বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের টাকা নেই দুই নারীর, অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক

বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের টাকা নেই দুই নারীর, অতঃপর...

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় বিদেশ থেকে ফিরলে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকার নিয়ম করা হয়েছে বেশ কিছু দেশে। আর এই বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে না থাকায় দুবাই থেকে দেশে ফেরার পর জেলে ঢোকানো হয়েছে আয়ারল্যান্ডের দুই নারীকে।

নিয়ামহ মুলরিনি ও ক্রিস্টি ম্যাকগ্রাথ নামের ওই নারী জানান, তাদের টাকা শেষ হয়ে গেছে এবং হোটেলে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকার মতো অর্থ নেই। ডাবলিন বিমানবন্দর থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

আয়ার‌ল্যান্ডের কঠোর লকডাউনের কারণে কেবল জরুরি প্রয়োজনে দেশের বাইরে যাওয়ার অনুমতি রয়েছে। বিদেশ ভ্রমণ শেষে দেশে ফিরলে অবশ্যই নির্ধারিত হোটেলে ১২ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

যারা এই নিয়ম লঙ্ঘন করবেন তাদের ২ হাজার ইউরো জরিমানা বা এক মাসের কারাদণ্ড হতে পারে। শনিবার একজন বিচারক ওই দুই নারীর জামিন মঞ্জুর করেন। তবে তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করতে এবং পাসপোর্ট জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।


আরও পড়ুনঃ


গৃহবন্দি থাকার দুইদিনের মাথায় আনুগত্য প্রকাশ

একমত হইনি বলে দালাল হিসেবে সমালোচিত হয়েছি

তারপরও জীবনের উপর দিয়ে মানুষ হেঁটে যাক অপূর্ণতার গন্তব্যে

বড়দের দায়িত্বহীনতার জন্য সন্তানদের মূল্য দিতে হয়


কিন্তু জামিন পাওয়ার পরও মাউন্টজয় কারাগারে আরও দুদিন বেশি কাটাতে হয় তাদের। কেননা জামিনের জন্য প্রয়োজনীয় পরিমাণ অর্থ তখনও জমা করতে পারেননি ওই দুই নারী। তাদের আইনজীবী এই গ্রেপ্তারকে বেআইনি উল্লেখ করে ডাবলিনের উচ্চ আদালতে আপিল করেন।

পরে শুনানি শেষে হাইকোর্টের একজন বিচারক তাদের সাজা কিছুটা শিথিল করে। বিচারক জানান, জামিনের অর্থ না দিয়েই সরকার নির্ধারিত হোটেলে কোয়ারেন্টিনে যেতে পারবেন ওই দুই নারী।

উল্লেখ্য, দুবাইয়ে ওই দুই নারী কসমেটিক সার্জারি করাতে গিয়েছিলেন।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

১৫ বছর ধরে কাজে যান না, বেতন তুললেন সাড়ে ৫ কোটি টাকা!

অনলাইন ডেস্ক

১৫ বছর ধরে কাজে যান না, বেতন তুললেন সাড়ে ৫ কোটি টাকা!

দায়িত্ব পালন না করেও ১৫ বছর ধরে বেতন নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ইতালির এক হাসপাতালকর্মীর বিরুদ্ধে। স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

এই দীর্ঘ সময় কাজে না গিয়ে ওই ব্যক্তি অনুপস্থিত থাকার জাতীয় রেকর্ড ভেঙেছেন বলেও স্থানীয় মিডিয়ার খবরে উল্লেখ করা হয়েছে। তার এহেন কাণ্ডে তারা তাকে ‘কিং অফ অ্যাবসেন্টস’ উপাধি দিয়েছে।

ইতালির বার্তা সংস্থা আনসা জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি ইতালির কালাব্রিয়া অঞ্চলের কাতাঞ্জারো শহরের চিয়াছিও হাসপাতালে কাজ করতেন। ২০০৫ সাল থেকে তিনি আর কাজেই যান না।


আরও পড়ুনঃ


বাঙ্গি: বিনা দোষে রোষের শিকার যে ফল

'টিকায় কিছু হবে না, লাভ যা হওয়ার মদেই হবে'

৫৩ জন নাবিকসহ নিখোঁজ ইন্দোনেশিয়ার সাবমেরিন

ভিক্ষা করে হলেও অক্সিজেন সরবরাহের নির্দেশ ভারতে

তবে কাজে অনুপস্থিত থাকলেও দীর্ঘ সময় ধরে বেতন ঠিকই তুলে গেছেন তিনি। এসময় তিনি বেতন বাবদ ৫ লাখ ৩৮ হাজার ইউরো (প্রায় ৫ কোটি ৪৯ লাখ ২০ হাজার টাকা) তুলেছেন।

এই দীর্ঘ সময় তাকে অনুপস্থিত থাকতে সাহায্য করায় হাসপাতালের ছয়জনের ম্যানেজারের বিরুদ্ধেও তদন্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রথম বিয়ের কথা ১৩ বছর গোপন করলেন স্ত্রী, স্বামীর ক্ষতিপূরণ মামলা

অনলাইন ডেস্ক

প্রথম বিয়ের কথা ১৩ বছর গোপন করলেন স্ত্রী, স্বামীর ক্ষতিপূরণ মামলা

প্রতীকী ছবি

১৩ বছর ধরে নিজের আগের বিয়ের কথা লুকিয়ে রেখেছিলেন স্ত্রী। এতো বছর পর জানতে পেরে স্ত্রীর কাছে লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন স্বামী!

এই ঘটনা ঘটেছে ইন্দোনেশিয়ার মাকাসসারে। সেখানকার বাসিন্দা ইউলিয়ান আপরিয়ান্টো যখন তার স্ত্রীকে বিয়ে করেন তখন তিনি জানতেন না যে, তার আগে একবার বিয়ে হয়েছিল।

কিন্তু ইউলিয়ানকে বিয়ের ১৩ বছর আগে ১৯৯৬ সালে সাইয়ি হানাফি নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল ওই নারীর।

প্রতারিত হয়েছেন দাবি করে স্ত্রীর কাছে ৪ লাখ ৬০ হাজার ইন্দোনেশিয়ান রুপিয়াহ (প্রায় ২৮ লাখ টাকা) ক্ষতিপূরণ চাইছেন ইউলিয়ান। কারণ ওই নারীকে বিয়ে করতে তার যে খরচ হয়েছে এবং স্ত্রীর মিথ্যার কারণে তাকে যে লজ্জায় পড়তে হয়েছে, এজন্য এই ক্ষতিপূরণ যথার্থ বলে মনে করেন তিনি। ইউলিয়ানের সঙ্গে বিয়ের আগে ওই নারীর পরিবার মিথ্যা কাগজপত্র দাখিল করেছিল বলেও জানান তিনি।


আরও পড়ুনঃ


বাঙ্গি: বিনা দোষে রোষের শিকার যে ফল

'টিকায় কিছু হবে না, লাভ যা হওয়ার মদেই হবে'

বেনজেমা ভেল্কিতে লা লিগার শীর্ষে রিয়াল

৫৩ জন নাবিকসহ নিখোঁজ ইন্দোনেশিয়ার সাবমেরিন


বিয়ের পর স্ত্রীকে ডাক্তারি পড়াতেও খরচ করেন ইউলিয়ান। এখন সেই অর্থও ক্ষতিপূরণ হিসেবে ফেরত চান তিনি।

ইউলিয়ান বলেন, তাদের বিয়ের ৩ মাস আগে তাদের পরিচয় হয়। এই তিন মাসের মধ্যে তার স্ত্রী নিজেকে সিঙ্গেল দাবি করেন এবং নিজের প্রথম বিয়ের কথা গোপন করেন। ২০০৬ সালে বিয়ে করেন তারা।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

২১ এপ্রিল, ইতিহাসের এই দিনে

অনলাইন ডেস্ক

২১ এপ্রিল, ইতিহাসের এই দিনে

আজ ২১ এপ্রিল,  গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ১১১তম (অধিবর্ষে ১১২তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ২৫৪ দিন বাকি রয়েছে। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যু দিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি:

৭৫৩ - রোম নগরীর প্রতিষ্ঠা।

৮২৯ - সেক্সশান এগবার্ট ব্রিটেনের প্রথম রাজা হিসেবে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন।

১৫২৬ - পানি পথের প্রথম যুদ্ধ।

১৯৫২ - লন্ডন ও রোমের মধ্যে প্লেন চালনার মাধ্যমে বিশ্বের প্রথম জেট প্লেন চলাচল শুরু।

১৯৬২ - আলজেরিয়ায় ফরাসি সেনা বিদ্রোহ শুরু।

১৯৭৫ - ভারতের ফারাক্কা ব্যারেজ চালু।

জন্ম:

১৮২৮ - হিপোলালিটি টেইনি, প্রখ্যাত ফরাসী শিল্পী, সাহিত্যিক এবং ঐতিহাসিক।

১৮১৬ - ইংরেজ ঔপন্যাসিক ও কবি শার্লট ব্রন্টে।

১৯৪৫ - শ্রীনিবাসরাঘবন ভেঙ্কটরাঘবন, ভারতীয় ক্রিকেটার এবং আম্পায়ার।

১৯৬৬ - সঙ্গীতশিল্পী ও সুরকার মাইকেল ফ্রান্টি।


ফজিলতপূর্ণ ইবাদত তাহাজ্জুদের নামাজ

কানাডার শীর্ষ নেতাদের সবাই অস্ট্রেজেনেকার ভ্যাকসিন নিচ্ছেন

বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে যা বললেন হেফাজত নেতারা

কবরের আজাব থেকে মুক্তি লাভের দোয়া


মৃত্যু:

১৯১০ - স্যামুয়েল ল্যাঙ্গহোর্ণ ক্লিমেন্স ('মার্ক টোয়েইন) একজন মার্কিন রম্য লেখক, সাহিত্যিক ও প্রভাষক।

১৯৩৮ - আল্লামা ইকবাল, পাকিস্তানের প্রখ্যাত কবি, দার্শনিক এবং রাজনীতিবিদ।

১৯৬৫ - এডওয়ার্ড ভিক্টর অ্যাপলটন, নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ইংরেজ পদার্থবিজ্ঞানী।

১৯৮৪ - মোহাম্মদ মোদাব্বের, সাংবাদিক, শিশুসাহিত্যিক ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক।

২০১৩ - শকুন্তলা দেবী, একজন ভারতীয় লেখক এবং মানব ক্যালকুলেটর।

২০১৫ - পূর্ণদাস বাউল, ভারতীয় বাঙালি বাউল গান শিল্পী।

২০১৫ - জানকীবল্লভ পট্টনায়ক, একজন রাজনীতিবিদ এবং ওড়িশার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

news24bd.tv নাজিম

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

করোনায় নতুন করে দরিদ্র হয়েছে আড়াই কোটি: সমীক্ষা

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় নতুন করে দরিদ্র হয়েছে আড়াই কোটি: সমীক্ষা

করোনার প্রভাবে এবার নতুন করে আড়াই কোটি মানুষ দরিদ্র হয়েছে। বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেশন রিসার্চ সেন্টার (পিপিআরসি) ও ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গভর্ন্যান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (বিআইজিডি) এক যৌথ সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

সংক্রমণ এড়াতে লকডাউন দেওয়া হলেও এই লকডাউনে উপার্জনের পথ বন্ধ হয়েছে বহু নিম্ন আয়ের মানুষের।

করোনার প্রথম ঢেউয়ের প্রভাব কাটতে না কাটতেই শুরু হয়েছে দ্বিতীয় ঢেউ। গত বছরের ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটির ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত অনেকেই এখনও বিপর্যস্ত অবস্থা কাটিয়ে উঠতে পারেননি।

ওই সময় দেশে দারিদ্র্যের হার দ্বিগুণ হয়েছিল। নিম্ন আয়ের মানুষ যখন সেই ধাক্কা সামলে উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে, তখনই শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাব সামাল দিতে গত ৫ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। এরপরও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় গত ১৪ এপ্রিল থেকে সার্বিক কার্যাবলি ও চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। যাকে বলা হচ্ছে সর্বাত্মক লকডাউন।


আরও পড়ুনঃ


বাঙ্গি: বিনা দোষে রোষের শিকার যে ফল

গালি ভেবে গ্রামের নাম মুছে দিলো ফেসবুক

'টিকায় কিছু হবে না, লাভ যা হওয়ার মদেই হবে'

রাস্তা-ঘাট থেকে শুরু করে শ্বশুড় বাড়িতেও পদ-পদবীর দাপট


এই লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সরকারের নীতিনির্ধারকরা। এতে দৈনিক আয়ের ওপর নির্ভরশীল মানুষের টিকে থাকার সংগ্রাম আরও কঠিন হতে যাচ্ছে। এ অবস্থায় অনেকেই পরিবার-পরিজন নিয়ে দুর্ভাবনায় পড়েছেন নতুন করে।

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর

'টিকায় কিছু হবে না, লাভ যা হওয়ার মদেই হবে'

দিল্লিতে লকডাউনে ঘোষণা; মদের দোকানে দীর্ঘ লাইন

অনলাইন ডেস্ক

'টিকায় কিছু হবে না, লাভ যা হওয়ার 
মদেই হবে'

ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। প্রতিদিনই গড়ছে নতুন রেকর্ড। কয়েকদিন ধরেই দেশটির দৈনিক করোনা সংক্রমণ দুই লাখ ছাড়িয়ে যাচ্ছে। একইসঙ্গে লাফিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও।

এই পরিস্থিতি এড়াতে দিল্লিতে এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। অন্যদিকে, ঘোষণার সাথে সাথেই দোকানে দোকানে বেড়েছে মদ কেনার জন্য দীর্ঘ লাইন!

সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত ১০ থেকে পরের সোমবার সকাল ৫টা পর্যন্ত লকডাউন থাকবে দিল্লিতে। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে চিকিৎসা এবং খাদ্য সংক্রান্ত জরুরি পরিষেবা চালু থাকবে।

কিন্তু দিল্লির খান মার্কেট, গোলে মার্কেটের মতো এলাকায় দেখা যায়, একের পর এক মদের দোকানের সামনে কয়েকশ ক্রেতার ভিড়। ক্রেতাদের করোনা বিধি ভেঙে মদ কেনার লম্বা লাইনের ছবি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।


আরও পড়ুনঃ


বাইডেনের প্রস্তাবে রাজি পুতিন

গালি ভেবে গ্রামের নাম মুছে দিলো ফেসবুক

একজন মিডিওকার যুবকের ১৮+ জীবনের গল্প এবং অন্যান্য

মৃত্যুতে যারা আলহামদুলিল্লাহ বলে তারা কী মানুষ?


ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে দেখা যায়, মদ কিনতে আসা এক নারী সাংবাদিকদের বলেন, ‘৩৫ বছর ধরে মদ খাচ্ছি। ওষুধের প্রয়োজন হয় না। টিকায় কিছু লাভ হবে না। মদেই যা লাভ হওয়ার হবে।’

ক্যামেরার সামনে করা সেই মন্তব্য ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন 

news24bd.tv / নকিব

মন্তব্য

পরবর্তী খবর