এ কেমন প্রতারণা, চিংড়ির মধ্যে ম্যাজিক বল

এস এম রেজাউল করিম, ঝালকাঠি

এ কেমন প্রতারণা, চিংড়ির মধ্যে ম্যাজিক বল

ঝালকাঠিতে চিংড়ির মধ্যে ম্যাজিক বল ঢুকিয়ে বিক্রির দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে ঝালকাঠি পৌরসভার বড় বাজারে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবেকুন নাহার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

এ সময়ে বাজারের মাছ বিক্রেতা খানজু মিয়াকে চিংড়ি মাছের ভেতরে ক্ষতিকর বিষাক্ত কৃত্রিম ম্যাজিক বল ভেজাল দেওয়ার অপরাধে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন। অভিযুক্ত খানজু মিয়া জরিমানার টাকা পরিশোধ করে আদালত থেকে মুক্তি লাভ করে।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার বাজারে অবস্থানরত সকল মাছ বিক্রেতাকে সঠিকভাবে ভেজালমুক্ত মাছ বিক্রি করার জন্য সচেতনমূলক নির্দেশনা প্রদান করেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

পুলিশ বিনা ওয়ারেন্টে সাইফুলকে ধরে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

পুলিশ বিনা ওয়ারেন্টে সাইফুলকে ধরে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে: ফখরুল

মানুষের কল্যাণে কাজ না করে সরকার ক্ষমতার দাম্ভিকতায় ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে দেশকে গভীর সঙ্কটে নিপতিত করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি অভিযোগ করেছেন, সরকার সারাদেশে গুম, খুন, অপহরণ ও বিচারবর্হিভূত হত্যা চালিয়ে দেশকে ত্রাসের রাজ্যে পরিণত করেছে।

সোমবার এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

গ্রেপ্তারের পর সাবেক ছাত্রদল নেতা সাইফুল ইসলামের পায়ে গুলি এবং তার বাম পা কেটে ফেলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি এ বিবৃতি দেন।

আরও পড়ুন:


জম্মু-কাশ্মীরে সংঘর্ষ: লস্কর-ই-তাইয়্যেবার কমান্ডারসহ নিহত ৩

যদি নারী অল্প পোশাক পরে ঘোরে তার প্রভাব পুরুষের উপর পড়তে বাধ্য: ইমরান


ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, গত ১৭ জুন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলামকে নগরির বায়েজিদ এলাকা থেকে পুলিশ বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেপ্তার করে। এরপর তার পায়ে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকার পঙ্গু পাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পঙ্গু হাসপাতালে তার বাম পা কেটে ফেলতে হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এ ঘটনার নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই। যেখানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব দেশের মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা বিধান করা, সেখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কিছু সদস্য ক্ষমতাসীনদের খুশি করার লক্ষ্যে বিরোধী দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের উপর অন্যায় করে যাচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় পুলিশ দিয়ে হামলা করে বিরোধী মতের নেতাকর্মীদেরকে জখম, গুলি করে পঙ্গু করার মাধ্যমে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে এই মাফিয়া সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করার সকল অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। এই উদ্দেশ্য পূরণে সরকার দিন-দিন দানবীয় রূপ ধারণ করছে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ঘুমন্ত ‘প্রেমিকের’ গোপনাঙ্গ কাটলেন নারী, পরে গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

ঘুমন্ত ‘প্রেমিকের’ গোপনাঙ্গ কাটলেন নারী, পরে গ্রেপ্তার

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের আগানগর আমবাগিচা এলাকার ‘প্রেমিকের’ গোপনাঙ্গ কেটে আলাদা করে দেওয়ার ঘটনায় এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ রোববার ভুক্তভোগীর স্ত্রী দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় এ ঘটনায় মামলা দায়ের করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে দুপুরে আসামিকে আগানগরের কদমতলী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলাকারী জানান, তার স্বামীকে গত শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ঝাউবাড়ী এলাকায় নিজের বাসায় ডেকে নেন প্রিয়া। সেখানে তিনি ঘুমিয়ে পড়লে ওই নারী তার গোপনাঙ্গ ধারাল চাকু দিয়ে কেটে আলাদা করে ফেলেন।

আরও পড়ুন:


ইরানের নতুন প্রেসিডেন্টের সংবাদ সম্মেলন কাল

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পরীক্ষা স্থগিত

‘ড্যাব’কে অনুরোধ জানাব ফখরুলের মানসিক পরীক্ষা করাতে: তথ্যমন্ত্রী


গ্রেপ্তারের পর ওই নারীকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ওই ব্যক্তি নেশাগ্রস্ত। তাদের দুজনের প্রায় ছয় বছর ধরে সম্পর্ক ছিল। প্রিয়ার অভিযোগ, তার প্রেমিক তাকে বিয়ের করবেন বললেও আরেক নারীকে বিয়ে করে সংসার শুরু করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি গত শুক্রবার প্রেমিককে কৌশলে নিজের ঘরে ডেকে আনেন। নেশাগ্রস্থ অবস্থায় গভীর রাতে ঘুমিয়ে পড়লে নিজের কাছে থাকা চাকু দিয়ে তার গোপনাঙ্গ কেটে আলাদা করে দেন ওই নারী। পরে সেখান থেকে সরে পড়েন।

ভুক্তভোগীর স্ত্রী জানান, গভীর রাতে স্ত্রীকে ফোন করেন ভুক্তভোগী। পরে বাড়ির লোকজন গিয়ে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মিডফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, একজনের গোপনাঙ্গ কাটার বিষয়ে তার স্ত্রী আজ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। আসামি ঘটনার কথা স্বীকার করেছেন। এ কাজে তার সঙ্গে আর কেউ জড়িত আছে কি না, খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

নিখোঁজের ১৪ দিন পর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

নিখোঁজের ১৪ দিন পর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

নাটোরে নিখোঁজের ১৪ দিন পর জেলা সিএনজি মালিক সমিতির কোষাধ্যক্ষ মানিক সরকারের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে রামাইগাছি এলাকায় একটি রাস্তার পাশের ঘাসের জমি থেকে মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। এরপর উদ্ধার করে মর্গে নেওয়া হয়।

নিহতের স্ত্রী মনিরা বেগম জানান, গত ৬ জুন দোকানে যাওয়ার পর মানিককে তিনি ফোন করেন। তিনি রামাইগাছি এলাকায় একজনের সঙ্গে দেখা করতে গেছেন বলে উলে­খ করেন। ওই ফোন কলের পর থেকেই মানিক নিখোঁজ ছিলেন।

মানিক সিএনজি ব্যবসায়ী ও নাটোর জেলা সিএনজি মালিক সমিতির কোষাধ্যক্ষ। এ ছাড়া শহরের ভবানীগঞ্জ মোড়ে তার একটি গদিঘর আছে।

আরও পড়ুন:


ইরানের নতুন প্রেসিডেন্টের সংবাদ সম্মেলন কাল

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পরীক্ষা স্থগিত

‘ড্যাব’কে অনুরোধ জানাব ফখরুলের মানসিক পরীক্ষা করাতে: তথ্যমন্ত্রী


নিখোঁজের দিন বাড়ি না ফিরলে ৭ জুন নাটোর সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন মনিরা বেগম। স্বামীর খোঁজে ফেইসবুকেও স্ট্যাটাস তিনি। পরে রোববার ঘাস কাটতে গিয়ে স্থানীয়রা রাস্তার পাশের ঘাসের জমিতে অর্ধগলিত মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। এ সময় পরিবারের সদস্যরা মানিককে শনাক্ত করে।

নাটোর থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ভারত থেকে বাংলাদেশে আসার পর আটক ৮

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

ভারত থেকে বাংলাদেশে আসার পর আটক ৮

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশের সময় এক শিশুসহ আটজনকে আটক করেছে বিজিবি। রোববার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি সদস্যরা তাদের আটক করে। রাত সোয়া ১০টায় ৫৮ বিজিবির পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানা গেছে।

আটকরা হলেন- খুলনার বটিয়াঘাটা থানার নারায়ণপুর গ্রামের লিয়াকত খানের ছেলে আজিজুর খান (১৯), হাতিরাবাদ গ্রামের ইছাহক আলী শেখের ছেলে সলেমান শেখ (৩১), ফুলবাড়ি গ্রামের মৃত সৈয়দ আলী শেখের ছেলে গাউস শেখ (৩৫), তার স্ত্রী মোছা. সাবিনা (৩০) ও ছেলে সাব্বির হোসেন শেখ (৮), নড়াইল জেলার কালিয়া থানার বাবুপুর গ্রামের মিকাইল শিকদারের ছেলে শাহীন শেখ (১৯), হাড়িভাঙ্গা গ্রামের তারা মিয়ার ছেলে মো. মুন্না (২২) এবং রাজবাড়ী জেলার কালুখালী থানার হরিণবাড়িয়া গ্রামের শহীদ শেখের মেয়ে অজিফা খাতুন (২২)।

আরও পড়ুন:


ইরানের নতুন প্রেসিডেন্টের সংবাদ সম্মেলন কাল

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পরীক্ষা স্থগিত

‘ড্যাব’কে অনুরোধ জানাব ফখরুলের মানসিক পরীক্ষা করাতে: তথ্যমন্ত্রী


রোববার রাতে ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুরের ৫৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের পক্ষে সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম খান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, রোববার বিকেলে মহেশপুর ৫৮ ব্যাটালিয়নের অধীন চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর বিওপির সদস্যারা জীবননগর সীমান্তের বাংলাদেশের অভ্যন্তরে করিমপুর বাজারে অভিযান চালিয়ে ওই আট বাংলাদেশিকে আটক করে। আটকদের জীবননগর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

বিয়ের প্রলোভনে গৃহকর্তার বিরুদ্ধে আদিবাসী গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগ

জুবাইদুল ইসলাম, শেরপুর

বিয়ের প্রলোভনে গৃহকর্তার বিরুদ্ধে আদিবাসী গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগ

শেরপুরের শ্রীবরদীতে ৫ সন্তানের জননী এক বিধবা ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নারী গৃহকর্মীকে (৪০) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে জাকির হোসেন জিকো (৪৫) নামে এক গৃহকর্তার বিরুদ্ধে। ওই নারীর বাড়ি উপজেলার রাণীশিমুল ইউনিয়নের বালিজুরি খৃস্টানপাড়া এলাকায়। আর জিকো পার্শ্ববর্তী বালিজুরি হালুয়াহাটি এলাকার মৃত হাজী শরাফত আলীর ছেলে।

ওই ঘটনায় শেরপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নির্যাতিত নারী বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করলে ২০ জুন রোববার বিচারক মো. আখতারুজ্জান ঘটনার বিষয়ে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন:


ইরানের নতুন প্রেসিডেন্টের সংবাদ সম্মেলন কাল

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পরীক্ষা স্থগিত

‘ড্যাব’কে অনুরোধ জানাব ফখরুলের মানসিক পরীক্ষা করাতে: তথ্যমন্ত্রী


মামলা সূত্রে জানা যায়, সীমান্তের পাহাড়ি এলাকায় বাড়ি হওয়ায় গত দুই বছর আগে হাতির আক্রমণে মারা যায় হতদরিদ্র ওই নারীর স্বামী। পরে বাচ্চাদের মুখে দুমুঠো খাবার তুলে দেওয়ার জন্য জিকোর বাসায় গৃহকর্মীর কাজ নেয় ওই নারী।

তার অভিযোগ, জিকোর স্ত্রী বাসায় না থাকলে সে তাকে কুপ্রস্তাব দিত। ওই অবস্থায় গত ৯ জানুয়ারি দুপুরে ওই নারীকে তার বাড়িতে একা পেয়ে গৃহকর্তা জিকো সুযোগমতো সেখানে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। পরে ওই নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কয়েক দফায় ধর্ষণ করে গৃহকর্তা জিকো। একপর্যায়ে ওই নারী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে জিকো ওষধ দিয়ে তার ভ্রুণ নষ্ট করে ফেলে। কিন্তু এরপরও বিয়ের প্রলোভনে তাদের সম্পর্ক চলতে থাকলেও এক পর্যায়ে জিকো অবস্থান পরিবর্তন করে সেই সম্পর্ক অস্বীকার করে। পরে ওই নারী বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের অবহিত করলে জিকো তাকে বিয়ে না করে উল্টো মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নির্যাতনের শিকার নারীর আইনজীবী ইয়াসমিন আক্তার জানান, বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণকারী গৃহকর্তা স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় ভিকটিম তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা দিতে ব্যর্থ হয়ে ট্রাইব্যুনালে ওই মামলাটি দায়ের করেছেন। ট্রাইব্যুনাল পরবর্তী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে ঘটনার বিষয়ে তদন্তপূর্বক পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য জামালপুরের পিবিআইকে নির্দেশ দিয়েছেন।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর