ব্যাপারে রোববার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বর্তমান করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতি বিবেচনায় আগের সব বিধিনিষেধ ও কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় নতুন কিছু শর্তে ১৬ মে মধ্যরাত থেকে ২৩ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ বাড়ানো হলো।

এ সময়ের মধ্যে সরকারের রাজস্ব আদায়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত সব দপ্তর, জরুরি পরিসেবা আওতাভূক্ত থাকবে।

এসময় খাবার হোটেল ও হোটেল-রেস্তোরাঁ কেবল খাবার বিক্রয় ও সরবরাহ করতে পারবে, অর্থাৎ হোটেল-রেস্তোরাঁয় বসে খাওয়া যাবে না। 

এছাড়া এ বিধিনিষেধ চলাকালে লঞ্চ, ট্রেন ও দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেলার ভেতরে বাস চলবে। দোকানপাট সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

লকডাউনে বন্ধ থাকছে দূরপাল্লার বাস-ট্রেন-লঞ্চ চলাচল

অনলাইন ডেস্ক

লকডাউনে বন্ধ থাকছে দূরপাল্লার বাস-ট্রেন-লঞ্চ চলাচল

করোনা সংক্রমণ রোধে চলমান বিধিনিষেধ বেড়েছে ২৩ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বেড়েছে। আজ রবিবার (১৬ মে) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

তবে ঈদের পর দূরপাল্লার বাস ছাড়ার অনুমোদন দেয়নি সরকার। ফলে আগের মতোই বন্ধ থাকছে দূরপাল্লার গণপরিবহন চলাচল। তবে জেলার মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলাচল করবে।

জানা গেছে, আন্তঃজেলা বাস, ১৭ থেকে ২৩ মে পর্যন্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের পর সরকার সিদ্ধান্ত নেবে যাত্রীবাহী ট্রেন ও লঞ্চ চলাচল করবে কি না।

এর আগে করোনা সংক্রমণ আর মৃত্যুর ঊর্ধ্বগতি রুখতে সারা দেশে গত ৫ এপ্রিল থেকে শুরু হয় সাত দিনের লকডাউন। পরে তিন দফায় লকডাউন বেড়ে ১৬ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানো হয়।

পরবর্তী খবর