কোম্পানীগঞ্জের সাবেক ছাত্রনেতার বিরুদ্ধে স্পেন ছাত্রলীগ নেতার মানহানির অভিযোগ
কোম্পানীগঞ্জের সাবেক ছাত্রনেতার বিরুদ্ধে স্পেন ছাত্রলীগ নেতার মানহানির অভিযোগ

কোম্পানীগঞ্জের সাবেক ছাত্রনেতার বিরুদ্ধে স্পেন ছাত্রলীগ নেতার মানহানির অভিযোগ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা
Other

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের সাবেক ছাত্রনেতা সালেকিন রিমনের বিরুদ্ধে স্পেন ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইসমাইল হোসাইন রায়হানের মানহানির অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।  

কোম্পানিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এর আগে স্পেন ছাত্রলীগের নেতা ইসমাইলের পক্ষে মঙ্গলবার (১৮ মে) সকালে বসুরহাট পৌরসভার শ্রমিক লীগের সহসভাপতি মৃত জিয়াউল হকের ছেলে ইকবাল হোসেন স্বপন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলায় রামপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের হায়দার মিয়ার ছেলে সিরাজুল সালেকিন রিমনকে প্রধান আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৬ এপ্রিল সালেকিন রিমন নামক এক ব্যক্তি ফেসবুক লাইভে মিথ্যা বানোয়াট কথা প্রচার করতে থাকেন। তার দেওয়া মিথ্যা তথ্য অনুযায়ী হামিদুর রহমান শান্ত নামক একটি ফেইসবুক একাউন্ট থেকে ইয়াবাখোর আকা মির্জা একজন সমকামী ছিলেন বসুরহাটের ইসমাইল হোসেন রায়হানকে তিনি অজস্র বার বলাৎকার করেছেন বলেছেন সালেকিন রিমন পোস্ট করেন।

এরপর ৭ এপ্রিল জাকির হোসেন নামক একটি ফেসবুক একাউন্ট আমার নামে (ইসমাইল হোসেন) মিথ্যা কুরুচীপূর্ণ ও অশালীনভাষায় খবর প্রচার করা হয়। সেখানে “বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা আমার সাথে অসংখ্যবার বলৎকার করেছেন” বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট করে।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি আরো বলেন, ইসমাইল স্পেন দূতাবাসের মাধ্যমে একটি অভিযোগ দিয়েছেন। তার পক্ষে একজন এই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন।

তিনি আরো বলেন, স্পেন ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইসমাইল হোসাইন রায়হান মানহানির অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। খুব দ্রুত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা করা হবে।

প্রসঙ্গত, মেয়র কাদের মির্জার সঙ্গে স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের বিগত ৫ মাস যাবত দ্বন্দ্ব সংঘাত চলে আসছে। এর জের ধরে সংঘর্ষে তরুণ সাংবাদিকসহ দুজন নিহত ও শতাধিক আহত হয়েছেন। এখনো অনেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা পাল্টা মামলায় অনেক নেতাকর্মী এখনো জেলহাজতে আছেন।

 

সম্পর্কিত খবর

;