মামুনুল হককে নিয়ে ফেসবুকে জিহাদের আহ্বান করায় যুবক গ্রেপ্তার
মামুনুল হককে নিয়ে ফেসবুকে জিহাদের আহ্বান করায় যুবক গ্রেপ্তার

মামুনুল হককে নিয়ে ফেসবুকে জিহাদের আহ্বান করায় যুবক গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি মামুনুল হককে গ্রেপ্তারের পর ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে জিহাদের আহ্বান করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা থেকে শাহীন বিপ্লব (২১) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) দিবাগত রাতে উপজেলার বালিদিয়া ইউনিয়নের বড়রিয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়ায় নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে ওইদিন সন্ধ্যায় মহম্মদপুর থানায় শাহীনের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করে।

গ্রেপ্তার শাহীন বড়রিয়া গ্রামের শাহজাহান সর্দারের ছেলে।

তিনি ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ছাত্র ও ছাত্রদলের একজন কর্মী বলে জানা গেছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেপ্তারের বিরোধিতা করে নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন শাহীন বিপ্লব। স্ট্যাটাসে বিপ্লব লেখেন -  ‘আল্লামা মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করো নাই, হৃদয়ে আঘাত করেছো। আর ছাড় দেওয়া হবে না, এতো বড় দুঃসাহস তোমাদের কে দিয়েছে? এখন শুধু একটি জিহাদের ঘোষণার অপেক্ষায় আছি। ’ 

আরও পড়ুন


দেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করলো আইইউবি

নলকূপের পাইপ দিয়ে অনবরত বের হচ্ছে গ্যাস

মামুনুল করলে সমস্যা নেই, বললেই বিরাট সমস্যা: মোজাফ্ফর হোসেন

রাস্তা-ঘাট থেকে শুরু করে শ্বশুড় বাড়িতেও পদ-পদবীর দাপট


পুলিশের ভাষ্যমতে, শাহীন বিপ্লব ১৯ এপ্রিল রাত ৯টা ৪৯ মিনিটে ফেসবুকে জিহাদের আহ্বান প্রকাশ ও প্রচার করেন। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে কয়েক হাজার উচ্ছৃঙ্খল লোকজন জমায়েত হয়। পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে ফেসবুকের মাধ্যমে মিথ্যাচার করেছেন শাহীন। এজন্য তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে।

মহম্মদপুর থানার পরিদর্শক (ওসি) তারক বিশ্বাস গণমাধ্যমকে বলেন, পুলিশের দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় শাহীনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ