গরমে চুলের যত্ন

অনলাইন ডেস্ক

গরমে চুলের যত্ন

রোদের তীব্রতায় সবার জীবন অতিষ্ঠ। বাইরে কিংবা ঘরে কোনভাবেই যেন গরমথেকে মুক্তি নেই। আর তাই ত্বক এবং চুলেরও বিরূপ পরিবেশের সাথে প্রতিনিয়ত লড়াই করে চলতে হচ্ছে। যেখানে তাপ আছে সেখানেই ঘাম আর এই ঘামই চুল চিটচিটে বা অয়েলি হয়ে যাওয়ার প্রধান কারণ। গরমে ঘাম ও বাতাসের ধূলাবালির কারণে ব্যাকটেরিয়া বা ফাঙ্গাস-এর জন্ম হয়। আর এ থেকে মাথার ত্বকে ফুসকুড়ি বা চুলকানি হতে পারে। তাছাড়াও মাথায় খুশকি, চুলে রুক্ষতা আসে, চুল মলিন হয়ে যায় এমন কী চুলও পড়তে শুরু করে! গরমে চুলের যত্ন না নিলে চুলের অনেক ক্ষতি হয়ে যায়।

সুনামগঞ্জে বেহাল সড়ক সংস্কারের দাবিতে এলাবাসীর মানববন্ধন

হামাসের ঘাঁটিতে বিস্ফোরণ, ২ ফিলিস্তিনি যোদ্ধা নিহত

বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে চাচা-ভাতিজার মৃত্যু

গরমে চুলের যত্ন নিতে মেনে চলুন কিছু টিপসঃ

১) বাতাসে চুল শুকিয়ে নিন
 
বাইরে থেকে ঘরে ফিরে চুলের গোড়া ঘেমে গেলে ফ্যানের ঠান্ডা বাতাসে চুলটা শুকিয়ে নিতে হবে। কোনোভাবেই ঘামে ভেজা চুল বেঁধে রাখা যাবে না। এটি হলো গরমে চুলের যত্ন নেবার প্রথম শর্ত।

২) প্রতিদিন শ্যাম্পু করুন
 
যাদের প্রতিদিন বাইরে যেতে হয় তাদের অবশ্যই প্রতিদিন চুলে শ্যাম্পু করতে হবে এবং চুলে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনার লাগানো উচিত। চুলগুলোকে প্রতিদিন বেশি পানি দিয়ে ধুতে হবে। কারণ খেয়াল রাখতে হবে শ্যাম্পু করার পর চুলের গোড়ায় যেন বাড়তি শ্যাম্পু না লেগে থাকে।

৩) প্রতিদিন চুলে তেল দিন
 
প্রতি রাতে চুলে তেল লাগিয়ে রাখতে পারেন। এটি চুলের ডিপ কন্ডিশনিং-এর কাজ করবে। চুলে তেল লাগানোর আগে তেলের সঙ্গে একটু লেবুর রস মিশিয়ে নিলে চুল খুশকি মুক্ত থাকবে। চুল পড়া কমাতে আমলকীর রস ও ক্যাস্টর অয়েল, নারিকেল তেলের সাথে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় মালিশ করুন। পরের দিন শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন! গরমে চুলের যত্ন নিতে গিয়ে তেলকে বাদ দিলে হবে না!

৪) ব্যবহার করুন অ্যালোভেরার প্যাক 
 
এই গরমে ঘৃতকুমারী (অ্যালোভেরা) মাথা ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করবে এবং এটি চুল পড়াও কমাবে। অ্যালোভেরা-এর রস লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে চুল পরিষ্কার করে ফেলুন। ঘৃতকুমারীর রস, মেথি গুঁড়া ও ত্রিফলা (আমলকী, হরীতকী ও বহেরা ভিজানো পানি) একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করতে পারেন। এতে চুল পড়া কমাতে সাহায্য করবে এবং চুলের স্বাস্থ্য ভালো করবে।

৫)  চুলের যত্ন নিতে মেহেদি ও টক দইয়ের প্যাক 

চুলের পরিচর্যার জন্য টক দই, মেহেদি পাতা, মেথি গুঁড়া ও লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এটি চুলে ৩০ মিনিটের মত লাগিয়ে শ্যাম্পু করে ফেলতে হবে। টক দই চুলকে ময়েশ্চারাইজ করবে। মেথি গুঁড়া খুশকি দূর করে এবং চুল ঝলমল করবে লেবুর রস। এটি অন্তত সপ্তাহে এক দিন করা উচিত।

৬) কলা ও আমলকীর প্যাক ব্যবহার করুন

চুলের পাকা কলা, আমলকীর রস, মধু এবং মেথি গুঁড়া একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে চুলে লাগাতে পারেন। এটি একই সঙ্গে চুল নরম করবে এবং রোদে পুড়ে লালচে হয়ে যাওয়া থেকে বাঁচাবে।

৬) হালকা করে বাঁধুন
এই গরমের সময় চুলটা আঁটসাঁট করে না বেঁধে পাঞ্চ ক্লিপে হালকা করে আটকে নিন। আর এমন হেয়ার স্টাইল করুন যেটি গরমের সময় আরামদায়ক হয়।

৭) হেয়ার ড্রায়ারে চুল শুকাবেন না
এই গরমে চুলতো ঘামেই। তাই বলে গরমে চুলের যত্ন নিতে গিয়ে চুল শুকাতে বা ঘাম শুকাতে হেয়ার ড্রায়ার-এর গরম বাতাস ব্যবহার করা যাবে না। চুলের আগা ফেটে যাওয়া হেয়ার ড্রায়ার-এর গরম বাতাস প্রধান কারণ।

৮) ছাতা বা স্কার্ফ ব্যবহার করুন
 
গরমে চুলে যত্ন নিতে রোদে বাইরে বের হলে অবশ্যই ছাতা বা স্কার্ফ ব্যবহার করুন। এতে চুল কড়া রোদ ও অতিরিক্ত ধূলোবালি থেকে রক্ষা পাবে। তবে যাদের চুল তৈলাক্ত বা মাথার ত্বক বেশি ঘামে তারা অভ্যেস না থাকলে স্কার্ফ এড়িয়ে চলতে পারেন।

 

news24bd.tv / এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

অন্তর্বাস না পরলেই সৌন্দর্যবৃদ্ধির সম্ভাবনা বেশি

অনলাইন ডেস্ক

অন্তর্বাস না পরলেই সৌন্দর্যবৃদ্ধির সম্ভাবনা বেশি

মহামারি নানা অভ্যাস বদলেছে। অফিসে গিয়ে কাজের দাবি কমেছে। ঘর থেকে দিব্যি চলছে অফিসের দায়িত্ব পালন। ফলে সাজ-পোশাকেও এসেছে বদল। আরামদায়ক ঢোলা পোশাকই এখনকার ফ্যাশন। ভিতরে থাকছে না অন্তর্বাসও। মাসের পর মাস এভাবেই চলছে। এতে কি কোনও ক্ষতি হচ্ছে?

অন্তর্বাস পরা বন্ধ করে দিলে কি চেহারা অন্য রকম হয়ে যাবে? এ নিয়ে আলোচনা নানা ভাবে চলে আসছে বছরের পর বছর। তবে হালের গবেষণা উল্টো কথাই বলছে। অন্তর্বাস না পরলে বরং স্তন আরও সুন্দর আকার নেয়। আর ভাল হয় রক্ত চলাচলও।

অন্তর্বাসের সঙ্গে প্রায় দাম্পত্যের মতো সম্পর্ক হয়ে ওঠে মহিলাদের। পরলে বিরক্তি, না পরলেও অস্বস্তি। তার উপরে প্রচলিত এক বিশ্বাস হল, অনতর্বাস পরলে স্তন যুগল দেখাবে সুন্দর। কিন্তু এখনকার গবেষণা বলছে, এ সব ভাবনাই ভিত্তিহীন। অন্তর্বাস না পরলে স্তনের ত্বক ভাল থাকে। দিনভর চাপমুক্ত থাকে শরীর। তাতে পিঠ ও বুকের অঞ্চল অনেক স্বচ্ছন্দে থাকতে পারবে।

কিন্তু স্তনের আকার বদলে যাবে না তো? অসুন্দর দেখাবে না কিছু দিন পরেই? এ আশঙ্কাও নস্যাৎ করে দিচ্ছে সেই গবেষণা। বরং বলছে অন্তর্বাস সর্বক্ষণ চেপে বসে থাকে শরীরে। ফলে স্তন নিজের মতো করে বেড়ে ওঠার সুযোগ পায় না অনেক ক্ষেত্রে। অন্তর্বাস না পরলে সৌন্দর্যবৃদ্ধির সম্ভাবনাই বেশি।

সূত্র: আনন্দবাজার

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর

হঠাৎ করে শিরায় টান ধরলে কী উপায়?

অনলাইন ডেস্ক

হঠাৎ করে শিরায় টান ধরলে কী উপায়?

শিরায় টান ধরার বা আঙুল বেঁকে যাওয়ার সমস্যা খুব সাধারণ মনে হলেও এটি ততটাও সাধারণ নয়। কারণ যতক্ষণ টান ধরে থাকে, ততক্ষণই যন্ত্রণা থাকে। এরপর সেটি আবার জটিল আকারও ধারণ করতে পারে।

ঘুম থেকে ওঠার সময়, হাঁটার সময়, কখনো কখনো ঘুমের মধ্যে শিরায় টান ধরতে পারে। অনেক সময় হাঁটতে গিয়ে পায়ের আঙুল বেঁকে যেতে পারে। হাতের কিংবা কোমরের পেশীতেও টান ধরে যায় অনেক সময়। এই ব্যথা দীর্ঘ সময় থেকে যেতে পারে। এর পেছনের মূল কারণ হলো পানিশূন্যতা। শরীরে পানির পরিমাণ কমে গেলে এমনটা হয়।

চিকিত্‍সকরা বলছেন, ঘামের কারণে শরীর থেকে প্রয়োজনীয় পানির অনেকটাই বের হয়ে যায়। ফলে শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দেয়। যে কারণে পেশির স্থিতিস্থাপকতাও কমে যায়। শীতের দিনে পানি পানের পরিমাণ কমিয়ে দেন অনেকে। এতে শিরায় টান ধরার প্রবণতা বাড়ে। কারও যদি পেশীর কোনো ক্রনিক অসুখ না থাকে তবে পানির ঘাটতি পূরণ করলেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর

ভালো ছাতা চেনার উপায়

অনলাইন ডেস্ক

ভালো ছাতা চেনার উপায়

ভালো ছাতা চেনার কিছু উপায় রয়েছে। চলুন সেগুলো জেনে নেওয়া যাক।

১. ছাতা তৈরি হয় বিভিন্ন ধরনের কাপড় দিয়ে। তবে প্যারাসুটের কাপড় অথবা বেলপেকের কাপড় দিয়ে তৈরি ছাতাগুলো ভালো মানের। কেননা এই ধরনের কাপড় সহজে ছিদ্র হয় না এবং নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা কম থাকে। এছাড়া বেশ কিছু ছাতা রয়েছে যেগুলোতে দুই স্তরের কাপড় ব্যবহার করা হয়। এক্ষেত্রে রোদ-বাদলের দিনগুলোতে ছাতার বাইরের কাপড় গরম কিংবা ভেজা থাকলেও ভেতরের কাপড় একই রকম থেকে যায়।

২. ছাতার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান শিক। শিক যদি কম থাকে অথবা নিম্নমানের হয় তাহলে হালকা বৃষ্টি কিংবা তুফানে ছাতা উল্টে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই শিক যতো বেশি থাকবে ছাতা তত মজবুত হবে। শিকের ক্ষেত্রে আরেকটি বিষয় হলো স্টিলের শিক ভেজা থাকলে মরিচা পড়ে নষ্ট হয়ে যায়। স্টেইনলেস স্টিলের শিক, অ্যালুমিনিয়ামের শিকগুলো বেশ উন্নত মানের। তাছাড়াও শিকের সঙ্গে ফাইবার সংযুক্ত করে দেওয়া ছাতাগুলোও টেকসই। এই ধরনের শিকগুলোতে সহজে মরিচা পড়ে না।

৩. একটি ছাতা ব্যবহার করে তখনই আরাম পাওয়া যায় যখন ছাতার হাতল মজবুত থাকে এবং ধরে তৃপ্তি হয়। কিছু ছাতা রয়েছে যেগুলোতে কাঠের হাতল ব্যবহার করা হয়। এ ধরনের হাতল ভিজে গেলে নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। প্লাস্টিকের হাতলগুলো টেকসই, পাতলা এবং মজবুত।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ওভেন পরিষ্কারের সহজ টিপস

অনলাইন ডেস্ক

ওভেন পরিষ্কারের সহজ টিপস

দীর্ঘ সময় মাইক্রোওয়েভ ওভেন সঠিকভাবে পরিষ্কার না করলে বাসা বাধতে পারে জীবাণু। সহজে এটি পরিষ্কারের কিছু টিপস জেনে নিন ঝটপট।

যেভাবে পরিষ্কার করবেন

প্রথমে মাইক্রোওয়েভ থেকে র‍্যাক ও গ্রিল বের করে সাবানপানিতে ডুবিয়ে রাখুন। ব্রাশ দিয়ে ভালোভাবে কিছুক্ষণ ঘষে ধুয়ে শুকিয়ে নিন।

একটি মাইক্রোওয়েভ সেফ পাত্রের মধ্যে ভিনেগার আর পানি মিশিয়ে উচ্চতাপে ওভেনের ভেতর এটি ৫ মিনিট রেখে দিন। এ থেকে যে স্টিম তৈরি হবে তা মাইক্রোওভেনে লেগে থাকা ময়লা নরম করবে। তারপর ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পাত্রটি বের করে পেপার টাওয়েল বা কাপড় দিয়ে ওভেন পরিষ্কার করে নিন।

পানির সঙ্গে বেকিং সোডা, লেবু ও লবণ মেশান। মিশ্রণটিতে কাপড় ভিজিয়ে মাইক্রোওয়েভের ভেতরের অংশ ভালো করে পরিষ্কার করুন।

এক কাপ পানিতে ২ চা চামচ আপেল সিডার ভিনিগার মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি একটু গরম করে তাতে একটি কাপড়ের টুকরো ডুবিয়ে মাইক্রোওয়েভ পরিষ্কার করতে পারেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

আসল গ্রিন টি চিনবেন কীভোবে?

অনলাইন ডেস্ক

আসল গ্রিন টি চিনবেন কীভোবে?

শরীরে জারিত না হওয়ায় গ্রিন টি অন্য চায়ের তুলনায় স্বাস্থ্যকর। এটি শরীরে ক্ষতিকর কোলেস্টেরল বা এলডিএল ও ট্রাইগ্লিসারাইড জমতে দেয় না। এছাড়াও দ্রুত ফ্যাট ঝরাতে এটি সাহায্য করে।

সঠিক গ্রিন টি চেনা বেশ মুশকিল। তবে খাঁটি গ্রিন টি তে রয়েছে কিছু বৈশিষ্ঠ্য যেগুলো জানা থাকলে সহজেই আসল গ্রিন টি চিনে নিতে পারবেন--

# সতেজ গ্রিন টি হালকা সবুজ রঙের হবে

# এর পাতার আকার হবে বড়

# আসল গ্রিন টি ৬ মাসের বেশি রাখা যায় না

# গ্রিন টি-র প্যাকেটে এপিগ্যালোক্যাটেচিন (ইজিসিজি) আছে কি না দেখে কিনতে হবে।

# গ্রিন টির গন্ধ হবে হালকা, সতেজ, কচি ঘাসের মতো

খাওয়ার বিষয়ে যেসব খেয়াল রাখা জরুরি--

# গ্রিন টি-তে দুধ মেশানো ঠিক নয়

# গ্রিন টি-তে কখনই চা মিশিয়ে খাবেন না

# ওয়ার্ক আউটের আগে বা পরে গ্রিন টি খাওয়া যায়

news24bd.tv/এমিজান্নাত

 

পরবর্তী খবর