নতুন নেতৃত্ব খুঁজছে হেফাজত!
নতুন নেতৃত্ব খুঁজছে হেফাজত!

নতুন নেতৃত্ব খুঁজছে হেফাজত!

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাম্প্রতিক সফরকে কেন্দ্র করে সরকারের সঙ্গে চরম বিরোধে জড়িয়ে পড়ে হেফাজতে ইসলাম। দেশজুড়ে চলে ব্যাপক হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও সহিংসতা। আর এই তাণ্ডবের জন্য অভিযোগের আঙ্গুল উঠে হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে। এরপরই সরকার সংগঠনটির নেতা-কর্মীদের বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার অভিযান শুরু করে।

গ্রেপ্তার করা হয় বেশ কয়েকজন শীর্ষ স্থানীয় নেতাকে। ধরপাকড়ের মুখে পড়ে 'কঠোর পথ' ছেড়ে সরকারের সঙ্গে সমঝোতা করার মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।

ইতোমধ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এবং একটি গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন তারা।  

দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, হেফাজতকে 'ভুল বোঝা' হচ্ছে।

রাজনীতির সঙ্গে তাদের সম্পর্ক নেই, সরকারের বিরুদ্ধেও নন তারা- এটাই তারা সরকারকে বোঝানোর চেষ্টা করছেন।

তবে সরকারের নীতিনির্ধারণী মহলের কয়েকজন জানিয়েছেন, এজাহারভুক্তদের গ্রেপ্তার এবং সহিংসতায় জড়িতদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

এই যখন অবস্থা তখন দলে নতুন নেতৃত্ব খুঁজছে হেফাজতে ইসলাম। দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন বাংলানিউজ২৪.কম-এর এক প্রতিবেদন থেকে এ খবর জানা যায়।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, দেশজুড়ে তাণ্ডবের পর ব্যাপক সমালোচিত হেফাজতে ইসলামের বর্তমান কমিটিকে যেকোন সময় ভেঙে দেওয়া হতে পারে। সর্বস্তরে গ্রহণযোগ্য কাউকে নেতৃত্বে আনার পাশাপাশি কওমি মাদরাসার ওপর থেকে দলটির একক কর্তৃত্ব বন্ধের বিষয়টিও ভাবা হচ্ছে।

নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, কওমি মাদরাসা পরিচালনার ক্ষেত্রে সব সিদ্ধান্ত নেবে নির্ধারিত বোর্ড ‘আল-হাইআতুল উলয়া লিল-জামি’আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’। মাদরাসা পরিচালনায় কোনধরনের হস্তক্ষেপ করতে পারবে না হেফাজতে ইসলাম।

প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়, সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১০ সালে হেফাজতে ইসলাম একটি অরাজনৈতিক দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। কিন্তু দলটির সাবেক আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মৃত্যুর পর হেফাজতে ইসলাম রাজনৈতিক দলের দিকে মোড় নেয়। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ হেফাজতের কমিটিতে যুক্ত হতে থাকেন। যার ফলশ্রুতিতে নতুন নেতৃবৃন্দ সরকারবিরোধী নানা কর্মকাণ্ড শুরু করেন। এ অবস্থায় হেফাজতে ইসলামের বর্তমান কমিটি যেকোন সময় ভেঙে দেওয়া হতে পারে।  


করোনা সচেতনতা: যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ স্টাইল

জিততে এসেছি, ইনশাআল্লাহ জয় পাব: মুমিনুল

বৈঠকতো দূরের কথা, বাবুনগরী কখনোই খালেদা জিয়াকে সামনাসামনি দেখেননি: হেফাজতে ইসলাম

কানাডার শীর্ষ নেতাদের সবাই অস্ট্রেজেনেকার ভ্যাকসিন নিচ্ছেন


নতুন নেতৃত্বে দুটি বিষয়কে প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি। দুটির একটি হলো- নেতৃত্বে এমন একজন ব্যক্তিকে খোঁজা হচ্ছে যিনি সব মহলে গ্রহণযোগ্য। আর দ্বিতীয়টি হচ্ছে-আল্লামা শফীর অনুসারী।  

নতুন কমিটিতে কারা স্থান পেতে পারেন সে বিষয়টিও সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে। সেখানে বলা হচ্ছে- অন্য কোনো রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ বা দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত কেউ হেফাজতে ইসলামের কমিটিতে থাকতে পারবেন না, তাদের অবশ্যই হেফাজতের পদ ছাড়তে হবে।

news24bd.tv নাজিম