প্রসঙ্গ মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা ও খারাপ আইন
প্রসঙ্গ মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা ও খারাপ আইন

প্রসঙ্গ মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা ও খারাপ আইন

Other

'বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ'- এই ধারার মামলায় আমার বরাবর আপত্তি আছে। এটি মামুনুল হকের বিরুদ্ধে হয়েছে বলে আনন্দে বগল বাজাব না, একই পরিমান আপত্তি বজায় রাখব।

প্রাপ্ত বয়স্ক দুইজন পরষ্পরের সম্মতিতে দিনের পর দিন সবকিছু করার পরে তারপর বনিবনা না হলেই এরকম ধর্ষণ মামলার ধারা ব্যবহার করাটা নিন্দনীয় বিষয়। এক শ্রেনীর বাটপার এই ধারার অপপ্রয়োগ করে অনেক মানুষকে হয়রানি করে এবং টাকাপয়সা আদায় করে।

এই ধারাটা যাদেরকে বলপ্রয়োগে ধর্ষণ করা হয়, তাদের বেদনা ও কষ্টকে অপমান করা হয়।

আরও পড়ুন:


স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালুর দাবিতে বিক্ষোভের ডাক

রওশন এরশাদ হাসপাতালে ভর্তি

মামুনুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা, কথিত দ্বিতীয় স্ত্রীর মেডিকেল টেস্ট

মামুনুলের বিরুদ্ধে ‘কথিত’ স্ত্রী ঝর্ণার ধর্ষণ মামলা


আমি যৌক্তিক ভাবতাম, জান্নাত যদি এখানে চুক্তিভঙ্গের মামলা করতেন। উনি প্রফেশনাল সার্ভিস দিয়েছেন কিন্তু তার বিনিময়ে মামুনুল হক টাকা পয়সা দেন নি-এরকম হলে প্রতারনা ও চুক্তিভঙ্গের মামলা করা যায়।  

আর ধর্ষণ মামলা করার অধিকার ছোটবেলা বলাৎকারের শিকার মাদ্রাসা ছাত্রদের আছে। হ্যাঁ, আইন অনুসারে জান্নাতও এই মামলা করতেই পারেন, এবং আমার ধারণা ঐ চিনি জান্নাত আপাকেও  এই মামলা করতে সাহস দেয়া হবে, কিন্তু আদতে আইনের এই ধারাটাই থাকাটা হাস্যকর।

এই লেখার মূল বক্তব্য হলো, 'যে আইন খারাপ, সেটি শত্রু-মিত্র যার উপরেই প্রয়োগ হোক, সেটা খারাপ আইনই থাকে।

news24bd.tv / কামরুল