রংপুর বিভাগে করোনায় মৃত্যু ৩৮৬

রেজাউল করিম মানিক, রংপুর

রংপুর বিভাগে করোনায় মৃত্যু ৩৮৬

রংপুর ও লালমনিরহাটে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাস আক্রান্ত আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে রংপুর বিভাগে নতুন করে ৪৫ জন করোনা পজিটিভ হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ৪৯ জন রোগী। এ নিয়ে রংপুর বিভাগে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৩৮৬ জনে পৌঁছেছে।

শুক্রবার বিকেলে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আহাদ আলী এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বিভাগে বর্তমানে ১৮ হাজার ৮২০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৭৬৪ জন।

স্বাস্থ্য পরিচালক কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (২৭ মে) বিভাগের আট জেলার ২৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে নতুন করে ৪৫ জন করোনা পজিটিভ রোগী পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ১ লাখ ৩২ হাজার ১৯২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের দিনাজপুুরে ১৭, রংপুরে ৮, ঠাকুরগাঁওয়ে ৭, গাইবান্ধায় ৫, নীলফামারীতে ৩, কুড়িগ্রামে ৩ ও লালমনিরহাট জেলার ১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে রংপুর ও লালমনিরহাট জেলায় ১ জন করে করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়।

স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আহাদ আলী জানান, বৃহস্পতিবার (২৭ মে) দুপুর পর্যন্ত দিনাজপুুর জেলায় করোনায় ৫ হাজার ৭৫০ জন আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা ১৪০ জনে রয়েছে। রংপুর জেলায় ৪ হাজার ৯৪২ জন আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে ৯৪ জনের। ঠাকুরগাঁও জেলায় ১ হাজার ৬৬৯ জন আক্রান্ত ও ৪০ জনের মৃত্যু, গাইবান্ধা জেলায় ১ হাজার ৭৫৯ জন আক্রান্ত ও ২২ জনের মৃত্যু, নীলফামারী জেলায় ১ হাজার ৫৭৩ জন অক্রান্ত ও ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়াও কুড়িগ্রাম জেলায় ১ হাজার ২১৩ জন আক্রান্ত ও ২১ জনের মৃত্যু, লালমনিরহাট জেলায় ১ হাজার ৭৬ জন আক্রান্ত ও ১৪ জনের মৃত্যু এবং পঞ্চগড় জেলায় ৮৩৮ জন আক্রান্ত ও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

রংপুর বিভাগে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত ও মৃত্যু দিনাজপুর জেলায়। সম্প্রতি সারাদেশের মধ্যে ৩১ জেলাকে করোনাভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণ জেলা হিসেবে দেখানো হয়েছে। এর মধ্যে রংপুর ও নীলফামারী জেলা রয়েছে। যার মধ্যে রংপুরের অবস্থান ২৭ নম্বরে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

আরও এক দফা ‘লকডাউন’ বাড়ার আভাস!

অনলাইন ডেস্ক

আরও এক দফা ‘লকডাউন’ বাড়ার আভাস!

দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলছেই। বেশ কয়েকদিন সংক্রমণ ও মৃত্যু কিছুটা কমলেও আবারও তা বেড়েছে। তাই কোন ঝুঁকি না নিয়ে সরকার আবারও চলমান ‘বিধি নিষেধ’ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে আভাস পাওয়া গেছে। বিধি-নিষেধ বাড়ানো হলে আজকেই প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসায় সর্বশেষ প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ১৬ জুন মধ্য রাত পর্যন্ত ‘বিধি-নিষেধ’ বাড়ানো হয়েছিল। করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বেড়ে যাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোনো ধরনের ‘রিস্ক’ না নিতে নির্দেশনা দিয়েছিলেন। গত ১৪ জুন মন্ত্রিসভা বৈঠকে সরকারের সিদ্ধান্তের কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব আনোয়ারুল ইসলাম।

করোনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কোনো নির্দেশনা আছে কিনা? প্রশ্নে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলছেন, এখন থেকে বলে দাও সবাইকে। লোকাল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন সবাইকে অথরিটি দিয়ে দেওয়া হলো। অলরেডি আমরা চিঠিতে বলে দিয়েছি। উনি আবার রিমাইন্ড করে দিতে বলেছেন। কোনো ধরনের রিস্ক না নিতে। যেখানে যারা কমফোর্টেবল মনে করবেন তারা সেখানে যেন ব্লক করে দিয়ে এটাকে থামানোর চেষ্টা করে।

আরও পড়ুন


আবু ত্ব-হা আদনানের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অটোরিকশার ভেতরেই ওই তরুণীকে ধর্ষণ

বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়ার চূড়ান্ত দল ঘোষণা

রোনালদোকাণ্ডের পর এবার টেবিল থেকে বিয়ারের বোতল সরালেন পগবা


সবশেষ লকডাউনের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, সব পর্যটনস্থল, রিসোর্ট, কমিনিউটি সেন্টার ও বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ থাকবে। জনসমাবেশ হয় এধরনের সামাজিক অনুষ্ঠান (বিবাহত্তোর অনুষ্ঠান, জন্মদিন পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি) রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে। খাবার দোকান, হোটেল রেস্তোরাঁসমূহ সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খাদ্য বিক্রি ও সরবরাহ করতে পারবে এবং আসন সংখ্যার অর্ধেক সেবাগ্রহিতাদেরকে সেবা দিতে পারবে।

কোভিড-১৯ উচ্চঝুঁকি সম্পন্ন জেলাসমূহের জেলা প্রশাসকরা সংশ্লিষ্ট কারিগরি কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে স্ব-স্ব এলাকায় সংক্রমণ প্রতিরোধে বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারবেন। এছাড়া আন্তঃজেলাসহ সব ধরনের গণপরিবহন আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে পারবে। তবে অবশ্যই যাত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

আবু ত্ব-হা আদনানের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মোহাম্মদ আল-আমীন, গাজীপুর

আবু ত্ব-হা আদনানের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা আদনানের বিষয়টি শুনেছি। আমরা বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। ক্লু উদ্ধারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

বুধবার (১৬ জুন) গাজীপুরে কালিয়াকৈর উপজেলার সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমিতে ২১তম ব্যাচ (পুরুষ) নবীন ব্যাটালিয়ন আনসারদের ৬ মাসের মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে একথা জানা তিনি।

এসময় তিনি আরও বলেন, রিসোর্ট হোক আর বার হোক যেখানেই আইন ভঙ্গ হবে সেখানেই আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা নিচ্ছে এবং নিবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক সংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে।

এর আগে পুরস্কার প্রদান শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে আনসার ভিডিপি নবীন সদস্যদের উদ্দেশ্যে নানা রকম দিক নির্দেশনা দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বলেন, সততার সাথে দেশের হয়ে কাজ করতে হবে।

এসময়ে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,  স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মােক্তফা কামাল উদ্দীন ও বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম। এছাড়া বাহিনীর অতিরিক্ত মহাপরিচালক , কমান্ড্যান্ট , উপ - মহাপরিচালক ( প্রশাসন ) , উপ - মহাপরিচালক ( অপারেশনস ) -সহ সদর দপ্তর ও একাডেমির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন


অটোরিকশার ভেতরেই ওই তরুণীকে ধর্ষণ

বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়ার চূড়ান্ত দল ঘোষণা

রোনালদোকাণ্ডের পর এবার টেবিল থেকে বিয়ারের বোতল সরালেন পগবা

নায়িকা পপির বিয়ে ও অন্তঃসত্ত্বার গুঞ্জন নিয়ে যা জানালেন ফেরদৌস


৯৭৯ জন নবনিযুক্ত ব্যাটালিয়ন আনসার ৬ মাস মেয়াদি মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে সমাপনী কুচকাওয়াজে অংশগ্রহণ করে। কুচকাওয়াজের শুরুতেই প্রধান অতিথি একটি সুসজ্জিত খােলা জীপে প্যারেড পরিদর্শন করেন। এ সময় বাহিনীর মহাপরিচালক ও প্যারেড কমান্ডার প্রধান অতিথির সাথে উপস্থিত ছিলেন।

পরে প্রশিক্ষণার্থীগণ ৬ সারিতে মার্চ পাস্ট করে প্রধান অতিথিকে অভিবাদন জানান। এরপর প্রধান অতিথি  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কৃতি ও চৌকস প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করেন। মৌলিক প্রশিক্ষণে - সজীব মন্ডল শ্রেষ্ঠ ড্রিল, মাে. মহিউদ্দিন ফাহিম শ্রেষ্ঠ ফায়ারার এবং রাকিব আকন্দ চৌকস প্রশিক্ষণার্থী ব্যাটালিয়ন আনসার হিসেবে প্রথম স্থান অধিকার করেন।

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর

কাতারে স্বাভাবিক হচ্ছে জনজীবন

অনলাইন ডেস্ক

কাতারে স্বাভাবিক হচ্ছে জনজীবন

করোনা আক্রান্ত এবং মৃত্যু স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে শুরু করেছে দেশটির জনজীবন। আগামী শুক্রবার (১৮ জুন) দ্বিতীয় ধাপে তুলে নেওয়া হচ্ছে করোনার বিধিনিষেধ।

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় স্বস্তি প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে। তবে বিদেশ ফেরত যাত্রীদের মধ্যে থেকে আক্রান্তের হার কমানো গেলে দেশটির করোনা একেবারে নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে বলে মনে করেন প্রবাসীরা।

আরও পড়ুন:


বিপদটা এখানেই

ফ্রান্সের কাছে জার্মানির হার

ওমানের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ


তারা বলছেন, বাহির থেকে যারা কাতার ভ্রমণের জন্য আসছেন, তাদের মধ্য থেকে কিছুটা করোনা আক্রান্ত হচ্ছে। তবে কাতার সরকার দ্বিতীয় ধাপে লকডাউন তুলে দিচ্ছে। এতে আমরা যারা প্রবাসী আছি, তাদের জীবনযাত্রা স্বচ্ছল হবে।

কাতারে করোনায় প্রতিদিন গড় আক্রান্তের সংখ্যা দেড়শ'র নিচে নেমে এসেছে। আর যারা আক্রান্ত হচ্ছেন, তাদের বেশিরভাগই বিদেশ ফেরত যাত্রী। দেশটিতে এরইমধ্যে ২৮ লাখের বেশি করোনার ডোজ প্রয়োগ করা হয়েছে। যদিও এ পর্যন্ত ৫০ বাংলাদেশিসহ মারা গেছে ৫৭৯ জন।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

রাজশাহীতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩ মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

রাজশাহীতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে আরও ১৩ জন মারা গেছেন প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনায়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (১৫ জুন) সকাল ৯টা থেকে বুধবার (১৬ জুন) সকাল ৯টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়।

বুধবার (১৬ জুন) হাসপাতালের উপপরিচালক সাইফুল ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মৃতদের মধ্যে পাঁচজন করোনায় এবং আটজন করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। এই ১৩ জনের মধ্যে আটজনের বাড়ি রাজশাহী জেলায়। এ ছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জের চারজন এবং কুষ্টিয়ার একজন মারা গেছেন। করোনা সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে এসেছিলেন তারা।

আরও পড়ুন:


বিপদটা এখানেই

ফ্রান্সের কাছে জার্মানির হার

ওমানের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ


রামেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ১৩ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ তিনজন করে মারা গেছেন ১ এবং ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে। আইসিইউ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন করে মারা গেছেন। এ ছাড়া একজন করে মারা গেছেন ২২, ২৫, ৩৯ ও ৪০ নম্বর ওয়ার্ডে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

এখনও খোঁজ মেলেনি আবু ত্ব-হা আদনানের, যা বলছে পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

এখনও খোঁজ মেলেনি আবু ত্ব-হা আদনানের, যা বলছে পুলিশ

ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা আদনান নিখোঁজের ৬ দিনেও মেলেনি সন্ধান। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দিবাগত রাত থেকে তিনি নিখোঁজ রয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে তাঁর পরিবার। তবে পুলিশ কর্মকর্তাদের বিশ্বাস খুব শিগগিরই আদনানের নিখোঁজ রহস্যের জট খুলবে।

এদিকে নিখোঁজ আবু ত্ব-হা আদনানের সন্ধান চেয়ে বিবৃতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামেনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। সোমবার (১৪ জুন) অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সাউথ এশিয়ার ভেরিফায়েড টুইটার থেকে এ বিবৃতি দেওয়া হয়।

আদনানের স্বজন ও প্রতিবেশীদের ভাষ্য, একসময় ভালো ক্রিকেট খেলতেন আদনান। রংপুরের ক্রিকেট অঙ্গনে সবার পরিচিত মুখ ছিলেন তিনি। রংপুর লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে ভর্তি হন রংপুর কারমাইকেল কলেজে। সেখান থেকে দর্শনে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করেন তিনি।

স্নাতকে পড়ার সময় থেকেই ধর্মের প্রতি তাঁর ঝোঁক বাড়তে থাকে। বাবার মৃত্যুর পর রংপুর নগরীর সেন্ট্রাল রোডের নানার বাড়িতে বড় হয়েছেন তিনি। ৩১ বছর বয়সী আদনান ইসলাম ধর্মের প্রচুর বই পড়তেন এবং গবেষণা করতেন। দর্শনে স্নাতকোত্তর করা আদনান অল্প দিনেই হয়ে ওঠেন একজন ভালো ইসলামী বক্তা। তিনি উগ্রবাদকে সমর্থন করতেন না বলেও দাবি করেছেন স্বজনরা।

আরও পড়ুন


দেশের নদীবন্দরে সতর্কতা

সংসদে এমপি চুন্নু বললেন, নাসির ‘ভালো লোক’

বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সর্বশেষ তথ্য

গাজায় ফের ইসরাইলের হামলা


গত ১০ জুন বিকেলে ঢাকা যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হন আদনান। রাত আড়াইটার দিকে স্ত্রী হাবিবা নূরের সঙ্গে মোবাইল ফোনে শেষ কথা হয় তাঁর। আদনানের সঙ্গে থাকা আব্দুল মুহিত, মোহাম্মদ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দিনও নিখোঁজ। তাঁদের সবার মোবাইল ফোনও বন্ধ।

আদনানের মা আজেদা বেগম বলেন, ‘রংপুর মেট্রোপলিটন কোতোয়ালি থানায় জিডি করা হয়েছে। কিন্তু আমার ছেলের সন্ধানে পুলিশের কোনো তৎপরতা পাচ্ছি না'

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন বলেন, ‘ঘটনাটি ঘটেছে ঢাকায়। বাড়ি রংপুরে হওয়ায় আদনানের মায়ের করা জিডির সূত্র ধরে অনুসন্ধান চলছে। আশা করি শিগগিরই এই রহস্যের জট খুলবে।’

news24bd.tv আহমেদ

পরবর্তী খবর