হত্যার দেড়মাস পর রহস্য উদঘাটন

মাদক বিক্রির টাকা না দেওয়ায় খুন

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

মাদক বিক্রির টাকা না দেওয়ায় খুন

ময়মনসিংহ নগরীর চর জেলখানা বেড়িবাঁধ থেকে দিদারুল ইসলাম রুবেল (৩০) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধারের দেড় মাস পর হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ ঘটনায় সুমন মিয়া (২৫) ও মো. খোকন (২৫) নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিবি ওসি শাহ কামাল আকন্দ।

তারা দুজনই হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে বলেও জানান ওসি।

তিনি বলেন, গত ৩ মার্চ রাতে রুবেল নামে ওই যুবকের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধারের পর ৪ মার্চ কোতোয়ালি মডেল থানার মামলা দায়ের হয়। এরপর ১৩ মার্চ হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য মামলাটি জেলা গোয়েন্দা শাখায় ন্যস্ত করা হয়। পরে পুলিশ সুপারের দিক নির্দেশনায় তদন্ত কার্যক্রম শুরু করে ডিবি।


লকডাউনে শপিংমলে যেতে লাগবে মুভমেন্ট পাস

মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমল চট্টগ্রামে

হিরো আলম বললেন, এইটা মরুভূমি না, যমুনা নদীর চর


ওসি আরও বলেন, দীর্ঘ তদন্তের পর অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার রাত ৮ টার দিকে আসামি সুমন মিয়াকে ভালুকা উপজেলার ড্রাইভারপাড়া এলাকা থেকে এবং রাত সাড়ে ১০ টার দিকে সদরের চরভবানীপুর কোনাপাড়া এলাকা থেকে আরেক আসামি খোকনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, গ্রেপ্তার দুই আসামিই এ হত্যার জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

তারা জানায়, নিহত রুবেলের কাছে মাদক বিক্রির টাকা পাওনা নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাত করে তাকে হত্যা করে লাশ বেড়িবাঁধে ফেলে চলে যায় হত্যাকারীরা।

এ ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে গ্রেপ্তার দুই আসামিকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের ১ নং আমলি আদালতে হাজির করা হয়। পরে তারা হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন বলেও জানান ওসি।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে নববধূকে গলাটিপে হত্যা, স্বামী আটক

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক নববধূকে গলাটিপে হত্যা করেছে স্বামী। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত ফাতেমা আক্তার মুন্নি (১৯), নোয়াখালী পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের মধুসুদনপুর গ্রামের ফরিদ হাজী বাড়ির আহছান উল্যার মেয়ে।

বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় নিহতের মা খায়েরুন নেছা বাদী অভিযুক্ত স্বামীকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এর আগে, বুধবার (৫ মে) গভীর রাতের যে কোন এক সময়ে উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আটক স্বামী মো.জিহাদ (২২), উপজেলার ৫নং ছয়ানী ইউনিয়নের উত্তর নয়নপুর গ্রামের ওদার বাড়ির মো.হারুনের ছেলে।

প্রায় একমাস পর সুখবর পেলেন খালেদা জিয়া

ঘরের ডেকোরেশন দেখানোর কথা বলে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

হেফাজত নেতা জাকারিয়া নোমান ফয়জী ৫ দিনের রিমান্ডে

কুড়িল ফ্লাইওভারে গলায় গামছা পেঁচানো দুবাই প্রবাসীর লাশ

ভুক্তভোগী পরিবার ও মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, গত ৩ মাস ২৭ দিন আগে মুন্নি ও জিহাদ প্রেম করে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিবাহের পর থেকে জিহাদ তাকে একটি ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য শ্বশুরের পরিবারের কাছে দাবি করে। তার স্ত্রীকে শ্বশুর বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। জিহাদের স্ত্রী তার মা-বাবা গরীব বলে তাদের পক্ষে অটোরিকশা কিনে দেওয়া সম্ভব নয় মর্মে স্বামীকে জানাইলে,সে স্ত্রীকে মারধর ও নির্যাতন করে। শ্বশুর-শাশুড়ি একাধিকবার মেয়ের স্বামীর বাড়িতে গেলে মেয়ের
জামাই তাদের কাছেও অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য টাকা দাবি করে। শ্বশুর-শাশুড়ি অটোরিকশা কিনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে সে ফের স্ত্রীর ওপর নির্যাতন করত। বুধবার রাতে জিহাদ তার স্ত্রীকে অটোরিকশা কিনে দেওয়ার জন্য টাকার এনে দেওয়ার কথা বললে এই নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। টাকা এনে দিতে পারবে না বললে গভীর রাতে বসত ঘরের রুমের খাটের ওপর তার স্বামী তাকে গলা টিপে হত্যা করে। নিহতের শাশুড়ি জোসনা বেগম সেহরী খেতে তাকে ডাকতে গেলে খাটের ওপর পুত্রবধূর মরদেহ দেখতে পায় । বৃহস্পতিবার পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করে।

বেগমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকাদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

হেফাজত ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম নেতা ওসমানী গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

হেফাজত ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম নেতা ওসমানী গ্রেপ্তার

হেফাজত নেতা মাওলানা গাজী ইয়াকুব ওসমানী (৪৪) গ্রেপ্তার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৬ মে) সন্ধ্যায় ফেনী সদর থেকে পুলিশের তাকে গ্রেপ্তার করে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন জানান, ওসমানী হেফাজতের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির কেন্দ্রীয় সহকারী প্রচার সম্পাদক ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক।

তিনি আরও জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে প্রযুক্তি ব্যবহার করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের একটি বিশেষ টিম তাকে ফেনী থেকে গ্রেপ্তার করে। তিনি ঘটনার পর থেকে ফেনীতে আত্মগোপনে ছিলেন। 

‘গ্রেপ্তারের পর তাকে জিজ্ঞাসা বাদ করা হচ্ছে। প্রথমিকভাবে তিনি হেফাজতের কর্মসূচিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।’

পাশাপাশি সরকার উৎখাতের পরিকল্পনার করেছিলেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন। তাকে বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হতে পারে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

পরবর্তী খবর

‘শিশুবক্তা’ মাদানী ৪ দিনের রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

‘শিশুবক্তা’ মাদানী ৪ দিনের রিমান্ডে

নাশকতা মামলায় এবার ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানীকে ৪ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) ৭ দিনের রিমান্ড শেষে তাকে আদালতে হাজির করে পুলিশ।

একইসঙ্গে তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা আদালতকে অবহিত করেন পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় মতিঝিল থানায় দায়ের করা নাশকতা মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে রিমান্ডে নিয়েছে ডিবি।

গত ২১ এপ্রিল ডিবি হাতে তদন্তাধীন থাকা সংশ্লিষ্ট মামলায় তার ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান মোহাম্মদ নোমান।

পরবর্তী খবর

হেফাজত নেতা জাকারিয়া নোমান ফয়জী ৫ দিনের রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

হেফাজত নেতা জাকারিয়া নোমান ফয়জী ৫ দিনের রিমান্ডে

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া নোমান ফয়জির ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

হেফাজতের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া ফয়জী গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

হেফাজতের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া ফয়জী গ্রেপ্তার

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা গোয়েন্দা পুলিশ বুধবার বিকেলে কক্সবাজার জেলার চকোরিয়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার নোমান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দেশের বিভিন্ন জায়গার নাশকতার ঘটনার অন্যতম মদদদাতা বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দেশের বিভিন্ন জায়গায় নাশকতার ঘটনার অন্যতম মদদদাতা ছিলেন জাকারিয়া নোমান ফয়জী। ঘটনার পর থেকেই তিনি পলাতক ছিলেন। বুধবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কক্সবাজারের চকোরীয়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লঞ্চ-ট্রেন ও দূরপাল্লার বাস বন্ধ, প্রজ্ঞাপন জারি

খালেদা জিয়ার বিদেশযাত্রা নির্ভর করছে সরকারের ওপর: ফখরুল

সুন্দরবনে ফের আগুন

প্রসঙ্গত, গত ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেদ্র মোদীর সফরকে ঘিরে ঢাকা, চট্টগ্রাম, বি-বাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন তান্ডব চালায় হেফাজতে ইসলামের নেতা কর্মীরা। এ সময় হেফাজতে ইসলামের নেতা কর্মীরা সরকারি স্থাপনা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পুলিশ, আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের ত্রিমুখী সংঘের্ষ ১৭ জন নিহত হন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর