‌‘আয়রন ডোমকে’ ফাঁকি দিয়ে ইসরায়েলে আঘাত হানছে ঝাঁকে ঝাঁকে রকেট

অনলাইন ডেস্ক

‌‘আয়রন ডোমকে’ ফাঁকি দিয়ে ইসরায়েলে আঘাত হানছে ঝাঁকে ঝাঁকে রকেট

ইসরায়েলের নৃশংস আগ্রাসনের জবাবে ফিলিস্তিন থেকে ব্যাপক হারে রকেট হামলা চালানো হচ্ছে। যা ২০১৯ ও ২০০৬ সালের চাইতে বেশি।

ইসরায়েলি আগ্রাসনের পাল্টা জবাব হিসেবে যে হারে ঝাঁকে ঝাঁকে রকেট হামলা হচ্ছে, তা দেখে বিস্মিত ইসরায়েল।

ইসরায়েলের সেনাবাহিনী গতকাল রোববার এ বিস্ময় প্রকাশ করে।

তাদের ভাষ্য, এবারের সংঘাতে তারা ফিলিস্তিন থেকে সর্বোচ্চহারে রকেট হামলার মুখে পড়েছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। ইসরায়েলের সেনাবাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল অরি গর্ডিন বলেন, ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীন হামাস গোষ্ঠী আজ সোমবার পর্যন্ত ইসরায়েলি ভূখণ্ড লক্ষ্য করে প্রায় তিন হাজার রকেট ছুড়েছে।

আগে হামাস বা লেবাননের হিজবুল্লাহ গোষ্ঠীর সঙ্গে সংঘাতকালে ইসরায়েলের ভূখণ্ড লক্ষ্য করে যে হারে রকেট ছোড়া হয়েছিল, সেই তুলনায় এবার ইসরায়েল অনেক বেশি হারে রকেট হামলার মুখে পড়েছে বলে জানান মেজর জেনারেল অরি গর্ডিন।

ইসরায়েলের সেনাবাহিনীর বরাতে আর্ন্তজাতিক গণমাধ্যমের খবরে প্রকাশ, ২০১৯ সালের নভেম্বরে ফিলিস্তিনের সঙ্গে এক দফায় সংঘাতে জড়ায় ইসরায়েল। তখন তিন দিনে গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েলের ভূখণ্ড লক্ষ্য করে মোট ৫৭০টি রকেট ছোড়ে হামাস।

২০০৬ সালে লেবাননের সশস্ত্র সংগঠন হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধে জড়ায় ইসরায়েল। ওই যুদ্ধে ১৯ দিনে হিজবুল্লাহ প্রায় ৪ হাজার ৫০০ রকেট হামলা চালায় ইসরায়েলে। হিজবুল্লাহর রকেট হামলায় তখন ইসরায়েলের জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। হিজবুল্লাহর সঙ্গে এই যুদ্ধের পরই ইসরায়েল একটি নতুন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা গড়ার বিষয়ে ঘোষণা দেয়।

তারপরই তারা ‘আয়রন ডোম’ নামের বিশ্বের অত্যাধুনিক আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা গড়ে তোলে। ইসরায়েল ২০১১ সালে প্রথম ‘আয়রন ডোম’ মোতায়েন করে।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর দাবি, আয়রন ডোমের মাধ্যমে তারা অধিকাংশ রকেট হামলা আকাশেই ঠেকিয়ে দিচ্ছে। তবে এবার গাজা থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে রকেট হামলার পরিপ্রেক্ষিতে আয়রন ডোমের দুর্বলতা সামনে আসছে। গাজা থেকে ছোড়া অনেক রকেট আয়রন ডোম ফাঁকি দিয়ে ইসরায়েলে আঘাত হানতে সক্ষম হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

আদনানকে খুঁজে না পাওয়ায় উদ্বিগ্ন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

অনলাইন ডেস্ক

আদনানকে খুঁজে না পাওয়ায় উদ্বিগ্ন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

গত বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে তিনদিন গাড়িচালকসহ নিখোঁজ রয়েছেন মো. আফছানুল আদনান (আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনান) নামের এক যুবক। তিনি অনলাইনে ধর্মীয় বক্তা হিসেবে পরিচিত।

এই ঘটনায় উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সাউথ এশিয়া।

আজ সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সংস্থাটি একটি বাংলাদেশি ইংরেজি দৈনিক পত্রিকার সংশ্লিষ্ট একটি খবরের শেয়ার করে এই বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে।

তারা জানায়, “তিনজন সঙ্গীসহ আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনানকে বৃহস্পতিবার থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। কর্তৃপক্ষের অবশ্যই এই ব্যাপারে তাদের অবস্থান নির্ধারণের জন্য দ্রুত এবং নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করতে হবে। তারা রাষ্ট্রীয় হেফাজতে থাকলে তাদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে।।”

গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে আদনানকে তার স্ত্রী ফোন দিলে তিনি বলেন, তিনি এখন ঢাকার গাবতলীতে আছেন। মুঠোফোনের চার্জও প্রায় শেষ হয়ে গেছে। এরপর থেকে আদনানসহ সবার মুঠোফোনই বন্ধ রয়েছে।


আরও পড়ুন:


তিন সঙ্গীসহ তিনদিন নিখোঁজ ধর্মীয় বক্তা আদনান

পরীমনির ঘটনা দেখে মনে হচ্ছে কোথাও কারো মধ্যে ঘাপলা আছে

মধ্যগগণে ক্রু-যাত্রীদের ধ্বস্তাধস্তি, বিমানের জরুরি অবতরণ

চতুর্থ বিয়ের মধুচন্দ্রিমায় পাহাড়ে যেতে চান শ্রাবন্তী?


উল্লেখ্য, আদনান কোনো রাজনীতি বা কোনো ধর্মীয় সংগঠনও করেন না বলে জানান আদনানের মা। আদনানের খোঁজ না পেয়ে পরিবার উদ্বিগ্ন ও উৎকণ্ঠিত। ছেলেকে খুঁজে পেতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগিতা চান তিনি।

আদনানের খোঁজ না পেয়ে তার মা রংপুর কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

রোহিঙ্গাদের সমর্থনে আন্দোলন

অনলাইন ডেস্ক

রোহিঙ্গাদের সমর্থনে আন্দোলন

রোহিঙ্গাদের সমর্থন জানিয়ে মিয়ানমারের জান্তাবিরোধী আন্দোলনকারীরা বিভিন্ন স্থানের পাশাপাশি আন্দোলন শুরু করেছেন। আন্দোলনের ডাকে চালু করা হ্যাশট্যাগ টুইটার ট্রেন্ডে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে।

গত পহেলা ফেব্রুয়ারি অং সান সু চিকে সরিয়ে সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখল করার পর মিয়ানমারে রাজনৈতিক অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। হাজার-হাজার নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। মারা গেছেন শত শত মানুষ।

এই পরিস্থিতিতে রোহিঙ্গাদের অন্ধকার ভবিষ্যৎ যেন আরও অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। তখন জান্তাবিরোধীদের গঠন করা ছায়া সরকার ঘোষণা দেয়, ক্ষমতায় গেলে তারা রোহিঙ্গাদের ফেরত নেবে।

মিয়ানমারে গতকাল রবিবার বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের নেতাকর্মীরা কালো পোশাক পরা ছবি পোস্ট করে ‘#Black4Rohingya’ হ্যাশট্যাগ চালু করেন।


আরও পড়ুন

সে রাতে উত্তরা বোট ক্লাবে পরীমনির সঙ্গে কী ঘটেছিল!

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা সম্পর্কে যা জানালেন পরীমণি

নেইমার জাদুতে কোপায় উদ্বোধনী ম্যাচে ব্রাজিলের জয়

চতুর্থ বিয়ের মধুচন্দ্রিমায় পাহাড়ে যেতে চান শ্রাবন্তী?


বিখ্যাত মানবাধিকার কর্মী থিনজার সুনলেই তার টুইটারে লিখেছেন, ‘মিয়ানমারে আমাদের সবার জন্য অবশ্যই ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে।’

মিয়ানমারের বিভিন্ন ব্যবসায়িক কেন্দ্রের পাশাপাশি বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের অনেকেই রোহিঙ্গাদের সমর্থন জানান।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

বাহরাইনের ‘লাল তালিকা’য় বাংলাদেশ, ওয়ার্ক পারমিট ভিসা বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক

বাহরাইনের ‘লাল তালিকা’য় বাংলাদেশ, ওয়ার্ক পারমিট ভিসা বন্ধ

বাংলাদেশকে ‘লাল তালিকাভূক্ত’ করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ বাহরাইন। এর ফলে বাংলাদেশি নাগরিকদেরকে বাহরাইনে নতুন করে আর কোনো ‘ওয়ার্ক পারমিট ভিসা’ দেওয়া হবে না। রোববার (১৩ জুন) বাহরাইনের শ্রমবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা এই ঘোষণা দিয়েছে।

গালফ নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, লাল তালিকায় বাংলাদেশ ছাড়াও রয়েছে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও নেপাল। গত ২৪ মে থেকে এসব দেশ থেকে বাহরাইন প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এছাড়া গত ১ জুন ভিয়েতনামকেও লাল তালিকাভূক্ত করেছে বাহরাইন।

বাহরাইনে মহামারি করোনার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে সরকারের প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নতুন এই নিষেধাজ্ঞার কারণে এসব দেশের নাগরিকদের জন্য ওয়ার্ক পারমিট ভিসা দেয়া বন্ধ করে দেবে কর্তৃপক্ষ।


আরও পড়ুন:


তিন সঙ্গীসহ তিনদিন নিখোঁজ ধর্মীয় বক্তা আদনান

মধ্যগগণে ক্রু-যাত্রীদের ধ্বস্তাধস্তি, বিমানের জরুরি অবতরণ

চতুর্থ বিয়ের মধুচন্দ্রিমায় পাহাড়ে যেতে চান শ্রাবন্তী?

দায়িত্ব গ্রহণ করেই যে প্রতিশ্রুতি দিলেন ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী


তবে লাল তালিকাভুক্ত দেশগুলোর পরিস্থিতি নিয়মিত পর্যালোচনা করে তালিকাটি হালনাগাদ করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

শীর্ষ বৈঠকের আগে পুতিনের বিরুদ্ধে বাইডেনের অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

শীর্ষ বৈঠকের আগে পুতিনের বিরুদ্ধে বাইডেনের অভিযোগ

রাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক বর্তমানে সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে স্বীকার করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ব্রিটেনের কর্নওয়াল কাউন্টিতে গতকাল রোববার শিল্পোন্নত দেশগুলোর সংগঠন জি-সেভেনের শীর্ষ সম্মেলন শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এ সম্পর্কে জো বাইডেন বলেন,"আমি মনে করি তিনি ঠিক কথা বলেছেন, সম্পর্ক সর্বনিম্ন পর্যায়ে। তবে এসবই নির্ভর করছে আন্তর্জাতিক আইন কানুন মেনে চলার ব্যাপারে তিনি কীভাবে এগিয়ে আসেন তার ওপর। অনেক ব্যাপারেই তিনি এসবগুলো মানেন না।”

এ সময় তিনি আবারো ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনকে অভিযুক্ত করেন। তবে, মস্কো বরাবরই যুক্তরাষ্ট্রের এই অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছে।

জো বাইডেন সরাসরি বলেন, “আমি বিষয়গুলো পরীক্ষা করে দেখেছি। গোয়েন্দা সংস্থার সমস্ত কর্মকাণ্ডে আমার প্রবেশাধিকার আছে। পুতিন ঠিকই এসব কাজ করেছেন। আমি আগেও বলেছি, এখনও বলছি পুতিন এসব কাজের সাথে জড়িত ছিলেন।”

এর আগে গত ১১ জুন মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল সিএনবিসি-কে দেয়া সাক্ষাৎকারে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তার দেশের সম্পর্ক বর্তমানে সবচেয়ে খারাপ পর্যায়ে রয়েছে।

আরও পড়ুন:


তিন সঙ্গীসহ তিনদিন নিখোঁজ ধর্মীয় বক্তা আদনান

মধ্যগগণে ক্রু-যাত্রীদের ধ্বস্তাধস্তি, বিমানের জরুরি অবতরণ

চতুর্থ বিয়ের মধুচন্দ্রিমায় পাহাড়ে যেতে চান শ্রাবন্তী?

দায়িত্ব গ্রহণ করেই যে প্রতিশ্রুতি দিলেন ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী


উল্লেখ্য, আগামী ১৬ জুন সুইজারল্যান্ডের জেনেভা শহরে পুতিন এবং বাইডেন শীর্ষ বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন। তার আগে জো বাইডেন রুশ প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ করলেন।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

মধ্যগগণে ক্রু-যাত্রীদের ধ্বস্তাধস্তি, বিমানের জরুরি অবতরণ

অনলাইন ডেস্ক

মধ্যগগণে ক্রু-যাত্রীদের ধ্বস্তাধস্তি, বিমানের জরুরি অবতরণ

লস এঞ্জেলস থেকে আটলান্টায় যাচ্ছিল ডেল্টা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট। বিমানটি আকাশে থাকা অবস্থাতেই ধ্বস্তাধস্তি শুরু হয় ক্রু ও যাত্রীদের মধ্যে। আর তা এমন আকার ধারণ করে যে বিমানটি জরুরি অবতরণ করাতে বাধ্য হন বিমানটির পাইলটেরা। শুক্রবার (১১ জুন) যুক্তরাষ্ট্রের আকাশে এই ঘটনা ঘটে।

দ্য গার্ডিয়ান জানায়, ফ্লাইটটি টুইটারে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে ডেল্টা ফ্লাইট-১৭৩০ এ এক যাত্রীর সঙ্গে ক্রু ও অন্য যাত্রীদের ধস্তাধস্তি করতে দেখা গেছে।

আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, কিছু যাত্রী ও ক্রু এক ব্যক্তিকে ফ্লোরে চেপে ধরে রাখার চেষ্টা করছে। অন্যদিকে ওই যাত্রীকে নিজেকে ছাড়াতে ব্যাপক ধস্তাধস্তি করতে দেখা যায়। এসময় ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্ট বারবার যাত্রীদের নিজের সিটে বসতে অনুরোধ জানান।

এরিক জিগশ্চমিড নামে ডেল্টা এয়ারলাইন্সের এক মুখপাত্র বলেন, উগ্র আচরণ করা এক যাত্রীকে আটক করতে ক্রু ও অন্য যাত্রীরা আমাদের সহায়তা করেছে। ফ্লাইটটি বড় কোনো ঘটনা না ঘটলেও ওকলাহোমায় নামতে বাধ্য হয়। আটক যাত্রীকে সেখান থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে তুলে দেয়া হয়।


আরও পড়ুন:


তিন সঙ্গীসহ তিনদিন নিখোঁজ ধর্মীয় বক্তা আদনান

নেইমার জাদুতে কোপায় উদ্বোধনী ম্যাচে ব্রাজিলের জয়

চতুর্থ বিয়ের মধুচন্দ্রিমায় পাহাড়ে যেতে চান শ্রাবন্তী?

দায়িত্ব গ্রহণ করেই যে প্রতিশ্রুতি দিলেন ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী


ফ্লাইটটি রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওকলাহোমা শহরে নামে বলে ওয়েবাসইটে জানায় ডেল্টা এয়ারলাইন্সের ওয়েবসাইট। আড়াই ঘণ্টা পর রাত ২টায় ফ্লাইটটি ওকলাহোমা শহর ত্যাগ করে।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর