বায়তুল মোকাররমে সংঘর্ষ: মামুনুলদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন ২৭ মে

নিজস্ব প্রতিবেদক

বায়তুল মোকাররমে সংঘর্ষ: মামুনুলদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন ২৭ মে

হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য আগামী ২৭ মে তারিখ ধার্য করেছেন আদালত।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে (২৬ মার্চ) রাজধানীর বায়তুল মোকাররমে সহিংসতার ঘটনায়  মামলাটি করা হয়। 

মামলার অপর ১৬ আসামি হলেন-হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব, মাওলানা লোকমান, মাওলানা নাসির উদ্দিন, নায়েবে আমির মাওলানা বাহাউদ্দীন জাকারিয়া, মাওলানা নুরুল ইসলাম জেহাদী, মাজেদুর রহমান, মাওলানা হাবিবুর রহমান, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়্যুবী, মাওলানা জসিম উদ্দিন, মাওলানা মাসুদুল করিম, মুফতি মনির হোসাইন কাশেমী, মাওলানা যাকারিয়া নোমান ফয়েজী, মাওলানা ফয়সাল আহমেদ, মাওলানা মুশতাকুন্নবী, মাওলানা হাফেজ মো. জোবায়ের এবং মাওলানা হাফেজ মো. তৈয়ব।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক খন্দকার আরিফুজ্জামান সোমবার ( ৫ এপ্রিল) রাতে ওই মামলা দায়ের করেন। এজাহারে তিনি নিজেকে একজন ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন।


মামুনুল হক সম্পর্কে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

একদিনে ঝরল আরও ৫২ প্রাণ

দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড গড়ল করোনা

দেশে ফের করোনা শনাক্তের রেকর্ড


রাজধানীর পল্টন থানায় দায়ের করা ওই মামলার এজাহার মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) আদালতে জমা পড়লে মহানগর হাকিম ধীমান চন্দ্র মণ্ডল তা গ্রহণ করে প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ধার্য করেন বলে রাষ্ট্রপক্ষের অন্যতম আইনজীবী আজাদ রহমান জানান।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বাংলাদেশের নারীদের গড় আয়ু ৭৫, পুরুষের ৭১

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশের নারীদের গড় আয়ু ৭৫, পুরুষের ৭১

বাংলাদেশের নারীদের পুরুষের চেয়ে গড় আয়ু বেশি। নারীদের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ৭৫ বছর। আর পুরুষের গড় আয়ু ৭১ বছর।সে হিসেবে পুরুষের চেয়ে নারীর গড় আয়ু ৪ বছর বেশি।

জাতিসংঘের জনসংখ্যাবিষয়ক প্রতিষ্ঠান ইউএনএফপিএ গত সপ্তাহে প্রকাশিত ‘বিশ্ব জনসংখ্যা পরিস্থিতি ২০২১’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এ তথ্য দিয়েছে।সংস্থাটি নিয়মিত এই বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। 

এতে আরও বলা হয়, বর্তমানে বাংলাদেশের জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৬৩ লাখ। 

সংস্থাটি জানিয়েছে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার উপযুক্ত বয়সী শিশুদের ৯৫ শতাংশ বিদ্যালয়ে যায়। আর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার উপযুক্ত বয়সীদের মধ্যে এই হার ৬২ শতাংশ।

নারী নির্যাতন নিয়ে নিয়ে বলা হয়, বাংলাদেশে ১৮ বছর বয়স পূর্ণ হওয়ার আগে ৫৯ শতাংশ কিশোরীর বিয়ে হয়ে যায়। আর স্বামীর হাতে নির্যাতনের শিকার হন ২৯ শতাংশ নারী।

তবে প্রতিবেদনের এই পরিসংখ্যান ও তথ্যের সঙ্গে সাধারণভাবে ব্যবহৃত পরিসংখ্যানের অমিল আছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো। তারা বলছে, দেশে নারীর গড় আয়ু ৭৪ দশমিক ২ বছর। আর পুরুষের ৭১ দশমিক ১ বছর।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

চিকিৎসকদের ‘চাহিবামাত্র’ পরিচয়পত্র দেখাতে বললো স্বাস্থ্য অধিদফতর

অনলাইন ডেস্ক

চিকিৎসকদের ‘চাহিবামাত্র’ পরিচয়পত্র দেখাতে বললো স্বাস্থ্য অধিদফতর

করোনার সংক্রমণরোধে সারাদেশে সরকার ঘোষিত সর্বাত্মক লকডাউন চলছে। এদিকে লকডাউন চলাকালে চিকিৎসক পুলিশ  বাগ্‌বিতণ্ডার পর এই লকডাউনে চলাকালে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের অবাধ চলাচল নিশ্চিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চেয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। 

বুধবার (২১ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বুলেটিনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তার পাশাপাশি সব চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীকে পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখা এবং ‘চাহিবামাত্র তা প্রদর্শন’ করার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।   

ওই বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নন কমিউনিক্যাল ডিজিজের লাইন ডিরেক্টর রোবেদ আমিন জানান, যে কোনো চিকিৎসক, নার্স ও অন্য স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পূর্ণ সহযোগিতা একান্তভাবে কাম্য। 

পরিচয়পত্র, যে কোনো ধরনের আইডি কার্ড প্রদর্শনকারী স্বাস্থ্যকর্মীকে সহানুভূতির সঙ্গে সহযোগিতা করা এবং দ্রুত ও বাধাহীন চলাচলের সুবিধা প্রদান করা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একটি নৈতিক দায়িত্ব বলেও জানান তিনি। 

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি এক চিকিৎসকের সঙ্গে পুলিশের বাগ্‌বিতণ্ডার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেয়। এ নিয়ে পাল্টাপাল্টি বিবৃতি দেয় পুলিশ ও চিকিৎসক। এ পাল্টাপাল্টি বিবৃতিকে কাম্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সারাদেশে কালবৈশাখী ঝড়

অনলাইন ডেস্ক

সারাদেশে কালবৈশাখী ঝড়

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে কালবৈশাখী ঝড় আঘাত হেনেছে। বুধবার (২১ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকায় ব্যাপক ঝড় শুরু হয়। এর ১০-১৫ মিনিট পরে শুরু হয় বৃষ্টি।

এদিকে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, বুধবার (২১ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ী দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

শুক্রবার নাগাদ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের প্রবণতা হ্রাস পেতে পারে এবং তাপমাত্রা বাড়তে পারে। বর্ধিত পাঁচদিনের আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হবে।

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ভুল বোঝাবুঝির জন্য সরকারের সাথে হেফাজতের দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে : হেফাজত মহাসচিব

সমঝোতার চেষ্টায় হেফাজত

অনলাইন ডেস্ক

সমঝোতার চেষ্টায় হেফাজত

মোদি বিরোধী আন্দোলনের থেকে সারাদেশে হেফাজতের তাণ্ডবের পর এই পর্যন্ত হেফাজতে ইসলামে বাংলাদেশের অন্তত এক ডজন শীর্ষস্থানীয় নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরপর সরকার সংগঠনটির নেতা-কর্মীদের বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতার অভিযান শুরু করে। প্রতিদিনই গ্রেফতার হচ্ছেন হেফাজত সংশ্লিষ্টরা । এমন পরিস্থিতিতে হেফাজতে ইসলামের নেতারা সোমবার মধ্যরাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন। সেই সাক্ষাৎকে তারা সরকারের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি নিরসনের চেষ্টা বলে জানিয়েছেন।

এদিকে হেফাজতে ইসলামের নেতারা  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎতের বিষয়ে বলেছেন, তাদের যে কোন ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচি নেই তারা সরকারকে সেটা বোঝানোর চেষ্টা করেছেন এবং একই সঙ্গে তাদের নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের নামে হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন।

সংগঠনটির একজন কেন্দ্রীয় নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের সময় হেফাজতের কোন কর্মসূচি ছিল না। সেটা তারা বোঝাতে চেয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে। সে বিষয়ে তারা গত ২৬শে মার্চের আগে তাদের সংগঠনের সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্যসহ কাগজপত্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দিয়েছেন।

হেফাজতের ঐ নেতা আরও জানিয়েছেন, তারা মনে করছেন, সরকার তাদেরকে প্রতিপক্ষ বা রাজনৈতিক শক্তি হিসাবে দেখছে। সেজন্য তারা সরকারকে বোঝাতে চাইছেন যে, হেফাজতে ইসলাম সরকারের কোন প্রতিপক্ষ নয়। সরকার যেনো কঠোর অবস্থান থেকে সরে এসে হেফাজত নেতাদের গ্রেফতার অভিযান বন্ধ করে এবং গ্রেফতারকৃতরা যাতে আইনগত সব সহায়তা নিতে পারে। সে ব্যাপারে তারা সরকারের সাথে সমঝোতার চেষ্টা করছেন।

হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব নুরুল ইসলাম জেহাদী বলেছেন, একটা ভুল বোঝাবুঝি কারণে সরকারের সাথে তাদের দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে আলোচনায় সেটাই মূল বিষয় ছিল বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি আরও বলেন, সরকারের সঙ্গে আমাদের যে ভুল বোঝাবুঝিতো আছে সেগুলোর নিরসন হলে অগ্রগতি সাধিত হবে ইনশাআল্লাহ। ভুল বোঝাবুঝির কারণেইতো দূরত্ব সৃষ্টি হয়। তার মানে এই নয় যে আমরা সরকারের ভেতরে ছিলাম। আমরা স্বতন্ত্রভাবেই হেফাজতের কাজ করতেছিলাম।

এর মধ্যে হঠাৎ করে ২৬, ২৭ এবং ২৮শে মার্চ অনাকাঙ্খিত বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে গেছে। সেজন্য আমরা মনে করলাম, কিছু আলাপ আলোচনা করলে ভুল বোঝাবুঝির নিরসন হবে। এই ধারণা নিয়ে হঠাৎ বৈঠক (স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে) হয়। উভয় পক্ষের কথার মাধ্যমে আশা করা যায় যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে হেফাজতে ইসলামের নেতাদের সোমবারের সাক্ষাৎ এর বিষয়ে এখনও  কোনও বক্তব্য পাওয়া যায় নি। তবে আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন, এমন একজন কর্মকর্তা বলেছেন, এটি কোন বৈঠক ছিল না। এটি ছিল সৌজন্য সাক্ষাৎ। এছাড়া এই কর্মকর্তা বলেছেন, সহিংসতার ঘটনায় মামলা আছে, সেগুলো আইন অনুযায়ী চলবে।  বিবিসি বাংলা

news24bd.tv/আলী

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

লাইভে এসে যে আকুল আবেদন জানালেন হাটহাজারী মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ

অনলাইন ডেস্ক

লাইভে এসে যে আকুল আবেদন জানালেন হাটহাজারী মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ

দেশের প্রাচীন ও সর্ববৃহৎ কওমি দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হাটহাজারী মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ বুধবার (২১ এপ্রিল) বিকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লাইভে এসে প্রথমবারের মতো বিশেষ সহযোগিতার আবেদন করলেন। মাদ্রাসার নিজস্ব ফেসবুক পেইজে লাইভে লিখিত বক্তব্য পাঠের মাধ্যমে দেশবাসীর কাছে মাদ্রাসার প্রতি সদয় এবং সহযোগিতার জন্য আকুল আবেদন জানানো হয়। 

এ সময় হাটহাজারী মাদ্রাসা পরিচালনা পরিষদের প্রধান আল্লামা মুফতি আব্দুস সালাম চাটগামী, হেফাজতে ইসলামের আমির ও মাদ্রাসার শিক্ষা পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, পরিচালনা পরিষদ সদস্য আল্লামা ইয়াহিয়া, সিনিয়র শিক্ষক মুফতি জসিম উদ্দিন, সরকারি শিক্ষা পরিচালক মাওলানা শোয়েবসহ সিনিয়র শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে মাদ্রাসার শিক্ষক ড. নুরুল আফছার আজহারী বলেন, ১৯৯০ সনে প্রতিষ্ঠিত হয়ে ১২০ বৎসর আল্লাহর রহমত ও দয়া এবং সর্বসাধারণের আর্থিক অনুদান ও সাহায্য-সহযোগিতার উপর ভিত্তি করেই এ জামিয়া ইসলামের নিরলস খেদমত করে আসছে। তবে করোনা পরিস্থিতির জন্য সরকার কর্তৃক ঘোষিত সর্বাত্মক লকডাউনের কারণে জন চলাচল ব্যাপকভাবে সীমিত হয়ে পড়ায় মাদ্রাসার শিক্ষক ও প্রতিনিধিরা আপনাদের কাছে গিয়ে মাহে রমজানের জাকাত, ফিতরা ও অন্যান্য দানের অর্থ সংগ্রহে বড় ধরনের প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়েছেন। 

আরও পড়ুন


স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিয়ে করলেন শামীম-সারিকা!

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা গেল ৯৫ জন

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ৪২৮০

‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম এক দিনের রিমান্ডে


আর আল্লাহ না করুন, এবারের রমজানেও যদি জামিয়ার গোরাবা ফাণ্ডে অর্থ সংগ্রহে প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়তে হয়, তাহলে প্রতিষ্ঠানের স্বাভাবিক শিক্ষাকার্যক্রম এবং হাজার হাজার গরীব ও এতিম ছাত্রের ভরণ-পোষণ চালু রাখা সংকটের মুখে পড়তে পারে। 

এতে বলা হয়, চলমান লকডাউন পরিস্থিতির কারণে এ বছরও মাদ্রাসার প্রতিনিধিরা হয়তো আপনাদের সাথে সরাসরি যোগাযোগের সুযোগ পাবেন না। 

গত বছরের মতো চলতি রমজানেও আপনাদের প্রিয় এই প্রতিষ্ঠানের বিশাল ব্যয় নির্বাহে সহযোগিতার অংশ হিসেবে নিজ নিজ সদকা-ফিতরা, নযর, কাফফারা ও দানের অর্থ ব্যক্তিগতভাবে বা এলাকাভিত্তিক সম্মিলিতভাবে মাদরাসার ব্যাংক একাউন্ট বা বিকাশ নম্বরে জমা করে এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম এবং বহুমুখী দ্বীনি খিদমতের ধারা অব্যাহত রাখতে আপনাদের সহযোগিতা প্রয়োজন। 

news24bd.tv / কামরুল 

মন্তব্য

পরবর্তী খবর