‘হাসপাতাল পরিবর্তন করে অন্যদের সংকটে ফেলবেন না’
Breaking News
‘হাসপাতাল পরিবর্তন করে অন্যদের সংকটে ফেলবেন না’

‘হাসপাতাল পরিবর্তন করে অন্যদের সংকটে ফেলবেন না’

অনলাইন ডেস্ক

গত সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাজধানীর মহাখালীর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মার্কেটে চালু হয়েছে দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতাল। উদ্বোধনের পর থেকেই অনেক করেনা রোগী চিকিৎসার জন্য ভিড় করছেন এই হাসপাতালটিতে।

হাসপাতালটিতে যেন অন্য হাসপাতালের রোগীরা না আসেন সে জন্য  হাসপাতালটির পরিচালক ব্রিগেডিয়ার নাসির উদ্দিন বলেন, করোনা রোগীরা যারা যে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন সেখানেই থাকুন। মঙ্গলবার হাসপাতালটি পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি আরও বলেন, যারা যে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন তারা সেই হাসপাতালেই চিকিৎসা নিন। তারা যেন এখানে না আসেন। এলে নতুন যারা আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের সংকট দেখা দেবে। আপনারা যেখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন সেখানেই নিন। তবে যারা নতুন আক্রান্ত হচ্ছেন তারা এখানেই সেবা পাবেন।

ব্রিগেডিয়ার নাসির উদ্দিন বলেন, সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ১৯২ জন রোগী রিপোর্ট করেছেন। ৮৩ জন রোগীকে আমরা ভর্তি করেছি। ৩৪ জন রোগীকে আমরা আইসিইউতে নিয়েছি। তারমধ্যে ৪ জন মারা গেছেন। এই মুহূর্তে ভর্তি আছে ৭৮ জন। এখন পর্যন্ত ৮০টি আইসিইউ প্রস্তুত আছে।

আরও পড়ুন


কষ্টটা ডায়রির পাতায় শব্দে শব্দে বুনে রেখেছিলাম

বৈঠকতো দূরের কথা, বাবুনগরী কখনোই খালেদা জিয়াকে সামনাসামনি দেখেননি: হেফাজতে ইসলাম

গোদাগাড়ী পৌরসভার মেয়র বাবু মারা গেছেন

প্রয়োজন ছাড়া বের না হলে লকডাউনের প্রশ্নই উঠবে না: মোদি


সরেজমিনে দশ মিনিট অবস্থান নিয়ে দেখা গেছে, এই সময়ে একের পর এক অ্যাম্বুলেন্স এসে দীর্ঘ লাইন লেগে গেছে। এসব অ্যাম্বুলেন্সে আসা অধিকাংশ রোগীরই জটিল পরিস্থিতি।

এ প্রসঙ্গে ব্রিগেডিয়ার নাসির উদ্দিন বলেন, রোগীদের অধিকাংশই সিবিআর সাসপেক্টিভ প্রব্লেম নিয়ে আসছেন। তারা অল্প সময়েই বেশি অসুস্থ হয়ে যাচ্ছেন। অবস্থা জটিল আকার ধারণ করছে।

হাসপাতাল পরিচালক আরও বলেন, শুরুতে ২৫০ শয্যা দিয়েই হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই আমরা এটাকে পাঁচ শতাধিক শয্যায় পরিণত করব এবং এই মাসের মধ্যেই আশা করা যায় এক হাজার শয্যাই আমরা চালু করতে পারবো।

news24bd.tv আহমেদ

;