খালেদা জিয়াকে যে দেশে নেওয়ার প্রস্তুতি
খালেদা জিয়াকে যে দেশে নেওয়ার প্রস্তুতি

খালেদা জিয়াকে যে দেশে নেওয়ার প্রস্তুতি

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে করোনারি কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সরকার অনুম‌তি দি‌লে য‌ত দ্রুত সম্ভব চি‌কিৎসার জন্য লন্ডন নিতে চান পরিবারের সদস্যরা। ইতোমধ্যেই পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে লন্ডন নেওয়ার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) রাতে খা‌লেদা জিয়ার বোন সে‌লিমা ইসলাম গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানান।  

সেলিমা ইসলাম জানান, ‘ খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য সরকা‌রের অনুম‌তি পে‌লে তাকে লন্ডন পাঠা‌বো।

সেখা‌নে তার বড় ছে‌লে তারেক রহমানও র‌য়ে‌ছেন। সেই প্রক্রিয়াও শুরু ক‌রে‌ছি।    খালেদা জিয়ার পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হওয়াই তার পাস‌পো‌র্টের মেয়াদ বাড়ানোর কাজ চল‌ছে বলেও জানান তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাসপোর্টের মেয়াদ ২০১৯ সালে শেষ হয়ে যায়। নতুন পাসপোর্টের জন্য আবেদন করা হয়েছে। আগামী এক-দুই দিনের মধ্যে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর নতুন পাসপোর্ট পাওয়া যাবে বলে জানা গেছে।  
 
বিএনপির একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, এমআরপি পাসপোর্টের জন্য ফিঙ্গার প্রিন্ট ও আবেদনকারীর স্বাক্ষর থাকা বাধ্যতামূলক হলেও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে সেই শর্ত শিথিল করা হয়েছে। তাকে বিনা ফিঙ্গার প্রিন্ট ও স্বাক্ষরে নতুন পাসপোর্ট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।  

খালেদা জিয়ার পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়া হয়েছে। আর এই বিষয়টি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জানানো হয়েছে। সেখান থেকে বলা হয়েছে অল্প সময়ের মধ্যে তার পাসপোর্ট দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।   

প্রসঙ্গত, খা‌লেদা জিয়ার বি‌দে‌শে চি‌কিৎসার বিষয়ে তার ভাই শামীম ইস্কান্দা‌রের লি‌খিত আবেদন ৬ মে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের হাতে পৌঁছয়। আইনমন্ত্রী জানান, তারা এই আবেদনের মানবিক দিক বিবেচনা করছেন। তবে, খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার (৬ মে) হচ্ছে না। আর এটি কোনো আদালতের বিষয়ও নয়। সরকারের নির্বাহী আদেশেই এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

উল্লেখ্য, গত ১১ এপ্রিল করোনা আক্রান্ত হন খালেদা জিয়া। শুরুতে গুলশানের বাসায় চিকিৎসা চলছিল তার। ১৫ এপ্রিল সিটি স্ক্যানের জন্য প্রথমবারের মতো তিনি রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে যান। ঘণ্টাখানেক পরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে বাসায় ফিরে যান তিনি। এরপর ২৭ এপ্রিল ফের তাকে শারীরিক টেস্টের জন্য এভারকেয়ার হাসপাতালে যেতে হয়। এই দফায় চিকিৎসকদের পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় খালেদা জিয়াকে। এরই মধ্যে ৩ শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে হাসপাতালের সিসিইউতে নেওয়া হয়।  

news24bd.tv/আলী