যে কারণে মান্নার কবর সংস্কার হচ্ছে না

ফাতেমা কাউসার

যে কারণে মান্নার কবর সংস্কার হচ্ছে না

শীর্ষে থাকা অবস্থায় এক যুগ আগে মৃত্যুবরণ করে ঢাকাই সিনেমার ব্যবসাসফল চিত্রনায়ক এস এম আসলাম তালুকদার মান্না। মৃত্যুর পর টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গার বাগানবাড়ির নিজ পারিবারিক কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়। পারিবারিক কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হলেও তার কবর পাকাকরণ এখনো হয়নি। এ নিয়ে ভক্তরা বিভিন্ন সময় কবর পাকাকরণের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। কিন্তু পারিবারিক ও কবরস্থান নিচু জায়গায় হওয়ায় কবর সংস্কার করা এখন পর্যন্ত হয়নি। এরপরেও দুই দফা কবরস্থান মাটি দিয়ে উঁচু করলেও দেবে যাওয়ার কারণে সংস্কার করা সম্ভব হয়নি বলে জানা গেছে।

কবর সংস্কারের বিষয়ে চিত্রনায়ক মান্নার বড় বোন মিসেস কণা বলেন, ‘পারিবারিক কবরস্থানে আমার ছোট ভাইকে সমাহিত করার কারণে আমরা শুধুমাত্র তার কবরটা সংস্কার করতে পারিনি। কারণ যে জায়গাটায় তাকে কবর দেয়া হয়েছে সেই জায়গাটা ইসমাইলি। যেকারণে আমাদের একা সিদ্ধান্তে আমরা কবরটি সংস্কার করতে পারছি না। আমাদের পারিবারিক কবরস্থানের দেখভাল করেন আমার চাচা সাফি তালুকদার। তিনি দেশের বাইরে থাকেন। তার দেশে আসার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে দেশে আসতে পারছেন না। তিনি দেশে ফিরলেই কবর নির্ধারণ করেই প্রতিটি কবরের ফলক নির্মাণ করা হবে। তখনই আমরা মান্নার কবরটি সংস্কার করব।’

তিনি আরো বলেন, আমরা মান্নার কবরটি একবার পাকা করেছিলাম। তখন একসাথে সেখানে সবার কবর দেবে গিয়েছিল। এরপর দেবে গেলে মাটি ভরাট করা হয়। তখন আমার চাচা দেশের বাইরে ছিলেন। তিনি নিষেধ করেছিলেন দেশে ফিরেই সবাই মিলে সেখানে যতগুলো কবর আছে সবগুলোই পাকাকরণ করবেন। তার নিষেধের কারণে এখনো কবর পাকাকরণ করা হয়নি। কারণ তিনি জানেন কোথায় কার কবর আছে। 

অন্যদিকে গেল ১৭ ফেব্রুয়ারি চিত্রনায়ক মান্নার মৃত্যুবার্ষিকীতে কবর জিয়ারত ও মিলাদ মাহফিলের জন্য টাঙ্গাইল গিয়েছিলেন তার সহধর্মীনি শেলী মান্না। সেখানে মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তিনি কবর জিয়ারত ও এতিমখানা ও মাদ্রাসায় খাবার পরিবেশন করেছেন। সেখানে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল শেষে কবর পাকাকরণের বিষয়ে মান্নার আত্মীয় স্বজনের সাথে যোগাযোগ করেন তিনি। 

চিত্রনায়ক মান্নার স্ত্রী শেলী মান্না বলেন, ‘এখানে প্রত্যেকটির কবর বাঁধানো ছিল। তখন উত্তম গুহের নকশা অনুযায়ী কবর বাঁধানোর কাজ শুরু করা হয়। কিন্তু পাশেই নতুন করে বিল্ডিং নির্মাণের কাজ চলছিল। সেকারণে সেখানকার সবগুলো কবরগুলো দেবে যেতে শুরু করে। এবং বর্ষায় পানি উঠেও। পানি উঠার হাত থেকে বাঁচাতে কবরে মাটি ভরাট করা হয়। সেখানকার প্রতিটি কবরই পাকা ছিল। কিন্ত মাটি ভরাট করার কারণে সবগুলো করব সংস্কারবিহীন অবস্থায় রয়েছে। মান্নার চাচা দুই দফায় মাটি ভরাট করেন। আরো এক দফায় মাটি ভরাট করে উঁচু করবেন। এরপর সবগুলো কবর একসাথে সংস্কার করা হবে।’

আরও পড়ুন


নড়াইলে কৃষকলীগ নেতাকে গুলি, অস্ত্রসহ আটক ২ তরুণ

ভাসানটেকে উদ্ধার লাশ নারী যৌনকর্মীর

সাধারণ রোগীদের জায়গা নেই সরকারি হাসপাতালে

ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে দেশের পুঁজিবাজার


তিনি আরো বলেন, মান্নার মৃত্যুর পরেই কবর সংস্কারের জন্য উত্তম গুহের নকশা অনুযায়ী কবরের অবকাঠামো তৈরি করা হয়। কিন্তু কবরস্থানের মাটি দেবে যাওয়ার কারণে আমরা আর অগ্রসর হতে পারিনি। তবে মান্নার বড় বোন কণা আপার সাথে কথা বলে কবরটি দ্রুত সংস্কার সংস্কারের বিষয়ে কথা বলি। 

১৯৬৪ সালের ১৪ এপ্রিল টাঙ্গাইলের কালিহাতির কৈতলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন ঢাকাই সিনেমার দাপটে অভিনেতা এসএম আসলাম তালুকদার মান্না। ১৯৮৪ সালে ঢাকা কলেজে পড়াকালীন নতুন মুখের সন্ধানে প্রতিযোগিতার দিয়ে চলচ্চিত্রে আগমন ঘটে চিত্রনায়ক মান্নার। মান্না অভিনীত প্রথম সিনেমা ছিল ‘তওবা’। নিজের চেষ্টা, পরিশ্রমে একসময় মান্না বাংলা সিনেমায় হয়ে উঠেছিলেন এক নম্বর নায়ক। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি শীর্ষস্থান ধরে রেখেছিলেন।

১৯৯৭ সালে প্রযোজকের খাতায় নাম লেখান মান্না। কৃতাঞ্জলি চলচ্চিত্র নামে তার ছিলো চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠান থেকে ৮টি সুপার-ডুপারহিট সিনেমা উপহার দেন। নিজ প্রতিষ্ঠান থেকে প্রথম প্রযোজিত সিনেমার নাম লুটতরাজ।

২০০৮ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান নায়ক আসলাম তালুকদার মান্না।

news24bd.tv আহমেদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ

অনলাইন ডেস্ক

সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ

সমাজসেবার কারণে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ। গত শনিবার (১০ এপ্রিল) ভারতের তামিলনাড়ুর গ্লোবাল হিউম্যান পিস ইউনিভার্সিটি তাকে এ সম্মাননা দিয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে উল্লেখ করে, বিশ্বের প্রথম শিল্পী হিসেবে ৭০০টির বেশি একক অ্যালবামের রেকর্ড, সুদীর্ঘ ৩০ বছর বাংলা গানকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরা ও সমাজসেবা ছাড়াও নানামুখী কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত রেখে নিজেকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন মমতাজ।


‘খেলাফত প্রতিষ্ঠা হলে ধরব আর জবাই করব’ বক্তব্য দেওয়া হেফাজত নেতা রিমান্ডে

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

সাপ্তাহিক বন্ধের দিনও খোলা বসুন্ধরা সিটি শপিংমল

এদেশে জন্ম নেওয়া কি পাপ, প্রশ্ন নুরুর


যে কারণে তারা বিশেষ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শনিবার ‘ডক্টর অব মিউজিক’ পদক প্রদান করে।

এই বিশেষ পুরস্কার দেন বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ড. পি. ম্যানুয়েল। এর ফলে বহু সম্মানে ভূষিত এ শিল্পী প্রথমবারের মতো ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন।

মমতাজ বলেন, ‘এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। ৩০ বছর ধরে আমি মা-মাটির গান করে চলেছি; মানুষের সেবা করেছি। এই প্রাপ্তি কাজ করতে আমাকে আরও অনুপ্রাণিত করবে।’

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ঠিকমতো হাঁটতে পারছেন না নায়ক ওয়াসিম

অনলাইন ডেস্ক

ঠিকমতো হাঁটতে পারছেন না নায়ক ওয়াসিম

বাংলা চলচ্চিত্রের ৮০ দশকের জনপ্রিয় নায়ক ওয়াসিম দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। এই নায়ক কিছুদিন ধরে অসুস্থ হয়ে বাসাতেই আছেন। পারছেন না ঠিকমতো হাঁটতেও। তাই বিছানাতে শুয়ে-বসে দিন কাটছে তার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসব তথ্য জানিয়েছেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।


‘খেলাফত প্রতিষ্ঠা হলে ধরব আর জবাই করব’ বক্তব্য দেওয়া হেফাজত নেতা রিমান্ডে

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

সাপ্তাহিক বন্ধের দিনও খোলা বসুন্ধরা সিটি শপিংমল

এদেশে জন্ম নেওয়া কি পাপ, প্রশ্ন নুরুর


তিনি বলেন, ‘ওয়াসিম ভাই কিছুদিন ধরে অনেক অসুস্থ। হাঁটতে পারছেন না। বিছানাতে শুয়েই কাটছে সময়। সবার কাছে দোয়া চাচ্ছি, ওয়াসিম ভাইয়ের জন্য।’

ঢালিউডে ওয়াসিমের অভিষেক হয় ১৯৭২ সালে। সহকারী পরিচালক হিসেবে ‘ছন্দ হারিয়ে গেল’ চলচ্চিত্রে কাজ করেন। নায়ক হিসেবে তার যাত্রা শুরু হয় মহসিন পরিচালিত ‘রাতের পর দিন’ সিনেমার মাধ্যমে। দিন যতই যেতে থাকে ওয়াসিমের জনপ্রিয়তা ততই আকাশচুম্বী হয়। বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমার অপরিহার্য নায়ক হয়ে ওঠেন তিনি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

অনলাইন ডেস্ক

ফরিদা পারভীনের ফুসফুসের ৫০ শতাংশ আক্রান্ত

করোনায় আক্রান্ত মা ফরিদা পারভীনের জন্য চিন্তিত ছেলে ইমাম জাফর নোমানী। মায়ের জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন তিনি।

প্রখ্যাত লালনশিল্পী ফরিদা পারভীনের করোনা শনাক্ত হয় গত ৮ এপ্রিল। ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী এ কয়দিন বাসাতে চিকিৎসা নিলেও আজ দুপুরে তাকে  ইউনিভার্সেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


ছেলে ইমাম জাফর নোমানী বলেন, ‘আমার আম্মা এই কয়েকদিন বাসা থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। কিন্তু, সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট অনুযায়ী আম্মার ফুসফুসের প্রায় ৫০ শতাংশ আক্রান্ত হয়েছে৷ ডাক্তারের বিশেষ পরামর্শে খুব দ্রুত তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷ তার সুস্থতার জন্য দোয়া করবেন।’

ফরিদা পারভীন লালনের গান গেয়ে দেশে-বিদেশে খ্যাতি পেয়েছেন৷ ১৯৫৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর নাটোর জেলার সিংড়া থানার শাওল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে গডজিলা-কংয়ের লড়াই

অনলাইন ডেস্ক

বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে গডজিলা-কংয়ের লড়াই

করোনাভাইরাসের ঝড়ে আক্রান্ত বৈশ্বিক অর্থনীতি। এর আঁচ লেগেছে বড়পর্দার জগতেও। অনেকেই এই মহামারিতে পিছিয়ে দিচ্ছেন ছবি মুক্তির দিনক্ষণ। তবে এই মহামারির মধ্যেও হলিউডে ঝড় তুলেছে ‘গডজিলা ভার্সেস কং’ ছবিটি।

অ্যাডাম উইংগার্ড পরিচালিত সায়েন্সফিকশন ও অ্যাকশন চলচ্চিত্র 'গডজিলা বনাম কং'। কিং কং ফ্র্যাঞ্চাইজির ১২তম সিনেমাটি মুক্তির প্রথম পাঁচ দিনেই আয় করে নিয়েছে ৪৮.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

শ্রেঠত্বের লড়াইয়ে জেতার যুদ্ধে বিশালাকার দুইটি প্রাণীর এই সিনেমাটি পুরো দুনিয়াজুড়ে এখন পর্যন্ত আয় করেছে ২৮৫.৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আয় হয়েছে চীন থেকে ৪৪.২ মিলিয়ন ডলার।


আরও পড়ুনঃ


শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যদের নিয়েই হবে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য

বাংলাদেশের জিহাদি সমাজে 'তসলিমা নাসরিন' একটি গালির নাম

করোনা আক্রান্ত প্রতি তিনজনের একজন মস্তিষ্কের সমস্যায় ভুগছেন: গবেষণা

কুমারীত্ব পরীক্ষায় 'ফেল' করায় নববধূকে বিবাহবিচ্ছেদের নির্দেশ


ফ্র্যাঞ্চাইজ এন্টারটেইনমেন্ট রিসার্চ পরামর্শদাতা ডেভিড এ গ্রস গণমাধ্যমকে জানান, 'করোনার এই সময়েও সিনেমাটি প্রথম দিন থেকেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ শতাংশেরও বেশি প্রেক্ষাগৃহ খুলে দেওয়ার পেছনেও বেশ বড় ভূমিকা রেখেছে এই সিনেমা। যদিও নিউইয়র্ক সিটি এবং লস অ্যাঞ্জেলেসসহ অনেকগুলো জায়গাতেই স্বাস্থ্যবিধির নানা জটিলতায় অনেক প্রেক্ষাগৃহ এখনো খোলা সম্ভব হয়নি৷ তাহলে লাভের পরিমাণটা আরও বড় হতো।'

করোনা পরবর্তী সময়ে মুক্তি প্রাপ্ত 'ওয়ান্ডার ওম্যান ১৯৮৪'-কেও পেছনে ফেলেছে ছবিটি। বর্তমানে বক্স অফিস তালিকার শীর্ষে রয়েছে ছবিটি।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

মা–বাবার পাশে দাফন করা হলো মিতা হককে

অনলাইন ডেস্ক

মা–বাবার পাশে দাফন করা হলো মিতা হককে

স্বনামধন্য রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী মিতা হককে কেরানীগঞ্জের বড় মনোহারিয়ায় জানাজা শেষে মা–বাবার কবরের পাশে দাফন করা হয়েছে। আজ রোববার জোহরের নামাজের পর তাকে দাফন করা হয়।

বেলা ১১টায় তাঁর মরদেহ নেওয়া হয় ছায়ানট সংস্কৃতি–ভবনে। সেখানে ফুল দিয়ে মিতা হককে শেষ শ্রদ্ধা জানান তাঁর সহকর্মী, স্বজন, শিক্ষার্থী ও গুণগ্রাহীরা।

মিতা হক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন একটি বেসরকারি হাসপাতালে।

চার দিন আগে করোনার নমুনা পরীক্ষা করিয়ে দেখা যায়, তিনি করোনামুক্ত।


খালেদা জিয়াসহ ফিরোজা বাসভবনের সবাই করোনায় আক্রান্ত, চলছে চিকিৎসা

ভ্যাকসিন নিয়ে পাইলট-কেবিন ক্রুরা ৪৮ ঘণ্টা ফ্লাইটে যেতে পারবেন না

মাদরাসা ও মসজিদ লকডাউনের আওতামুক্ত রাখার দাবি


তাঁকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অসুস্থতা বোধ করলে তাঁকে আবার হাসপাতালে নেওয়া হয়। আজ ভোর ৬টা ২০ মিনিটে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

রাষ্ট্রপতি আজ এক শোকবার্তায় মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

রাষ্ট্রপতি বার্তায় বলেন, বাংলাদেশে রবীন্দ্রচর্চা ও রবীন্দ্রসংগীত সাধারণ মানুষের কাছে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে মিতা হকের প্রচেষ্টা মানুষ শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে। প্রধানমন্ত্রী মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

news24bd.tv তৌহিদ

মন্তব্য

পরবর্তী খবর