করোনায় নতুন করে দরিদ্র হয়েছে আড়াই কোটি: সমীক্ষা

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় নতুন করে দরিদ্র হয়েছে আড়াই কোটি: সমীক্ষা

করোনার প্রভাবে এবার নতুন করে আড়াই কোটি মানুষ দরিদ্র হয়েছে। বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেশন রিসার্চ সেন্টার (পিপিআরসি) ও ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গভর্ন্যান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (বিআইজিডি) এক যৌথ সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

সংক্রমণ এড়াতে লকডাউন দেওয়া হলেও এই লকডাউনে উপার্জনের পথ বন্ধ হয়েছে বহু নিম্ন আয়ের মানুষের।

করোনার প্রথম ঢেউয়ের প্রভাব কাটতে না কাটতেই শুরু হয়েছে দ্বিতীয় ঢেউ। গত বছরের ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটির ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত অনেকেই এখনও বিপর্যস্ত অবস্থা কাটিয়ে উঠতে পারেননি।

ওই সময় দেশে দারিদ্র্যের হার দ্বিগুণ হয়েছিল। নিম্ন আয়ের মানুষ যখন সেই ধাক্কা সামলে উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে, তখনই শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাব সামাল দিতে গত ৫ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। এরপরও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় গত ১৪ এপ্রিল থেকে সার্বিক কার্যাবলি ও চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। যাকে বলা হচ্ছে সর্বাত্মক লকডাউন।


আরও পড়ুনঃ


বাঙ্গি: বিনা দোষে রোষের শিকার যে ফল

গালি ভেবে গ্রামের নাম মুছে দিলো ফেসবুক

'টিকায় কিছু হবে না, লাভ যা হওয়ার মদেই হবে'

রাস্তা-ঘাট থেকে শুরু করে শ্বশুড় বাড়িতেও পদ-পদবীর দাপট


এই লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সরকারের নীতিনির্ধারকরা। এতে দৈনিক আয়ের ওপর নির্ভরশীল মানুষের টিকে থাকার সংগ্রাম আরও কঠিন হতে যাচ্ছে। এ অবস্থায় অনেকেই পরিবার-পরিজন নিয়ে দুর্ভাবনায় পড়েছেন নতুন করে।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

পরকীয়া করায় জুতার মালা পরিয়ে ঘোরানো হল এক নারীকে, লজ্জায় আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

পরকীয়া করায় জুতার মালা পরিয়ে ঘোরানো হল এক নারীকে, লজ্জায় আত্মহত্যা

ঘটনা ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের। পরকীয়ার অভিযোগে এক গৃহবধূকে নির্যাতনে পর নগ্ন করে গলায় জুতার মালা পরিয়ে পুরো গ্রাম ঘোরানো হয়। এই অপমান সইতে না আত্মহত্যা করেছেন ওই গৃহবধূ।

মঙ্গলবার দক্ষিণ ত্রিপুরার সাবরুমের বেতাগা গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। রোববার এক গ্রাম্য সালিশে ওই গৃহবধূর পরকীয়ার একটি ভিডিও বড় স্ক্রিনে দেখানো হয়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস নাউ জানায়, ওই ঘটনার একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ার পর ত্রিপুরা হাইকোর্ট স্বপ্রণোদিত হয়ে পদক্ষেপ নেয়। কিন্তু আদালত পদক্ষেপ নেয়ার পরের দিনই আত্মহত্যা করেন ওই গৃহবধূ।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও যাত্রী নিয়ে শিমুলিয়াঘাট ছাড়লো ফেরি

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক

করোনা ঠেকাতে বিজেপি নেতার গোমূত্র পান, দিলেন পরামর্শও (ভিডিও)


খবরে বলা হয়েছে, ওই ভিডিও সামনে আসার পরই আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন ওই গৃহবধূ। জানা গেছে, ওই ভিডিও প্রকাশ পাওয়ার পর স্থানীয়রা ওই নারীর বাড়ির বাইরে জুতার মালা নিয়ে হাজির হয়। এরপর ওই নারীর চুল কেটে গলায় জুতার মালা পরিয়ে নগ্ন ঘোরানো হয় ওই নারীকে।

ওই নারীর পরিবার আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। এ ঘটনায় পুলিশ সাতজনকে গ্রেফতার করেছে।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

করোনা ঠেকাতে বিজেপি নেতার গোমূত্র পান, দিলেন পরামর্শও (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

করোনা ঠেকাতে বিজেপি নেতার গোমূত্র পান, দিলেন পরামর্শও (ভিডিও)

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকেই ভারতের বিভিন্ন জায়গা থেকে রাজনৈতিক নেতারা উদ্ভট সব ‘প্রতিষেধক’-এর কথা বলে আসছেন, যার অধিকাংশই গোমূত্র ও গোবর সংক্রান্ত।

এবার এ তালিকায় যুক্ত হল আরও একটি নাম। উত্তরপ্রদেশের এই বিজেপি নেতা শুধু পরামর্শ দিয়েই ক্ষান্ত হননি, কখন-কীভাবে পান করতে হবে সে উপায়ও বলে দিয়েছেন তিনি।

উত্তরপ্রদেশের বালিয়া জেলার বইরিয়ার বিজেপি নেতা সুরেন্দ্র সিং। শুক্রবার (৭ মে) তার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। সেই ভিডিওতে ওই নেতাকে গোমূত্র পান করতে দেখা গিয়েছে। বাতলে দিয়েছেন, সুস্থ থাকতে কীভাবে গোমূত্র পান করতে হবে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই নেতার দাবি, করোনা ঠেকানোর অব্যর্থ ওষুধ গোমূত্র। শুধু করোনাই ঠেকাবে না, শরীরকেও চাঙ্গা রাখবে ওই টোটকা।

সুরেন্দ্রের কথায়, গোমূত্র কোভিড-১৯ সংক্রমণ রুখতে সক্ষম। দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করার পরও তিনি নাকি ওই গোমূত্র পান করেই সুস্থ রয়েছেন বলে দাবি তার।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

আইপিএল নেই, বাড়ি ফিরে যা করতে চান কোহলি

ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করা মুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় দায়িত্ব: হুথি নেতা

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক


ভিডিওতে সুরেন্দ্রকে বলতে শোনা গিয়েছে, সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে গোমূত্র সেবন করতে হবে। দু-তিন চামচ গোমূত্র এক গ্লাস জলে মেশাতে হবে। তারপর এক ঢোকে সেই জল উদরস্থ করতে হবে। তবে এই টোটকা সেবন করার ক্ষেত্রে একটি বিশেষ নিয়মের কথা বলেছেন ওই নেতা।

সুরেন্দ্রর কথায়, বিজ্ঞানে বিশ্বাস করুন আর না করুন, গোমূত্র করোনা রুখতে সক্ষম। তবে গোমূত্র পানের আধঘন্টার মধ্যে অন্য কোনকিছু খাওয়া বা পান করা যাবে না।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

ত্রিপুরায় বৃষ্টি আনতে ব্যাঙের বিয়ে!

অনলাইন ডেস্ক

ত্রিপুরায় বৃষ্টি আনতে ব্যাঙের বিয়ে!

লৌকিকতা এবং বিশ্বাস অনেক সময় কোন যুক্তি মানে না। অনেক সময় সময়ের আবর্তনে তা হয়ে ওঠে প্রথা। ঠিক এমনই একটি প্রথা হল ব্যাঙের বিয়ে। বিশ্বাস করা হয়ে থাকে, ব্যাঙের ডাকের সাথে বৃষ্টির সংযোগ রয়েছে। তাই অনেক জায়গাতেই খরার সময় প্রথা অনুযায়ী বৃষ্টির জন্য ব্যাঙের বিয়ে দেয়ার প্রচলন রয়েছে।

সম্প্রতি ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে এমন একটি ঘটনা ঘটে। বৃষ্টির জন্য চা বাগানের কর্মীরা দুটি ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করে।

স্থানীয় লোকদের বিশ্বাস দুটি ব্যাঙের বিয়ে দেয়া হলে বৃষ্টির দেবতা ইন্দ্র খুশি হবেন এবং বৃষ্টি নামবেন।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

মিষ্টি বিতরণে পুলিশের বাঁধা, ২০ কেজি রসগোল্লা জব্দ

ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করা মুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় দায়িত্ব: হুথি নেতা

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক


ওই বিয়ের ছোট একটি ভিডিও ক্লিপ টুইটারে শেয়ার করেছে বার্তা সংস্থা এএনআই। সেখানে দুটি ব্যাঙকে পুকুরে গোসল করিয়ে, মালা বদল ও সিঁদুর পরিয়ে বিয়ে দিতে দেখা যায়। এমনকি এসময় তাদের রঙ বেরঙের পোশাকও পরানো হয়।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক

অনলাইন ডেস্ক

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক

শত শত বছরের যে ভারতীয় বিবাহের রীতি রয়েছে তা পিতৃতান্ত্রিক। রীতি মেনে স্ত্রীর গলায় মঙ্গলসুত্র পরিয়ে দেন স্বামী। কিন্তু, শুধু নারীকেই কেন মঙ্গলসূত্র পরতে হবে?

তাই ভিন্ন এক বিয়ের পরিকল্পনা করেন তনুজা পাটিল এবং শার্দুল কদম। যে বিয়েতে তারা দুজনেই একে অপরের গলায় পরিয়ে দেবেন মঙ্গলসূত্র।

শার্দুলই প্রথম অভিনব এই প্রস্তাব দেন। এই প্রস্তাবে শার্দুলের পরিবারও অবাক হয়ে যায়।

কিন্তু নাছোড়াবান্দা শার্দুল ঠিকই মঙ্গলসূত্র পরে বিয়ে করেন। আর বিয়ের পরও সেই মঙ্গলসূত্র গলায় ঝুলিয়ে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন!

শার্দুল নিজেকে ‘হার্ডকোর ফেমেনিস্ট’ বলে দাবি করেন। তার ভাষায়, একপাক্ষিক এই রীতির ‘কোনও অর্থ নেই’। চার বছর প্রেম করার পর ২০২০ সালের ডিসেম্বরে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন মুম্বাইয়ের এই জুটি।

তিনি বলেন, সাতপাক হওয়ার পর তনুজা এবং আমি একে অপরের গলায় মঙ্গলসূত্র বাঁধি। তখন আমার খুব আনন্দ হচ্ছিল।

কিন্তু শার্দুলের এমন কাজের কারণে অনেকের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক বকাঝকা এবং ট্রোলের শিকার হতে হয়েছে।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

রোজার সৌন্দর্যে ​মুগ্ধ হয়ে ভারতীয় তরুণীর ইসলাম গ্রহণ

আইপিএল নেই, বাড়ি ফিরে যা করতে চান কোহলি

এক সপ্তাহে বিশ্বে করোনা আক্রান্তের অর্ধেকই ভারতে, মৃত্যু এক-চতুর্থাংশ


শুধু তাই নয়, প্রথা ভাঙায় উদারপন্থী হিসেবে পরিচিতরাও তাদেরকে কথা শোনাতে ছাড়েন নি। তাদের ভাষায়, লিঙ্গ সমতাকে সমর্থন করার পথ নয় এটা।

কিন্তু আত্মীয়স্বজন এবং সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের ট্রোলের পরও নিজের সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছেন শার্দুল।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

৭ মে, ইতিহাসে আজকের এইদিনে

অনলাইন ডেস্ক

৭ মে, ইতিহাসে আজকের এইদিনে

আজ ৭ মে, গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ১২৭তম (অধিবর্ষে ১২৮তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ২৩৮ দিন বাকি রয়েছে। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি:
১৮০৮ - স্পেনের জনগণ নেপোলিয়ন বোনাপার্টের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে সংগ্রাম শুরু করে।
১৮৩২ - গ্রিসকে স্বাধীন রাজ্য ঘোষণা করা হয়।
১৯১৫ - প্রথম বিশ্বযুদ্ধে জার্মানরা আমেরিকায় ‘লুসিতানিয়া’ জাহাজ ডুবিয়ে দেয়।
১৯২৩ - অমৃতরে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা শুরু।
১৯২৯ - লাহোরে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় বহু হতাহত হয়।
১৯৪১ - মিত্রশক্তির কাছে জার্মানি নিঃশর্ত আত্মসমর্পণ করে।
১৯৪৮ - জাতিসংঘের বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিষ্ঠা।
১৯৫৪ - দিয়েন বিয়েন ফু-র পতনের ফলে ভিয়েতনাম ফরাসি শাসন থেকে মুক্ত হয়।

জন্ম:
১৭৭০ - উইলিয়াম ওয়ার্ডসওয়ার্থ, ইংরেজ কবি।
১৮১২ - রবার্ট ব্রাউনিং, ইংরেজ কবি।
১৮৪০ - পিওৎর চাইকোভস্কি, রুশ সঙ্গীতজ্ঞ।
১৮৬১ - মতিলাল নেহরু, আইনজীবী ও জাতীয়তাবাদী নেতা।
১৮৬৭ - ভাদিস্লাভ স্ট্যানিশস্লাভ রেইমন্ট, পোলিশ কথাসাহিত্যিক।
১৮৮১ - উইলিয়ামস পিয়ারসন, রবীন্দ্র সাহিত্যের অনুবাদক।
১৮৮৯ - গ্যাব্রিলা মিস্ত্রাল, লেখক।
১৮৯২ - মার্শাল জোসিপ ব্রজ টিটো, যুগোশ্লাভিয়ার প্রতিষ্ঠাতা ও রাষ্ট্রপ্রধান।
১৮৯৩ - ফিরোজ খান নুন, পাকিস্তানি রাজনীতিবিদ, পাকিস্তানের ৭ম প্রধানমন্ত্রী।
১৯৩১ - সিদ্দিকা কবীর, বাংলাদেশী পুষ্টিবিশেষজ্ঞ ও শিক্ষাবিদ।
১৯৪৩ - পিটার কেরি - অস্ট্রেলীয় ঔপন্যাসিক ও ছোটগল্পকার।


জুমাতুল বিদাকে ‘আল-কুদস দিবস’ বলা হয় কেন?

মধ্যরাতে হেফাজতের নেতা শাহীনুর পাশা গ্রেপ্তার

পবিত্র জুমাতুল বিদা আজ

কোভিড সার্টিফিকেট জাল, ধ্যাত তাও কি হয় নাকি!


মৃত্যু:

১৯০৯ - হের্মান অস্ট্‌হফ, জার্মান ভাষাবিজ্ঞানী।
১৯৪১ - স্যার জেমস ফ্রেজার, স্কটিশ নৃতাত্ত্বিক ও শিক্ষাবিদ (জ. ১৮৫৪)।
১৯৭১ - রণদাপ্রসাদ সাহা, বাংলাদেশের বিখ্যাত সমাজসেবক এবং দানবীর ছিলেন।
১৯৯৩ - অজিতকৃষ্ণ বসু, সঙ্গীতজ্ঞ ও ব্যঙ্গ সাহিত্যস্রষ্টা।
 
দিবস:
বিশ্ব হাঁপানি দিবস
ইঞ্জিনিয়ার্স ডে

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর