ট্রাম্পের নীতি পরিবর্তন, ৬২ হাজার শরণার্থী গ্রহণে বাইডেনের অনুমোদন

অনলাইন ডেস্ক

ট্রাম্পের নীতি পরিবর্তন, ৬২ হাজার শরণার্থী গ্রহণে বাইডেনের অনুমোদন

শরণার্থী গ্রহণের সীমা বাড়িয়ে ৬২ হাজার ৫০০ করার অনুমোদন দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আরোপ করা সর্বোচ্চ সীমা ১৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে এ সংখ্যা অনুমোদন করেন তিনি। সংবাদ সংস্থা এএফপি’র খবরে এমনটিই জানানো হয়েছে।

মিত্রদের পক্ষ থেকে সমালোচনা হচ্ছিলো এই বিষয়টি নিয়ে। যে পূর্বসূরি ট্রাম্পের শরণার্থী গ্রহণের আগের সীমাই ধরে রেখেছেন বাইডেন। সমালোচনার পর এই পরিবর্তন আনলেন তিনি।

এক বিবৃতিতে বাইডেন বলেন, ‘এই শরণার্থীর সংখ্যা হ্রাস করে আগের প্রশাসন কর্তৃক ১৫ হাজার নির্ধারণ করা ঐতিহাসিকভাবে কম সংখ্যা ছিল। শরণার্থীদের স্বাগত এবং সমর্থন জানানো একটি দেশ হিসেবে তাতে আমেরিকার মূল্যবোধের প্রতিফলন ঘটেনি।’

আরও পড়ুন


এখনো সিসিইউতে খালেদা জিয়া, অবস্থা স্থিতিশীল: মির্জা ফখরুল

নতুন ছবিতে চুক্তিবদ্ধ বুবলী, শাকিবকে সরিয়ে নায়ক রোশান

টিকার সংকট দূর হবে আগামি জুলাইয়ে: সেরাম সিইও

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন থেকেই চলবে ট্রেন: রেলমন্ত্রী


তিনি আরও বলেন, শরণার্থীদের নেয়ার ক্ষেত্রে এই নতুন সীমা যুক্তরাষ্ট্রের সক্ষমতা বাড়ানোর ব্যাপারে ইতোমধ্যে চলমান থাকা বিভিন্ন প্রচেষ্টা ফের জোরদার করা হবে। যাতে আমরা ১ লাখ ২৫ হাজার শরণার্থী গ্রহণের উদ্দেশ্য পূরণ করতে পারি। আর আগামী অর্থ বছরেই আমি এটা নির্ধারণের ব্যাপারে আগ্রহী।’

গত মাসে হোয়াইট হাউস জানায়, তাদের ট্রাম্প-পরবর্তী শরণার্থী কর্মসূচি ‘পুনর্গঠনে’ আরও সময়ের প্রয়োজন রয়েছে। তাই তারা এ বছরের জন্য শরণার্থীদের ১৫ হাজারের সীমা ধরে রাখবে। এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর একজন শীর্ষ ডেমোক্র্যাট এবং বিভিন্ন শরণার্থী ত্রাণ গ্রুপ বাইডেনের কঠোর সমালোচনা করে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

হঠাৎ সৌদি সফরে ইমরান খান

অনলাইন ডেস্ক

হঠাৎ সৌদি সফরে ইমরান খান

হঠাৎ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন। সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের আমন্ত্রণে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন।

জানা গেছে, ইমরানের সফরে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে আলোচনার পাশাপাশি উভয় দেশের আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বৈঠক করবেন সৌদি যুবরাজ।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি পাকিস্তান ও সৌদি আরবের মধ্যে সম্পর্ক মোটেই ভালো যাচ্ছে না। কিছু দিন আগেই পাওনা টাকা দ্রুত সময়ের মধ্যে পরিশোধ করতে ইসলামাবাদকে চাপ দিয়েছে রিয়াদ। এর মধ্যে সৌদি সফরে গেলেন ইমরান খান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দ্বীপ নিয়ে যুক্তরাজ্য-ফ্রান্স বিরোধ, যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন

অনলাইন ডেস্ক

দ্বীপ নিয়ে যুক্তরাজ্য-ফ্রান্স বিরোধ, যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন

ব্রিটেনের জার্সি দ্বীপ নিয়ে যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের মধ্যে শুরু হওয়া বিতর্ক থেকে  যুদ্ধজাহাজ মোতায়েনের ঘটনা ঘটেছ।

সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স এমন খবর দিয়েছে।

ফ্রান্সের উত্তরপশ্চিম উপকূলের ১৪ মাইল দূরে জার্সি দ্বীপটির অবস্থান। যুক্তরাজ্যের অধীনে স্বায়ত্তশাসিত এই অঞ্চলের রয়েছে নিজস্ব আইনসভা ও বিচার বিভাগ। তবে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে যুক্তরাজ্য।

সম্প্রতি ওই এলাকায় সেনা নৌ বাহিনীর জাহাজ পাঠায় যুক্তরাজ্য; এরপরই সেখানে নৌ বাহিনীর যান পাঠায় ফ্রান্স। দুই দেশের মধ্যে সৃষ্টি হওয়া এই উত্তেজনা ব্রেক্সিট-পরবর্তী বিশ্বে চলমান জটিলতার একটি ইঙ্গিত বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

অভিনন্দনের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গাছ উপড়ে পড়ল ঘরের ওপর, গেল স্বামী-স্ত্রীর প্রাণ

ঢাবি শিক্ষক-কর্মচারীদের ঈদ কর্মস্থলেই

এরা মানুষ না, অমানুষ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সিএনবিসি জানায়, কয়েক দশক ধরে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তির অধীনে ফরাসি জেলেরা জার্সির জলসীমায় মাছ ধরে আসছে। তবে বেক্সিটের পর সম্প্রতি সেখানে মাছ ধরার পরিমাণ বেঁধে দিয়ে তার জলসীমায় ফ্রান্সের জেলেদের মাছ ধরার নতুন শর্ত কার্যকর করে।

এ নিয়ে দ্বন্দ্ব চরমে পৌঁছায়। ফ্রান্সের পক্ষ থেকে জার্সি দ্বীপের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে হুমকি দেওয়া হয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে দুটি ব্রিটিশ নৌবাহিনীর জাহাজ মোতায়েন করা হয়। পরে পদক্ষেপ গ্রহণ করে ফ্রান্সও।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

মিষ্টি বিতরণে পুলিশের বাঁধা, ২০ কেজি রসগোল্লা জব্দ

অনলাইন ডেস্ক

মিষ্টি বিতরণে পুলিশের বাঁধা, ২০ কেজি রসগোল্লা জব্দ

ঘটনা ভারতের উত্তর প্রদেশের হাপুড় শহরের। নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সমর্থকদের মধ্যে রসগোল্লা বিতরণ করছিলেন এক প্রার্থী। কিন্তু মাঝপথে বাঁধা দিলো পুলিশ। ২০ কেজি রসগোল্লার হাড়ি জব্দ করার পাশাপাশি দুইজনকে আটকও করা হয়েছে। এছাড়া বিধিনিষেধ ভঙ্গের অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি আইনে অভিযোগ আনা হয়েছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বৃহস্পতিবার (৬ মে) বলা হয়, সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ, কেরালা, তামিলনাড়ু, আসাম ও পদুচেরিতে বিধানসভার পাশাপাশি উত্তর প্রদেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে স্থানীয় পঞ্চায়েত নির্বাচন।

রাজ্যগুলোতে নির্বাচনের আগেই দেশটিতে রেকর্ড পরিমাণ করোনার সংক্রমণ বাড়ায় জারি করা হয়েছে কঠোর বিধিনিষেধ। এমনকি ভোটের ফলের পর রাজ্য সরকারগুলোকে বিজয় মিছিল রোধে কঠোর হতে বলেছে ভারতের নির্বাচন কমিশন।

এরপর কমিশনের নিষেধ উপেক্ষা করে উত্তর প্রদেশের পঞ্চায়েত নির্বাচনে এক বিজয়ী প্রার্থীর পক্ষে ভোটারদের মধ্যে মিষ্টি বিতরণে নেমেছিলেন দুজন। সঙ্গে সঙ্গে ওই দুজনকে আটক করে পুলিশ।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

আইপিএল নেই, বাড়ি ফিরে যা করতে চান কোহলি

ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করা মুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় দায়িত্ব: হুথি নেতা

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক


পুলিশের পক্ষ থেকে টুইটারে জানানো হয়েছে, নিষেধ উপেক্ষা করে আটক হওয়া দুজন গণজমায়েত করেছেন। সেখানে জমায়েত হওয়া মানুষের মধ্যে রসগোল্লা বিলি করছিলেন তারা।

আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে করোনাকালীন বিধিনিষেধ উপেক্ষা ও ফৌজদারি আইনের ১৪৪ ধারা ভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

সম্পদের ভাগাভাগি নিয়ে যা বললেন গেটস কন্যা

অনলাইন ডেস্ক

সম্পদের ভাগাভাগি নিয়ে যা বললেন গেটস কন্যা

২৭ বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি টানছেন বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটস। পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। তবে এই বিচ্ছেদ নিয়ে ঘুম নেই সাধারণ মানুষ ও মিডিয়াকর্মীদের। ইতিমধ্যেই এই বিচ্ছেদ ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিচ্ছেদ হতে চলেছে কিনা তা নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল আলোচনা।

সিএনএন জানায়, সম্প্রতি বিল ও মেলিন্ডার বিশাল সম্পত্তির ভাগ কীভাবে হবে, বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন তাদের বড় মেয়ে জেনিফার ক্যাথেরিন গেটস। 

ইনস্টাগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে জেনিফার লিখেছেন, তাদের পরিবার এ মুহূর্তে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। খবর সিএনএনের। বিল গেটস ও মেলিন্ডা তাদের বিয়েবিচ্ছেদের কথা ঘোষণার পরই জেনিফার একটি ইনস্টাগ্রাম স্টোরি পোস্ট করেন। তিনি লিখেছেন, এটি আমাদের পুরো পরিবারের জন্য একটি চ্যালেঞ্জিং মুহূর্ত। এখন আমি শিখছি, এমন সময়ে কীভাবে পরিবারকে সমর্থন করতে হয়।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

আইপিএল নেই, বাড়ি ফিরে যা করতে চান কোহলি

ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করা মুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় দায়িত্ব: হুথি নেতা

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক


বিশেষজ্ঞদের ধারণা, জেনিফারের এই বিবৃতি ইঙ্গিত করছে সম্পত্তির ভাগ কীভাবে হবে সেদিকে। স্ত্রী হিসেবে মেলিন্ডা যেমন অংশীদার, তেমনি ভাগ রয়েছে তিন সন্তানেরও। ফলে মাইক্রোসফটের সম্পত্তির যে বিশাল সাম্রাজ্য তার কী গতি হয়, সেটিও দেখার বিষয়।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিনের বয়ফ্রেন্ড মিসরীয় মুসলিম তরুণকে নায়েল নাসেরকে বিয়ে করেন বিল গেটসের মেয়ে জেনিফার গেটস। নায়েলের জন্ম যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের শিকাগো শহরে হলেও তিনি কুয়েতে বেড়ে ওঠেন।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

বিল পরিশোধ করতে না পারায় মৃতদেহ রাস্তায়, ডাক্তার গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

বিল পরিশোধ করতে না পারায় মৃতদেহ রাস্তায়, ডাক্তার গ্রেপ্তার

হাসপাতালের বিল পরিশোধ করতে না পারায় করোনাভাইরাসে মৃত রোগীর দেহ হাসপাতালের বেড থেকে রাস্তায় ফেলে দিলেন এক চিকিৎসক। গুজরাটের সুরাটের বামরোলি এলাকার প্রিয়া জেনারেল হাসপাতালে বুধবার এই ঘটনা ঘটে।

জিতেন্দ্র প্যাটেল নামে ওই ডাক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনিই মরদেহটি রাস্তায় ফেলে দিয়ে আসার নির্দেশ দেন বলে অভিযোগ। তিনি একই সাথে হাসপাতালটির মালিকও। করোনা বিধি লঙ্ঘনের দায়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সুরাট মিউনিসিপ্যাল করপোরেশনের এক কর্মকর্তা ওই ডাক্তারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন।


আরও পড়ুনঃ


ট্রিও মান্ডিলি: এক আধুনিক রূপকথার গল্প

আইপিএল নেই, বাড়ি ফিরে যা করতে চান কোহলি

ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করা মুসলিম উম্মাহর ধর্মীয় দায়িত্ব: হুথি নেতা

শত বছরের পুরনো বিয়ের রীতি ভাঙলেন ‘হার্ডকোর ফেমিনিস্ট’ যুবক


পুলিশ জানায়, জিতেন্দ্র করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ভগবান নায়েকের মৃতদেহ রাস্তায় ফেলে দেন। গত ৩ মে এ ঘটনা ঘটে। মৃতের পরিবার ৫০ হাজার রুপি দিতে ব্যর্থ হওয়ার পর জিতেন্দ্র এমন কাণ্ড ঘটান।

গত ২৪ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ভগবান। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর