অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, ঝুঁকিতে কৃষিজমি, সড়ক-স্থাপনা

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, ঝুঁকিতে কৃষিজমি, সড়ক-স্থাপনা

নাটোরের নলডাঙ্গায় প্রশাসনের অবহেলায় বালু দস্যুরা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। প্রভাবশালীরা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে মরা আত্রাই নদীর গভীর থেকে প্রতিদিন অসংখ্য ট্রাক বালু উত্তোলন করছে। 

মরা আত্রাই নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করার কারণে কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত রাস্তাসহ ৩ টি গ্রামের ঘরবাড়ি ও ফসলি জমি হুমকির মুখে পড়েছে।

ভুক্তভোগীরা বালু উত্তোলন বন্ধে স্থানীয় প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করেও ফল পাচ্ছে না। তারা এ ব্যাপারে প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট সবার কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নলডাঙ্গা উপজেলার খাজুরা ফকির পাড়া এলাকা থেকে বালু উত্তোলন করায় হুমকির মুখে পড়েছে ফসলি জমি, বসতবাড়ি, মসজিদ। উপজেলা খাজুরা ফকির পাড়া এলাকায় একই স্থানে গত ৩-৪ বছর ধরে ধরে বিট বালু উত্তোলন করছেন আত্রাই উপজেলার বড়ভিটার আহাদী নামের এক বালিদস্যু।

ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনে সহযোগিতা করছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী রাজ্জাগ মাষ্টার, সালাম ফকির, কপিল উদ্দিন ও বেলাল হোসেন। ড্রেজার মেশিন দিয়ে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত গভীর থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

এছাড়া আত্রাই নদীর উপর ব্রীজের কাছে আরোও দুটি ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের প্রস্ততি নিচ্ছে প্রভাবশালীরা। আর এতে হুমকির মুখে পড়েছে কোটি টাকার ব্যয়ে রাস্তাঘাট ও ব্রিজ।পানির তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন করায় হুমকির মুখে পড়েছে ফসলি জমি, বসতবাড়ি ও মসজিদ।

৩-৪ বছর ধরে এখান থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে নিষেধ করায় উল্টো এলাকাবাসীকে হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে। প্রতিদিন তারা বিপুল পরিমাণ বালু উত্তোলন ও বিক্রি করে লাভবান হলেও এলাকার ফসলি জমি,রাস্তাঘাট, সেতু ও বিভিন্ন স্থাপনা হুমকির মুখে পড়েছে।

ভুক্তভোগি বেলাল হোসেন বলেন, বালু দস্যুরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ তাদের বাধা দেয়ার সাহস করে না। এরা ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নদীর গভীর থেকে বালু উত্তোলন করছে। এতে গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় আমার দুই বিঘা ফসলি জমি ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে। পুরো এলাকায় শত শত বিঘা আবাদি জমি ভাঙনের মুখে পড়েছে।

এদিকে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানিয়েও কোনো লাভ হয়নি। ভুক্তভোগীরা জানান, ড্রেজিং পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন করা হলে ভরা বর্ষায় তাদের বসত ভিটা ও ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হবে।

জানা যায়, ২০১০ সালে বালু উত্তোলন নীতিমালায় যন্ত্রচালিত মেশিন দ্বারা ড্রেজিং পদ্ধতিতে নদীর তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়াও সেতু, কালভার্ট, রেললাইনসহ মূল্যবান স্থাপনার এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন করা বেআইনি। অথচ বালু দস্যুরা সরকারি ওই আইন অমান্য করে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে।

ফকির পাড়ার ভুক্তভোগি মর্শিদা সরজান, সনেকা ও আব্দুর রশিদ, জানান, আমার বসতবাড়ি বালু উত্তোলন করায় বাড়ির আশে পাশে ভেঙ্গে ধসে পড়ছে।এ অবস্থায় আমরা পরিবার নিয়ে আতংকে আছি।অবৈধভাবে বালু উত্তোলন নিষেধ করায় আমাদের মারধরের হুমকি দিচ্ছে।বালু উত্তোলন বন্ধ করার জন্য আমরা বেশ কয়েক বার বাধা দিয়েছি। কোনো কাজ হয়নি।


আরও পড়ুন


এবার ইন্দোনেশিয়ান ভাষায় হিরো আলমের বিরহের গান (ভিডিও)

টিকটকারদের ভয়ংকর ফাঁদ, কয়েকশ জনকে খুঁজছে পুলিশ

মা হচ্ছেন নুসরাত, নিজের নয় বলে মন্তব্য স্বামীর!

পাপারাজ্জি থেকে বাঁচতে মেয়েকে বুকে চেপে ধরলেন আনুশকা


বালু উত্তোলনকারী আহাদী  ও সহযোগিতাকারী আব্দুর রাজ্জাগ মাষ্টার বলেন, এলাকাবাসীর স্বার্থে নদী থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। সেই বালু দিয়ে একটি নতুন মসজিদ নির্মাণ কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে।

নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল­াহ আল মামুন বলেন, গ্রামবাসীর অভিযোগ পেয়েছি। খুব শিগগিরই উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।নদী থেকে বালু উত্তোলনে কাউকে অনুমতি দেওয়া হয়নি, বিষয়টি জানার পর ভুমি অফিসের তহশীলদার কে বালু উত্তোলন বন্ধে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

পদ্মার ৭১ কেজির বাগাড় বিক্রি হলো সিরাজগঞ্জে

অনলাইন ডেস্ক

পদ্মার ৭১ কেজির বাগাড় বিক্রি হলো সিরাজগঞ্জে

গোদাগাড়ীর পদ্মায় জেলের জালে ধরা পড়া ৭১ কেজি ওজনের বাগাড় মাছটি আজ সোমবার সকালে সিরাজগঞ্জে নিয়ে ১ হাজার ১০ টাকা কেজিদরে বিক্রি করা হয়েছে। যিনি বিক্রি করেছেন তার নাম আনিকুল ইসলাম (৩০)। গোদাগাড়ী উপজেলার মাটিকাটা দেওয়ানপাড়া গ্রামে তার বাড়ি।

তার সঙ্গে কথা হয় নিউজ টোয়েন্টিফোরের। তিনি বলেন, গতকাল রোববার বিকেলে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার হরিশংকরপুর গ্রামের জেলে হাবিবুর রহমানের জালে মাছটি ধরা পড়ে। তখন বিকেল হয়ে গেছে। হাবিবুর মাছটি তাঁর কাছে ৯৭০ টাকা কেজিদরে বিক্রি করে দেন। তবে এ ক্ষেত্রে ৮ কেজি ‘ঢলন’ (উপরি) হিসেবে পান তিনি। সে হিসাবে ৮ কেজির দাম বাদ দিয়ে জেলেকে দেন ৬১ হাজার টাকা।

আনিকুল বলেন, রাতেই একটি পিকআপ ভাড়া করে তিনি মাছটি সিরাজগঞ্জের গোলচত্বরে নিয়ে যান। সোমবার সকালে সেখানে ৯৫০ টাকা কেজি দরে মাছটি বিক্রি করেন। তিনি বলেন, মাছটি বিক্রি করে তিনি পেয়েছেন ৬৭ হাজার ২০০ টাকা। এর মধ্যে খাজনা দিতে হয়েছে ২ হাজার ২০০ টাকা। খরচ বাদ দিলে মাছটি থেকে তাঁর বেশি লাভ হয়নি।

আরও পড়ুন:


জম্মু-কাশ্মীরে সংঘর্ষ: লস্কর-ই-তাইয়্যেবার কমান্ডারসহ নিহত ৩

যদি নারী অল্প পোশাক পরে ঘোরে তার প্রভাব পুরুষের উপর পড়তে বাধ্য: ইমরান

পুলিশ বিনা ওয়ারেন্টে সাইফুলকে ধরে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে: ফখরুল

২ হাত ও টুকরো করা পা এক নারীর, ধারণা পুলিশের


উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বরুণ কুমার মণ্ডল জানান, গোদাগাড়ীর বরেন্দ্র মৎস্য আড়তে মাছটি বিক্রি করেছেন জেলে হাবিবুর। স্থানীয় আড়তদারের কাছে হাবিবুর রহমানের যে নম্বরটি তিনি নিয়েছিলেন, সেটি বন্ধ রয়েছে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

বরিশালে বিজয় মিছিলে কক‌টেল হামলা, নিহত ১

নিজস্ব প্রতিবেদক


বরিশালে বিজয় মিছিলে কক‌টেল হামলা, নিহত ১

বরিশালের গৌরনদীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় একজন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরও দুইজন। সোমবার (২১ জুন) সন্ধ্যা সাতটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। 

বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজি এসএম আক্তারুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সন্ধ্যা সাতটার দিকে গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নে পাঙ্গাসিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে ওই এলাকায় বিজয় মিছিল বের করে টিউবওয়েল মার্কার মেম্বার গিয়াস উদ্দিন মৃধার সমর্থকরা।

এসময় পরাজিত মোরগ মার্কার প্রার্থী আরজ আলী সরদারের সমর্থকরা মিছিলে ককটেল হামলা চালায়। এতে আবু বক্কর মাথায় আঘাত পেয়ে গুরুত্বর আহত হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়।

নিহতের ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন রেঞ্জ ডিআইজি।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

করোনা: বগুড়ায় ২৪ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনা: বগুড়ায় ২৪ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু

বগুড়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২৯ জন।

আজ দুপুরে বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ২১৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৮৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন পাঁচজন। এ নিয়ে বগুড়ায় করোনায় ৩৫০ জনের মৃত্যু হলো। আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ৯৫৬ জন। এরমধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১২ হাজার ২১১ জন। এখন চিকিৎসাধীন আছেন ৩৯৫ জন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

কাল থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কাল থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

করোনা সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় ২২ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত রাজবাড়ী, মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গাজীপুর, মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জে লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। ফলে এসব জেলাসমূহে জনসাধারণ চলাচলসহ বিভিন্ন বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার প্রবেশদ্বার হিসেবে পরিচিত দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) দৌলতদিয়া ঘাট ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আফতাব হোসেন তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত মঙ্গলবার (২২ জুন) থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকলেও এ রুটে সচল থাকবে ফেরি চালাচল। ফলে লঞ্চে পারাপার হওয়া যাত্রীরা ফেরিতে পারাপার হবেন।

আরও পড়ুন:


ভোট ভালো হয়েছে: ইসি সচিব

কাল থেকে ৭ জেলায় লকডাউন

যশোরে বেড়েইে চলেছে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা


বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফিরোজ শেখ জানান, এখন পর্যন্ত লকডাউনে ফেরি চলাচল বন্ধের কোনো নির্দেশনা পাইনি। ফলে স্বাভাবিক থাকছে ফেরি চলাচল।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

মাকে বাঁচাতে গিয়ে ছেলের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

মাকে বাঁচাতে গিয়ে ছেলের মৃত্যু

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের তারালী ইউনিয়নে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মা ও ছেলের মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় মারাত্মক আহত হয়েছেন আরও দুইজন।

আজ সোমবার আনুমানিক বিকেল ৪টায় কালিগঞ্জ উপজেলার তারালী ইউনিয়নের বয়েরা গ্রামে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন মৃত আরশাদ আলী সরদারের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৭৫) ও ছেলে রোকন সরদার (৪২)।

স্থানীয়রা জানান, মরিয়ম বেগম বাড়ির উঠানে ভেজা কাপড় শুকাতে দেয়ার সময় তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এসময় তার তিন ছেলে মাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে মায়ের সঙ্গে ছেলে রোকনও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এতে মা-ছেলের দুজনের মৃত্যু হয়। বাকি দুই ছেলে গুরুতর আহত হয়েছে। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর