লকডাউনের নামে ক্র্যাকডাউন দিয়েছে সরকার: নূর

অনলাইন ডেস্ক

লকডাউনের নামে ক্র্যাকডাউন দিয়েছে সরকার: নূর

দেশে চলমান লকডাউনকে ক্র্যাকডাউন মন্তব্য করে বাংলাদেশ ছাত্র, যুব ও শ্রমিক অধিকার পরিষদের সমন্বয়ক ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নূর বলেছেন, বর্তমানে যে সময় সরকার লকডাউন দিয়েছে তাতে আমার মনে হচ্ছে এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন ‌‘আপনারা জানেন মোদিবিরোধী আন্দোলনের রেশ এখনও কাটেনি। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের রাস্তায় নেমে আসার যে প্রবণতা সেটাকে থামাতে সরকার লকডাউনের নামে ক্র্যাকডাউন দিয়েছে।’

সোমবার (৫ এপ্রিল) পল্টনের জামান টাওয়ারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সরকার ১০ দিনব্যাপী প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠানমালা পালন করেছে। সেই সময় সমস্যা হয়নি। সরকার হঠাৎ করে লকডাউন দিয়েছে। এটা রহস্যজনক বিষয়।


দুই রমণীই মামুনুলকে প্রভু মানে: তসলিমা নাসরীন

মসজিদে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে মানতে হবে যে নির্দেশনা

লকডাউন কি বাড়বে?

টাকা আছে বলেই সব কিনে ফেলতে হবে!

করোনা টেস্টের ফল পেতে কেন ৬ দিন লাগবে?


হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের নারায়ণগঞ্জের ঘটনা নিয়ে নূর বলেন, লকডাউনের দুদিন আগে হেফাজতের একজন প্রভাবশালী নেতাকে সোনারগাঁয়ে অবরুদ্ধ করে কাণ্ড ঘটানো হয়। তারপরের দিন আমাকে গুমের চেষ্টা করা হলো। আরও দুতিন দিন আগে ফেসবুক পোস্টে আমি জানিয়েছিলাম, বর্তমান পরিস্থিতিতে মোদি বাংলাদেশে এসে সেভাবে সম্মান পাননি। বাংলাদেশে ভারতের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রচণ্ড রকমের ক্ষোভ মানুষের মধ্যেই আছে। সে কারণে ভারত বাংলাদেশ সরকারকে পরামর্শ দিয়েছে এদেশের ইসলামপন্থীদের শক্তি ভেঙে দেওয়া এবং কওমি মাদরাসা বন্ধ করে দেওয়া। দ্বিতীয়টা ছিল, ভিপি নূরকে গুম করে মেরে ফেলা। কারণ তাকে কোনোভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। সরকারের উচিত ছিল আমার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। কিন্তু সেটা আমি পাইনি।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর মতো বাংলাদেশের ইতিহাসের একটি গুরুত্বপূর্ণ উদযাপন অনুষ্ঠান সরকার দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও জনগণকে সম্পৃক্ত না করে সংকীর্ণ দলীয় দৃষ্টিকোণ থেকে উদযাপন করেছে বলে মন্তব্য করেন নূর।

তিনি বলেন, এমনকি ভারতের উগ্র সাম্প্রদায়িক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরোধিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ কর্মসূচিতে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও পুলিশ বিনা উস্কানিতে দফায় দফায় সশস্ত্র হামলা ও গুলি চালায়। এতে প্রায় ৭৪২ জন আহত, ১৯ জন নিহত ও ১৮২ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে এমন পক্ষপাতমূলক ও জঘন্য কাজ স্পষ্টতই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থী।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মামুনুল হকের শ্বশুরকে আ.লীগের কারণ দর্শানোর নোটিশ

অনলাইন ডেস্ক

মামুনুল হকের শ্বশুরকে আ.লীগের কারণ দর্শানোর নোটিশ

সোনারগাঁওয়ে হেফাজতে ইসলামের নেতা মাওলানা মামুনুল হকের রিসোর্ট কাণ্ডের পর ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা চলছে। জানা গেছে মাওলানা মামুনুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী ঝর্ণার বাবা ওলিয়ার রহমান ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার ২নং গোপালপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড কামারগ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি।

এ জন্য মাওলানা মামুনুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী ঝর্ণার বাবাকে গোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মোনায়েম খান ও সাধারণ সম্পাদক মো. ফরিদ উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক পত্রের মাধ্যমে এ নোটিশ পাঠানো হয়।

সম্প্রতি সর্বাধিক আলোচিত হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী জান্নাত আরা ঝর্ণা ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের কামারগ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ওলিয়ার রহমানের মেজ মেয়ে।
 
আলোচিত এ ঘটনার পর ওলিয়ার রহমানের পরিবারের সদস্যদের হেফাজত ইসলাম সংগঠনের সঙ্গে সম্পৃক্ততা পাওয়ার কারণে তাকে আওয়ামী লীগ থেকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন


এলাকা না ছাড়তে ব্যাংক কর্মচারীদের কড়া নির্দেশ

ব্যাংকে লেনদেন ৩টা পর্যন্ত, কাল থেকে সব বন্ধ

জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ সন্ধ্যায়

শহর থেকে দলে দলে গ্রামে ছুটলে লকডাউনের মানে হয় না


নোটিশে বলা হয়, আপনি মো. ওয়ালিয়ার রহমান, গোপালপুর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। আপনার বড় জামাতা মো. হাবিবুর রহমান, মেজ জামাতা অর্থাৎ জান্নাত আরা ঝর্ণার সাবেক স্বামী মো. জাফর শহিদুল ইসলাম, সর্বাধিক সমালোচিত আপনার মেজ মেয়ে জান্নাত আরা ঝর্ণার কথিত স্বামী মো. মামুনুল হকসহ সবাই উগ্রপন্থী ইসলামী সংগঠনের (হেফাজতে ইসলাম) সঙ্গে জড়িত।

আপনার মেয়ে জান্নাত আরা ঝর্ণা অবৈধ কার্যকলাপে লিপ্ত। এমনকি আরও জানা যায় যে, আপনার স্ত্রীও জামায়াতপন্থী। হেফাজতে ইসলামের সঙ্গে পরিবারের সংশ্লিষ্টতার বিষয় কখনো দলীয় নেতাদের জানাননি ওয়ালিয়ার রহমান। তাই তার মাধ্যমে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কর্মপরিকল্পনা প্রকাশ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়।

নোটিশে আরও বলা হয়, ওয়ালিয়ার রহমানকে কেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হবে না, তার স্বপক্ষে আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে সন্তোষজনক জবাব দেয়ার অনুরোধ করা হয়।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

১৫ রমজানে কঠোরভাবে হরতাল পালনের হুঁশিয়ারি মাওলানা ইসমাঈলের

অনলাইন ডেস্ক

১৫ রমজানে কঠোরভাবে হরতাল পালনের হুঁশিয়ারি মাওলানা ইসমাঈলের

হেফাজতের সকল তাণ্ডবকারীদের গ্রেফতার করা না হলে ১৫ রমজানে হরতাল পালনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা ইসমাঈল হোসেন। 

সোমবার (১২ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক হলে এক আলোচনা সভায় তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন।

তিনি বলেন, সারাদেশে হেফাজতের নাশকতায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা না হলে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালন করা হবে। এই হরতাল কঠোরভাবে পালন করা হবে। রিকশা-সাইকেল কোনো কিছুই চলতে দেব না। এমনকি পুলিশের গাড়িও চলতে দেওয়া হবে না।

হেফাজতে ইসলামের হরতাল কর্মসূচিতে ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় অর্ধশতাধিক সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগকারী সবাইকে গ্রেফতারে আল্টিমেটাম  দিয়ে মাওলানা ইসমাইল হোসাইন আরও বলেন, হেফাজতের ঘটনায় ২৬ টি তাজা প্রাণ ঝরল। তার সাথে জাতীয় সম্পদের শতকোটি টাকার অধিক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের তাণ্ডবের সময় এক পুলিশ সদস্যের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া ২০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে সদর উপজেলার সুহিলপুর বাজারের একটি মিষ্টির দোকান থেকে গুলিগুলো উদ্ধার করে পুলিশ। গুলি খোয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় দু'জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

তিনি আরও বলেন, এই অবস্থায় সরকারের সাথে কোন প্রকার সংলাপের উদ্যোগ না নিয়ে হেফাজতে ইসলাম কেবল মাত্র প্রতিশোধ পরায়নতার খাতিরে যেই অগ্নিসংযোগ চালায় তা নিঃসন্দেহে সাধারণ জনগণের জানমালের নিরাপত্তার উপর হুমকি স্বরূপ এবং দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার জন্য যথেষ্ট। 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন দলটির মহাসচিব মাওলানা মুফতি শাহাদাত হোসাইন, যুগ্ম-মহাসচিব কাজী মাওলানা শাহ মো. ওমর ফারুক প্রমুখ।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ভণ্ড মামুনুলরা মারা গেলে কারা জানাজা পড়ায় সেটা আমরা দেখবো : নিখিল

অনলাইন ডেস্ক

ভণ্ড মামুনুলরা মারা গেলে কারা জানাজা পড়ায় সেটা আমরা দেখবো : নিখিল

আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ এবং ছাত্রলীগের কেও মারা গেলে হেফাজতিরা জানাজা দিবে না, তাদের জানাজার দরকার নেই বলে মন্তব্য করেছেন  যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

সোমবার (১২ এপ্রিল)  করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশব্যাপী যুবলীগের ফ্রি মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং জনসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নিখিল বলেন, আমাদের জানাজা পড়ানোর জন্য অনেক আলেম আছে, আল্লাহর ওলিরা আছেন। কিন্তু ভণ্ড মামুনুলরা মারা গেলে কারা জানাজা পড়ায় সেটাও আমরা দেখবো।

বক্তব্য শেষে ফার্মগেটে সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান ও সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. খালেদ শওকত আলী, ইঞ্জিনিয়ার মৃনাল কান্তি জোদ্দার, সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. হেলাল উদ্দিন, মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, মো. জহির উদ্দিন খসরু, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, দপ্তর সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা. ফরিদ রায়হান।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

‘খেলাফত প্রতিষ্ঠা হলে ধরব আর জবাই করব’ বক্তব্য দেওয়া হেফাজত নেতা রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

‘খেলাফত প্রতিষ্ঠা হলে ধরব আর জবাই করব’ বক্তব্য দেওয়া হেফাজত নেতা রিমান্ডে

‘খেলাফত প্রতিষ্ঠা হলে একটা একটা ধরব আর জবাই করব’ এমন বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হেফাজত নেতা ওয়াসেক বিল্লাহ নোমানীর একদিনের রিমান্ড দেওয়া হয়েছে।

আইসিটি মামলায় সোমবার দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়।

এসময় ১নং আমলী আদালতের বিচারক আব্দুল হাই একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রোববার বিকেলে নগরীর সেনবাড়ি এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

এর আগে ধর্মীয় ও সরকার বিরোধী উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রদানের অভিযোগে জেলা শ্রমিকলীগ নেতা রাকিবুল ইসলাম শাহীন কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি অভিযোগ করেন।

আটকের পর রবিবার রাতে শ্রমীক লীগ নেতার অভিযোগ আমলে নিয়ে কোতোয়ালী মডেল থানায় এসআই মাহবুবুর রশিদ বাদী হয়ে আরো একটি মামলা দায়ের করেন।  

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান, ওয়াসেক বিল্লাহ নোমানী ওরফে চয়ন কুমার দাসকে সোমবার দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চাইলে ১নং আমলী আদালতের বিচারক একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে হিন্দু থেকে ধর্মান্তরিত হওয়া এ নেতা এক ওয়াজ মাহফিলে বলেন, ‘আল্লাহ যদি আমাদেরকে তৌফিক দেয়, আর যদি ইনশাল্লাহ খেলাফত প্রতিষ্ঠা করতে পারি, যদি আল্লাহ তৌফিক দেয় আর যদি ইনশাল্লাহ খেলাফত কায়েম করতে পারি, আল্লাহর কসম, আল্লাহর কসম, সংবাদ দেখার টাইম পাবি না। সংবাদ দেখার টাইম পাবি না। একটা একটা ধরব আর জবাই করব, জবাই করব ইনশাল্লাহ।’

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এদেশে জন্ম নেওয়া কি পাপ, প্রশ্ন নুরুর

অনলাইন ডেস্ক

এদেশে জন্ম নেওয়া কি পাপ, প্রশ্ন নুরুর

রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত হুমকি দেওয়া হচ্ছে অভিযোগ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, আমাকে গুম করার চেষ্টা করা হয়েছে। প্রতিনিয়ত হুমকি দেওয়া হচ্ছে রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার জন্য। এদেশে রাজনীতি করতে এসে কি আমরা পাপ করলাম, নাকি এদেশে জন্ম নেওয়া পাপ। 

সোমবার (১২ এপ্রিল) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে উদ্বিগ্ন অভিভাবক ও নাগরিক সমাজ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে নুর বলেন, মোদীবিরোধী বিক্ষোভ থেকে আটক অনেকেই আছে এমন যে তারা ছোটখাটো চাকরি করতো। কিংবা কেউ ছাত্র সাধারণ মানুষ। তাদের অনেককেই ধরে নেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য দেন- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা.জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অবঃ) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড.রেজা কিবরিয়া, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, লেখক ও গবেষক রাখাল রাহা, লেখক ও আইনজীবী খাদেমুল ইসলাম, সমাজকর্মী এ্যাড.আবু হানিফ, রাষ্ট্র চিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ভূঁইয়া প্রমুখ।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর