ইরানের তেল খাতের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে নীতিগত সমঝোতা

অনলাইন ডেস্ক

ইরানের তেল খাতের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে নীতিগত সমঝোতা

ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস আরাকচি জানিয়েছেন, ইরানের তেল রপ্তানি ও ব্যাংকিং খাতের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ব্যাপারে নীতিগত সমঝোতা হয়েছে। ভিয়েনায় পরমাণু সমঝোতা বিষয়ক আলোচনায় ইরানি প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি।

শনিবার বিকেলে ভিয়েনায় এসব কথা বলেন তিনি। আরাকচি আরও বলেন, ইরানের বেশিরভাগ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নাম নিষেধাজ্ঞার তালিকা থেকে বাদ দেয়ার বিষয়ে নীতিগত ঐক্যমত্য হয়েছে। তিনি বলেন, ভিয়েনা বৈঠকে এখন পর্যন্ত যেসব নীতিগত সমঝোতা হয়েছে তার ফলে ইরানের জ্বালানী খাত অর্থাৎ তেল ও গ্যাস, গাড়ি নির্মাণ শিল্প ও ব্যাংকিং খাতের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে।

আরাকচি জানান, পরমাণু কর্মসূচির ক্ষেত্রে কিছু খুঁটিনাটি বিষয়ে এখনো মতপার্থক্য রয়ে গেছে যা নিয়ে আরো আলোচনার প্রয়োজন।

ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ইরানের সঙ্গে পাশ্চাত্য অভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করছে এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে এখনো মতপার্থক্য রয়ে গেছে। তিনি বলেন, কোনো কোনো ক্ষেত্রে ঐক্যমত্যের বিষয়গুলো লেখার কাজও শুরু হয়েছে তবে তা ধীরগতিতে চলছে কারণ, প্রতিটি শব্দ ও বাক্য অনেক চিন্তাভাবনা করে লেখা হচ্ছে।

২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতাকে আবার আগের অবস্থায় সক্রিয় করার জন্য অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় বর্তমানে ইউরোপীয় দেশগুলোর সঙ্গে ইরানের সংলাপ চলছে। সংলাপে আমেরিকা ছাড়া এ সমঝোতায় স্বাক্ষরকারী বাকি পাঁচ দেশ অংশগ্রহণ করছে।

আরও পড়ুন


আবারও ক্ষমতার পথে মমতা!

চীনের পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমান জে-২০, যা মার্কিনীদের ভয়ের কারণ

আজ থেকে ৩৫ লাখ পরিবার পাবে প্রধানমন্ত্রীর সহায়

সিলেটে ট্রাকের ধাক্কায় একই পরিবারের ৫ জন নিহত


‘সর্বোচ্চ চাপ’ প্রয়োগের নীতি অনুসরণ করে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮ সালের মে মাসে পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বের করে নেন। এরপর এক বছর পর্যন্ত ইরান এই সমঝোতা বাস্তবায়নে সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিল কিন্তু অন্য পক্ষগুলো সমঝোতা বাস্তবায়ন না করায় ৩৬ অনুচ্ছেদ অনুসারে ইরান সমঝোতার বেশকিছু ধারা বাস্তবায়ন স্থগিত করে দেয়।

বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার দেশকে এই সমঝোতায় ফিরিয়ে আনার আগ্রহ প্রকাশ করলেও তিনি ইরানকে আগে তার প্রতিশ্রুতিতে পুরোপুরি ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছেন। কিন্তু ইরান বলেছে, আমেরিকা আগে এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে বলে তাকে আগে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে এতে ফিরে আসতে হবে।ইরান ও আমেরিকার মধ্যকার মতপার্থক্যের এই জায়গাটি নিয়ে মূলত ভিয়েনায় ধারাবাহিক সংলাপ চলছে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

টিকা বিক্রি করে ফাইজারের মুনাফা ৪৯০ কোটি ডলার

অনলাইন ডেস্ক

টিকা বিক্রি করে ফাইজারের মুনাফা ৪৯০ কোটি ডলার

মহামারি করোনাভাইরাসের টিকা বিক্রি করেই মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট ফাইজার চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) তিন মাসেই ৪৯০ কোটি ডলার মুনাফার কথা জানিয়েছে। টিকার দৃঢ় চাহিদার জন্য নাটকীয়ভাবে সংস্থাটি ২০২১ সালের মুনাফার পূর্বাভাস বাড়িয়েছে।

জার্মান অংশীদার বায়োএনটেকের সঙ্গে মিলে ফাইজার কোভিড-১৯ টিকা উৎপাদন করছে। এ টিকা ও আগামী তিন বছরে বার্ষিক বুস্টার ডোজ থেকে সংস্থাটি শক্তিশালী আয়ের প্রত্যাশা করছে।

মঙ্গলবার ফাইজার চলতি বছর কোভিড-১৯ টিকা বিক্রির পূর্বাভাসকে প্রায় দ্বিগুণ করেছে। এ সময়ে সংস্থাটি টিকা বিক্রি থেকে আয়ের পূর্বাভাস ১ হাজার ৫০০ কোটি থেকে ২ হাজার ৬০০ কোটি ডলারে উন্নীত করেছে।

অংশীদাররা আশা করছেন, এ বছর সংস্থাটি ২৫০ কোটি ডোজ টিকা সরবরাহ করতে সক্ষম হবে। এর মধ্যে ৩০ কোটি ডোজই যুক্তরাষ্ট্রের জন্য। এরই মধ্যে সংস্থাটি বার্ষিক বুস্টার ডোজ তৈরির জন্যও প্রস্তুতি নিচ্ছে। 

জানুয়ারি থেকে মার্চ সময়কালে সংস্থাটির নিট আয় হয়েছে ৪৮৮ কোটি ডলার। শেয়ারপ্রতি এ আয় ৮৬ সেন্ট। যেখানে গত বছরের একই সময়ে সংস্থাটির নিট আয় ছিল ৩৩৬ কোটি ডলার কিংবা শেয়ারপ্রতি ৬০ সেন্ট।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ফ্রান্সে বাংলাদেশিদের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক

অনলাইন ডেস্ক

ফ্রান্সে বাংলাদেশিদের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক

বাংলাদেশ, তুরস্ক, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, নেপাল, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও কাতার থেকে আগত যাত্রীদের ফ্রান্সে পৌঁছে বাধ্যতামূলক ১০ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

যদিও সংক্রমণ ব্যাপক বৃদ্ধি পাওয়ায় গত মাসে ভারত এই তালিকায় যুক্ত হয়। এর আগে ব্রাজিলের পি১ ভ্যারিয়েন্টটি রুখতেই দেশটির সঙ্গে সব ফ্লাইট নিষিদ্ধ করে ফ্রান্স। এছাড়া কোয়ারেন্টাইন তালিকায় ইতোমধ্যেই রয়েছে আর্জেন্টিনা, চিলি ও দক্ষিণ আফ্রিকা।

এসব দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ফ্রান্সে প্রবেশের আগে ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে করোনার পিসিআর পরীক্ষা করাতে হবে। তবে সূত্র জানায়, তালিকায় নতুন যুক্ত হওয়া দেশগুলোর জন্য এই নিয়ম এ সপ্তাহের শেষ নাগাদ তুলে দেয়া হবে। ফ্রান্সে পৌঁছে এসব যাত্রীদের দেখাতে হবে যে তাদের কোয়ারেন্টাইনের জন্য থাকার জায়গা রয়েছে। প্রতিদিন দুই ঘণ্টার জন্য কোয়ারেন্টাইনের জায়গা থেকে তারা বের হতে পারবেন।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসা রকেট কোথায় পড়বে বলা যাচ্ছে না

অনলাইন ডেস্ক

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসা রকেট কোথায় পড়বে বলা যাচ্ছে না

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসা চীনা রকেটের ধ্বংসাবশেষ আগামী শনি বা রোববার পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়বে। এমন তথ্য দিয়েছেন মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের সদর দপ্ত পেন্টাগন।

তবে ঠিক কোন সময়ে ও কোথায় এটি পড়বে তা জানা এখনও সম্ভব হয়নি।

এএফপিতে প্রকাশিত ওই খবরে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন জানিয়েছেন, চীনা রকেটটি গোলা ছুড়ে নামানোর পরিকল্পনা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগের নেই।

বৃহস্পতিবার লয়েড সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের অনেক কিছু করার সক্ষমতা রয়েছে, কিন্তু এটিকে গোলা ছুড়ে নামানোর পরিকল্পনা আমাদের নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রত্যাশা এটি এমন কোনো জায়গায় পড়বে যেখানে কারোর ক্ষতি হবে না। আশা করা যায় সাগর অথবা এমন কোনো জায়গায়।’

লং মার্চ ৫বি নামের রকেটটি বেইজিংয়ের মহাকাশ স্টেশন থেকে আলাদা হয়ে যাওয়ার পর এটি কক্ষপথ থেকে বিচ্যুত হয়ে যায়।

লয়েডের ধারণা, কক্ষপথচ্যুত হয়ে যাওয়ার বিষয়টি চীনারা অবহেলা করেছিল।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, আমরা যারা মহাকাশে কার্যক্রম পরিচালনা করি তাদের একটি শর্ত থাকা উচিত, অথবা নিরাপদ ও বিবেচনার সঙ্গে কার্যক্রম চালাতে শর্ত থাকা উচিত।’

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, মহাকাশে ‘কার্যক্রম চালানোর পরিকল্পনা করার সময় আমরা এই ধরনের জিনিসগুলো বিবেচনায় নেব’ তা নিশ্চিত করার প্রয়োজন রয়েছে।

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গত কয়েকদিন ধরে আশঙ্কা প্রকাশ করে আসছে, এই রকেটের ধ্বংসাবশেষ জনবহুল অঞ্চলে বিধ্বস্ত হতে পারে আবার আন্তর্জাতিক জলসীমাতেও পড়তে পারে।

মহাকাশ বিশেষজ্ঞ সং ঝংপিংয়ের বরাত দিয়ে গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, চীনের স্পেস মনিটরিং নেটওয়ার্ক এ বিষয়ে নিবিড়ভাবে নজর রাখবে এবং কোথাও কোনো ক্ষতি হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

মহাকাশে এই রকেটের ধবংসাবশেষ এখন পৃথিবী প্রদক্ষিণ করছে এবং এটি বায়ুমণ্ডলের নিম্ন স্তরে ঢুকছে। এর মানে হলো, এটি পৃথিবীর চারিদিকে বৃত্তাকারে ঘুরতে ঘুরতে নীচের দিকে নেমে আসছে।

পরবর্তী খবর

হঠাৎ সৌদি সফরে ইমরান খান

অনলাইন ডেস্ক

হঠাৎ সৌদি সফরে ইমরান খান

হঠাৎ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন। সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের আমন্ত্রণে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন।

জানা গেছে, ইমরানের সফরে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে আলোচনার পাশাপাশি উভয় দেশের আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বৈঠক করবেন সৌদি যুবরাজ।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি পাকিস্তান ও সৌদি আরবের মধ্যে সম্পর্ক মোটেই ভালো যাচ্ছে না। কিছু দিন আগেই পাওনা টাকা দ্রুত সময়ের মধ্যে পরিশোধ করতে ইসলামাবাদকে চাপ দিয়েছে রিয়াদ। এর মধ্যে সৌদি সফরে গেলেন ইমরান খান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দ্বীপ নিয়ে যুক্তরাজ্য-ফ্রান্স বিরোধ, যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন

অনলাইন ডেস্ক

দ্বীপ নিয়ে যুক্তরাজ্য-ফ্রান্স বিরোধ, যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন

ব্রিটেনের জার্সি দ্বীপ নিয়ে যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের মধ্যে শুরু হওয়া বিতর্ক থেকে  যুদ্ধজাহাজ মোতায়েনের ঘটনা ঘটেছ।

সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স এমন খবর দিয়েছে।

ফ্রান্সের উত্তরপশ্চিম উপকূলের ১৪ মাইল দূরে জার্সি দ্বীপটির অবস্থান। যুক্তরাজ্যের অধীনে স্বায়ত্তশাসিত এই অঞ্চলের রয়েছে নিজস্ব আইনসভা ও বিচার বিভাগ। তবে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে যুক্তরাজ্য।

সম্প্রতি ওই এলাকায় সেনা নৌ বাহিনীর জাহাজ পাঠায় যুক্তরাজ্য; এরপরই সেখানে নৌ বাহিনীর যান পাঠায় ফ্রান্স। দুই দেশের মধ্যে সৃষ্টি হওয়া এই উত্তেজনা ব্রেক্সিট-পরবর্তী বিশ্বে চলমান জটিলতার একটি ইঙ্গিত বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

অভিনন্দনের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গাছ উপড়ে পড়ল ঘরের ওপর, গেল স্বামী-স্ত্রীর প্রাণ

ঢাবি শিক্ষক-কর্মচারীদের ঈদ কর্মস্থলেই

এরা মানুষ না, অমানুষ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সিএনবিসি জানায়, কয়েক দশক ধরে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তির অধীনে ফরাসি জেলেরা জার্সির জলসীমায় মাছ ধরে আসছে। তবে বেক্সিটের পর সম্প্রতি সেখানে মাছ ধরার পরিমাণ বেঁধে দিয়ে তার জলসীমায় ফ্রান্সের জেলেদের মাছ ধরার নতুন শর্ত কার্যকর করে।

এ নিয়ে দ্বন্দ্ব চরমে পৌঁছায়। ফ্রান্সের পক্ষ থেকে জার্সি দ্বীপের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে হুমকি দেওয়া হয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে দুটি ব্রিটিশ নৌবাহিনীর জাহাজ মোতায়েন করা হয়। পরে পদক্ষেপ গ্রহণ করে ফ্রান্সও।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর