সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে প্রায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাত
সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে প্রায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাত

সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে প্রায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাত

Other

সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে ১ কোটি ৬০ লাখ ২৫ হাজার টাকা আত্মসাতের প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পেয়েছে গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার চার সদস্যের তদন্ত কমিটি।

শ্রীপুর পৌরসভার আদায়কৃত কর আত্মসাতের অভিযোগে গঠিত তদন্ত কমিটি ৩ মাস ১২দিন পর দেওয়া তাদের তদন্ত প্রতিবেদন এ কথা জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে তিন কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত ও এক কোটি ৬০ লাখ ২৫হাজার ৪২ টাকা আত্মসাতের প্রমাণ পাওয়া গেছে। ওই তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছেন তদন্ত কমিটি।

সোমবার (৩১ মে) দুপুরে শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমানের কাছে ওই প্রতিবেদন দাখিল করেন তদন্ত কমিটি প্রধান পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আলী আজগর।

তদন্ত কমিটির প্রধান কাউন্সিলর মো. আলী আজগর বলেন, সম্প্রতি অপহরণের মামলায় র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হন পৌরসভার কর আদায়কারী শফিউল আলম রায়হান (সাময়িক বরখাস্ত)। গ্রেপ্তারের পর তার অফিসের আলমিরা ভেঙ্গে কর আদায়ের চালান রশিদ পাওয়া যায়। রশিদে কর আদায় করার তথ্য থাকলেও তা পৌর কোষাগারে জমা হয়নি বলে সন্দেহ হয়।

শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেন। গঠিত কমিটি প্রায় সাড়ে তিনমাস পর পৌরসভার কর আদায়কারী শফিউল আলম, সহকারী কর আদায়কারী ফাহিমা সানজিদা, জান্নাতুল ফেরদৌসকে অভিযুক্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। কর আদায়কারী শফিউল আলম রায়হান এক কোটি ৫ লাখ টাকা, সহকারী কর আদায়কারী ফাহিমা সানজিদা ৫২ লাখ ৬৫ হাজার ৪২ টাকা ও কর সহায়ক জান্নাতুল ফৌরদৌসী ২ লাখ ৭৫ হাজার টাকা আত্মসাত করেন। দাখিলকৃত প্রতিবেদনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দেশের প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

শ্রীপুর পৌরসভার সচিব সরকার দলীল উদ্দিন বলেন, আপাতত তদন্ত প্রতিবেদনের কপি দেওয়া যাচ্ছে না। তবে এই বিষয়ে গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন দাখিল করেছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

;