জয়ে এগিয়ে মুম্বাই পরাজয়ে রাজস্থান

অনলাইন ডেস্ক

জয়ে এগিয়ে মুম্বাই পরাজয়ে রাজস্থান

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ২৪তম ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। দিল্লীতে এই ম্যাচ জিতে নিজেদের চতুর্থ জয় তুলে নিল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে ষষ্ঠ ম্যাচে এটি রাজস্থানের চতুর্থ পরাজয়।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা রাজস্থানকে ভালো সূচনা এনে দেন জস বাটলার ও জয়সওয়াল। ওপেনিংয়ে তারা যোগ করেন ৬৬ রান। ১০ ওভারের মধ্যে দুই ওপেনার বিদায় নিলেও, ওভারপ্রতি ৯-এর বেশি রান তুলতে থাকে রাজস্থান। অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন ২৭ বলে ৪২ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন।

শিভাম দুবে ৩১ বলে করেন ৩৫ রান। ৪ উইকেটে ১৭১ রানের স্কোর পায় রাজস্থান। দুর্দান্ত বোলিং করা জাসপ্রিত বুমরাহ ৪ ওভারে ১৫ রান দিয়ে নেন এক উইকেট। 

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতে একটু দেখেশুনে খেলছিল মুম্বাই। যদিও চতুর্থ ওভারে বল হাতে নিয়ে প্রথম দুই বলেই চার ও ছক্কা হজম করেন মুস্তাফিজ। এরপর অবশ্য দারুণ প্রত্যাবর্তন করেছেন। যদিও দল জিততে পারেনি।

কুইন্টন ডি ককের ৫০ বলে অপরাজিত ৭০ রানের ইনিংসে ভর করে মুম্বাই জয় পায় ৯ বল হাতে রেখেই। দলের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৯ রান আসে ক্রুনাল পান্ডিয়ার ব্যাট থেকে। ২৬ বলের মোকাবেলায় ৩৯ রান করে মুস্তাফিজের বলে বোল্ড হন তিনি। স্লগ ওভারে দলের হাল ধরা মুস্তাফিজ ৩.৩ ওভার বল করে খরচ করেন ৩৭ রান। ক্রিস মরিস ৩৩ রানের খরচায় নেন দুটি উইকেট।

৩ ওভার ৩ বলে ৩৭ রান দেন মোস্তাফিজুর রহমান, নিয়েছেন ক্রুনাল পান্ডিয়ার উইকেট।  ৬ ম্যাচ খেলে মাত্র ২টিতে জয় নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৭ম স্থানে আছে ফিজের রাজস্থান।


সংক্ষিপ্ত স্কোর 

টস : মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স

রাজস্থান রয়্যালস : ১৭১/৪ (২০ ওভার)
সাঞ্জু ৪২, বাটলার ৪১
রাহুল ৩৩/২, বুমরাহ ১৫/১

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স : ১৭২/৩ (১৮.৩ ওভার)
ডি কক ৭০*, ক্রুনাল ৩৯
মরিস ৩৩/২, মুস্তাফিজ ৩৭/১

ফল : মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ৭ উইকেটে জয়ী।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

‘টেস্টের বিশ্বকাপ’ ফাইনালের দল ঘোষণা ভারতের

অনলাইন ডেস্ক

‘টেস্টের বিশ্বকাপ’ ফাইনালের দল ঘোষণা ভারতের

আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য স্কোয়াড ঘোষণা করেছে ভারত। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের মাটিতে ‘টেস্টের বিশ্বকাপ’ খ্যাত এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে মাঠে নামবেন বিরাট কোহলিরা। 

আগামী ১৮ থেকে ২২ জুন ইংল্যান্ডের সাউদাম্পটনে হবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। যেখানে লড়বে ভারত ও নিউজিল্যান্ড। এরপর আগস্টের ৪ থেকে সেপ্টেম্বরের ১৪ তারিখ পর্যন্ত রয়েছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

এ লম্বা সফরের জন্যই ২০ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বিসিসিআই। পাশাপাশি স্ট্যান্ডবাই হিসেবে আরও ৪ খেলোয়াড়কে নিয়ে ইংল্যান্ড যাবে ভারতীয় বহর। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের জন্য আগামী ২ জুন ভারত ছাড়বেন কোহলিরা।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের জন্য ভারতীয় দল :
রোহিত শর্মা, শুভমন গিল, মায়াঙ্ক আগারওয়াল, চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), আজিঙ্কা রাহানে (সহ অধিনায়ক), হনুমা বিহারি, ঋষভ পান্ত (উইকেট রক্ষক), রবীচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা, অক্ষর প্যাটেল, ওয়াশিংটন সুন্দর, জাসপ্রিত বুমরাহ, ইশান্ত শর্মা, মোহাম্মদ শামি, মোহাম্মদ সিরাজ, শার্দুল ঠাকুর, উমেশ যাদব, লোকেশ রাহুল (ফিটনেস ছাড়পত্র সাপেক্ষে), ঋদ্ধিমন সাহা (উইকেট-কিপার; ফিটনেস ছাড়পত্র সাপেক্ষে)

স্ট্যান্ডবাই: অভিমান্যু ঈশ্বর, প্রাসিদ কৃষ্ণা, আভেশ খান এবং আরজান নাগাশ্বলা।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

যে কারণে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা নেবেন কোহলিরা

অনলাইন ডেস্ক

যে কারণে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা নেবেন কোহলিরা

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ‘সুনামি’তে ভারতের চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রায় ভেঙে পড়তে বসেছে। দেশটিতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘সার্স-কভ-২’ ভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যু। প্রতিদিনই ভাঙছে মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড। এমন অবস্থায় বন্ধ করে দেয়া হয়  ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এর ১৪তম আসর। আইপিএল স্থগিত হওয়ায় অনাকাঙ্ক্ষিত ছুটি পেয়ে গেছেন বিরাট কোহলিরা। সামনে রয়েছে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। এরপর আবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই টেস্ট সিরিজ। তাতে প্রায় চার মাসের লম্বা সফর কোহলি-রোহিতদের সামনে।

এমন অবস্থায় বিরাট কোহলিরা নিতে যাচ্ছেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় উদ্ভাবিত যুক্তরাজ্যের প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকার ‘কোভিশিল্ড’ নামের টিকা। 

 কিন্তু ভারতে আছে বিশ্বের বৃহত্তম টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউট। তারা অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা উৎপাদন করছে। তাছাড়া ভারতের প্রতিষ্ঠান বায়োটেক উদ্ভাবন করেছে কো-ভ্যাকসিন।  তবে ভারতীয় ক্রিকেটাররা কোভ্যাক্সিন না দিয়ে নেবেন কোভিশিল্ড টিকা। এর একটা কারণও আছে।

বোর্ডের একটি সূত্র ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, কোভিশিল্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা। এটি ইংল্যান্ডের কোম্পানির। যেহেতু দলকে সেখানে চার মাসের মতো থাকতে হবে তাই ইংল্যান্ডে গিয়ে দ্বিতীয় ডোজ নিতে পারবে। কেন না, অন্য কোনও টিকা নিলে সেটা কাজে লাগবে না।

আইপিএল চলার সময়ই ক্রিকেটারদের টিকা দিতে চেয়েছিল বিসিসিআই। কিন্তু হুট করেই স্থগিতের ঘোষণা আসায় সেটি সম্ভব হয়নি। আর যখন টিকা দেয়া হবে এরপর আর সময় হবে না দেশে দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেয়ার।

করোনার টিকা দুই ডোজ নেওয়ার নিয়ম। প্রথম ডোজ নিয়েই কোহলিরা ইংল্যান্ড সফরে যাবেন। এরপর ৮ থেকে ১২ সপ্তাহের মধ্যে আবার দ্বিতীয় ডোজ নিতে হবে। অথচ সেই সময়ে কোহলিরা থাকবেন ইংল্যান্ডে। তাই ইংল্যান্ডে থেকেই কোহলিরা যাতে সহজে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিতে পারেন সেজন্য যুক্তরাজ্যের টিকাই দেওয়া হবে কোহলিদের।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

আইপিএল ইংল্যান্ডে!

অনলাইন ডেস্ক

আইপিএল ইংল্যান্ডে!

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ‘সুনামি’তে ভারতের চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রায় ভেঙে পড়তে বসেছে। দেশটিতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘সার্স-কভ-২’ ভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যু। প্রতিদিনই ভাঙছে মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড। এমন অবস্থায় বন্ধ করে দেয়া হয়  ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এর ১৪তম আসর। শেষ না হওয়া আইপিএলের বাকি অংশ হতে পারে যুক্তরাজ্যে। ইংল্যান্ডের চার কাউন্টি দল নিজেদের মাঠে ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর আয়োজনের প্রস্তাব ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে জানিয়েছে।

২৯টি ম্যাচ খেলা হয়েছে এবারের আইপিএলে। প্লে-অফসহ বাকি আরও ৩১ ম্যাচ। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যত দ্রুত সম্ভব তারা বাকি অংশটা আয়োজন করতে চায়। 

এমতাবস্থায় দারুণ এক প্রস্তাব এল ইংল্যান্ড থেকে। সে দেশের একাধিক কাউন্টি ক্লাব তাদের ভেন্যুতে আইপিএলের ম্যাচ আয়োজন করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সেটা তারা চায় চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে করতে। 

এমসিসি, সারে, ওয়ারউইকশায়ার এবং ল্যাঙ্কাশায়ার- এই চার কাউন্টি দল নিজেদের মাঠে আইপিএল আয়োজন করতে ইচ্ছুক। প্রতিটি কাউন্টির পক্ষ থেকেই ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডকে চিঠি পাঠিয়ে অনুরোধ করা হয়েছে। বিষয়টি চূড়ান্ত হলে ইংল্যান্ডের মাঠে দর্শকের সামনে অনুষ্ঠিত হতে পারে আইপিএল।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

এবার রশিদ খানের কণ্ঠে হিন্দি গান ভাইরাল (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

এবার রশিদ খানের কণ্ঠে হিন্দি গান ভাইরাল (ভিডিও)

আফগানিস্তান লেগস্পিনার তারকা রশিদ খান। তার স্পিন জাঁদুতে বোকা বনে যান বিশ্বের বড় বড় ব্যাটসম্যানরা। আইপিএলের ইতিহাসের সবচেয়ে মিতব্যয়ী এই বোলারের খেলার অনেক ভিডিওই ভাইরাল হয়েছে। গুনগুন করে তার গাওয়া একটি গানের ভিডিও এবার ভাইরাল হয়ে গেছে।

ডিভিওটি আইপিএলের অনুশীলনকালে ধারণকরা। ভিডিওতে দেখা যায়, অনুশীলনে ব্যস্ত সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ক্রিকেটাররা। সে সময় ভারতীয় পেসার সন্দ্বীপ শর্মার দিকে গান গাইতে গাইতে এগিয়ে আসছেন রশিদ খান। সঞ্জয় দত্ত, সালমান খান ও মাধুরী দীক্ষিত অভিনীত ‘সাজন’ সিনেমার ‘মেরা দিল ভি কিতনা পাগাল হ্যায়...’ গানটি গাচ্ছিলেন। পরে তার সঙ্গে সুর মেলান সন্দ্বীপও।

 এই মুহূর্তের ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের অফিশিয়াল ইনস্টাগ্রাম পেজে। সেই ভিডিওটি আজ আবারও আপলোড করেছে ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইন ইএসপিএন ক্রিকইনফো।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

করোনায় প্রাণ গেলে স্পিনারের

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় প্রাণ গেলে স্পিনারের

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ‘সুনামি’তে ভারতের চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রায় ভেঙে পড়তে বসেছে। দেশটিতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘সার্স-কভ-২’ ভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যু। প্রতিদিনই ভাঙছে মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড। এমন অবস্থায় বন্ধ করে দেওয়া হয়  ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এর ১৪তম আসর। এমন সময় খবর এলো দেশটির এক পেশাদার ক্রিকেটারের মৃত্যুর।

মরণব্যধী করোনা কেড়ে নিলো বিবেক জাদবের প্রাণ। ২০১০-১১ সালে রাজস্থানের রঞ্জি জয়ী দলের সদস্য ছিলেন এই স্পিনার। ২০১২ সালে যোগ দিয়েছিলেন তৎকালীন আইপিএল দল দিল্লি ডেয়ার ডেভিলসে। যদিও একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি তার।

বিবেকের মৃত্যুর বিষয়টি ভারত জাতীয় দলের সাবেক ওপেনার আকাশ চোপর নিশ্চিত করেছেন।

২০০৮ সালে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক হয় বিবেকের। ১৮টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ‘এ’ দলের হয়ে ৮টি ম্যাচ খেলেছেন। কিন্ত মারণ ভাইরাস কেড়ে নিল তার প্রাণ।

বছর দুই এক আগে লিভার ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন ৩৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের। কেমোথেরাপিও চলছিল তার। সম্প্রতি সুস্থও হয়ে উঠছিলেন বিবেক। সম্প্রতি কেমোর জন্য রাজস্থানের জয়পুরের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, তখনই কোভিড আক্রান্ত হন। তার পর থেকেই শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি হতে থাকে। শেষ পর্যন্ত মারা গেলেন তিনি।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলছে ভারতে। শেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৪ লাখ ১২ হাজারের বেশি মানুষ। মারা গেছে আরও ৩ হাজার ৯৮০ জন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর