চাকরি খোয়ালেন স্কুল শিক্ষক

সাতক্ষীরায় ছাত্রীকে ধর্মান্তরিত করে চতুর্থ বিয়ে!

শাকিলা ইসলাম জুঁই, সাতক্ষীরা :

সাতক্ষীরায় ছাত্রীকে ধর্মান্তরিত করে চতুর্থ বিয়ে!

হিন্দু সম্প্রদায়ের এক ছাত্রীকে ধর্মান্তিরত করে বিয়ে করার অভিযোগে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার নুরনগর আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। 

একই সাথে তাকে কেন স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না তা জানতে চেয়ে সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। শনিবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে অনুষ্ঠিত  বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির জরুরি সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ওই ছাত্রীর বাবা জানান, ২০১৯ সালে তার মেয়ে নূরনগর আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি পাশ করে। ওই বিদালয়ের প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ (৪৮) তাকে বিভিন্ন সময়ে বিজ্ঞানের ব্যবহারিক খাতার কাজে সহযোগিতা করতেন। পরে তার মেয়ে কাটুনিয়া রাজবাড়ি ডিগ্রি কলেজে ভর্তি হয়। মেয়েটি পার্শ্ববর্তী এক গ্রামের একজন শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় শিক্ষক শামীম তাকে উত্ত্যক্ত করতেন। 

গত ২ এপ্রিল ভোরে প্রাইভেট পড়ে কলেজে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বের হয় কলেজ ছাত্রী। দুপুর পেরিয়ে গেলেও মেয়ে বাড়িতে না ফিরলে তাকে খুঁজতে থাকে পরিবারের সদস্যরা। তাকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে পরদিন তিনি শ্যামনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। 

আরও পড়ুন


ইতিহাসের সত্য না বলা অপরাধ: মির্জা ফখরুল

দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সর্বোচ্চ মৃত্যু

মাওলানা মামুনুলের বিরুদ্ধে সোনারগাঁয়ে আরও এক মামলা

শরণখোলায় ডায়রিয়ার প্রকোপ, শতাধিক রোগী হাসপাতালে ভর্তি


গত বুধবার (৭ এপ্রিল) ফেসবুকে তার মেয়ে ও প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদ খুলনার এক নোটারী পাবলিকের কার্যালয়ে বসে ধর্মান্তরিত হওয়া ও বিয়ে সংক্রান্ত এক নন জুডিশিয়াল স্টাম্পে স্বাক্ষর করছেন এমন ছবি দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাকে জানান। একপর্যায়ে ওই রাতেই তিনি শামীম আহমেদ এর বিরুদ্ধে থানায় মেয়েকে অপহরণ ও ধর্মান্তরিত করার অভিযোগে একটি এজাহার দাখিল করেন।

আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অভিভাবক আশরাফ হোসেন ও লিটন সরদারসহ কয়েকজন জানান, এই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন প্রধান শিক্ষকের বড়ো ভাই নুরনগর ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য বখতিয়ার আহমেদ। 
 
ওই শিক্ষক তিনটি বিয়ে করার পরও সম্প্রতি তার বিদালয়ের এক সময়কার ছাত্রী হিন্দু নাবালিকাকে ফুসলিয়ে নিয়ে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করেছেন। 

এদিকে হিন্দু ছাত্রীকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ের বিষয়টি জানাজানি হলে শনিবার আশালতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাকক্ষে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভাপতি বখতিয়ার আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুস সবুর, পরিচালনা কমিটির সদস্য ও ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হবি, ইউপি সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, সদস্য আব্দুল কাদের, সদস্য শাকির আহম্মেদ, বিদ্যোৎসাহী সদস্য জিএম মঈনুদ্দিন লাভলু, অভিভাবক সদস্য ডিএম রবিউল ইসলাম মুকুল, শিক্ষক সুশান্ত ঘোষসহ কয়েকজন অভিভাবক। 

সভায় প্রধান শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্তসহ তাকে কেন স্থানীয়ভাবে বরখাস্ত করা হবে না তা জানতে চেয়ে নোটিশ প্রাপ্তির সাত দিনের মধ্যে ওই শিক্ষককে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

এদিকে অবিলম্বে প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদকে অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও ভিকটিমকে উদ্ধারের দাবি জানিয়ে শনিবার বিকেল ৫ টায় নূরনগর বাজারে শিক্ষক সমাজের ব্যানারে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য দেন -বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য জিএম মঈনুদ্দিন লাভলু, মুক্তিযোদ্ধা এমএম আব্দুল মজিদ, নূরনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম সোহেল রানা, নূরনগর নবীন সংঘের আহ্বায়ক সাইফুল্লাহ মামুন, শিক্ষক জিয়াউর রহমান প্রমুখ।

এ ব্যাপারে আশালতা মাধমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামীম আহমেদের সাথে কথা বলা সম্ভব না হলেও তার এক আত্মীয় আবুল হোসেন বলেন, 'এর আগে সাতক্ষীরা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষক হিন্দু মেয়ে বিয়ে করেছিলেন। তার বেলায় তো সমস্যা হয়নি। কোনো হিন্দু মেয়ে বিয়ে করে যদি সিমিত পরিসরে মুসলমান হয় তাহলে দোষ কোথায়?'

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি বখতিয়ার আহম্মেদ বলেন, শামীমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে কারণ দর্শাণোর নোটিশের জবাব দেওয়ার পর প্রয়োজনে ঘটনার তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করে তাদের প্রতিবেদন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজমুল হুদা জানান, এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে শামীম আহমেদের নাম উল্লেখ করে শুক্রবার রাতে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নম্বর -১৬।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক দীপ্তেশ রায়কে আসামি গ্রেপ্তার ও ভিকটিম উদ্ধারের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv / কামরুল

পরবর্তী খবর

নোয়াখালিতে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়কালে ছাত্রলীগ নেতা আটক

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী

নোয়াখালিতে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়কালে ছাত্রলীগ নেতা আটক

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের বিবদমান দ্বন্দ্বের জের ধরে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এক ছাত্রলীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃত নজরুল ইসলাম ফয়সাল (৩০), উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এবং উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের পাটোয়ারী বাড়ির এনামুল হক মেম্বারের ছেলে। সে কাদের মির্জার প্রতিপক্ষ বাদল গ্রুপের অনুসারী।

শনিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে তাকে পুলিশ উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের টেকের বাজার থেকে আটক করে।

সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নূরে এ মাওলা রাজু জানান, সন্ধ্যার পর সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের অনুসারীরা চরকাঁকড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান আরিফের নেতৃত্বে টেকের বাজারের ব্যবসায়ীদের সাথে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করছিল।

এ সময় পুলিশের একটি টহল দল হঠাৎ আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর লাঠি চার্জ করে ফয়সালকে আটক করে।


আরও পড়ুনঃ


গ্রহাণু ঠেকাতে অন্তত পাঁচ বছর সময় লাগবে: নাসা

ইসরাইলের বর্বর আক্রমণ কেবলই ক্ষমতার জন্য: বেলা হাদিদ

হামলায় ইসরাইলের একক আধিপত্যের যুগ শেষ: হামাস

ভারতের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকত’, রেড অ্যালার্ট


নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো.আলমগীর হোসেন আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরো জানান, তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। সে গতকালকে মিছিল করতে গেলে তাকে আটক করে পুলিশ।

news24bd.tv / নকিব


আরও পড়ুনঃ


গ্রহাণু ঠেকাতে অন্তত পাঁচ বছর সময় লাগবে: নাসা

ইসরাইলের বর্বর আক্রমণ কেবলই ক্ষমতার জন্য: বেলা হাদিদ

হামলায় ইসরাইলের একক আধিপত্যের যুগ শেষ: হামাস

ভারতের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকত’, রেড অ্যালার্ট

 

পরবর্তী খবর

এবার ঢাকা ফিরতে দৌলতদিয়া ঘাটে মানুষের চাপ

অনলাইন ডেস্ক

এবার ঢাকা ফিরতে দৌলতদিয়া ঘাটে মানুষের চাপ

ঈদ করতে ক’দিন আগেই একরকম যুদ্ধ করে গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলেন হাজারো মানুষ। এবার তারাই আবার হুড়োহুড়ি করে ফিরছে ঢাকায়। উদ্দেশ্য ছুটি শেষ কর্মস্থলে যোগ দিতে হবে। 

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ঢাকায় ফেরা মানুষের চাপ লক্ষ্য করা যায়। তবে মানুষের মধ্যে কোন সচেতনতা দেখা যায়নি। স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করেই যে যার মতো পারছে চলছে।

রোববার (১৬ মে) সকাল থেকেই দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় ঢাকামুখী যাত্রী ও ছোট গাড়ির চাপ দেখা যায়। এদিকে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ছোট কোন পরিবহন বা ট্রাকে করে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েই ঢাকা ফিরছেন অনেকেই।

জানা গেছে, ঈদের পর থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে বর্তমানে ছোট-বড় ১৬টি ফেরিতে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। রোববার (১৬ মে) থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান খোলা থাকায় অনেকেই ঢাকায় ফিরছেন। এ কারণে প্রতিটি ফেরিতে গাদাগাদি করে পার হচ্ছেন যাত্রীরা।

আরও পড়ুন


এবার ইসরাইলি বর্বরতার সমর্থন জানালো ব্রাজিল

এবার হামাস প্রধানের বাড়িতে হামলা চালালো ইসরাইল

মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে ঢাকামুখী মানুষের ভিড় বাড়ছে

ফিলিস্তিনিতে ইসরাইলি হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬৪


ফেরির যাত্রী শরিফুল ইসলাম বলেন, কাল সোমবার থেকে অফিস খোলা। এ কারণে আজ ঢাকা চলে যাচ্ছি। তবে ফেরিতে মানুষের অনেক ভিড়। কিছু করার নেই। বাঁচার জন্য হলেও ঢাকা যেতে হবে।

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক ফিরোজ খান বলেন, ঈদের পর থেকেই দৌলতদিয়ায় যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বেড়েছে। চাপ আরও বাড়বে বলে ধারণা করছি। তবে বর্তমানে এ রুটে ১৬টি ফেরি চলাচল করছে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে ঢাকামুখী মানুষের ভিড় বাড়ছে

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে ঢাকামুখী মানুষের ভিড় বাড়ছে

ঈদ শেষে ঢাকায় ফিরছে কর্মজীবী মানুষ। মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাট দিয়ে আসছে অসংখ্য মানুষ। রোববার সকাল থেকে বাংলাবাজার ঘাটে কর্মজীবি মানুষের সংখ্যা বাড়তে থাকে। এছাড়াও শিমুলিয়া ঘাট থেকে আজও বাড়ি ফিরছেন অনেকেই।

বাংলাবাজর ঘাটের সহকারি ব্যবস্থাপক ভজন সাহা জানান, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে যাত্রাপথে দুটি ফেরিতে প্রচন্ড গরমে হুড়োহুড়িতে পদদলিত হয়ে ৫ জন মারা হওয়ার পর ফেরি সার্ভিসে গতি আনা হয়েছে। এই নৌরুটে বর্তমানে চলাচল করছে ১৫টি ফেরি। সকাল থেকে যাত্রীদের চাপ বাড়তে শুরু করলে ফেরিতে যাত্রীদের পারাপার করা হচ্ছে। এছাড়া পণ্যবাহী ট্রাক ও অ্যাম্বুলেন্সকে অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে। ঘাট নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী সদস্যরা।

এদিকে দুরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় বিভিন্ন যানবাহনে ৩-৪ গুন বাড়তি ভাড়া গুনতে হচ্ছে দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার যাত্রীদের। অনেকেই বলছেন, গ্রামে গিয়েছিলাম বেশি ভাড়া দিয়ে আবার ঢাকাতেও যেতে হচ্ছে বেশি ভাড়া দিয়ে। দূর পাল্লার বাস চালু হলে এমন পরিস্থিতিতে পড়তে হতো না বলে মত তাদের।

আরও পড়ুন


ফিলিস্তিনিতে ইসরাইলি হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬৪

মাদারীপুরের শিবচরে যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ঢাকায় লঙ্কানরা

এবার গাজায় হামলার প্রতিবাদে লন্ডনে ইসরাইলি দূতাবাস ঘেরাও


বরিশাল থেকে আসা শান্তা ইসলাম নামে এক কর্মজীবি নারী বলেন, আমরা অনেক কষ্ট করে ঘাটে এসেছি। আগামীকাল থেকে অফিস খোলা কি করবো? অনেক টাকা ভাড়া দিয়ে ঘাটে আসতে হয়েছে। সরকার যদি গণপরিবহন চালু রাখতো তাহলে অতিরিক্ত ভাড়া দিতে হতো না। 

সোহান নামে আরও এক যাত্রী বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা উচিত কিন্তু হাজার হাজার মানুষের মাঝে সেই সুযোগ নাই। আমাদের কারখানা খোলা আগামীকাল থেকে। তাই যেকোন উপায় যেতে হবে।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বলেন, ঘাটের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে একাধিক টিম কাজ করছে। তিনি নাগরিকদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

মাদারীপুরের শিবচরে যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

মাদারীপুরের শিবচরে যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

মাদারীপুরের শিবচরের পাট ক্ষেত থেকে এক যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় আড়িয়াল খাঁ নদের পাশে সন্যাসিরচর এলাকার থেকে মো. ইসমাইল কাজী (৩০) নামের ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত ইসমাইল উপজেলার নিলোখী ইউনিয়নের চরকামারকান্দি গ্রামের সেকান কাজীর ছেলে।

নিহতের পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করে। ভালো কোন সরকারী চাকরি না পেয়ে ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষার নিবন্ধন করে। পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিলো ইসমাইল। স্বপ্ন দেখছে বড় কোন অফিসার হওয়ার। কিন্তু ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে ঈদ করতে এসেই কাল হলো তাঁর।

নিহতের বড় ভাই রেজাউল কাজী বলেন, ঈদের দিন আমরা দুই ভাই এক সাথে ঈদের নামাজ পড়েছি। এরপর আমাদের প্রতিবেশি এক ভাতিজাকে নিয়ে ঘুরতে বেড় হয়েছে আমার ভাই।

আরও পড়ুন


তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ঢাকায় লঙ্কানরা

এবার গাজায় হামলার প্রতিবাদে লন্ডনে ইসরাইলি দূতাবাস ঘেরাও

ফিলিস্তিনিদের হত্যার প্রতিবাদে এবার কাতারে ইসরাইল বিরোধী বিক্ষোভ

শিরোপা জিতে মাঠে ফিলিস্তিনের পতাকা ওড়ালেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হামজা


ওই দিন দত্তপাড়ার ইলিয়াছ আহম্মেদ ডিগ্রি কলেজের কাছে একটি মেয়ের সাথে দেখা করে। তখন মেয়েটি ভাতিজাকে কোকাকোলা খেতে দিয়ে ইসমাইলকে নিয়ে একা কথা বলতে একটু দুরে যায়। অনেক সময় পাড় হলেও ইসমাইল আর আসে না। তখন থেকে অনেক খোঁজাখুজি করেও তাকে আর পাওয়া যায়নি। একথা বলে বার বার কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন তিনি।

শিবচর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. মিরাজ হোসেন বলেন, পাট ক্ষেত থেকে গলাকাটা অবস্থায় ইসমাইল কাজী নামের এক যুবকের  মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। হত্যার কারণ ও হত্যাকারীকে সনাক্তের চেষ্টা চলছে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

তৃতীয় স্ত্রীর বাড়িতে যাওয়ায় ঘুমন্ত স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা, স্ত্রী আটক

সোহান আহমেদ কাকন, নেত্রকোনা

তৃতীয় স্ত্রীর বাড়িতে যাওয়ায় ঘুমন্ত স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা, স্ত্রী আটক

তথ্য গোপন করে তৃতীয় বিয়ে করায় স্ত্রীর মৌখিক তালাকের পরও শ্বশুর বাড়িতে যাওয়ায় স্বামী রুক্কু মিয়াকে (৩৭) কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় নিহতের তৃতীয় স্ত্রী রুবিনা আক্তার (২৭) কে আটক করেছে কলমাকান্দা থানার পুলিশ।

ঈদের দিন শুক্রবার মধ্যরাতে রুবিনার বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। রুবিনা কলমাকান্দা উপজেলায় কৈলাটি ইউনিয়নের কৈলাটি গ্রামের বাবুল হিলালির মেয়ে। নিহত রুক্কু মিয়া পুর্বধলা উপজেলার লেটিরকান্দা গ্রামের শামছুদ্দিনের ছেলে। 

কলমাকান্দা থানার ওসি এটিএম মাহমুদুল হক জানান, গত ১১ বছর আগে রুবিনাকে বিয়ে করেন রুক্কু মিয়া। তারও আগে আরও দুটি বিয়ে করেন তিনি। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলে আসছে। তাদের দুটি সন্তানও রয়েছে। এরই মাঝে রুবিনা তার স্বামী রুক্কু মিয়াকে মৌখিক তালাক দিয়েছেন। তারপরও তার বাড়িতে রুক্কু মিয়া যাওয়া আসা করেন।


আরও পড়ুনঃ


গ্রহাণু ঠেকাতে অন্তত পাঁচ বছর সময় লাগবে: নাসা

ইসরাইলের বর্বর আক্রমণ কেবলই ক্ষমতার জন্য: বেলা হাদিদ

ইসরায়েলের হামলা নিয়ে নোয়াম চমস্কির টুইট

হামলায় ইসরাইলের একক আধিপত্যের যুগ শেষ: হামাস


ঈদের দিন শুক্রবার পুনরায় গেলে স্বামী রুক্কু মিয়াকে রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। পরে সকালে খবর পেয়ে পুলিশ রুবিনাকে আটক করে। লাশ উদ্ধার করে নেত্রকোনা মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর