‘চুক্তিভিত্তিক’ দুজনকে বিয়ে করেন মাওলানা মামুনুল!

অনলাইন ডেস্ক

‘চুক্তিভিত্তিক’ দুজনকে বিয়ে করেন মাওলানা মামুনুল!

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরবিরোধী আন্দোলনের নামে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হক সরকার উৎখাত করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করতে চেয়েছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার এক ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. হারুন-অর-রশিদ। মামুনুল হককে সাত দিনের রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ। ডিবি কার্যালয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

অন্যদিকে প্রথম বিয়ের পর দুই জান্নাতকেই কন্ট্রাকচ্যুয়াল (চুক্তিভিত্তিক) বিয়ে করেছিলেন মামুনুল। এসব বিয়ের সময় কারা সাক্ষী ছিলেন তাদেরও জিজ্ঞাসাবাদের পরিকল্পনা করছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম এই তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন। 

অর্থনৈতিক নিশ্চয়তা দিতেই দুই ডিভোর্সি নারীকে বিয়ে করেছিলেন বলে তদন্ত সংশ্লিষ্টদের কাছে দাবি করেন মামুনুল। বলেছেন, রিসোর্টকাণ্ডে শুরুতেই স্বীকার করলে প্রথম স্ত্রী আমেনা তৈয়বা বড় ধরনের কাণ্ড ঘটিয়ে ফেলতেন বলে তার ধারণা ছিল। এ কারণে তৎক্ষণাৎ স্বীকার করেননি। গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদের প্রথম দিনই অন্য গুরুত্বপূর্ণ অনেক তথ্যের সঙ্গে এসব কথা বলেছেন মামুনুল। 

এর আগে আজ দুপুর পৌনে ১২টায় সিআইডি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান জানান, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জে নাশকতার ঘটনায় হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমান্ড চাইবে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) মামুনুলকে আদালতে তোলা হয়। আগেই তার বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

১৮ এপ্রিল দুপুরে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

অনলাইন ডেস্ক

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা ও অবকাঠামো নির্মাণ বন্ধে বেসরকারি ৬টি সংগঠন ও এক ব্যক্তি হাইকোর্টে রিট দায়ের করেছেন। একইসঙ্গে মূল নকশায় সোহরাওয়ার্দীর মাস্টারপ্ল্যান রয়েছে তা ঠিক রাখার আর্জি জানানো হয়েছে ওই রিটে।

রোববার (৯ মে) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট দায়ের করা হয়।

এর আগে রিট করা ৬ সংগঠন এবং এক ব্যক্তির পক্ষ থেকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার (৬ মে) নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন পরিবেশবাদী সংগঠন ‘বেলার’ আইন সমন্বয়কারী সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ কবীর।

আরও পড়ুন


নওগাঁয় অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিল শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

করোনামুক্ত খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি: ফখরুল

যে যেখানে আছে, সেখানে থেকেই ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

এবার নার্সের ‘নিমুরা নিমুরা’ গানের নাচের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)


এদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কাটা বন্ধে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। তিনিও বৃহস্পতিবার এ নোটিশ পাঠিয়েছেন।

নোটিশে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ, গণপূর্ত বিভাগের চিফ ইঞ্জিনিয়ার মো. শামিম আখতার এবং চিফ আর্কিটেক্ট অব বাংলাদেশ মীর মনজুর রহমানকে বিবাদী করা হয়েছে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

বিদেশ যেতে পারছেন না খালেদা জিয়া: আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিদেশ যেতে পারছেন না খালেদা জিয়া: আইনমন্ত্রী

বেগম খালেদা জিয়া বিদেশ যেতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। সাজাপ্রাপ্ত আসামির বিদেশ যাওয়ার সুযোগ নেই বলে আইন মন্ত্রণলায়ের মত।

বিস্তারিত আসছে ...

news24bd.tv / কামরুল 

 

পরবর্তী খবর

রাঙামাটিতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হত্যার আসামি অস্ত্রসহ আটক

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

রাঙামাটিতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হত্যার আসামি অস্ত্রসহ আটক

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যার এক আসামিকে আটক করেছে যৌথবাহিনী। আটকের নাম- মিন্টু চাকমা ওরফে জ্যোতি চাকমাকে (৩৯)।

শুক্রবার ভোর রাতে নানিয়ারচর উপজেলার বেতছড়ি ১৮মাইল এলাকায় থেকে তাকে আটক করা হয়। এসময় তল্লাশি চালিয়ে তার কাছ থেকে অস্ত্র গুলি উদ্ধার করা হয়।


অভিনন্দনের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গাছ উপড়ে পড়ল ঘরের ওপর, গেল স্বামী-স্ত্রীর প্রাণ

ঢাবি শিক্ষক-কর্মচারীদের ঈদ কর্মস্থলেই

এরা মানুষ না, অমানুষ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার বেতছড়ি ১৮মাইল এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানে নামে সেনাবাহিনীর যৌথদল। এসময় উপজেলার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যাকাণ্ডের আসামি মিন্টু চাকমা অস্ত্রসহ ওই এলাকায় তার নিজ বাড়িতে অবস্থান করছিল। রাত গভির হলে সেনা সদস্যরা তার বাড়ি ঘেরাও করে তাকে আটক করে। অবশ্য সেনাবাহিনীর যৌথদলের উপস্থিতি টের পেয়েও পালাতে চেয়েও পালাতে পারেনি। এসময় তার ঘর তল্লাশি চালিয়ে একটি একনলা বন্ধুক, ২ রাউন্ড কার্তুজ, একটি নোটবুক ও ৫টি মোবাইল সিম উদ্ধার করা হয়।

রাঙামাটির নানিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বির রহমান জানান, আটকের পর সেনাবাহিনীর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজেকে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট সংক্ষেপে ইউপিডিএফের সক্রিয় সদস্য বলে নিজেকে দাবি করে। তার বিরুদ্ধে উপজেলার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যাকাণ্ডের মামলা ছিল। একই সাথে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের নেতা বর্মা হত্যাকাণ্ডের অন্যতম আসামি মিন্টু চাকমা।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক নববধূকে গলাটিপে হত্যা করেছে স্বামী। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত ফাতেমা আক্তার মুন্নি (১৯), নোয়াখালী পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের মধুসুদনপুর গ্রামের ফরিদ হাজী বাড়ির আহছান উল্যার মেয়ে।

বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় নিহতের মা খায়েরুন নেছা বাদী অভিযুক্ত স্বামীকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এর আগে, বুধবার (৫ মে) গভীর রাতের যে কোন এক সময়ে উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আটক স্বামী মো.জিহাদ (২২), উপজেলার ৫নং ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়ির মো.হারুনের ছেলে।

প্রায় একমাস পর সুখবর পেলেন খালেদা জিয়া

ঘরের ডেকোরেশন দেখানোর কথা বলে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

হেফাজত নেতা জাকারিয়া নোমান ফয়জী ৫ দিনের রিমান্ডে

কুড়িল ফ্লাইওভারে গলায় গামছা পেঁচানো দুবাই প্রবাসীর লাশ

ভুক্তভোগী পরিবার ও মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, গত ৩ মাস ২৭ দিন আগে মুন্নি ও জিহাদ প্রেম করে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিবাহের পর থেকে জিহাদ তাকে একটি ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য শ্বশুরের পরিবারের কাছে দাবি করে। তার স্ত্রীকে শ্বশুর বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। জিহাদের স্ত্রী তার মা-বাবা গরীব বলে তাদের পক্ষে অটোরিকশা কিনে দেওয়া সম্ভব নয় মর্মে স্বামীকে জানাইলে,সে স্ত্রীকে মারধর ও নির্যাতন করে। শ্বশুর-শাশুড়ি একাধিকবার মেয়ের স্বামীর বাড়িতে গেলে মেয়ের
জামাই তাদের কাছেও অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য টাকা দাবি করে। শ্বশুর-শাশুড়ি অটোরিকশা কিনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সে ফের স্ত্রীর ওপর নির্যাতন করত। বুধবার রাতে জিহাদ তার স্ত্রীকে অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য টাকার এনে দেওয়ার কথা বললে এই নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। টাকা এনে দিতে পারবে না বললে গভীর রাতে বসত ঘরের রুমের খাটের ওপর তার স্বামী তাকে গলা টিপে হত্যা করে। নিহতের শাশুড়ি জোসনা বেগম সেহরী খেতে তাকে ডাকতে গেলে খাটের ওপর পুত্রবধূর মরদেহ দেখতে পায় । বৃহস্পতিবার পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করে।

বেগমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকাদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

হেফাজত ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম নেতা ওসমানী গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

হেফাজত ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম নেতা ওসমানী গ্রেপ্তার

হেফাজত নেতা মাওলানা গাজী ইয়াকুব ওসমানী (৪৪) গ্রেপ্তার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৬ মে) সন্ধ্যায় ফেনী সদর থেকে পুলিশের তাকে গ্রেপ্তার করে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন জানান, ওসমানী হেফাজতের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির কেন্দ্রীয় সহকারী প্রচার সম্পাদক ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক।

তিনি আরও জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে প্রযুক্তি ব্যবহার করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের একটি বিশেষ টিম তাকে ফেনী থেকে গ্রেপ্তার করে। তিনি ঘটনার পর থেকে ফেনীতে আত্মগোপনে ছিলেন। 

‘গ্রেপ্তারের পর তাকে জিজ্ঞাসা বাদ করা হচ্ছে। প্রথমিকভাবে তিনি হেফাজতের কর্মসূচিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।’

পাশাপাশি সরকার উৎখাতের পরিকল্পনার করেছিলেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন। তাকে বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হতে পারে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

পরবর্তী খবর