মাদারীপুরে তিন হাসপাতালে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

মাদারীপুরে তিন হাসপাতালে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দর এলাকায় রোববার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তিনটি প্রাইভেট হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ৫ হাজার করে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজওয়ানা কবির।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দর এলাকায় লাইসেন্স বিহীন হাসপাতাল পরিচালনা ও পরিস্কার-পরিছন্নতা না থাকায় রোববার দুপুরে টেকেরহাট হেলথ কেয়ার, এ্যাপোলো হাসপাতাল এবং ইউ.কে হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

রাজৈর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজওয়ানা কবির জানান, ক্লিনিক বা প্রাইভেট হাসপাতালগুলোকে সরকারের নীতিমালার মধ্যে ফিরিয়ে আনতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। আগামীতে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

গোসলের ভিডিও ধারণ করে গৃহবধূকে ব্ল্যাকমেইল করে ধর্ষণ, অতঃপর

রেজাউ করিম মানিক, রংপুর :

গোসলের ভিডিও ধারণ করে গৃহবধূকে ব্ল্যাকমেইল করে ধর্ষণ, অতঃপর

রংপুরে নগরীতে গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল করে ধর্ষণ ও টাকা আদায়ের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আরিফুল ইসলাম নামের এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৬ জুন) বিকেলে ঠাকুরগাঁও থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে রংপুুুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (মাহিগঞ্জ জোন) আল ইমরান হোসেন। আসামি নগরীর হারাগাছ থানাত বাহার কাছনা এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, সিগারেট কোম্পানি বাহার কাছনা এলাকার এক গৃহবধূর গোসলের ভিডিও গোপনে ধারণ করেন একই এলাকার আরিফুল ইসলাম। এরপর সেই গোসলের ভিডিও দেখিয়ে আরিফুল ওই গৃহবধূর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন। সংসার বাঁচাতে বিষয়টি গোপন রেখে জমি কেনার জন্য জমা করা ৪০ হাজার টাকা আরিফুলকে দেন ওই গৃহবধূ। 

একই সঙ্গে ভিডিওটি ফেসবুকে না ছড়ানোর জন্য অনুরোধ করেন। এর কিছুদিন পর ফের ওই গৃহবধূকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ৬০ হাজার টাকা আদায় করেন আরিফুল। ৯ এপ্রিল রাতে স্বামীর অনুপস্থিতিতে ওই গৃহবধূর বাড়িতে ঢুকে আরও ১০ হাজার টাকা দাবি করেন আরিফুল। ওই সময় চিৎকার করলে ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন এবং একপর্যায়ে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন আরিফুল।

পরদিন একইভাবে ওই গৃহবধূর বাড়িতে ঢুকে ধর্ষণ করেন এবং ধর্ষণের ভিডিওটি মুঠোফোনে ধারণ করেন। পরে কয়েকজন বন্ধুকে ধর্ষণের ভিডিওটি দেখান আরিফুল। এরপর বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়।

পরে ওই গৃহবধূ ঘটনাটি জানালে আত্মসম্মান রক্ষায় পরিবারের লোকজন ঘটনাটি আরিফুলের পরিবারকে জানায়। কিন্তু স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করার কথা বলে কালক্ষেপণ করেন আরিফুলের প্রভাবশালী বাবা আব্দুর রাজ্জাক ও তার দুই চাচা। পরে উপায়ন্ত না পেয়ে ওই গৃহবধূ পরিবারের পরামর্শে গত রোববার (১৩ জুন) রাতে আরিফুলসহ চারজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন এবং পর্নগ্রাফী আইনে মামলা করেন। মামলা দায়েরের পর আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেপ্তার করা হলেও আরিফুল গা ঢাকা দেন।

সহকারী পুলিশ কমিশনার (মাহিগঞ্জ জোন) আল ইমরান হোসেন জানান, তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঠাকুরগাঁও থেকে আসামি আরিফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন


পরীমনি কেনো এতো রাতে বোট ক্লাবে যাবে: সোহান (ভিডিও)

ক্লাবে ঢুকে মদ না পেয়ে তারা ভাঙ্গচুড় চালায় : ক্লাব কর্তৃপক্ষ (ভিডিও)

অল কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ অস্বীকার করলেন পরীমনি (ভিডিও)

মদ পানে গভীর রাতে যুবক-যুবতী নিয়ে ক্লাবে যেতেন পরীমনি


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

কুমিল্লায় নকল বিটুমিন-মবিল-ডিজেল তৈরির কারখানার সন্ধান

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লায় নকল বিটুমিন-মবিল-ডিজেল তৈরির কারখানার সন্ধান

অবৈধভাবে ব্যবহৃত মবিল পরিশোধন করে ভেজাল ডিজেল, মবিল এবং বিটুমিন তৈরি করার দায়ে দুজনকে আটক করেছে র‌্যাব।

কুমিল্লার জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার রাজেন্দ্রপুরে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব তাদের আটক করে।

আটকৃতরা হলেন - চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুণবতী গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে মো. আব্দুল মান্নান (৪৮), জেলার নাঙ্গলকোটের মোহাম্মদ মোস্তফা মিয়ার ছেলে ফোরকান মাহমুদ (২৩)। 

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আব্দুল মান্নানকে এক বছর ও ফোরকান মাহমুদকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বুধবার  দুপুরে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১১, সিপিসি-২, কুমিল্লার কোম্পানি অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব।

তিনি জানান, র‌্যাবের সদস্যরা মঙ্গলবার বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত চৌদ্দগ্রামের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় মেসার্স আলম অ্যান্ড কোম্পানি নামে একটি প্রতিষ্ঠানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় অনুমোদনহীন ও অবৈধভাবে নকল এবং ভেজাল ডিজেল, মবিল বিটুমিন তৈরি ও বাজারজাতকরণের দায়ে ওই দুইজনকে হাতেনাতে আটক করা হয়। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসএম মঞ্জুরুল হক ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

মেজর নাজমুছ সাকিব আরও জানান, ওই প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন যাবত ব্যবহৃত পুরাতন মবিল, ব্লিচিং পাউডার ও সালফিউরিক অ্যাসিড দ্বারা অননুমোদিত ও অবৈধভাবে পরিশোধন করে নকল ও ভেজাল ডিজেল, মবিল উৎপাদন করে বাজারজাত করত। এছাড়া মবিল পরিশোধনের বর্জ্য নকল বিটুমিন হিসেবে অসাধু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রয় করত।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পারিবারিক কলহে বাড়ছে হত্যাকাণ্ড, সিলেটে মা ও দুই সন্তানের মরদেহ উদ্ধার

সিলেট থেকে সৈয়দ রাসেল

পারিবারিক কলহে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা বেড়েই চলেছে। এবার সিলেটের গোয়াইনঘাটে নিজ বসতঘর থেকে একই পরিবারের তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন- হিফজুর রহমানের স্ত্রী আলিমা বেগম, তার ছেলে মিজান  ও মেয়ে তানিশা। 

এছাড়া আহত অবস্থায় হিফজুরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পারিবারিক কলহ থেকেই এই হত্যাকান্ড হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে পুলিশ। এ ঘটনায়  জিজ্ঞাসাবাদের  জন্য  আহত হিফজুরসহ তার মামা ও মামীকে হেফাজতে রেখেছে পুলিশ। 

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার প্রত্যন্ত বিন্নাকান্দি গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার এই বাড়ির এক ঘর থেকে একই পরিবারের তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। বুধবার সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি দেখে প্রতিবেশীরা হিফজুরের ঘরের সামনে যান। ভেতরে প্রবেশ করে খাটের মধ্যে তিন জনের গলাকাটা ও কুপানো মৃতদেহ ও হিফজুরকে রক্তাক্ত দেখে পুলিশে খবর দেয়া হয়।

পরে ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজিসহ পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা। হিফজুরের পারিবারিক কলহ কিংবা স্বজনদের সাথে বিরোধের জেরেই এ হত্যাকাণ্ড বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। নৃশংস এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও  দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির  দাবি স্থানীয়দের।

পুলিশ সুপার জানান, তাদের  সন্দেহের তালিকায় রয়েছেন হিফজুল নিজেও। দ্রুত সময়ে এ হত্যাকাণ্ডের  রহস্য উদঘাটন হবে বলে আশাবাদী পুলিশ।

আরও পড়ুন


অভিনব কায়দায় ব্যাংকে চুরি করতে গিয়ে আটক

নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে কবিরাজ, অতঃপর

পাকিস্তানের সংসদে বাজেট অধিবেশনের সময় মারামারি (ভিডিও)

চলমান ‘বিধি নিষেধ’ আরও এক মাস বাড়ল


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে কবিরাজ, অতঃপর

শেখ সফিউদ্দিন জিন্নাহ, গাজীপুর:

নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে কবিরাজ, অতঃপর

গাজীপুর মহানগরীর পূবাইলে ভণ্ড কবিরাজের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই কবিরাজ দুই সন্তানের জননী এক নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে দীর্ঘ দিন ধরে বহুবার ধর্ষণ করেছে।  

নির্যাতিতা ওই নারী এমন অভিযোগ তুলে কবিরাজ আল আমিনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। পূবাইল থানা পুলিশ মঙ্গলবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেছে। কবিরাজ আল আমিন (৩২) পূবাইল থানাধীন ৩৯নং ওয়ার্ডের হায়দরাবাদ গ্রামের জাবেদের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ধর্ষিত সেই নারীর প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। পরবর্তীতে তার দ্বিতীয় বিয়ে হয়। ওই সংসারে কোনো সন্তান না হওয়ায় সেই নারীর দ্বিতীয় স্বামী তাকে ছেড়ে চলে যান। স্বামীকে ফিরিয়ে আনতে ভণ্ডপীর ও ভুয়া কবিরাজ আল আমিনের দ্বারস্থ হন ওই নারী।

সেই কবিরাজ আল আমিন স্বামীকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা বলে ফুসলিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। সে সময় ধর্ষণের ভিডিও করে রাখেন কবিরাজ আল আমিন। পরে ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে মাসের পর মাস ধর্ষণ করতে থাকেন সেই দুই সন্তানের জননীকে।  

ধর্ষিত সেই নারী জানান, ধর্ষণের পাশাপাশি আল আমিন বিভিন্ন সময় তার কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় প্রায় দেড় লাখ টাকা।

পূবাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) শাহ আলম জানান, ধর্ষণের শিকার নারী বাদী হয়ে থানায় একটি নারী ও শিশু আইন এবং পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করে। পরে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে আল আমিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার আদালতের মাধ্যমে তাকে গাজীপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন


পুলিশের শূন্য পদে শিগগিরই জনবল নিয়োগ: সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশে ১২ কোটি মানুষেরই জন্মতারিখ ঠিক নেই: ডা. জাফরুল্লাহ

অপহরণকাণ্ডে কারাগারে হুইপ সামশু’র অনুসারী মীর কাসেম

অবৈধ সুদের কারবারকে বৈধতা দিতে ব্যস্ত কর্মকর্তারা, দায়সারা তদন্ত প্রতিবেদন


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

অপহরণ করে টানা তিনদিন গণধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

অপহরণ করে টানা তিনদিন গণধর্ষণ

অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণ করে তিনদিন এক জায়গায় রেখে তিন বন্ধু মিলে ধর্ষণ করেছে। বুধবার (১৬ জুন) দুপুরে অপহৃত ওই শিশুকে  উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- রাউৎগাঁও গ্রামের আবদুল আউয়ালের ছেলে জাকারিয়া, রাউৎগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে রায়হান ও আবু তালেবের ছেলে মেহেদী হাসান।

সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, স্কুলছাত্রী অপহরণের ঘটনায় মামলা নেয়া হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভুক্তভোগীকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর