ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতী হতে পারে এন্টিবায়টিকের অকার্যকারিতা

ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতী হতে পারে এন্টিবায়টিকের অকার্যকারিতা

Other

এন্টিবায়টিকের অকার্যকারিতা ভয়ঙ্কররূপে প্রাণঘাতী হয়ে উঠতে পারে। আর কোভিড পরবর্তী সময়ে স্বাস্থ্য খাতে তা হবে অশনি সংকেত। এমন আশঙ্কার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এ সংকট কাটাতে প্রয়োজন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে প্রযুক্তি ও জ্ঞানের পারস্পরিক বিনিময়।   

অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স বিষয়ে আন্তর্জাতিক আলোচনায় এসব কথা বলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণা বলছে, বাংলাদেশে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্র থেকে মারা যাওয়া রোগীর ৭০-৮০ শতাংশের মধ্যে সুপারবাগ ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে পাওয়া যায়। এবং ২৫ শতাংশ ব্যাকটেরিয়াই বাজারে পাওয়া সব ধরনের অ্যান্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে রেজিস্ট্যান্স বা প্রতিরোধী।  

এছাড়া ৬০ শতাংশ টাইফয়েড জ্বরে সিপ্রোফ্লক্সাসিন অকার্যকর হয়ে গেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মানব দেহে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়াই এর মূল কারণ।  

আর এমনটি ঘটে থাকে মাত্রাতিরিক্ত এন্টিবায়টিক গ্রহণের কারণে। এমন বাস্তবতায় বার্বাডোজের আয়োজনে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হলো অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল প্রতিরোধ বিষয়ে এই বৈশ্বিক সম্মেলন।  

বিশ্ব নেতাদের এই প্লাটফর্মে কো চেয়াম্যানের ভূমিকা পালন করছেন বাংলাদেশর প্রধানমন্ত্রী। কার্যকর এন্টিবায়টিকের সংখ্যা কমে যাওয়াকে তিনি তুলনা করেন এক অশনি সংকেতের সঙ্গে।


চট্টগ্রামে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

ইসরায়েলে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পদদলিত হয়ে নিহত ৩৮

কে এই মুফতি হারুন ইজহার?

ঐতিহাসিক বদর দিবস আজ


শেখ হাসিনা বলেন, এমন দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে ২০১৫ সালে জাতিসংঘ ঘোষিত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের বিকল্প নেই।  

জাতিসংঘ ঘোষিত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নে ৫ দফা প্রস্তাবনাও এসময় তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

news24bd.tv নাজিম