দিনরাত জ্বলছে চিতার আগুন, দিল্লিতে আবারও লকডাউন
দিনরাত জ্বলছে চিতার আগুন, দিল্লিতে আবারও লকডাউন

দিনরাত জ্বলছে চিতার আগুন, দিল্লিতে আবারও লকডাউন

অনলাইন ডেস্ক

ক্রমাগত সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড, অক্সিজেনের অভাব, চিকিৎসাপদ্ধতির ভঙ্গুর দশায় টালমাটাল ভারত। দমবন্ধ পরিস্থিতি ও হাসপাতালের মর্গে জায়গা খালি নেই। এই অবস্থায় ভারতের দিল্লিতে আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হল লকডাউন।

আজ রবিবার (২৫ এপ্রিল) মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এ ঘোষণা দেন।

রাজধানীতে আগামী ৩ মে সোমবার পর্যন্ত বাড়ানো হচ্ছে বলে জানান তিনি।

দিল্লির স্বাস্থ্য দফতর জানায়, করোনার ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ চিন্তায় রেখেছে কেজরিওয়াল সরকারকে। হাসপাতালগুলোর অবস্থা, অক্সিজেন নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তারা। এই অবস্থায় লকডাউন তুলে নিলে সংক্রমণের হার স্বাভাবিকভাবেই আরও বাড়ত।

তেমনটা হলে রাজধানীর স্বাস্থ্যব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়ার আশঙ্কা করেন বিশেষজ্ঞরা।

তাই ঝুঁকি নিতে রাজি না হয়ে পরিস্থিতি মোকাবিলায় লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্তই শ্রেয় বলে মনে করেছেন দিল্লি সরকারের কর্তাব্যক্তিরা।

করোনা পরিস্থিতি হাতের নাগালের বাইরে বেরিয়ে যাওয়ার মুখে দিল্লিতে এক সপ্তাহের লকডাউন জারির ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।


আরও পড়ুনঃ


ভারতের পাশেই থাকবেন ইমরান খান

ইসরায়েলে করোনায় দৈনিক মৃত্যু নেমে এসেছে শূন্যে

বিজ্ঞানীদের সতর্কবার্তার পরও পাত্তা দেয় নি ভারত

মজার ছলে করোনা ছড়িয়ে বেড়ানোর দায়ে একজন গ্রেপ্তার!


তবে দিল্লির হাসপাতালগুলোর হাল তাতে ফেরেনি। রাজধানীজুড়ে অক্সিজেনের আকাল চলছে। নিত্যদিন অক্সিজেনের চাপ কমে গিয়ে করোনা পজিটিভ রোগীদের প্রাণ যাচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবার স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালে ২৫ জন রোগীর মৃত্যুর পেছনে অক্সিজেনের ঘাটতিই প্রধান কারণ বলে অভিযোগ।
উল্লেখ্য, দিল্লিতে গতকাল শনিবার নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ হাজারেরও বেশি মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ৩৫৭ জনের। রাজধানীতে সংক্রমণের হার দাঁড়িয়ে ৩২.২৭ শতাংশে।

news24bd.tv / নকিব