যে কাজটি করলে জাহান্নাম থেকে মুক্তি মিলবে
যে কাজটি করলে জাহান্নাম থেকে মুক্তি মিলবে

যে কাজটি করলে জাহান্নাম থেকে মুক্তি মিলবে

অনলাইন ডেস্ক

আল্লাহর ভালোবাসা ও ভয়ে মুমিনের হৃদয়ের আকাশ ভেদ করে যে অশ্রুকণা নয়নের কোণে এসে গড়িয়ে পড়ে, সেই পানির মতো শক্তিশালী পৃথিবীতে আর কিছু নেই। এই অশ্রু মহান আল্লাহর ক্রোধ থেকে বান্দার মুক্ত হওয়ার পথকে সুগম করে দেয়।  

কঠিন বিপদ থেকে বান্দাকে মুক্ত করে দেয়। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) বলেছেন, সাত ধরনের মানুষকে মহান আল্লাহ কিয়ামতের দিন তাঁর আরশের ছায়ায় আশ্রয় দেবেন, যেদিন তাঁর ছায়া ছাড়া অন্য কোনো ছায়া থাকবে না।

তার মধ্যে অন্যতম হলো, এমন ব্যক্তি যে আল্লাহকে নির্জনে স্মরণ করে আর তার চোখ দুটি অশ্রুসিক্ত হয়। (বুখারি, হাদিস : ৬৮০৬)

পৃথিবীর সব পানি দিয়ে যেখানে জাহান্নামের একটি অগ্নিকণা নেভানো সম্ভব নয়, সেখানে মাত্র এক ফোঁটা অশ্রুজলেই জাহান্নামের ভয়াবহ আগুনকে মুহূর্তে নিভিয়ে ফেলা সম্ভব। যে চোখ মহান আল্লাহর ভয়ে কাঁদে সে চোখকে জাহান্নামের আগুন স্পর্শ করবে না।  

ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, আমি রাসুল (সা.)-কে বলতে শুনেছি, জাহান্নামের আগুন দুটি চোখকে স্পর্শ করবে না। ১. মহান আল্লাহর ভয়ে যে চোখ কাঁদে। ২. আল্লাহ তাআলার রাস্তায় যে চোখ (নিরাপত্তার জন্য) পাহারা দিয়ে নির্ঘুম রাত পার করে। (তিরমিজি, হাদিস : ১৬৩৯)

আরও পড়ুন:

 দুপুরে আঘাত হানতে পারে ‘ইয়াস’, সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকবে   ১৮৫ কিমি

 ব্ল্যাক ফাঙ্গাস থেকে রক্ষার ৭ উপায়

 

আল্লাহর ভয়ে এক ফোঁটা চোখের পানি ফেলে জীবনের সমস্ত গুনাহ ধুয়ে ফেলা সম্ভব। জাহান্নামের আগুন নিভিয়ে ফেলা সম্ভব।  

আবদুল্লাহ বিন মাসউদ (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, যে মুমিন বান্দার দুই চোখ থেকে আল্লাহর ভয়ে পানি বের হয়, যদিও তা মাছির মাথার পরিমাণ হয় এবং তা কপোল বেয়ে পড়ে, তাতে আল্লাহ তার জন্য জাহান্নাম হারাম করে দেন। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪১৯৭)

news24bd.tv নাজিম

;