মাঠের সোনালি ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত কৃষক-কৃষাণীরা

মাঠের সোনালি ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত কৃষক-কৃষাণীরা

Other

গাইবান্ধায় চলছে বেরো ধান কাটার উৎসব। মাঠের সোনালি ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষক-কৃষাণীরা। কৃষকদের অভিযোগ, করোনা ও লকডাউনের কারণে শ্রমিক মজুরি বেড়েছে কয়েকগুন। এ অবস্থায় বাজারে ধানের দর ভাল না পেলে লোকসান গুনতে হবে তাদের।

 

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, গাইবান্ধার সাত উপজেলায় এবার বোরো ধানের আবাদ হয়েছে ১ লক্ষ ২৮ হাজার হেক্টর জমিতে। এরই মধ্যে পেকে গেছে সব জমির ধান। কষ্টে ফলানোর সোনার ফসল ঘরে তুলতে ব্যস্ত কৃষক- কৃষানীরা।

আরও পড়ুন:


আন্ত জেলা ও নৌ পরিবহন বন্ধ থাকবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

এবারের ঈদে পোশাক কারখানার ছুটি তিন দিনের বেশি নয়

মার্কেটে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতে অভিযান চলবে: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

আবারও বাড়বে লকডাউন, চলবে না দূরপাল্লার বাস


কৃষকদের অভিযোগ, করোনা ও লকডাউনের কারণে এ ভচর ধান কাটা শ্রমিকদের মজুরি বেড়েছে কয়েকগুন। বাজারে যদি ধানের দর ভাল না থাকে তাহলে লাভ তো দুরের কথা লোকসান গুনতে হবে তাদের। তবে সংশ্লিস্টরা বলছেন, গেল বছরের চেয়ে এ এ বছর সরকার নির্ধারিত ধানের দর  বেশি। এতে কৃষকরা লাভবান হবে।

মো. মাসুদুর রহমান, উপ পরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, গাইবান্ধা। এ বছর জেলায় ধান উৎপাদনের লক্ষমাত্র ধরা হয়েছে সাড়ে পাঁচ লক্ষ মেট্রিক টন।

news24bd.tv / কামরুল