তিনজনকে কোপাল ৭-৮ জনের দুর্বৃত্ত, গেল ১ প্রাণ

অনলাইন ডেস্ক

তিনজনকে কোপাল ৭-৮ জনের দুর্বৃত্ত, গেল ১ প্রাণ

রাজবাড়িতে সুজন নামে এক যুবককে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার ( ২৬ এপ্রিল ) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সুজন গঙ্গাপ্রসাদপুর এলাকায় গিয়াসউদ্দিন তালুকদারের ছেলে।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় আহত হয়েছে রিমন ও একরামুল নামে আরো দুজন। আহতদের মধ্যে থেকে রিমনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।


ভারত থেকে আসার পর পালিয়ে যাওয়া ৭ করোনা রোগী ধরা

এমন নিখাদ, অকৃত্রিম ভালোবাসার কাছে করোনার ভয় তুচ্ছ


প্রত্যক্ষদর্শী একরামুল ইসলাম বলেন, সোমবার ইফতার ও মাগরিবের নামাজ শেষে গঙ্গাপ্রসাদপুর রেল লাইনের উপর বসে ছিলাম আমি, সুজন ও রিমন। এ সময় ৭ থেকে ৮ জনের একদল দুর্বৃত্ত মুখে কাপড় বেঁধে এসে আমাদেরকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় সুজন।

রাজবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, সোমবার সন্ধ্যায় যুবককে কুপিয়ে হত্যা ঘটনায় ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সেই সাথে ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলমান আছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

অস্ত্র ও মাদকসহ পিয়াসার দুই সহযোগী মিশু হাসান ও জিসান গ্রেপ্তার

প্লাবন রহমান

মডেল পিয়াসার অন্যতম সহযোগী মিশু হাসানকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকা থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ মিশু ও তার এক সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব জানায়- রাজধানীর বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় ডিজে পার্টির নামে মাদক বিক্রি ও সরবরাহ করতেন বিতর্কিত মডেল পিয়াসার সহযোগী মিশু হাসান। একইসঙ্গে-পার্টিতে থাকা ব্যক্তিদের কাছ থেকে টাকা-পয়সা হাতিয়ে নিতেনে। সব মিলিয়ে কয়েক বছরে বনে গেছেন কোটি কোটি টাকার মালিক। 

মডেল পিয়াসার অন্যতম সহযোগী ছিলেন মিশু হাসান। যিনি মাদক বিক্রি ও সরবরাহের মূল কারিগর। বিভিন্ন ডিজে পার্টির নামে মাদক বিক্রি করতেন মিশু। পার্টিতে থাকা ব্যাক্তিদের ফাঁদে ফেলে হাতিয়ে নিতেন টাকা-পয়সা। 

মাদকসহ অবৈধভাবে উপার্জিত কোটি কোটি টাকা দিয়ে বিদেশ থেকে দামি গাড়ী আনতেন মিশু। বিকেলে রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকা থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ মিশু হাসান ও তার সহযোগী জিসানকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। পরে বুধবার বিকেলে ‌র‌্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়।

গ্রেফতারকৃত মিশু গাড়ি আমদানির ক্ষেত্রে ট্যাক্স ফাঁকি দিতেন বলে জানানো হয় ব্রিফিং এ। বলেন - জিসান ও মিশুর প্রায় ৫০টির বেশি ক্লায়েন্ট রয়েছে। এছাড়াও দুবাইসহ বিদেশে তাদের ক্লায়েন্ট রয়েছে বলেও জানান র‌্যাবের মিডিয়া উইং এর পরিচালক খন্দকার আল মঈন।

আরও পড়ুন

আর্থিক সংকট মেটাতে বাড়ি ভাড়া দিচ্ছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী

চিত্রনায়িকা পরীমণি আটক হচ্ছেন!

পরীমণির বাসায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলার দাবি, আতঙ্কে নায়িকা


 

গ্রেফতার করার সময় একটি অস্ত্র, ছয় রাউন্ড গুলি, ১৩ হাজার ইয়াবা, একটি দামি গাড়ী, চেকবই এটিএম কার্ড ও ভারতীয় জাল মুদ্রা উদ্ধার করে র‌্যাব। গ্রেফতার হওযা মডেল পিয়াসা ও মৌয়ের সঙ্গে গ্রেফতার জিসান ও মিশুর সখ্য রয়েছে বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

স্বামীর সহায়তায় হাত-মুখ ওড়না দিয়ে বেঁধে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী

স্বামীর সহায়তায় হাত-মুখ ওড়না দিয়ে বেঁধে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

নোয়াখালীর হাতিয়াতে স্বামীর সহায়তায় এক গৃহবধূকে (২৫) গণধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

তারা হলো, নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের জেলে কলোনীর আক্তার (২৭) একই ইউনিয়নের বান্দাখালী গ্রামের হক সাব (৩৪), মদিনা গ্রামের সোহেল প্রকাশ রোহিঙ্গা সোহেল (৩০), জেলে কলোনীর ছেলে রাশেদ মাঝি (৪২)।

বুধবার (৪ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টায় এসব তথ্য নিশ্চিত করেন হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় নির্যাতিতা গৃহবধূ নারীও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে আটক আসামিদের গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়ন থেকে তাদের আটক করে নিঝুমদ্বীপ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।

মামলা ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, নির্যাতিতা গৃহবধূ চট্টগ্রামের একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরীতে কাজ করে। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ১৬ মাস বয়সী শিশু কন্যাসহ তার স্বামী সোহেল ওরফে রোহিঙ্গা সোহেলের এর কাছে যাওয়ার জন্য তিনি হাতিয়ার নিঝুমদ্বীপ ঘাটে পৌঁছান। সেখানে তার স্বামী সোহেলসহ সঙ্গীয় ৭ জন এবং অজ্ঞাত ৩ জন ভিকটিমের হাত ও মুখ ওড়না দিয়ে বেঁধে নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বান্দাখালী গ্রামের মোক্তারিয়া ঘাট থেকে ৫ কিলোমিটার পূর্ব দিকে নদীর পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে তার স্বামী আসামি সোহেলের সহায়তায় অন্যরা ভিকটিমকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

আরও পড়ুন:

যতক্ষণ না পুলিশ আসবে, মিডিয়া আসবে লাইভ চলবে: পরীমনি

আবারও মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

একসঙ্গে দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম

দরজা খুলল পরীমনি

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: ইমাম আটক

অনলাইন ডেস্ক

শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: ইমাম আটক

বাগেরহাটের চিতলমারীতে সাত বছরের ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক ও ইমাম আমিনুল ইসলামকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত আমিনুল ইসলাম চিতলমারী চিংগড়ী হাফিজিয়া মাদরাসার শিক্ষক ও চিংগডী জামে মসজিদের ইমাম।

চিংগুরি জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলী জানান, প্রতিদিন সকালে ইমাম আমিনুল মসজিদ এলাকার আশেপাশের শিক্ষার্থীদের আরবী শিক্ষা দিতেন। গত রবিবার সকালে সুযোগ পেয়ে এলাকার জনৈক ব্যক্তির সাত বছরের শিশুকে তার ঘরে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা করেন। শিশুটি ঘটনাটি বাড়ি এসে তার মাকে খুলে। বিষয়টি জানাজানি হলে আজ বুধবার এলাকাবাসী ওই ইমাম ও মাদরাসা শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ করে।

আরও পড়ুন

জামিনে থাকা আসামিকে খুন!

প্রসূতিদের টিকা নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন তথ্য

আর্থিক সংকট মেটাতে বাড়ি ভাড়া দিচ্ছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী

পরীমণির বাসায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলার দাবি, আতঙ্কে নায়িকা

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

ওবায়দুল কাদেরের দুই ভাগিনাকে ফেসবুক লাইভে এসে হত্যার হুমকি

নোয়াখালী প্রতিনিধি

ওবায়দুল কাদেরের দুই ভাগিনাকে ফেসবুক লাইভে এসে হত্যার হুমকি

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগিনা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু ও স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদ সদস্য ও জনতা ব্যাংকের কর্মকর্তা ফখরুল ইসলাম রাহাতকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন রাসেল নামে মির্জা কাদেরের এক সমর্থক।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহীদ উল্যাহ রাসেল ওরফে কেচ্ছা রাসেল তার ফেসবুক লাইভে এসে এ হত্যার হুমকি দেয়।

রাসেল ওরফে কেচ্ছা রাসেল বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার অনুসারী ক্যাডারদের মধ্যে অন্যতম। চলতি বছরের মে মাসে বসুরহাট পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের করালিয়াতে অস্ত্র হাতে প্রতিপক্ষকে ধাওয়া ও গুলি করছেন এমন একটি ভিডিওচিত্র ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে ২০-২২টি মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে।

নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ৪৮ মিনিট ৩০ সেকেন্ডের লাইভ ভিডিওটি প্রচার করেন শহীদ উল্যাহ রাসেল ওরফে কেচ্ছা রাসেল। লাইভে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে কেচ্ছা রাসেল বলেন, আমি বলতে চাই মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা আমেরিকায়। তিনি কোনো কিছুর সঙ্গে জড়িত নয়। মেয়রের কর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে পৌরসভাতে অবস্থান করছেন। আজকে যারা আবার ঘোলাটে পরিস্থিতি তৈরি করতেছে, এটার খেসারত কত ভয়ানক হবে সেটা কল্পনাও করতে পারবে না।

কোম্পানীগঞ্জ আওয়ামী লীগের মুখপাত্র মঞ্জুকে লক্ষ্য করে শহীদ উল্যাহ রাসেল বলেন- তুই পরিস্থিতি তৈরি কর, তোকে যেকোনো মুহূর্তে বাসা থেকে ধরে নিয়ে আসব, ওপেন ডিক্লেয়ার দিলাম। তুই এর জন্য প্রস্তুত থাক। কয়টারে গুলি করবি, তোর কাছে কত অস্ত্র আছে দেখা যাবে। বাংলার মানুষ দেখতে চায় তুই কত মানুষ হত্যা করতে পারস। ছাত্রলীগ নেতা রাহীম, শাকিল ও যুবলীগ নেতা রাজীবকে আজরাইল মাফ করলেও আমরা মাফ করব না।

এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র ও সেতুমন্ত্রীর ভাগনে মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু বলেন, বসুরহাট পৌরসভার একটি কক্ষ থেকে লাইভে এসে অস্ত্রধারী কেচ্ছা রাসেল বিশ্রী ভাষায় আমাকে ও আমার খালাতো ভাই রাহাতকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। বিষয়টি সেতুমন্ত্রীসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এ অস্ত্রধারীর ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ ও হত্যার হুমকির ঘটনায় তাকে দ্রুত আইনের আওতায় নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন:


পরিমনির সরাসরি লাইভ দেখুন

চিত্রনায়িকা পরীমণি আটক হচ্ছেন!

পরীমণির বাসায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলার দাবি, আতঙ্কে নায়িকা

পরীমণির বাসায় র‍্যাবের অভিযান, লাইভ শেষ


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

ভাসানচরের ১৪ রোহিঙ্গা কোম্পানীগঞ্জে আটক

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী

ভাসানচরের ১৪ রোহিঙ্গা কোম্পানীগঞ্জে আটক

নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচর থেকে পালিয়ে আসা ১৪ রোহিঙ্গাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

বুধবার (৪ আগস্ট) বিকেল ৫টার দিকে কোম্পানীগঞ্জে উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয় থেকে তাদেরকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

এর আগে, একই দিন দুপুর ১২টার দিকে কোম্পানীগঞ্জের চরএলাহী ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের বামনী নদীর শাখার পাড় থেকে স্থানীয় এলাকাবাসী তাদের আটক করে।

আটক রোহিঙ্গা হলো- ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হারজিনা (২৪) মো.রফিক (২৯) সাবিকুন নাহার (৩৭) জান্নাত উল্যাহ (২) মো.রশিদ (১৭) খায়রুল আমিন (২৪) জাহেদা বেগম (২২) সাইদুল আমিন (৩০) সামছুন নাহার (১) নুর আলম (২০) জাহিদ হোসেন (১৮) রেয়াজুল ইসলাম (২৯) সাইদুর আলম (১৪) নুর ইসলাম (৬০)।

চর এলাহী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক জানান, দালাল চক্রের মাধ্যমে পুরুষ-নারী ও শিশু সহ ১৪জন রোহিঙ্গা নাগরিক গত তিন দিন আগে ভাসানচর থেকে চট্রগ্রাম যাওয়ার উদ্দেশ্যে পালিয়ে আসে। পরে দালাল চক্র তিন দিন তাদেরকে বিভিন্ন স্থানে ঘুরিয়ে মাছ ধরার বড় নৌকায় করে চর এলাহী ইউনিয়ন এলাকার বামনী নদীর শাখাতে ছেড়ে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। রোহিঙ্গাদের বামনী নদীর কুলে দেখতে পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী তাদেরকে আটক করে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নিয়ে আসে। ইউনিয়ন পরিষদ হতে বিকেল ৫টার দিকে তাদেরকে পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়। পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যান।

আটক রোহিঙ্গারা জানান, দালাল ও নৌকার মাঝিরা ৬০ হাজার টাকা চুক্তিতে ভাসানচর থেকে চট্রগ্রামে দিয়ে আসার চুক্তি করে। কিন্তু বুধবার দুপুরে এখানে নামিয়ে দিয়ে চলে যান তারা।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.সাইফুদ্দিন আনোয়ার জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। আটক রোহিঙ্গাদের ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হবে।

আরও পড়ুন:

যতক্ষণ না পুলিশ আসবে, মিডিয়া আসবে লাইভ চলবে: পরীমনি

আবারও মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

একসঙ্গে দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম

দরজা খুলল পরীমনি

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর