১ মে, ইতিহাসের এই দিনে

অনলাইন ডেস্ক

১ মে, ইতিহাসের এই দিনে

আজ ১ মে, গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ১২১তম (অধিবর্ষে ১২২তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ২৪৪ দিন বাকি রয়েছে। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যু দিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

পয়লা মে মানে মে দিবস'; আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস। পয়লা মে মানে ১৮৮৬, ধর্মঘটে হামলা। ১১ জোড়া মৃত চোখ। ক্যালেন্ডারের কোনো কোনো তারিখকে ইতিহাসের কোনো কোনো ঘটনা এমন করেই পুরোটা নিয়ে নেয়। সেই তারিখটির পরিচয় ও অস্তিত্বই তখন হয়ে যায় সেই ঘটনা। পয়লা মের ক্ষেত্রেও এমনটিই ঘটেছে। অথচ সত্য তো এই যে, ১৮৮৬ সালের আগেও মে মাসের ১ তারিখ ছিল, তারপরও হয়েছে।

বেশি দূর নয় ১৮৮৬ সাল থেকে মাত্র দু বছর আগে গেলেই পাওয়া যাবে হে মার্কেটের ঘটনার সূত্রটিকে। ১৮৮৪ সালের ১ মে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমিকেরা দিনের কর্মঘণ্টা আট ঘণ্টা করার দাবি প্রথমবারের মতো ঘোষণা আকারে জানান। আরও আগে যদি যাওয়া যায় তবে আরও অনেক চমকপ্রদ ঘটনার দেখা পাওয়া যাবে। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাবে ১ মের সঙ্গে জড়িয়ে আছে মানবমুক্তি ও অধিকার সম্পর্কিত নানা ঘটনা।

স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা:

১৩২৮ সালের ১ মে স্কটিশ স্বাধীনতা সংগ্রাম সমাপ্ত হয়। এ যুদ্ধের পরই ইংল্যান্ড স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতার স্বীকৃতি দেয়, স্বাক্ষরিত হয় শান্তির সনদ। অবশ্য ১৩৩২ সাল থেকেই দ্বিতীয় পর্যায়ের যুদ্ধ শুরু হয়েছিল, যা চলেছিল ১৩৫৭ সাল পর্যন্ত।

সংবাদপত্রের বিজ্ঞাপন:

আজকের দুনিয়ায় বিজ্ঞাপন ছাড়া সংবাদপত্র কল্পনাই করা যায় না। শুধু সংবাদপত্র কেন টিভি চ্যানেল থেকে শুরু করে মিডিয়া মাত্রই বিজ্ঞাপন। অবশ্য ছোট পরিসরে কোনো আন্দোলন বা গোষ্ঠীর প্রচারপত্র হিসেবে প্রকাশিত পত্রিকার কথা আলাদা। সে যাই হোক, এই বিজ্ঞাপনের প্রথম প্রকাশও কিন্তু হয়েছিল ১ মে। ১৭০৪ সালে বোস্টন নিউজলেটারে প্রথমবারের মতো কোনো বিজ্ঞাপন ছাপা হয়। এটি ছিল নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডের ওয়েস্টার বের একটি এস্টেটের ক্রেতার খোঁজে দেওয়া ঘোষণা।


নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ শিকারে নেমেছেন জেলেরা

আফগানিস্তানে বোমা হামলায় নিহত ৩০

খুলনায় সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত

মহানবী যে সাতটি কাজ ছেড়ে দিতে আদেশ দিয়েছেন


উদ্ভিদের শ্রেণিবিন্যাসবিদ্যার স্বীকৃতি:

১৭৫৩ সালের পয়লা মে-তেই কিন্তু উদ্ভিদের শ্রেণিবিন্যাসবিদ্যাকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেওয়া হয়। উদ্ভিদের নামকরণে বিজ্ঞানী ক্যারোলাস লিনিয়াসের পন্থাকে এ দিনেই স্বীকৃতি দিয়েছিল ইন্টারন্যাশনাল কোড অব বোটানিক্যাল নোমেনক্লেচার (আইসিবিএন)। আর হ্যাঁ, এই দিনেই কিন্তু প্রকাশিত হয়েছিল ক্যারোলাস লিনিয়াসের বিখ্যাত বই স্পেসিস প্লান্টেরাম।

ভিয়েনার মঞ্চ মাতালেন মোৎজার্ট:

১৭৮৬ সালের ১ মে-তেই ভিয়েনার বার্গথিয়েটারে মঞ্চস্থ হয়েছিল উলফগ্যাং আমাদিউস মোৎজার্টের বিখ্যাত অপেরা 'দ্য ম্যারিজ অব ফিগারো'। তখনকার স্প্যানিশ সাহিত্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠা সাধারণ গল্প নিয়েই ছিল অপেরাটি। এক ধনীর দুলালির সঙ্গে গরিবের ছেলের প্রণয় ও পরিণয়ই ছিল এর উপজীব্য।

শতবর্ষী প্রকল্পের যাত্রবিন্দু:

গ্রিম ভাইদের মনে আছে? সেই যে জ্যাকব ও উইলহেম গ্রিম? জার্মান এই দুই ভাই অভিধান রচনার যে কষ্টকর কাজটি শুরু করেছিলেন, তার প্রাথমিক সাফল্যও কিন্তু এসেছিল ১ মে। ১৮৫২ সালের এই দিনে তাঁদের রচিত জার্মান অভিধানের প্রথম খণ্ডটি প্রকাশিত হয়। এই অভিধান রচনার কাজটি সমাপ্ত হয়েছিল ১৯৬১ সালে।

এমন বহু ঘটনার সাক্ষী পয়লা মে। কিন্তু ১৮৮৬ সালের ১ মে বাকি সব ঘটনাকেই ঢেকে দিল। সেদিনের পর থেকে বাকি সব ঘটনাই যেন ওই এক দিনের বিশালত্বের কাছে চাপা পড়ে গেল। এটি হয়েছে শ্রমজীবী মানুষের পক্ষে ও বিপক্ষে থাকা উভয় অংশের কারণেই। শ্রমজীবীদের পক্ষের মানুষেরা শ্রমিক অধিকার রক্ষার সেই আন্দোলনের স্মরণে প্রতি বছর মিছিল, সভা সমাবেশ করেন। আর বিরুদ্ধ গোষ্ঠী বরাবরই এগুলো পণ্ড করবার চেষ্টা করে। যেমনটা করেছিলেন ১৯২৩ সালে অ্যাডলফ হিটলার। মে দিবসের জমায়েতে তিনি তাঁর লোকেদের দিয়ে হামলা করান। আবার ১৯১৯ সালে গেলে আমরা পাব আন্তোনিও গ্রামসিকে, যিনি তাঁর বিখ্যাত সমাজতান্ত্রিক সাপ্তাহিক পত্রিকা নববিন্যাস বা 'দ্য নিউ অর্ডার' প্রথম প্রকাশ করেন এই দিনেই।

তাকানো যেতে পারে ১৯৬১ সালের দিকে, যখন কিউবার নেতা ফিদেল কাস্ত্রো শ্রমিক দিবসের সমাবেশ থেকে কিউবাকে সমাজতান্ত্রিক দেশ হিসেবে ঘোষণা দেন এবং সব ধরনের নির্বাচনকে নিষিদ্ধ করেন। তাকানো যাক ১৯৭৩ সালের দিকে, যখন নিয়মিত মজুরি ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ঠেকানোর দাবিতে এই মে দিবসেই ধর্মঘটে ও মিছিলে নেমেছিলেন ইংল্যান্ডের ১৫ লাখের বেশি শ্রমিক।

১৮৮৬ সালের আগের পয়লা মে ও পরের পয়লা মে-এর মধ্যে একটা উল্লেখযোগ্য ব্যবধান গড়ে দিয়েছে শ্রমিকদের অধিকার আদায়ের চেতনা। ১৮৮৬ সালের পরের মে-দিবসগুলো আবর্তিত হয়েছে এই অধিকার চেতনাকে ঘিরেই। হ্যাঁ, ১৯৩১ সালের এই দিনেই উদ্বোধন হয়েছে এম্পায়ার স্টেট ভবন, ১৯৪১ সালের এই দিনেই প্রথমবারের মতো প্রদর্শিত হয়েছিল বিখ্যাত চলচ্চিত্র 'সিটিজেন কেইন'; কিন্তু এসব ঘটনাকে তখন দেখা হয়েছে মে-দিবসের প্রেক্ষাপটেই। সামনের মে-দিবসগুলোকেও এভাবেই দেখা হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ত্রিপুরায় বৃষ্টি আনতে ব্যাঙের বিয়ে!

অনলাইন ডেস্ক

ত্রিপুরায় বৃষ্টি আনতে ব্যাঙের বিয়ে!

লৌকিকতা এবং বিশ্বাস অনেক সময় কোন যুক্তি মানে না। অনেক সময় সময়ের আবর্তনে তা হয়ে ওঠে প্রথা। ঠিক এমনই একটি প্রথা হল ব্যাঙের বিয়ে। বিশ্বাস করা হয়ে থাকে, ব্যাঙের ডাকের সাথে বৃষ্টির সংযোগ রয়েছে। তাই অনেক জায়গাতেই খরার সময় প্রথা অনুযায়ী বৃষ্টির জন্য ব্যাঙের বিয়ে দেয়ার প্রচলন রয়েছে।

সম্প্রতি ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে এমন একটি ঘটনা ঘটে। বৃষ্টির জন্য চা বাগানের কর্মীরা দুটি ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করে।

স্থানীয় লোকদের বিশ্বাস দুটি ব্যাঙের বিয়ে দেয়া হলে বৃষ্টির দেবতা ইন্দ্র খুশি হবেন এবং বৃষ্টি নামবেন।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

মিষ্টি বিতরণে পুলিশের বাঁধা, ২০ কেজি রসগোল্লা জব্দ

ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করা মুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় দায়িত্ব: হুথি নেতা

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক


ওই বিয়ের ছোট একটি ভিডিও ক্লিপ টুইটারে শেয়ার করেছে বার্তা সংস্থা এএনআই। সেখানে দুটি ব্যাঙকে পুকুরে গোসল করিয়ে, মালা বদল ও সিঁদুর পরিয়ে বিয়ে দিতে দেখা যায়। এমনকি এসময় তাদের রঙ বেরঙের পোশাকও পরানো হয়।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক

অনলাইন ডেস্ক

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক

শত শত বছরের যে ভারতীয় বিবাহের রীতি রয়েছে তা পিতৃতান্ত্রিক। রীতি মেনে স্ত্রীর গলায় মঙ্গলসুত্র পরিয়ে দেন স্বামী। কিন্তু, শুধু নারীকেই কেন মঙ্গলসূত্র পরতে হবে?

তাই ভিন্ন এক বিয়ের পরিকল্পনা করেন তনুজা পাটিল এবং শার্দুল কদম। যে বিয়েতে তারা দুজনেই একে অপরের গলায় পরিয়ে দেবেন মঙ্গলসূত্র।

শার্দুলই প্রথম অভিনব এই প্রস্তাব দেন। এই প্রস্তাবে শার্দুলের পরিবারও অবাক হয়ে যায়।

কিন্তু নাছোড়াবান্দা শার্দুল ঠিকই মঙ্গলসূত্র পরে বিয়ে করেন। আর বিয়ের পরও সেই মঙ্গলসূত্র গলায় ঝুলিয়ে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন!

শার্দুল নিজেকে ‘হার্ডকোর ফেমেনিস্ট’ বলে দাবি করেন। তার ভাষায়, একপাক্ষিক এই রীতির ‘কোনও অর্থ নেই’। চার বছর প্রেম করার পর ২০২০ সালের ডিসেম্বরে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন মুম্বাইয়ের এই জুটি।

তিনি বলেন, সাতপাক হওয়ার পর তনুজা এবং আমি একে অপরের গলায় মঙ্গলসূত্র বাঁধি। তখন আমার খুব আনন্দ হচ্ছিল।

কিন্তু শার্দুলের এমন কাজের কারণে অনেকের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক বকাঝকা এবং ট্রোলের শিকার হতে হয়েছে।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

রোজার সৌন্দর্যে ​মুগ্ধ হয়ে ভারতীয় তরুণীর ইসলাম গ্রহণ

আইপিএল নেই, বাড়ি ফিরে যা করতে চান কোহলি

এক সপ্তাহে বিশ্বে করোনা আক্রান্তের অর্ধেকই ভারতে, মৃত্যু এক-চতুর্থাংশ


শুধু তাই নয়, প্রথা ভাঙায় উদারপন্থী হিসেবে পরিচিতরাও তাদেরকে কথা শোনাতে ছাড়েন নি। তাদের ভাষায়, লিঙ্গ সমতাকে সমর্থন করার পথ নয় এটা।

কিন্তু আত্মীয়স্বজন এবং সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের ট্রোলের পরও নিজের সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছেন শার্দুল।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

৭ মে, ইতিহাসে আজকের এইদিনে

অনলাইন ডেস্ক

৭ মে, ইতিহাসে আজকের এইদিনে

আজ ৭ মে, গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ১২৭তম (অধিবর্ষে ১২৮তম) দিন। বছর শেষ হতে আরো ২৩৮ দিন বাকি রয়েছে। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি:
১৮০৮ - স্পেনের জনগণ নেপোলিয়ন বোনাপার্টের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে সংগ্রাম শুরু করে।
১৮৩২ - গ্রিসকে স্বাধীন রাজ্য ঘোষণা করা হয়।
১৯১৫ - প্রথম বিশ্বযুদ্ধে জার্মানরা আমেরিকায় ‘লুসিতানিয়া’ জাহাজ ডুবিয়ে দেয়।
১৯২৩ - অমৃতরে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা শুরু।
১৯২৯ - লাহোরে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় বহু হতাহত হয়।
১৯৪১ - মিত্রশক্তির কাছে জার্মানি নিঃশর্ত আত্মসমর্পণ করে।
১৯৪৮ - জাতিসংঘের বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিষ্ঠা।
১৯৫৪ - দিয়েন বিয়েন ফু-র পতনের ফলে ভিয়েতনাম ফরাসি শাসন থেকে মুক্ত হয়।

জন্ম:
১৭৭০ - উইলিয়াম ওয়ার্ডসওয়ার্থ, ইংরেজ কবি।
১৮১২ - রবার্ট ব্রাউনিং, ইংরেজ কবি।
১৮৪০ - পিওৎর চাইকোভস্কি, রুশ সঙ্গীতজ্ঞ।
১৮৬১ - মতিলাল নেহরু, আইনজীবী ও জাতীয়তাবাদী নেতা।
১৮৬৭ - ভাদিস্লাভ স্ট্যানিশস্লাভ রেইমন্ট, পোলিশ কথাসাহিত্যিক।
১৮৮১ - উইলিয়ামস পিয়ারসন, রবীন্দ্র সাহিত্যের অনুবাদক।
১৮৮৯ - গ্যাব্রিলা মিস্ত্রাল, লেখক।
১৮৯২ - মার্শাল জোসিপ ব্রজ টিটো, যুগোশ্লাভিয়ার প্রতিষ্ঠাতা ও রাষ্ট্রপ্রধান।
১৮৯৩ - ফিরোজ খান নুন, পাকিস্তানি রাজনীতিবিদ, পাকিস্তানের ৭ম প্রধানমন্ত্রী।
১৯৩১ - সিদ্দিকা কবীর, বাংলাদেশী পুষ্টিবিশেষজ্ঞ ও শিক্ষাবিদ।
১৯৪৩ - পিটার কেরি - অস্ট্রেলীয় ঔপন্যাসিক ও ছোটগল্পকার।


জুমাতুল বিদাকে ‘আল-কুদস দিবস’ বলা হয় কেন?

মধ্যরাতে হেফাজতের নেতা শাহীনুর পাশা গ্রেপ্তার

পবিত্র জুমাতুল বিদা আজ

কোভিড সার্টিফিকেট জাল, ধ্যাত তাও কি হয় নাকি!


মৃত্যু:

১৯০৯ - হের্মান অস্ট্‌হফ, জার্মান ভাষাবিজ্ঞানী।
১৯৪১ - স্যার জেমস ফ্রেজার, স্কটিশ নৃতাত্ত্বিক ও শিক্ষাবিদ (জ. ১৮৫৪)।
১৯৭১ - রণদাপ্রসাদ সাহা, বাংলাদেশের বিখ্যাত সমাজসেবক এবং দানবীর ছিলেন।
১৯৯৩ - অজিতকৃষ্ণ বসু, সঙ্গীতজ্ঞ ও ব্যঙ্গ সাহিত্যস্রষ্টা।
 
দিবস:
বিশ্ব হাঁপানি দিবস
ইঞ্জিনিয়ার্স ডে

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ইউটিউব চ্যানেল খুললেন কেইট-উইলিয়াম

অনলাইন ডেস্ক

ইউটিউব চ্যানেল খুললেন কেইট-উইলিয়াম

ইউটিউব চ্যানেল খুললেন ব্রিটিশ রাজপুত্র প্রিন্স উইলিয়াম এবং তার স্ত্রী ডাচেস কেইট উইলিয়াম।

The Duke and Duchess of Cambridge নামের ওই চ্যানেলে একটি ভিডিও আপলোড করা হয়েছে। ভিডিওটি ২৫ সেকেন্ডের। বিভিন্ন রাজকীয় অনুষ্ঠানে উইলিয়াম ও কেটের স্মরণীয় মুহূর্তগুলোর হাইলাইটস উঠে এসেছে ভিডিওতে।

ভিডিওটির শুরুতে এই দম্পতি পরস্পরের সঙ্গে হাসি-ঠাট্টা করতে দেখা যায়। উইলিয়াম হাসতে হাসতে কেটকে বলছেন, চিন্তাভাবনা করে কথা বলো, এরা সব ভিডিও করছে। কেটও হাসিমুখে উত্তর দেন, আমি জানি।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

রোজার সৌন্দর্যে ​মুগ্ধ হয়ে ভারতীয় তরুণীর ইসলাম গ্রহণ

আইপিএল নেই, বাড়ি ফিরে যা করতে চান কোহলি

এক সপ্তাহে বিশ্বে করোনা আক্রান্তের অর্ধেকই ভারতে, মৃত্যু এক-চতুর্থাংশ


এরই মধ্যে ভিডিওটি ১০ লাখেরও বেশিবার দেখা হয়েছে। সাবস্ক্রাইব করেছেন ২ লাখেরও বেশি মানুষ।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

৫ মে, ইতিহাসের এই দিনে

নিজস্ব প্রতিবেদক

৫ মে, ইতিহাসের এই দিনে

শাপলা চত্বরে তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলাম-ফাইল ছবি

আজ ৫ মে, গ্রেগরিয়ান বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ১২৫ তম (অধিবর্ষে ১২৬ তম) দিন। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি:

১৫৭০ - ডেনিশদের বিরুদ্ধে তুরস্কের যুদ্ধ ঘোষণা।

১৭৮৯ - ফরাসী বিপ্লব শুরু হয়।

১৭৯৯ - বীর সেনানী টিপু সুলতানকে সমাহিত করা হয়।

১৯৩০ - ভারত শাসনকারী বৃটিশ সরকার মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধীকে বিনা বিচারে বন্দি করে।

১৯৩৬ - ইতালীয় বাহিনী আদ্দিস আবাবা দখল করে।

১৯৪২ - ব্রিটিশ বাহিনী মাদগাস্কার অধিকার করে।

১৯৪৫ - চেকোশ্লোভাকিয়ার কমিউনিস্ট পার্টি আত্মগোপন অবস্থা থেকে বের হয়ে দেশব্যাপী গণঅভ্যুত্থানে যোগ দেয়।

১৯৫৫ - জার্মানি সার্বভৌম রাষ্ট্রে পরিণত।

১৯৬১ - প্রথম মার্কিন নভোচারি এলান শেপহার্ড জুনিয়রের মহাকাশ যাত্রা।

১৯৮১ - দক্ষিণ বেলফাস্টের কুখ্যাত মেজ কারাগারে আটক আইরিশ-ক্যাথলিক নেতা ববি স্যান্ডস ৬৬ দিন টানা অনশনের পর পরলোকগমন করেন।

২০০০ - ইউশিরো মোরি জাপানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত।

২০১৩ - ঢাকায় মতিঝিলের শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামের একটি গণসমাবেশ এবং আন্দোলন সংঘটিত হয় এবং সরকার কর্তৃক পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবির সমন্বিত বাহিনী দ্বারা অপারেশন সিকিউর শাপলা অভিজান চালিয়ে তাদেরকে বিতাড়িত করা হয়।

জন্ম:

১৮১৩ - সারেন কিয়েরকেগর ডেনীয় দার্শনিক এবং তাত্ত্বিক।

১৮১৮ - কার্ল মার্কস, প্রভাবশালী জার্মান সমাজ বিজ্ঞানী ও মার্ক্‌সবাদের প্রবক্তা।

১৮৪৬ - নোবেলজয়ী (১৯০৫) পোলিশ কথাশিল্পী হেনরিক সিয়েনকিয়েভিচ।

১৮৫০ - বিশ্ববিখ্যাত ফরাসি ছোটগল্পকার গি. দ্য. মোপাসাঁ।

১৮৮৮ - বিপ্লবী ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তী।

১৮৯৬ - ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামী ভি কে কৃষ্ণমেনন।

১৯১১ - প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার, ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের আত্নহুতি দানকারী বাঙালি নারী।

মৃত্যু:

১৮২১ - নেপোলিয়ন বোনাপার্ট ফরাসী শাসক

১৯৮৬ - এভারেস্ট জয়ী তেনজিং নোরগ।


শিলাবৃষ্টিসহ ঝড়ের পূর্বাভাস

ইতিকাফের ফজিলত

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে চাকরির সুযোগ


দিবস:

নেদারল্যান্ড: মুক্তি দিবস (দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নাৎসিদের হাত থেকে মুক্ত হওয়ার স্মরণে)

ডেনমার্ক: মুক্তি দিবস।

পালাউ: সিনিয়র সিটিজেন দিবস

শিশুদিবস (জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া)

ইউরোপ দিবস (কাউন্সিল অফ ইউরোপ)

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর