বাবুল গোমেজ বা জাম্বু কে মনে পড়ে?
বাবুল গোমেজ বা জাম্বু কে মনে পড়ে?

বাবুল গোমেজ বা জাম্বু কে মনে পড়ে?

অনলাইন ডেস্ক

বাবুল গোমেজ। মেথর পট্টি থেকে উঠে আসা এক ভিলেনের নাম এটি। হয়ত এই নাম বলাতে কেউ বুঝতে পারেননি, কে তিনি? কারণ বাবুল গোমেজ নামে কোন ভিলেনের নামতো কেউ শুনেনি। এই নামটি তার আসল নাম, যে নামে সিনেমায় কখনো তাকে ডাকা হয়নি।

তার শরীরের রঙ কৃষ্ণবর্ণ। মাথায় একটাও চুল নেই। ঠোটের কোণে নিষ্ঠুর এক হাসি। এটুকু বর্ণনাতেই হয়ত বুঝতে পারছেন, কার কথা বলছি? যাইহোক পরিষ্কার করেই বলি, তিনি হলেন ‘জাম্বু’। ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা। ছোট বড় সবার কাছেই তার নামটি বহুল পরিচিত। জন্ম ১৯৪৪ সালে। মূল নাম সুখলাল বাবু। জন্ম ও পৈতৃক স্থান পুরান ঢাকার হাজারিবাগের গণকটুলি সিটি কলোনিতে। বাবুল গোমেজ নামে এন্ট্রি হন প্রথমে এফডিসিতে। পরে পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু তার নাম দেন জাম্বু।

সাদাকালো সময় থেকে শুরু করে রঙিন পর্যন্ত দাপটের সঙ্গে বহু সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। এই খল অভিনেতার লুক ছিল রুদ্রমূর্তির মতো। যা ভয় পাইয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। ভয়েসেও ছিল সেই রুদ্রতা। সবচেয়ে বেশি তাকে দেখা যেত বস্তি আক্রমণ, সওদা করে খুন, মূল খলনায়কের সহকারী প্রভৃতি ভূমিকায়। পর্দায় তার রসায়ন সবচেয়ে বেশি জমত নায়ক জসিমের সঙ্গে।

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অসংখ্য সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি।

জাম্বু অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমার মধ্যে রয়েছে-‘সাগর ভাসা’, ‘এক মুঠো ভাত’, ‘রক্তের দাগ’, ‘শীষনাগ’, ‘সেলিম জাভেদ’, ‘হাসান তারেক’, ‘নির্দোষ’, ‘মোহাম্মদ আলী’, ‘ধর্ম আমার মা’, ‘ডাকাত’, ‘নবাব’, ‘রাস্তা’, ‘রাস্তার রাজা’, ‘রকি’, ‘আত্মরক্ষা’, ‘পরিবার’, ‘সন্ত্রাস’, ‘অতিক্রম’, ‘নবাব সিরাজউদ্দৌলা’, ‘উত্থান পতন’, ‘নয়নমণি’, ‘হাবিলদার’, ‘বিজয়’, ‘ঝুমুর’, ‘গোলাবারুদ’, ‘বাঘা বাঘিনী’, ‘সমর’, ‘অপরাজিত নায়ক’, ‘আপোষ’, ‘বিজলী তুফান’, ‘মাটির ফুল’, ‘পালকি’, ‘রুবেল আমার নাম’, ‘আঁচল বন্দী’, ‘টাইগার’, ‘বনের রাজা টারজান’, ‘হিরো’, ‘রাজাবাবু’, ‘নয়া লায়লা নয়া মজনু’, ‘শিকার’, ‘শত্রু ধ্বংস’, ‘আত্মত্যাগ’, ‘ঘাতক’, ‘কালিয়া’, ‘বন্ধু’, ‘সাজা’, ‘দোস্ত দুশমন’, ‘রাখাল রাজা’, ‘নয়নের আলো’, ‘বজ্রপাত’, ‘খুনের বদলা’, ‘অঙ্গার’, ‘বিপ্লব’, ‘যোদ্ধা’, ‘অভিযান’, ‘উসিলা’, ‘নিষ্পাপ’, ‘অমর’, ‘মৃত্যুদণ্ড’, ‘জ্যোতি’, ‘সাথী’, ‘মূর্খ মানব’, ‘দেন মোহর’, ‘প্রেম দিওয়ানা’, ‘চাকর’, ‘ববি’, ‘রাজলক্ষী শ্রীকান্ত’, ‘দায়ী কে’, ‘মিস লংকা’, ‘সাগরিকা’, ‘নির্মম’ ইত্যাদি।

২০০৪ সালের ৩ মে এই শক্তিমান অভিনেতার মৃত্যু হয়। তবে একটা দুঃখের বিষয়, এই দিনটি আসলে চলচ্চিত্রের কারো কোন মাথা ব্যথা দেখা যায় না। তাহলে কী সকলে জাম্বুকে ভুলে গেছেন? নাকি তাকে মনে রাখার কিছুই নেই, এমন প্রশ্ন অনেকের।

news24bd.tv/আলী