আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন করেছে ইসরায়েল : দক্ষিণ আফ্রিকা

অনলাইন ডেস্ক

আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন করেছে ইসরায়েল : দক্ষিণ আফ্রিকা

গত কয়েকদিন ধরেই চলছে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘর্ষ। ইসরায়েলের এই ‘ঘৃণ্য পদক্ষেপ’ অবিলম্বে বন্ধ করা উচিত বলে একমত হয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো  এবং মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন। অন্যদিকে ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলা স্পষ্টভাবে আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন উল্লেখ করে তাদের এমন ‘বর্বর’ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার।

শুক্রবার (১৪ মে) দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারের পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘ইসরায়েলের এই পদক্ষেপ আন্তর্জাতিক আইনের সম্পূর্ণ লঙ্ঘন এবং জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের প্রস্তাবসমূহের (ইউএনএসসি) ৪৪৬ (১৯৭৯) এবং ২৩৩৪ (২০১৬) সঙ্গে একেবারেই যায় না, যেখানে ইসরায়েলি দখলদারিত্বের অবসান এবং ‘ফিলিস্তিনি জনগণের অধিকার ও স্বাধীনতা’ রক্ষার ব্যাপারে স্পষ্টভাবে আহ্বান জানানো হয়েছে।’

দক্ষিণ আফ্রিকা ইসরায়েলি বসতি স্থাপনের জন্য আল-আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা এবং পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জারারাহতে ফিলিস্তিনিদের তাদের বাড়িঘর থেকে বেআইনিভাবে উচ্ছেদের নিন্দা জানিয়েছে।

বিবৃতিতে ইসরায়েলকে ‘ফিলিস্তিনিদের ওপর বর্বর হামলা বন্ধ করা এবং একটি রাজনৈতিক প্রক্রিয়া পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টায় নিজেকে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ করার আহ্বান জানানো হয়, যা একটি কার্যকর ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দিকে পরিচালিত করবে।’

গত সোমবার (১০ মে) থেকে শুরু হওয়া সংঘর্ষ আজও চলছে এবং গাজায় বিমান হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল।  ইসরায়েলের হামলায় এ পর্যন্ত ১৩৯ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ৪০টি শিশু রয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন প্রায় ৯৫০ জন।  শনিবারও ফিলিস্তিনে বোমা হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল। হামলা থেকে বাঁচতে এ পর্যন্ত ১০ হাজার ফিলিস্তিনি বাড়ি-ঘর ছেড়েছে।

আল-আকসা মসজিদ মুসলমানদের জন্য বিশ্বের তৃতীয় পবিত্রতম স্থান। তবে ইহুদিরা জায়গাটিকে তাদের নিজেদের উপাসনালয় হিসেবে দাবি করে।  ১৯৬৭ সালে আরব-ইসরায়েলের যুদ্ধের সময় পূর্ব জেরুজালেম দখল করে ইসরায়েল। এরপর ১৯৮০ সালে পুরো জেরুজালেম তাদের নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। যা এখনও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় থেকে স্বীকৃতি পায়নি।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

মরক্কোয় বাসা ভাড়া পাচ্ছেন না ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত, থাকছেন হোটেলে

অনলাইন ডেস্ক

মরক্কোয় বাসা ভাড়া পাচ্ছেন না ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত, থাকছেন হোটেলে

প্রায় ছয়মাস হলো মরক্কোতে নিয়োগ পেয়েছেন ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত ডেভিড গভরিন। কিন্তু বাসা ভাড়া না পেয়ে এখনো হোটেলে থেকে দূতাবাসের কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে তাকে। কারণ, রাজধানী রাবাতের কোনো বাসিন্দা ইসরায়েলি দূতাবাসের জন্য বাসা ভাড়া দিচ্ছে না। খবর আল-জাজিরার।

আল-জাজিরার খবরে বলা হয়, গত বছর চতুর্থ আরব দেশ হিসেবে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করে মরক্কো। এরপর ইসরায়েল ডেভিড গভরিনকে মরক্কো মিশনের প্রধান হিসেবে নিয়োগ দেয়।

তবে মরক্কোর রাজধানী রাবাতের মানুষ ইসরায়েলি দূতের জন্য জায়গা বরাদ্দ দিচ্ছে না বলে জানিয়েছে মরক্কো এবং ইসরায়েলি গণমাধ্যম।

গত সপ্তাহ মরক্কোর স্থানীয় গণমাধ্যম আসাফিয়ার খবরে বলা হয়, ইসরায়েলি দূতের বাসস্থান খোঁজার জন্য ভাড়া করা এজেন্সি মরক্কোর মনোরম আবাসিক এলাকায় একটি উপযুক্ত বাসা খুঁজে পান। ফ্লাটটির প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা থাকায় ইসরায়েলি দূত ডেভিড গভরিনও বাসাটি পছন্দ করেন। কিন্তু সমস্যা হলো-ভবনটির মালিক যখন জানতে পারেন ইসরায়েলি দূতের জন্য বাসা ভাড়া নেওয়া হচ্ছে, তখন তিনি বাসা ভাড়া দিতে অস্বীকৃতি জানান।

আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, মরক্কোতে নিয়োগ পাওয়ার পূর্বে ডেভিড গভরিন মিশরের রাষ্ট্রদূত ছিলেন। দূত হিসেবে আরব মুসলিম দেশ মরক্কোতে নিয়োগ পাওয়ার ছয়মাস ধরে তিনি রাবাতের একটি হোটেলে থাকছেন।


আরও পড়ুন:


ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা সম্পর্কে যা জানালেন পরীমণি

নেইমার জাদুতে কোপায় উদ্বোধনী ম্যাচে ব্রাজিলের জয়

চতুর্থ বিয়ের মধুচন্দ্রিমায় পাহাড়ে যেতে চান শ্রাবন্তী?

বিয়ের আসরে নকল গহনা, মারামারি পরে ক্ষতিপূরণ রেখে তালাক


উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের মধ্যস্থতায় গত বছরে চতুর্থ মুসলিম দেশ হিসেবে ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেয় মরক্কো। বিনিময়ে যুক্তরাষ্ট্র বিতর্কিত পশ্চিম সাহারা অঞ্চলে মরক্কোর দাবিকে স্বীকৃতি দেয়।

তবে গত বছর মরক্কো যখন ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করে তখন দেশটির নাগরিকরা সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানান।

কিন্তু মরক্কোর সরকার ‘ইতিমধ্যে ইসরায়েলে সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক রয়েছে, এবং সেই স্বাভাবিক সম্পর্ক পুনরায় শুরু করা হচ্ছে’ বলে নাগরিকদের শান্ত করেন।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রীর প্রতি হামাসের হুঁশিয়ারি

অনলাইন ডেস্ক

ইসরাইলের নতুন প্রধানমন্ত্রীর প্রতি হামাসের হুঁশিয়ারি

ইসরাইলের ক্ষমতায় পরিবর্তনের কারণে প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো ফিলিস্তিনি জাতির অধিকার আদায়ের সংগ্রাম থেকে হামাস বিন্দুমাত্র পিছু হটবে না বলে মন্তব্য করেছেন হামাসের অন্যতম নেতা ইসমাইল রেদোয়ান। রোববার বিরোধী নেতা নাফতালি বেনেত ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে তিনি।

রেদোয়ান বলেন, ইসরাইলের ক্ষমতায় যে ব্যক্তিই আসুক তাকে সবার আগে হামাসের সঙ্গে বন্দি বিনিময়ের দিকে মনোযোগ দিতে হবে। তিনি বলেন, নাফতালি বেনেতকে জানতে হবে বন্দি বিনিময়ের সঙ্গে গাজা উপত্যকার ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার বা এই উপত্যকার পুনর্গঠনের কোনো সম্পর্ক নেই।

তিনি বলেন, ইসরাইলের নয়া প্রধানমন্ত্রী যদি গাজায় আটক ইসরাইলি বন্দিদের মুক্ত করার ব্যাপারে সত্যিই আন্তরিক হন তাহলে তাকে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ যোদ্ধাদের দাবি পুরোপুরি মেনে নিতে হবে।


আরও পড়ুন:


 

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা সম্পর্কে যা জানালেন পরীমণি

নেইমার জাদুতে কোপায় উদ্বোধনী ম্যাচে ব্রাজিলের জয়

চতুর্থ বিয়ের মধুচন্দ্রিমায় পাহাড়ে যেতে চান শ্রাবন্তী?

 

বিয়ের আসরে নকল গহনা, মারামারি পরে ক্ষতিপূরণ রেখে তালাক


উল্লেখ্য, ইসরাইলি পার্লামেন্ট বহু জল্পনার অবসান ঘটিয়ে রোববার ৬০-৫৯ ভোটের ব্যবধান নাফতালি বেনেতকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করে। এর ফলে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ১২ বছরের শাসনের অবসান হয়।

বিরোধী দলগুলোর মধ্যকার সমঝোতা অনুযায়ী বেনেত ২০২৩ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকবেন এবং এরপর অপর বিরোধী নেতা ইয়ার লাপিদ ক্ষমতা গ্রহণ করবেন।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

মারা গেলেন ৩৮ স্ত্রী ও ৮৯ জন সন্তানের বাবা

অনলাইন ডেস্ক

মারা গেলেন ৩৮ স্ত্রী ও ৮৯ জন সন্তানের বাবা

ভারতে মিজোরামে বিশ্বের বৃহত্তম পরিবারের অন্যতম প্রধান জিয়না চানা ৩৮ জন স্ত্রী, ৮৯ জন শিশু ও ৩৩ নাতি নাতনি রেখে আজ রবিবার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যকালে তাঁর বয়স ছিল ৭৬ বছর।

আইজল জেলা প্রশাসনের একজন জানিয়েছেন, জিয়না ৭জুন থেকে অসুস্থ ছিলেন এবং কিছুদিন আগে তার ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন এবং বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যার কারণে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানেই আজ রবিবার বিকেলে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।


আরও পড়ুন

নিয়োগ দেবে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর

শুভাগত হোমকে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দিয়েছে মোহামেডান

তুরস্কে পাওয়া গেল ১ হাজার ৮শ বছর আগের ভাস্কর্য

নিজের দাম বাড়িয়েছেন রাশি খান্না


 

মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাংগা একটি টুইট বার্তায় জিয়ানর মৃত্যতে শোক প্রকাশ করেন।

তাঁর পারিবারিক সূত্র জানায়, জিয়নার আত্মীয়স্বজন এবং দর্শনার্থীদের থাকার জন্য একটি অতিথিশালা রয়েছে। এই বিশাল খ্রিস্টান পরিবারের প্রায় একচেটিয়াভাবে একটি স্কুল এবং খেলার মাঠ রয়েছে।
জিয়ানার সন্তান এবং তাদের স্ত্রী এবং তাদের বাচ্চারা একই ভবনের বিভিন্ন কক্ষে বাস করে, তবে সবাই একটি রান্নাঘর শেয়ার করে।

স্থানীয়দের মতে, পরিবারটি অনেকটা সামরিক শৃঙ্খলা নিয়ে গঠিত হয়েছে, প্রবীণ স্ত্রী খাবার প্রস্তুত করার পাশাপাশি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, ধোয়ার মতো গৃহস্থালি কাজ করার জন্য তার সহকর্মী এবং সহযোগীদের পরিচালনা করেন।

এক বেলার খাবারে তাদর ৩০টি মুরগি, প্রায় 60 কেজি আলু এবং প্রায় 100 কেজি চাল প্রয়োজন হয়। 

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

লকডাউন শিথিল হলে আক্রান্ত প্রতিদিন ১ লাখ ছাড়াবে

অনলাইন ডেস্ক

লকডাউন শিথিল হলে আক্রান্ত প্রতিদিন ১ লাখ ছাড়াবে

ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের গবেষকরা আশঙ্কা করছেন, যুক্তরাজ্যে ২১ জুনের আগে লকডাউন খুলে দিলে দেশটিতে আবারও প্রতিদিন ১ লাখ করে মানুষ নতুন  করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। প্রফেসর অ্যান্টানি কস্টেলো জানিয়েছেন, সপ্তাহের ব্যবধানে আক্রান্ত দ্বিগুন হচ্ছে যুক্তরাজ্যে। যা অত্যন্ত আশঙ্কা জনক।

সর্বশেষ তথ্যমতে, যুক্তরাজ্যে ভারতীয় ধরন গত সপ্তাহে আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ হাজার ৮৯২ জন। যা এই সপ্তাহে এসে দাড়িয়েছে ৪২ হাজার ৩২৩ জনে। প্রফেসর অ্যান্টানি আরও জানান, মাত্র নয় দিনের ব্যাবধানে আক্রান্ত দ্বিগুন হয়েছে। তাই যদি লকডাউন খুলে দেওয়া হয়,আগামী এক মাসের মধ্যে আক্রান্ত প্রতিদিন ১ লাখ ছাড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে।


আরও পড়ুন

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ: মাঠে যাওয়ার সময় আম্পায়ারদের গাড়িতে হামলা

১০ বছরের জেল হতে পারে নেতানিয়াহুর: ইসরাইলি আইনজীবী

এবার ফিলিস্তিনি নারীকে গুলি করে হত্যা ইসরাইলি বাহিনীর

বিয়ের আসরে নকল গহনা, মারামারি পরে ক্ষতিপূরণ রেখে তালাক


তিনি আরও জানান, এখনও অনেক মানুষ টিকা নেয়নি, তাই সরকার যদি এই মুহূর্তে লকডাউন পুরোপুরি খুলে দেয় তাহলে আগামী মাস গুলোতে হাসপাতাল গুলোর অবস্থা দ্বিতীয় ওয়েভের মতো মারাত্মক হতে পারে।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

জি-৭ সম্মেলনে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে হাসি আড্ডায় রানি এলিজাবেথ

অনলাইন ডেস্ক

জি-৭ সম্মেলনে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে হাসি আড্ডায় রানি এলিজাবেথ

যুক্তরাজ্যের কর্ণওয়ালে অনুষ্ঠিত এবারের জি-৭ সম্মেলনে বিশ্বনেতাদের সংবর্ধনা দিয়েছেন ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। অনুষ্ঠানে ছবি তোলার সময় সেন্স অব হিউমারের পরিচয় দিয়ে রানি হাসি মুখে জিজ্ঞাসা করেন, ‘আপনারা কি নিজেদের খুশি দেখাচ্ছেন, নাকি সত্যি সত্যিই নিজেদের এখানে উপভোগ করছেন?

উত্তরে জবাবে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ‘হ্যাঁ। আমরা উপভোগ করছি।’ এ সময় অন্যান্য নেতারা মুচকি হেসে ওঠেন। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন রানির বড় ছেলে ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরসূরী প্রিন্স চার্লস, তার স্ত্রী ক্যামিলা পার্কার এবং নাতি প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী কেট মিডলটন।


আরও পড়ুন

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ: মাঠে যাওয়ার সময় আম্পায়ারদের গাড়িতে হামলা

১০ বছরের জেল হতে পারে নেতানিয়াহুর: ইসরাইলি আইনজীবী

এবার ফিলিস্তিনি নারীকে গুলি করে হত্যা ইসরাইলি বাহিনীর

বিয়ের আসরে নকল গহনা, মারামারি পরে ক্ষতিপূরণ রেখে তালাক


বিশ্বনেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার আগে কর্নওয়ালের একটি ইডেন প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন রাজপরিবারের এই জ্যেষ্ঠ তিন নারী। ওই অনুষ্ঠানে প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী তলোয়ার দিকে কেক কাটেন রানি।

সূত্রঃ ডেইলি মেইল, ইন্ডিপেনডেন্ট

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর