কণ্ঠ ভালো রাখতে যা করবেন

অনলাইন ডেস্ক

কণ্ঠ ভালো রাখতে যা করবেন

একটি সুন্দর কণ্ঠের অধিকারী হতে কণ্ঠস্বরের যত্ন নেওয়া জরুরি। নিজের শরীরের সার্বিক যে স্বাস্থ্যগত দিক, তার ওপরে কিন্তু  কণ্ঠস্বরও নির্ভর করে। যেমন:- একজন লোক যদি নিয়মিত আধা ঘণ্টা ব্যায়াম করেন, যেটি আমাদের সবার করা উচিত, এটি করলে কণ্ঠস্বর ভালো থাকবে। এ ছাড়া কণ্ঠস্বরকে অ্যাবিউজ না করা ভালো।

বিরামহীন কথা বলা, জোড়ে চিৎকার দেয়া, গলার মধ্যে সমস্যা মনে হওয়া সত্ত্বেও সমাধান না করা। এমন নানা কারণে কণ্ঠ দিন দিন খারাপ হয়ে যায়। তাই কণ্ঠ ভালো রাখতে যা করতে হবে- 

>> প্রথমেই উচ্চ স্বরে কথা বলা বন্ধ করতে হবে। আমরা সবাই জানি কোনো স্পিকার বা মাইককে তার কার্যক্ষমতার সমান বা তার থেকে বেশি জোড়ে বেশিদিন বাজালে তা অচিরেই নষ্ট হয়ে যায়। আমাকে কণ্ঠও তার ব্যতিক্রম নয়।স্পিকার নষ্ট হলে পরিবর্তন করার সুযোগ থাকে। তবে আপনার কন্ঠ একবার নষ্ট হলে পরিবর্তন করার কোনো উপায় নেই। তাই নিজ দায়িত্বেই জোরে কথা বলা বন্ধ করুন। 

>> সুন্দর করে কথা বলার অভ্যাস করুন৷ সবাই কথা বলতে পারে কিন্তু সুন্দর করে কথা না বললে আপনার কণ্ঠ সুন্দর হবে। তাই কথা বলার সময় তা গুছিয়ে সুন্দর করে উপস্থাপন করার চেষ্টা করুন। 

>> কম কথা বলার অভ্যাস করুন। বেশি কথা বললে কণ্ঠনালির উপর অতিরিক্ত চাপ পরে। কারণ অনবরত কথা বলার ফলে কণ্ঠনালিতে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। যার ফল স্বরূপ কণ্ঠ ভেঙ্গে যাওয়া, কণ্ঠ পরিবর্তন হয়ে যাওয়া, জোরে কথা বলতে পারার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই কম কথা বলার অভ্যাস গরে তুলুন। 

>> অতিরিক্ত ঠাণ্ডা বা গরম কিছু দ্রুত খাওয়া বা পান করবেন না। এতে কণ্ঠনালি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। তাই বেশি গরম বা বেশি ঠাণ্ডা কিছু স্বাভাবিক হওয়ার জন্য কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। তারপর সেটি খেতে বা পান করতে পারেন। 


সাতদিনের রিমান্ডে মাওলানা মামুনুল হক

এবার লাইভে এসে ক্ষমা চাইলেন নুর

মিশরে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ১১

অর্থমন্ত্রীর জামাতা দিলশাদ হোসেন মারা গেছেন


>> গলা বা কণ্ঠনালিতে কোনো সমস্যা দেখা দিলে দ্রুত তার চিকিৎসা করান। কারণ গলা বা কণ্ঠনালিতে বড় ধরনের কিছু হলে তা  সারানো অনেক ঝামেলার ব্যাপার। তাই যখনই কোনো সমস্যা দেখা দিবে, তখনই তার সমাধান করার চেষ্টা করুন। 

>> দিনে পর্যাপ্ত পানি পান করুন। কারণ পানি আপনার শরীরের সমস্ত কিছু স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। তাই পানি পান করতে ভুলবেন না। কোনো খাবার খাওযার পর অবশ্যই কিছুটা হলেও পানি পান করুন। কারণ খাবারের কিছু অংশ আপনার কণ্ঠনালির পাশে বেঁধে থাকতে পারে। আর এমন খাদ্য উপাদান দীর্ঘ সময় সেখানে বেঁধে থাকলে নানা সমস্যার সৃষ্টি হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

অনলাইন শপিংয়ে যে বিষয়গুলোতে সতর্ক থাকবেন

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন শপিংয়ে যে বিষয়গুলোতে সতর্ক থাকবেন

বাংলাদেশে অনলাইন শপিং দিনে দিনে জনপ্রিয় হচ্ছে। বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে আমাদের দেশের মানুষও কেনাকাটার জন্য দিনে দিনে অনলাইন নির্ভর হচ্ছে। কিন্তু, অনলাইন শপিং করার সময় আপনাকে অবশ্যই কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে। 

সঠিক দামটি আগে জানুন:-

অনলাইনে কোন কিছু কেনার আগে সেটির দাম সম্পর্কে আগে থেকেই সঠিক ধারণা নিতে হবে। দেখা যাবে একই পণ্য অনলাইনে ৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে কিন্তু বাজারে সেটির দাম ৩০০ টাকা।তাই কোনো কিছু কেনার আগে ভালোভাবে যাচাই করে নিতে হবে। তাহলে দাম নিয়ে ঠকার সম্ভাবনা থাকবে না।

বিশ্বাসযোগ্য মাধ্যম থেকে কেনা:-

অনলাইনে জনপ্রিয়তার সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী মানহীন পণ্য নিয়ে ব্যবসা করছে। নকলের পাশাপাশি কমদামী জিনিস নিয়ে তাদের পসরা সাজিয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে চাহিদা বেশি থাকায় গুণগত মানের পণ্য ডেলিভারি দিতে হিমশিম খাচ্ছে।এসব ভুয়া সাইট সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে। আবার গ্রাহকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পণ্য নাও পাঠাতে পারে এসব সাইট। এ ছাড়া ছবিতে এক পণ্য দেখিয়ে পরে অন্য কিছু ডেলেভারি দিচ্ছে। তাই অনলাইনে পণ্য কেনার আগে বিশ্বাসযোগ্য মাধ্যম থেকে কেনা উচিত।

ক্যাশ অন ডেলিভারি ব্যবহার:-

অনলাইনে অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে সব সময় সাবধান থাকা উচিত। ফেইসবুক পেইজ ও নতুন ওয়েবসাইটগুলোর ক্ষেত্রে কখনই পণ্যে পাওয়ার আগে পেমেন্ট করা উচিত না।এ ক্ষেত্রে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা উচিত। এতে পণ্য হারানো বা টাকা হারানোর ঝুঁকি থাকবে না। তবে বিশ্বাসযোগ্য কোনো প্রতিষ্ঠান হলে অনলাইনে প্রেমেন্ট দেওয়া যাবে।

ওয়ারেন্টি:-

অনলাইনে পণ্য কেনার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি যে সমস্যা পড়তে হয় তা হলো ওয়ারেন্টি। তাই পণ্যটি কেনার আগে ওয়ারেন্টি সম্পর্কে আগে জেনে নিতে হবে।যে অনলাইনে প্রতিষ্ঠান পণ্যটি কেনা হবে তাদের ফোন বা যোগাযোগ ওয়ারেন্টি সর্ম্পকে নিশ্চিত হয়ে তারপর পণ্যটি কেনা উচিত।


আগামী মাসে পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাতের আগ্রহ প্রকাশ করলেন বাইডেন

বাবা-মা-বোনের পর এবার কোভিড পজিটিভ দীপিকা পাড়ুকোন

সাক্ষাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে যে ৪টি আবেদন জানালো হেফাজত নেতারা

দুধের ১০ উপকারিতা


ছাড় ও অফার:-

ফেসবুকের নিউজ ফিডে অনেক সময়ই চোখে পড়বে নানা লোভনীয় ছাড়ে অনলাইনে পণ্য কেনাবেচার  বিজ্ঞপ্তি। ছাড় বা অফারের ক্ষেত্রে অনেক সময় পণ্যের মান ঠিক থাকে না।তাই ছাড় বা অফারে পণ্য অনলাইনে কেনার আগে ভালোভাবে যাচাই বাছাই করে নিতে হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ওভেন পরিষ্কারের সহজ কিছু কৌশল

অনলাইন ডেস্ক

ওভেন পরিষ্কারের সহজ কিছু কৌশল

ওভেনের ব্যবহার কমবেশি আমরা সবাই করি। ব্যবহৃত এই যন্ত্রটি পরিষ্কার রাখাটাও খুব জরুরি। নইলে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে বাসা বাধতে পারে জীবাণু। যা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। ওভেন পরিষ্কারের কিছু কৌশল রয়েছে। চলুন সেই কৌশলগুলো জেনে নেই।

>> প্রথমে মাইক্রোওয়েভ থেকে র‍্যাক ও গ্রিল বের করে সাবান-পানিতে ডুবিয়ে রাখুন। ব্রাশ দিয়ে ভালোভাবে কিছুক্ষণ ঘষে ধুয়ে শুকিয়ে নিন।

>> একটি মাইক্রোওয়েভ সেফ পাত্রের মধ্যে ভিনেগার আর পানি মিশিয়ে নিন। এবার উচ্চতাপে ওভেনের ভেতর এটি পাঁচ মিনিট রেখে দিন। এ থেকে যে স্টিম তৈরি হবে তা মাইক্রোওভেনে লেগে থাকা ময়লা নরম করবে। তারপর ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পাত্রটি বের করে পেপার টাওয়েল বা কাপড় দিয়ে ওভেন পরিষ্কার করে নিন।

>> পানির সঙ্গে বেকিং সোডা, লেবু এবং লবণ মেশান। মিশ্রণটিতে কাপড় ভিজিয়ে মাইক্রোওয়েভের ভেতরের অংশ ভালো করে পরিষ্কার করুন।

>> এক কাপ পানিতে দুই চা চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি একটু গরম করে তাতে একটি কাপড়ের টুকরো ডুবিয়ে মাইক্রোওয়েভ পরিষ্কার করুন।


খালেদার জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি পর্যালোচনায় দুপুরে বসছে মেডিকেল বোর্ড

মেক্সিকোতে মেট্রো ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ১৫

পুড়ছে সুন্দরবন, এখনও নেভেনি আগুন

মমতার শপথ: কখন শুরু হবে, কারা থাকছেন অনুষ্ঠানে?


>> একটি পাত্রে অল্প পানির সঙ্গে বেকিং সোডা মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিন। মাইক্রোওয়েভের টার্ন টেবিল আর ভেতরের দিকে এই পেস্টটি লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। একটি ভেজা কাপড় দিয়ে ভেতর পুরোটা এবং টার্ন টেবিল মুছে নিন।

>> ওভেনের ভেতরের দুর্গন্ধ দূর করতে একটি মাইক্রোওয়েভ প্রুফ বাটিতে পানি ও কয়েক টুকরা লেবুর চাকা ফেলে উচ্চতাপে কয়েক মিনিট গরম করুন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

খুশকির ঘরোয়া সমাধান

অনলাইন ডেস্ক

খুশকির ঘরোয়া সমাধান

খুশকি একবার মাথার ত্বকে আক্রমণ শুরু করলে, তা বাড়তেই থাকে। এক্ষেত্রে চুলকানি ও চিটচিটে হয় স্ক্যাল্পে। খুশকি দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানানো হল।

অ্যাপল সাইডার ভিনিগার

খুশকির সমস্যা দূর করতে অ্যাপল সাইডার ভিনিগার খুব ভালো কাজ করে।

ব্যবহার পদ্ধতি: সম-পরিমাণ ভিনিগার ও পানি এক সঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বকে মালিশ করুন। ১৫ মিনিট অপেক্ষা করেতা ধুয়ে ফেলুন।

পরামর্শ: ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে দুবারের বেশি এটা ব্যবহার করা যাবে না।

নারিকেল তেলের সঙ্গে লেবু

নারিকেল তেল ও লেবু একসঙ্গে খুশকির বিরুদ্ধে ভালো কাজ করে। নারিকেল তেল চুল মসৃণ রাখে এবং লেবু মাথার ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে। 

ব্যবহার পদ্ধতি: দুই টেবিল-চামচ নারিকেল তেল ও সম-পরিমাণ লেবুর রস এক সঙ্গে মিশিয়ে মাথার ত্বকে মালিশ করুন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করে নিন।

পরামর্শ: যাদের মাথার ত্বক সংবেদনশীল তাদের লেবু ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে। কেন-না এতে মাথার ত্বকে জ্বলুনি সৃষ্টি হতে পারে।

টক দই

দইয়ের মাস্ক চুলের নানান সমস্যার সমাধানে সহায়তা করে। চুলের যত্নে এটা সহজ ঘরোয়া সমাধান।

ব্যবহার পদ্ধতি: একটা বাটিতে টক দই নিয়ে তা চুলে ব্যবহার করুন। মাস্কটি শুকানোর জন্য এক ঘণ্টা অপেক্ষা করে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

পরামর্শ: খুশকির সমস্যা দূর করতে সপ্তাহে তিনবার ব্যবহার করা ভালো।

গ্রিন টি

গ্রিন টি ব্যাক্টেরিয়া-রোধী উপাদান সমৃদ্ধ এবং এটা মাথার ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়তা করে। তাই খুশকি কমাতে গ্রিন টি ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যবহার পদ্ধতি: এক কাপ গরম পানিতে দুইটা টি ব্যাগ ২০ মিনিট ধরে ডুবিয়ে রাখুন। ঠাণ্ডা হয়ে আসলে তা মাথার ত্বকে ব্যবহার করে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে তা চুল ধুয়ে নিন। 

পরামর্শ: খুশকি থেকে বাচঁতে গোসলের পরে এটা ব্যবহার করুন।

জলপাই তেল

খুশকির সমস্যা দূর করতে জলপাই তেল বা অলিভ অয়েলের ব্যবহার নানা দেশে খুবই জনপ্রিয়। নিয়মিত জলপাই তেল ব্যবহারে খুশকি কমে। কারণ জলপাই তেল প্রাকৃতিকভাবেই ভালো ময়েশ্চারাইজার এবং ক্লিনজার হিসেবে কাজ করে বা ত্বকের আর্দ্রতা ও পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করে।

কর্পূর ও নারকেল তেল

নারকেল তেল ও কর্পূ‌রের তেল নানা ভেষজ গুণে সমৃদ্ধ। আধা কাপ নারকেল তেলের মধ্যে এক চা-চামচ কর্পূ‌রের তেল নিয়ে একটা বোতল বা পাত্রে রাখুন। খেয়াল রাখতে হবে যাতে বোতলের মুখ ভালো করে লাগানো থাকে বা পাত্রটির ঢাকনা ঠিকঠাক আটকানো থাকে, যাতে ভেতরে বাতাস না ঢোকে। শুষ্ক স্থানে এভাবে রাখা পাত্র থেকে কিছুটা তেল নিয়ে প্রতিরাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে মাথায় দিন। মিনিট দশেক ধরে ঘষে ঘষে চুলের গোড়ায় মাখুন। সকালে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে টানা দুই সপ্তাহ ব্যবহার করে উপকার পেলে ধীরে ধীরে এটা একদিন পর পর মাখুন বা আরও কমিয়ে দিন।

বেকিং সোডা

হালকা পানিতে মাথা ভিজিয়ে নিয়ে খানিকটা বেকিং সোডা পুরো মাথায় মেখে নিন। ভালো করে ঘষে ঘষে শ্যাম্পু না করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটা মাথার খুলিতে থাকা ছত্রাক দমন করে প্রথমদিকে ত্বককে অতিরিক্ত শুষ্ক করে ফেলতে পারে। কিন্তু অল্পদিনেই ত্বকে স্বাভাবিক তৈলাক্ত অবস্থা ফিরে আসবে। কিন্তু এ সময়ে আপনি খুশকি থেকে মুক্তি পাবেন।

লেবুর রস

দুই টেবিল-চামচ লেবুর রস নিয়ে পুরো মাথায় চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে মাখুন। পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এবার এক টেবিল-চামচ লেবুর রস নিয়ে এক কাপ পানিতে মেশান। লেবুর রস মেশানো পানি দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। খুশকি না কমা পর্যন্ত প্রতিদিন এভাবে লেবু চিকিৎসা চালিয়ে দেখতে পারেন।


বড় ব্যবধানে হার বাংলাদেশের

বাংলাবাজার ঘাটে স্পিডবোট ডুবির ঘটনায় ৬ সদস্যের তদন্ত কমিটি

মুখ্যমন্ত্রী হতে যেসব নিয়মের মধ্য দিয়ে যেতে হবে মমতাকে

মুক্ত গণমাধ্যম দিবস আজ


মেথি-তেল

সাধারণ নারকেল তেলের সঙ্গে মেথি মিশিয়ে কয়েকদিন বোতলে রেখে দিন। নিয়মিত এই মেথি মেশানো তেল মাখুন মাথায়। রাতে মেখে সকালে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত ব্যবহারে মাথার চুল ও ত্বক দুইই ভালো থাকবে। খুশকি থেকেও রেহাই পাবেন।

লবণ

প্রতিদিনই কাজে লাগা লবণের অনেক ব্যবহারই হয়তো আমরা জানি না। মাথায় হালকা করে লবণ ব্যবহার করে দেখুন। প্রাকৃতিক পরিষ্কারক হিসেবে লবণ খুশকি দূর করতে দারুণ কাজ করবে। হালকা করে লবণ ব্যবহার করে তারপর শ্যাম্পু করলে শ্যাম্পুর পুরো সুবিধা আপনি কাজে লাগাতে পারবেন। এ ছাড়া চুলকাতে থাকা খুশকি ভরা মাথায় লবণ-চিকিৎসা দারুণ প্রশান্তিও দেবে আপনাকে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াবে মেথি

অনলাইন ডেস্ক

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াবে মেথি

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে মেথির জুড়ি মেলা ভার।  মেথি ব্যবহারের আপনি সহজেই ফিরে পেতে পারেন সেই হারানো উজ্জ্বলতা। চলুন জেনে নেই মেথি দিয়ে কয়েকটি ফেসপ্যাক তৈরি ও তার ব্যবহার সম্পর্কে-

মেথি ও টক দই:
টকদই যে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে খুব সহায়ক এটা আমরা অনেকেই জানি। এই টক দই যদি মেথির সাথে ব্যবহার করা হয় তাহলে তা আরো অধিক পরিমাণে ফলদায়ক হবে। ১ টেবিল চামচ মেথি গুড়া করে বা পেস্ট বানিয়ে এর সাথে সমপরিমাণ টকদই মিশিয়ে নিন। তারপর মুখে ও গলায় লাগিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। এরপর ভালো ভাবে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার ক্রিম লাগিয়ে নিন। এই প্যাকটি খুব দ্রুত ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

মেথি ও মধু:
মেথি ও মধুর ব্যবহারে ত্বকের মরা চামড়া দূর হয়। ১ চা চামচ মেথি পেস্টের সাথে ১ চা চামচ মধু ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন প্রায় ২০-৩০ মিনিট। তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এবার ত্বকে আপনার পছন্দমত টোনার লাগিয়ে নিন। গোলাপজল ও লাগাতে পারেন। এই প্যাকটি ত্বক উজ্জ্বল করার পাশাপাশি ত্বকের মরা-চামড়া দূর করে ও ত্বকের বিভিন্ন এলার্জি, ব্রণ ইত্যাদি কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া ও এই প্যাকটি ত্বকে বয়সের ছাপ কমাতে দারুণভাবে কার্যকর।

মেথি ও অলিভ অয়েল:
এই প্যাকটি ত্বক থেকে রোদে পোড়া দাগ দূর করে দেয়। প্রথমে ২ টেবিল চামচ মেথি বীজ ভালো করে ধুয়ে পানিতে দিয়ে সেদ্ধ করে নিন। তারপর সেই পানিটা ছেকে নিয়ে ঠান্ডা করে ফ্রিজ এ রেখে দিন। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ১ চা চামচ মেথি সেদ্ধ করা পানির সাথে ১ চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে মুখে, গলায় ও হাতে লাগিয়ে ঘুমাতে যান। নিয়মিত ব্যবহারে এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াবে ও ত্বকের রোদে পোড়া দাগ দূর করার পাশাপাশি ত্বকের ছোপ ছোপ দাগ ও দূর করবে।

মেথি ও গোলাপজল:

১ টেবিল চামচ মেথি সারারাত ভিজিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এর সাথে ২ চা চামচ গোলাপজল ও ১ চা চামচ দই মেশান ও ত্বকে ব্যবহার করুন।


চারশো ছাড়ালো শ্রীলঙ্কার লিড

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সব সময় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন থেকে যেভাবে কেনা যাবে টিসিবির পণ্য

ফেলে রাখা ট্রাকে মিললো ২ লাখ ৪০ হাজার টিকা


মেথি ও বেসন:

মেথির পেস্টের সাথে অল্প পানি বা কাঁচা দুধ ও বেসন মিশিয়ে প্যাকটি ২৫-৩০ মিনিট মুখে রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

উকুন তাড়ানোর সহজ উপায়

অনলাইন ডেস্ক

উকুন তাড়ানোর সহজ উপায়

চুলে উকুনের সমস্যা যেমন অস্বস্তিকর, তেমনি চুলকানির কারণে একটি বিরক্তিকর বিষয়ও বটে। ঘরোয়া উপায়ে মাত্র ১৫ মিনিটেই আপনি উকুনের সমস্যার সমাধান করতে পারেন।

এসেনশিয়াল অয়েল লাগানো

এসেনশিয়াল অয়েল, যেমন-টি ট্রি অয়েল, ল্যাভেন্ডার অয়েল ও মৌরির তেল উকুন দূর করতে বেশ কার্যকর। ভেজিটেবল অয়েলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে মাথার ত্বকে ও চুলে লাগান। এবার একটি তোয়ালে দিয়ে চুল ঢেকে রাখুন। এক ঘণ্টা পর ভালো করে শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, চুলের উকুন একেবারেই দূর হয়ে যাবে।

মেয়োনেজ, মাখন ও পেট্রোলিয়াম জেলি লাগান

মাথার তালু ও চুলে মেয়োনেজ বা মাখন অথবা পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে চুল ঢেকে সারা রাত এভাবে রেখে দিন। সকালে বেবি অয়েল দিয়ে চুল ম্যাসাজ করে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, চুলের উকুন ও উকুনের ডিম সহজেই দূর হবে।

ভিনেগার দিয়ে চুল ধোয়া:

সমান পরিমাণ পানি ও ভিনেগার একসঙ্গে মিশিয়ে চুলে লাগান। এবার এই পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে উকুন মরে যাবে। আপনি চাইলে ভিনেগারের সঙ্গে অলিভ অয়েলও মিশিয়ে নিতে পারেন।

ভেজা চুল আঁচড়ানো:

প্রথমে চুল পানি দিয়ে ভিজিয়ে কন্ডিশনার লাগান। এবার চিকন চিরুনি দিয়ে মাথার ত্বক থেকে চুলের আগা পর্যন্ত আঁচড়ান। কয়েকবার এভাবে ভেজা চুল আঁচড়ান। দেখবেন, মাথার উকুন অনেকটা দূর হবে।

নারিকেল তেল: উকুন তাড়ানোর জন্য কিন্তু নারিকেল তেলের কোনো জুড়ি নেই। নারিকেল তেল উকুনের শ্বাসরোধ করতে সাহায্য করে। রাতে ৩-৪ চামচ নারিকেল তেল এবং কর্পূর গরম করে তা চুলে এবং মাথার তালুতে ভালো করে লাগাতে হবে। সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে শ্যাম্পু করতে হবে। মোটামুটি সপ্তাহে ৫ দিন নিয়ম করে এই পদ্ধতি অনুসরণ করার পর উকুনমুক্ত হতে পারবেন।


ওয়ানডে স্টাইলে টেস্ট ক্যারিয়ারের ৩১তম ফিফটি তুলে নিলেন তামিম

জাপানে ৬ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প

নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ শিকারে নেমেছেন জেলেরা

মহানবী যে সাতটি কাজ ছেড়ে দিতে আদেশ দিয়েছেন


লেবুর রস:

লেবুর রসে আ্যাসিড থাকে যা উকুন তাড়াতে এবং আটকাতে উপযোগী। লেবুর রসের সাথে আদা বেটে সেই মিশ্রণটি চুলে প্রায় আধ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। এরপর পানি এবং শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলতে হবে। এই মিশ্রণটি পর পর ৪-৫ দিন চুলে লাগালে পুরোপুরি উকুন তাড়ানো যায়।

ভিনেগার:

উকুনকে প্রতিরোধ করার জন্য ভিনেগার হলো এক মোক্ষম উপায়। ভিনেগারে প্রচুর আসিটিক আ্যাসিড থাকে যা আমাদের চুলে হওয়া উকুনকে মারতে সাহায্য করে। ভিনিগার উকুনের ডিম বা নিটকে আমাদের চুলের থেকে বিলীন করে দেয়। সমান পরিমাণ ভিনেগার আর মিনারেল অয়েল মিশিয়ে ঘুমোনোর আগে তা আমাদের মাথার তালুতে এবং চুলে লাগিয়ে রাখতে হবে। আবার সকালে ঘুম থেকে উঠে শ্যাম্পু করতে হবে। মোটামুটি সপ্তাহে ২-৩ বার এই মিশ্রণটি লাগালে কিছু সপ্তাহের মধ্যেই উকুন থেকে বাঁচা সম্ভব।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর