নারায়ণগঞ্জে বিস্ফোরণে দগ্ধ স্ত্রীর পর মারা গেলেন স্বামীও
নারায়ণগঞ্জে বিস্ফোরণে দগ্ধ স্ত্রীর পর মারা গেলেন স্বামীও

নারায়ণগঞ্জে বিস্ফোরণে দগ্ধ স্ত্রীর পর মারা গেলেন স্বামীও

অনলাইন ডেস্ক

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিম তল্লায় একটি ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণে দগ্ধ ১১ জনের মধ্যে স্ত্রী আলেয়া বেগমের (৪২) মৃত্যুর এক‌ দিন পর স্বামী হাবিবুর রহমানও (৫৬) চ‌লে গে‌লেন না ফেরার দে‌শে।

মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডা. পার্থ শংকর পাল মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এসময় তিনি তিনি বলেন, মৃত হাবিবুর রহমানের শরীরের ২২ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

এর আগে গত রোববার রাত ২টার দিকে মারা যান হাবিবুরের স্ত্রী আলেয়া বেগম (৩৮)। তার শরীরের ৯৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

বর্তমানে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঁচ শতাংশ দগ্ধ নিয়ে মেয়ে সাবিহা তাবাসসুম মিম (১৭), ১২ শতাংশ দগ্ধ হয়ে মিমের ৪৫ দিনের সন্তান মাহির ও ১৩ শতাংশ দগ্ধ হয়ে মিমের নানী সামন্ত বেগম (৬৫) ভর্তি আছেন। এছাড়া ওই ঘটনায় দগ্ধ লিমন (১৭) ও সাথী আক্তারকে (১৯) প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

আরও পড়ুন


পিএসএলে সুযোগ পেলেন ৩ টাইগার ক্রিকেটার

রমজানে দোয়া কবুল হওয়ার উপায়

রমজান ও রোজা সম্পর্কে বিশ্ব নবীর ঐতিহাসিক নসিহত

প্যারিস জলবায়ু চুক্তি বাস্তবায়নই একমাত্র সমাধান


এর আগে গত শুক্রবার ভোর পৌনে ৬টার দিকে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে একই পরিবারের সাতজন দগ্ধ হন।

ঘটনার দিন দগ্ধ সাথী আক্তার জানান, তিন তলা ভবনের তৃতীয় তলার বাম পাশের ফ্ল্যাটে থাকতেন তারা। রাতে সেহরি খেয়ে সবাই ঘুমিয়ে পড়েন। এ সময় তিনি বাথরুমে যান। তার মাও তখন ঘুম থেকে ওঠেন। বাথরুম থেকে বের হতেই হঠাৎ বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে এবং পুরা ফ্ল্যাটে আগুন লেগে যায়।

news24bd.tv আহমেদ