শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দিতে প্রণোদনা ঋণ চান গার্মেন্টস ব্যবসায়ীরা

নয়ন বড়ুয়া জয়, চট্টগ্রাম

শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দিতে প্রণোদনা ঋণ চান গার্মেন্টস ব্যবসায়ীরা

করোনার ভয়াবহতার মধ্যে চলমান লকডাউনেও দেশের পোশাক শিল্প কারখানা চালু। তবুও গার্মেন্টস ব্যবসায়ীরা ঈদের আগে শ্রমিকদের বেতন বোনাস দিতে সরকারের কাছে চাচ্ছেন প্রণোদনা ঋণ।

৭ মে’র মধ্যে টাকা না পেলে ঈদের আগে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দিতে পারবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ। আর অর্থনীতিবিদরা বলছেন, ঈদের আগে শ্রমিকদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে নিজেদের স্বার্থ আদায় করে নেয়ার চেষ্টা করছেন গার্মেন্টস মালিকরা। 

বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ রোধে চলছে লকডাউন। অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে খোলা রাখা হয়েছে দেশের সব গার্মেন্টস কারখানা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বায়ারদের আনাগোনা যেখানে বেড়েছে ঠিক এই সময়ে ঈদকে সামনে রেখে গত বছরের প্রণোদনার ঋণের টাকা শোধ না করেই ফের নামমাত্র সুদে প্রনোদনা ঋণের আবদার করছেন গার্মেন্টস মালিকরা।

ঈদ বোনাস বাবদ একশো কোটি টাকার বাড়তি চাহিদ আছে। সরকারের সহায়তা ছাড়া এটি যোগানো অসম্ভব বলছেন এই খাতের উদ্যোক্তারা।

সরকারের উদারতাকে দুর্বলতা ভেবে এটিকে অনৈতিক সুবিধা আদাযের চেষ্টা বলছেন অর্থনিতীবিদরা।


বড় ব্যবধানে হার বাংলাদেশের

বাংলাবাজার ঘাটে স্পিডবোট ডুবির ঘটনায় ৬ সদস্যের তদন্ত কমিটি

মুখ্যমন্ত্রী হতে যেসব নিয়মের মধ্য দিয়ে যেতে হবে মমতাকে

মুক্ত গণমাধ্যম দিবস আজ


ঈদের আগে বেতন বোনাস নিয়ে শ্রমিক অসন্তোষ ঠেকাতে এখন থেকেই সবপক্ষের সঙ্গে সমন্বয় করে পরিকল্পিত উদ্যোগ নেয়ার দাবি সংশ্লিষ্টদের।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

দেশে প্রতিবছরই গমের চাহিদা বাড়লেও সে অনুযায়ী বাড়ছে না উৎপাদন

কাজী শাহেদ, রাজশাহী:

দেশে প্রতিবছরই গমের চাহিদা বাড়ছে। চাহিদা বাড়লেও সে অনুযায়ী বাড়ছে না উৎপাদন। কৃষিবিদরা বলছেন, চরাঞ্চলগুলোকে চাষের আওতায় নিয়ে আসা গেলে আমদানি নির্ভরতা কমানো সম্ভব। 

গমের আমদানি নির্ভরতা কমাতে উন্নতজাত উদ্ভাবনের পাশাপাশি রাজশাহী অঞ্চলের বরেন্দ্র এলাকা, দক্ষিণাঞ্চলের সামুদ্রিক এলাকা এবং সিলেটের এক ফসলী জমি গম চাষের আওতায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট।

২০১৫ সালে দেশে বছরে গমের চাহিদা ছিল ৪০ থেকে ৪৫ লাখ মেট্রিক টন। ৬ বছরের ব্যবধানে এখন সেই চাহিদা এসে ঠেকেছে ৭০ থেকে ৭১ লাখ টনে। ফলে গম আমদানি করতে প্রতি বছর ব্যয় করতে হচ্ছে কয়েক হাজার কোটি টাকা। (গ্রাফিক্স অন)

গমের এই আমদানি নির্ভরতা কমাতে উন্নতজাত উদ্ভাবনের পাশাপাশি রাজশাহী অঞ্চলের বরেন্দ্র এলাকা, দক্ষিণাঞ্চলের সামুদ্রিক এলাকা এবং সিলেটের এক ফসলী জমি গম চাষের আওতায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট।

বরেন্দ্র অঞ্চলের পানির উপর চাপ কমাতে কৃষকদের গম চাষে উদ্ভুব্ধ করা হচ্ছে। রাজশাহীর পদ্মা নদীর বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলে পানির স্বল্পতা থাকায় গম চাষে কৃষকের আগ্রহ বাড়ছে।

দেশের বিভিন্ন এলাকার চরাঞ্চলকে গম চাষের আওতায় নিয়ে আসা গেলে আমদানি নির্ভরতা কমানো যাবে বলে মনে করেন কৃষিবিদরা। সরকার বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের এই কর্মকর্তা।

নদী এলাকার চরাঞ্চলগুলোকে গম চাষের আওতায় আনা গেলে, ধানের মতো গমেও বাংলাদেশ স্বয়ং সম্পূর্ণ হবে-এমন প্রত্যাশা কৃষির সঙ্গে জড়িতদের।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

চলমান লকডাউনে

ভয়াবহ কন্টেইনার জটের আশঙ্কা করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক

লকডাউনে পণ্য খালাস কমে যাওয়ায় চট্টগ্রাম বন্দরে এখন থেকে কন্টেইনার জট। ঈদের টানা ছুটি আর চলমান লকডাউনে ভয়াবহ কন্টেইনার জটের আশঙ্কা করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। তাই ব্যবসায়ী সংগঠন, অফডক, এমনকি বড় বড় আমদানীকারকদের দ্রুত পণ্য খালাস করতে চিঠিও দিয়েছে তারা।

বিকডার সভাপতি নুরুল কাইয়ুম খান বলছেন,অফডকে জায়গা খালি। আর আমদানি কারকরা বলছেন কাস্টমসের নানান জটিলতা দ্রুত পণ্য খালাসে বড় বাধা। এদিকে কাস্টমস কমিশনার বলছেন, অন্যায় আবদার দেখিয়ে দ্রুত পণ্য খালাস করতে গেলে কোন ছাড় নেই আমদানি কারকদের। 

চট্টগ্রাম বন্দরে প্রতিদিন সাড়ে তিন হাজার থেকে চার হাজার পণ্যবাহী কন্টেইনার ডেলিভারি হলেও করোনার চলমান লকডাউনে নেমে এসেছে ২ থেকে আড়াই হাজারে।পণ্য ডেলিভারি কমে যাওয়ায় দিন দিন বাড়ছে কন্টেইনার জট।

পণ্য খালাসে সবার সহযোগিতা চেয়ে আমদানিকারক ও অফডকসহ সংশ্লিষ্টদের চিঠি দিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

অফডক কর্তৃপক্ষ বলছেন, খালি জায়গা থাকলেও নানান জটিলতার কারণেই আমদানিকারকরা ব্যবহার করছেনা। আর আমদানিকারকরা বলছেন কাস্টমসের গাফিলতি কিংবা সক্ষমতার অভাবেই ঝুলে যায় পুরো প্রক্রিয়া।

এদিকে কাস্টমস কমিশনার বলছেন, আইন এবং বিধির বাইরে পণ্য খালাস করতে আসলে ছাড় দেয়া হবেনা আমদানি কারকদের।

৪৯ হাজার টিউস কন্টেইনার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন চট্টগ্রাম বন্দর টার্মিনালে এখন কন্টেইনার আছে ৩৮ হাজারের কাছাকাছি। এরপরও জেটি ও বহি: নোঙ্গোর মিলিয়ে পণ্য খালাসের অপেক্ষায় আছে অন্তত ৪০ টি জাহাজ।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

ঈদ উপলক্ষে ১৪ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট ছাড়ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক

আসন্ন ঈদ উপলক্ষে ১৪ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট বাজারে ছাড়ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর মধ্যে ৪ হাজার কোটি টাকার নোট এরই মধ্যে ব্যাংকগুলোতে বিতরণ হয়ে গেছে।

আরো ১০ হাজার কোটি টাকার নোট কেন্দ্রীয় ব্যাংকে রয়েছে। ব্যাংকগুলো তাদের চাহিদা অনুযায়ী কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছ থেকে নতুন নোট সংগ্রহ করতে পারবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র। 


রায়হান হত্যা: এসআই আকবরসহ ৬ জনের নামে চার্জশিট

ভারতে আজ ১০ হাজার রেমডেসিভির পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ

আগামী মাসে পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাতের আগ্রহ প্রকাশ করলেন বাইডেন

বাবা-মা-বোনের পর এবার কোভিড পজিটিভ দীপিকা পাড়ুকোন


এবছর করোনার বিধি-নিষেধের কারণে আগের মতো জনসাধারণের কাছে নতুন নোট বিতরণ করবে না কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে গ্রাহকরা লেনদেনের সময়ে নতুন নোট নিতে পারবেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

যশোরে উন্নত জাতের ক্যাপসিকামের চারা উৎপাদন

যশোর প্রতিনিধি:

যশোরে বায়োটেকনলজি ল্যাবরেটরিতে উদ্ভাবিত টিস্যু কালচারের মাধ্যমে উন্নত ক্যাপসিকামের চারা উৎপাদনের জন্য গবেষণা চলছে। সংশ্লিষ্টদের দাবি, এই চারা ভাইরাস ও অন্য রোগজীবাণু মুক্ত হয়। ফলনও হবে কয়েক গুণ বেশি। এই চারা কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারলে স্বল্প খরচে ক্যাপসিকাম চাষ করে লাভবান হতে পারবে তারা। 

ক্যাপসিকাম বা মিষ্টি মরিচ সারা বিশ্বেই একটি জনপ্রিয় সবজি। বাংলাদেশেও এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। এছাড়া ক্যাপসিকাম বিদেশে রপ্তানীর সম্ভাবনাও  রয়েছে। তবে এ সবজি  চাষে চারা সংকটের কারণে বানিজ্যিকভাবে উৎপাদন করতে পারছে না কৃষকরা।

আরও পড়ুন:


হাসপাতালে আগুনের ঘটনায় ইরাকের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ

একটা দল ঢাকায় বসে শুধু লিপ সার্ভিস দিচ্ছে আর ষড়যন্ত্র করছে: কাদের

এবার ধান-চাল ক্রয়ে সুষ্ঠু দাম নির্ধারণ করা হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া তাণ্ডব: আরও ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ


এ সংকট নিরসনে নতুন দিগন্তের পথ দেখাচ্ছে টিস্যু কালচার পদ্ধতি। রামনগরে গ্রিন বায়োটেক টিস্যু কালচার ল্যাবরেটরতে উন্নত ক্যাপসিকাম চারা উৎপাদনের গবেষণা করছে গবেষকরা।

বর্তমানে ভারতসহ বিভিন্ন দেশ থেকে ক্যাপসিকাম বীজ বা চারা ক্রয় করে চাষ করছেন কৃষকরা। এ কারণে এই উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে  দেখছেন   তারা। 

কৃষকদের মাঝে ক্যাপসিকামের বীজ ছড়িয়ে দিতে পারলে বানিজ্যিকভাবে এই সবজি চাষ করে আর্থিক ভাবে লাভবান হবে কৃষকরা এমনটাই মনে করেন সংশ্লিস্টরা। ‘

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

অনলাইনেও বেড়েছে বিক্রি

শপিংমলগুলোয় জমে উঠেছে ঈদ কেনাকাটা

অনলাইন ডেস্ক

ঈদের বাকি আর কয়েকদিন। এরইমধ্যে রাজধানীর শপিংমলগুলোয় জমে উঠেছে ঈদ কেনাকাটা। তবে করোনা বাস্তবতায় এবার গেলবারের তুলনায় বিক্রি কম বলে জানান দোকানিরা। 

স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনেকে বিপনীবিতানে আসলেও বেশিরভাগ ফ্যাশনহাউজ বলছে অনলাইনে বেড়েছে তাদের বেচাবিক্রি। বিস্তারিত জানাচ্ছেন ফাতেমা কাউসার।

ঈদ শপিং এ বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনা পরিস্থিতি। বড় বড় শপিংমল গুলোতে তাই ক্রেতা সাধারণের সামাজিক দূরত্ব এবং স্বাস্থ্যবিধি মানার লম্বা লাইন।

অন্যবারের মতো ফ্যাশন হাউজগুলো এবারো ঈদ উপলক্ষে নিয়ে এসেছে নতুন নতুন কালেকশন। ক্রেতারাও ঈদ গরম দুটোকেই মাথায় রেখে সারছেন ঈদ কেনাকাটা।

ঈদের বাকি আরো নয়দিন থাকায় দোকানিরা জানান সামনের দিনগুলোতে আরো বাড়বে তাদের বেচাকেনা।

এদিকে করোনার কথা চিন্তা করে অনেকেই আবার ঘরে বসেই সারছেন ঈদের কেনাকাটা। অনলাইনে আগের চেয়ে বিক্রি বেড়েছে বলে জানান অনেকে। সামনের দিনগুলোতে বেচাবিক্রি আরো বাড়বে এমন প্রত্যাশা সবার।

news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর