ইসরায়েলি বাহিনী যা করছে, তা যুদ্ধাপরাধ : ইসরায়েলের সাবেক পাইলট
ইসরায়েলি বাহিনী যা করছে, তা যুদ্ধাপরাধ : ইসরায়েলের সাবেক পাইলট

ইসরায়েলি বাহিনী যা করছে, তা যুদ্ধাপরাধ : ইসরায়েলের সাবেক পাইলট

অনলাইন ডেস্ক

ইসরায়েলি সরকার ও সামরিক বাহিনীর কমান্ডাররা যুদ্ধাপরাধী বলে মন্তব্য করেছেন ইসরায়েলি বিমান বাহিনীর সাবেক পাইলট ইয়োনাতান শাফিরা 

তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদুলুকে দেওয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে তিনি এমন দাবি করেন।

২০০৩ সালে শাফিরাকে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। ইসরায়েল ও দেশটির সামরিক বাহিনীর মধ্যে অনেকেই অবৈধ দখলদারিত্বের বিরোধী। এই পাইলট ছিলেন তাদেরই একজন।

দেশটির মধ্যকার পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে সামরিক বাহিনীর অন্যান্য সদস্যদের পদত্যাগের কথা বিবেচনা করতে উৎসাহিত করতে প্রচার চালিয়ে আসছেন তিনি। এ প্রচারে তার বন্ধুরাও রয়েছেন। ফলে ২০০৩ সাল থেকে ২৭ জনের বেশি সামরিক পাইলট নিজেদের পদ থেকে সরিয়ে দাঁড়িয়েছেন। শাফিরা ফিলিস্তিনিদের অধিকার আদায়ের বিক্ষোভে যোগ দিয়েছিলেন এবং আন্তর্জাতিকে সম্মেলনের মাধ্যমে ইসরায়েলি যুদ্ধাপরাধের বিষয়টি তুলে ধরছেন।

পরবর্তীতে তিনি নরওয়ে চলে যান এবং এখন সেখানেই বসবাস করছেন। কীভাবে তিনি ইসরায়েলি বাহিনীর মতো একটি সন্ত্রাসী সংগঠনের অংশ হয়ে গেছেন বলে তার মনে হয়েছে, সাক্ষাৎকারে সাবেক এই পাইলট সেই ব্যাখ্যা দেন।

তিনি বলেন, দ্বিতীয় ইন্তিফাদার সময় আমার মনে হল, ইসরায়েলি বিমান বাহিনী ও সেনাবাহিনী যা করছে, তা যুদ্ধাপরাধ। লাখ লাখ ফিলিস্তিনিদের আতঙ্কের মধ্যে রেখে দিয়েছে তারা। সাবেক এই পাইলট বলেন, ইসরায়েলের একটি শিশু ইহুদিবাদী সমরমুখী শিক্ষা নিয়ে বেড়ে ওঠে। এখানের একটি শিশুকে ফিলিস্তিন সম্পর্কে একেবারে কিছুই জানানো হয় না। এমনকি ১৯৪৮ সালের নাকবা ও চলমান নিপীড়ন নিয়ে তাদের অন্ধকারে রাখা হয়।

‘ফিলিস্তিনের শহরগুলোর কেন্দ্রস্থলে বোমা মারে, ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে ইসরায়েলি বাহিনী। এরপর আমার মনে হলো, এটা তো সন্ত্রাসবাদ। ’

news24bd.tv/আলী 

;