১০ দিন পর ছাগল ফেরত পেলেন সাহারা বেগম
১০ দিন পর ছাগল ফেরত পেলেন সাহারা বেগম

১০ দিন পর ছাগল ফেরত পেলেন সাহারা বেগম

অনলাইন ডেস্ক

উপজেলা চত্বরের ফুল গাছের পাতা খাওয়ায় ১০ দিন আটকে রেখে আজ বিকেলে ছাগলটিকে মালিকের কাছে ফিরিয়ে দিলেন বগুড়া আদমদীঘি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সীমা শারমিন।

ছাগলের মালিক সাহারা বেগম বলেন, ‘সাংবাদিকদের লেখালেখিতে ছাগলটি ফেরত পেয়েছি। এই বিষয়ে মধ্যস্থতা করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান রাজু ভাই। আমার মতো গরিব মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

‘১০ দিনে ছাগলটি আধমরা হয়ে গেছে। ও মানুষের কাছাকাছি থাকতেই বেশি পছন্দ করে। ছাগল আটকে রেখে আমার অনুপস্থিতিতেই ইউএনও দুই হাজার টাকা জরিমানা করেছিলেন। পরে টাকা দিতে পারিনি বলে একজনের কাছে বিক্রি করে দেন’।

আদমদীঘি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম রাজু খান বলেন, ‘সাহারা বেগম একাধিকবার অনুরোধ করায় আমি মধ্যস্থতা করেছি। ছাগল ফেরত দেওয়া হয়েছে। ’

এই বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে আদমদীঘির ইউএনও সীমা শারমিন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, আজ বিকেল সাড়ে ৪টায় সবার উপস্থিতিতে ছাগলটি ফেরত দেওয়া হয়েছে। আর জরিমানার টাকা যেহেতু ছাগল মালিক দিতে পারেননি তাই সে টাকা সরকারি কোষাগারে আমিই দিয়েছি।

গত ১৭ মে আদমদীঘি উপজেলা চত্বরে লাগানো কিছু ফুল গাছের পাতা খাওয়ায় একটি ছাগল আটকে রাখে আনসার সদস্যরা।

ছাগলের মালিক সাহারা বেগম ছাগল আনতে গেলে তার সঙ্গে দেখা করেননি ইউএনও। তিন দিন পর তাকে দুই হাজার টাকা জরিমানার কথা জানানো হয়। জরিমানা দিতে না পারায় ছাগল বিক্রির অভিযোগ উঠে ইউএনওর বিরুদ্ধে।

news24bd.tv তৌহিদ

;