বিস্ফোরণে গুরুতর আহত মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট

অনলাইন ডেস্ক

বিস্ফোরণে গুরুতর আহত মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট

মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে একটি বিস্ফোরণে দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদ আহত হয়েছেন।  স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সাড়ে ৮টায় তার বাসভবনের বাইরে বিস্ফোরণ ঘটে। 

পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  মালদ্বীপের সাবেক এ প্রেসিডেন্ট বর্তমানে পার্লামেন্টের স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে।

নাশিদ তার গাড়িতে প্রবেশের সময়ই বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে দাবি করা হয়েছে। ঘটনাস্থলটি পুলিশ ঘিরে রেখেছে। সাধারণ মানুষকে চলাচলে এলাকাটি এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে।

বিস্ফোরণে বিদেশি পর্যটকও আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মালদ্বীপের পরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ শাহীদ। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটালো যুক্তরাষ্ট্র (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটালো যুক্তরাষ্ট্র (ভিডিও)

যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী আটলান্টিক মহাসাগরের অতলে ১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র যদি আবারও কোনও যুদ্ধে জড়ায় তাহলে সেটা মোকাবিলার সক্ষমতা কতটা দেশটির নৌবাহিনীর আছে সেটাই দেখানো হলো এই মহড়াই। ১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটিয়ে সেই মহড়াই সম্পূর্ণ করেছে মার্কিন নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ জেরাল্ড আর ফোর্ড (সিভিএন ৭৮)।

এক বিবৃতিতে মার্কিন নৌবাহিনী জানিয়েছে, পূর্ব উপকূলে এই শক্তি পরীক্ষা করা হয়েছে। তবে সামুদ্রিক জীবন এবং পরিবেশের কথা মাথায় রেখে সব সুরক্ষা নিয়েই এই শক্তি পরীক্ষা করা হয়েছে বলেও জানায় তারা।

১৮ হাজার কেজির বোমা ফাটলে তার তীব্রতা কতটা ভয়াবহ হতে পারে, সেই দৃশ্যই ধরা পড়েছে মার্কিন নৌবাহিনীর ক্যামেরায়।

আরও পড়ুন:


লন্ডনে রানির বাড়ির সামনে থেকেও ফোন চুরি হয়: পরিকল্পনামন্ত্রী

ফরিদপুরে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ৩ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত শতাধিক

ফোনালাপে আড়িপাতা রোধের পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে বিটিআরসিকে নোটিশ

যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি হলে এই বোমা শত্রুপক্ষের শিবিরে কতটা শক্তিতে আঘাত হানতে পারে, এই দৃশ্য থেকেই তা আন্দাজ করে নিতে পারবেন যে কেউ। 

বোমা ফাটানোর ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

অনলাইনে ক্লাস : ছোট ভাইয়ের কারণে গর্ভবতী ১৫ বছরের কিশোরী

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে ক্লাস : ছোট ভাইয়ের কারণে গর্ভবতী ১৫ বছরের কিশোরী

করোনার কারণে বিশ্বের নানা প্রান্তের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কার্যত বন্ধই রয়েছে। মাসের পর মাস তো আর শিক্ষা কার্যক্রম থেকে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা থেকে দুরে রাখা যায় না। তাই তো সমগ্র বিশ্বে চলছে অনলাইনেই পড়াশোনা। কিন্তু এই অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের অন্তরালে ঘটেছে এক তীব্র চাঞ্চল্যর ঘটনা। ১৩ বছরের  এক সপ্তম শ্রেণির ছাত্র তারই তিন বছরের বড়  কিশোরী বোনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেছে। কারণ সে কিশোর অনলাইনে পড়াশোনার নাম করে নিষিদ্ধ ভিডিও দেখতো। এই কারণে সে নিজের বড় বোনের সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। যার ফলে তার বড় ভোন গর্ভবতী হয়ে গেছে। 

ভারতের রাজস্থানের আলওয়ার জেলায় এমন ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। 

বেশ কিছুদিন ধরেই এমন কাণ্ড ঘটাচ্ছিল ওই দুজন। স্মার্টফোনে প্রথমবার পর্ন ভিডিও দেখে ওই কিশোর। তারপর খেলার ছলেই দুজনে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। এরপর সেই কাজ চলতে থাকে। তবে গর্ভবতী হওয়ার ফলে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীর শরীরে পরিবর্তন ঘটতে শুরুর পর বিষয়টি সবার নজরে আসে।

ওই কিশোরীর দাদী প্রথম বিষয়টি লক্ষ্য করেন। এরপরই কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়। তখনই তার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর সামনে আসে। কিন্তু তখনও কেউ ভাবতে পারেনি এই ঘটনার জন্য দায়ী কিশোরীর ভাই।

অনেকক্ষণ ধরে জিজ্ঞাসাবাদের পরই আসল তথ্য প্রকাশ্যে আসে। সত্য জানতে পেরে হতবাক হয়ে যায় পরিবারের সবাই।

জানা গেছে, পরিবারটি আদতে মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা। কাজের জন্য বেশ কয়েক বছর ধরে তারা রাজস্থানে থাকছে। এদিকে এ ঘটনা জানাজানি হতেই রাজস্থানের সেবাগ্রাম থানায় জিরো এফআইআর দায়ের করেছে ভিওয়ান্ডি থানার পুলিশ।

প্রসঙ্গত, মহামারি পরিস্থিতিতে অনলাইন ক্লাসই ভরসা শিক্ষার্থীদের। এজন্য অনেক বাড়িতেই এখন স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, ট্যাবের ব্যবহার বেড়েছে। আর তা শিশুদের নাগালেও অনায়াসে পৌঁছে যাচ্ছে। আর এতেই অনেক ক্ষেত্রে এমন সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


লন্ডনে রানির বাড়ির সামনে থেকেও ফোন চুরি হয়: পরিকল্পনামন্ত্রী

ফরিদপুরে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ৩ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত শতাধিক

ফোনালাপে আড়িপাতা রোধের পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে বিটিআরসিকে নোটিশ

অজান্তেই শিশুরা পর্ন ভিডিও দেখে ফেলছে বা নিষিদ্ধ কোনও সাইট খুলে ফেলছে। এক্ষেত্রে মোবাইল ফোনে চাইল্ড প্রোটেকশন অন রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন অনেকে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

আরব আমিরাতের মানবাধিকারকর্মীর লন্ডনে রহস্যজনক মৃত্যু!

অনলাইন ডেস্ক

আরব আমিরাতের মানবাধিকারকর্মীর লন্ডনে রহস্যজনক মৃত্যু!

ব্রিটেনের রাজধানী লন্ডনে রহস্যজনকভাবে গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রখ্যাত মানবাধিকার কর্মী ও রাজনৈতিকভাবে ভিন্ন মতাবলম্বী আলা আস-সিদ্দিক। এরইমধ্যে তার মৃত্যু নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন সংগঠনের কর্মী, সাংবাদিক এবং লেখকরা সন্দেহ পোষণ করেছেন।

ব্রিটেনভিত্তিক আলকাস্ত সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ছিলেন আস-সিদ্দিক। সংস্থাটি সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলোতে বৃহত্তর স্বাধীনতা এবং উন্নত মানবাধিকার পরিস্থিতি তৈরির জন্য কাজ করে আসছে।

আস-সিদ্দিকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে তার সংস্থা আল-কাস্ত এক বিবৃতিতে বলেছে, সংস্থার নির্বাহী পরিচালকের মৃত্যুতে এই সংস্থা গভীর শোক প্রকাশ করছে যিনি আরব আমিরাতের মানবাধিকার আন্দোলনের আইকন। গত ১৯ জুন আস-সিদ্দিক গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বলে এই বিবৃতিতে জানানো হয়।

আরও পড়ুন


মাস্ক কেলেঙ্কারি: সেই শারমিনকে অব্যাহতি দিয়ে পুলিশের প্রতিবেদন

লন্ডনে রানির বাড়ির সামনে থেকেও ফোন চুরি হয়: পরিকল্পনামন্ত্রী

হিংস্রতা আর ষড়যন্ত্রের হোতা বিএনপি, আ.লীগ হিংস্র আচরণ করে না: কাদের

ভারত থেকে কানাডা ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ২১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ল


বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, “তার অক্লান্ত পরিশ্রম, অন্যকে সাহায্য করার আন্তরিকতা, সমস্যাগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো, মানবাধিকার রক্ষায় তার শক্তিশালী অবস্থান ও ভালো কাজে তার প্রচেষ্টার কথা বহু মানুষ স্মরণ করবে।” 

আস-সিদ্দিকের মৃত্যুর সংবাদ শুনে মানবাধিকার কর্মীরা দ্রুত সেখানে উপস্থিত হন এবং ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আরব আমিরাত কর্তৃপক্ষ এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে তারা অভিযোগ করেন। এ নিয়ে অনেক সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পোস্ট দিয়েছেন। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

ভারত থেকে কানাডা ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ২১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ল

লায়লা নুসরাত, কানাডা

ভারত থেকে কানাডা ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ২১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ল

ভারত থেকে কানাডা ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরো ৩০ দিন বাড়ানো হয়েছে। তবে কানাডায় পাকিস্তান থেকে আসা যাত্রীদের আসার অনুমতি দিয়েছে এবং তারা বিমান নিষেধাজ্ঞার আওতার মধ্যে থাকবে না বলেও জানানো হয়েছে।

কানাডার পরিবহনমন্ত্রী ওমর আলঘাব্রা বলেছেন, ভারতে কোভিড -১৯ এর সংখ্যা এখনও অনেক বেশি থাকায় আমরা দেশটির জন্য আমাদের বিমানের বিধিনিষেধ বাড়িয়ে দিয়েছি। আমরা ক্রমবর্ধমান পরিস্থিতি মূল্যায়ন এবং যথাযথ ব্যবস্থা নির্ধারণ করে এগিয়ে যাচ্ছি।

গত সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ সমস্ত দেশের সাথে কানাডার সীমান্ত বিধিনিষেধ ২০২১ সালের ২১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। জন সুরক্ষামন্ত্রী বিল ব্লেয়ার একটি টুইটের মাধ্যমে এই সংবাদটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য কানাডার অভ্যন্তরে বাইরের দেশ থেকে যেন কোভিড-১৯ ভেরিয়েন্ট আসতে না পারে সেজন্যে কানাডা সরকার ইন্ডিয়া ও পাকিস্তানের যাত্রীদের সব ধরনের ফ্লাইট কানাডা প্রবেশে গত ২২ এপ্রিল প্রথম ৩০ দিনের জন্য ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হয়েছিল। ২২ মে এক মাসের মেয়াদ শেষ হতে না হতেই নতুন করে আরো এক মাসের জন্য নতুন করে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। এখন তা আবারও বাড়িয়ে ২১ জুলাই পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। তবে ভ্যাকসিন এবং প্রতিরক্ষামূলক সরঞ্জাম বহনকারী কার্গো বিমানগুলি কানাডায় প্রবেশের অনুমতি অব্যাহত থাকবে।

যদিও যাত্রীরা এখনও ভারত থেকে কানাডায় আসতে পারবেন, তবে তা তাদের অপ্রত্যক্ষ পথের মাধ্যমে করতে হবে এবং তাদের প্রস্থানের শেষ পয়েন্ট থেকে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করতে হবে যার ফলাফল অবশ্যই নেগেটিভ হতে হবে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার সীমান্ত ইতিমধ্যে গত বছর থেকে বন্ধ রয়েছে। গতবছরের মার্চ মাস থেকে এটি অব্যাহত ভাবে বন্ধ রয়েছে।

আরও পড়ুন


ফোনালাপে আড়িপাতা রোধের পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে বিটিআরসিকে নোটিশ

শিশু সাঈদ হত্যা: ৩ আসামির মৃত্যুদণ্ড হাইকোর্টেও বহাল

খুলনায় কঠোর লকডাউন, নানা অজুহাতে পথে নামছে মানুষ

জীবন আর মৃত্যু খুব কাছাকাছি থাকে


বিশিষ্ট কলামিস্ট, উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান বলেন, কোভিড কালের শুরু থেকেই জাস্টিন ট্রুডোর সরকার আগাম সতর্কতা নিতে পিছপা হননি। দক্ষিণ এশিয়ায় কোভিড-১৯ এর নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক উপস্থিতিতে বিমান যোগাযোগের ৩০ দিন বাড়ানোর ঘোষণা টি নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। আর ভ্যাক্সিন প্রদানের গতিকে আরও দ্রুততর না করা অবধি জনমনে শংকা দূরীকরণে এমন সতর্কতামূলক পদক্ষেপে নিয়ে এগুনো ছাড়া অন্য কোন বিকল্প ও দৃশ্যমান নয়।

অন্যদিকে কানাডায় গত বছরের মার্চ মাসে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয় ব্রিটিশ কলম্বিয়ায়। তারপর থেকেই দেশটির সরকার দেশের নাগরিকদের সুস্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে আরও শক্তিশালী করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। বিশেষ করে দেশটির নাগরিকদের স্বাস্থ্যের উপর গুরুত্বারোপ করেই ভারতের সাথে ফ্লাইট স্থগিত আরো ৩০ দিন বাড়ানো হয়েছে। তাছাড়াও নাগরিকরা যেন দ্রুত ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আসে সেদিকেও কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটির সরকার।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লাখ ৯ হাজার ৬ শত ৭ জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ২৬ হাজার ৮৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৩ লাখ ৭২ হাজার ৪শত ৯১ জন।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

আসামে দুই সন্তান নীতি কার্যকর, লক্ষ্য মুসলিমরাই

অনলাইন ডেস্ক

আসামে দুই সন্তান নীতি কার্যকর, লক্ষ্য মুসলিমরাই

আসামে কার্যকর হয়েছে দুই সন্তান নীতি। শনিবার আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা রাজ্যে আংশিকভাবে দুই সন্তান নীতি চালুর ঘোষণা দেন। দেশের প্রথম রাজ্য হিসেবে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে এত বড় পদক্ষেপ নিলো আসাম।

২০১৯ সালেই জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আইন পাস করায় আসাম। ভবিষ্যতে সব সরকারি সুযোগ-সুবিধার ক্ষেত্রেই দুই সন্তান নীতি মেনে চলতে হবে। এমনকি সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার ক্ষেত্রে সন্তানের সংখ্যাটাকেও মাপকাঠি হিসেবে ধরা হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২১ সালের পর যেসব দম্পতির দুইয়ের বেশি সন্তান থাকবে তাদের সরকারি চাকরি দেয়া হবে না। শুধু তাই নয়, এখন যারা সরকারি চাকরি করছেন, তাদেরও খেয়াল রাখতে হবে যাতে দুইয়ের বেশি সন্তান না হয়। এর ব্যতিক্রম হলে তাদেরও চাকরি নিয়ে টানাটানি পড়তে পারে।


আরও পড়ুনঃ

জম্মু-কাশ্মীরে সংঘর্ষ: লস্কর-ই-তাইয়্যেবার কমান্ডারসহ নিহত ৩

যদি নারী অল্প পোশাক পরে ঘোরে তার প্রভাব পুরুষের উপর পড়তে বাধ্য: ইমরান

পুলিশ বিনা ওয়ারেন্টে সাইফুলকে ধরে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে: ফখরুল

ফেসবুকে ‘হা-হা’ রিঅ্যাক্ট নিয়ে যা বললেন শায়খ আহমাদুল্লাহ


ওই সময় আসামের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন সর্বানন্দ সোনওয়াল। বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত সেই সরকারের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী ছিলেন। এবার মুখ্যমন্ত্রীর পদ পেতেই সেই দুই সন্তান নীতি আরও ব্যাপকভাবে প্রয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন হিমন্ত। তিনি বিশেষভাবে কাজ করতে চান অভিবাসী মুসলিমদের নিয়ে।

হিমন্ত বলেন, ঋণ মাফ করা বা সরকারের অন্য কোনও প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া, সব ক্ষেত্রেই জনসংখ্যা সংক্রান্ত নিয়ম মানা হচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হবে। তফসিলি জাতি, উপজাতি হোক বা চা বাগানের কর্মী, সরকারি প্রকল্পের সুবিধা নিতে প্রত্যেককে মানতে হবে দুই সন্তান নীতি।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর