৯ ঘণ্টায় ৯ জেলায় বজ্রপাতে গেল ১৬ প্রাণ

অনলাইন ডেস্ক

৯ ঘণ্টায় ৯ জেলায় বজ্রপাতে গেল ১৬ প্রাণ

৯ জেলায় বজ্রপাতে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। জেলাগুলো হলো- চট্টগ্রাম, সিরাজগঞ্জ, ফেনী, মাদারীপুর, নোয়াখালী, মুন্সিগঞ্জ, পটুয়াখালী, মানিকগঞ্জ ও বরিশাল।

রোববার (৬ জুন) সকাল ৯টা থেকে বিকেলে ৬টার মধ্যে এসব ঘটনা ঘটে।

জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের মিরসরাই ও বোয়ালখালীতে বজ্রপাতে দুজন নিহত হয়েছেন। একইদিনে ফটিকছড়িতে মাঠে কাজ করার সময় বজ্রপাতে দুই নারীর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১০টার মধ্যে এ বজ্রপাতের ঘটনাগুলো ঘটে।

নিহতরা হলেন- বোয়ালখালীর জ্যৈষ্ঠপুরা পাহাড়ের গরজংগিয়া এলাকার বাসিন্দা মোস্তফা কামালের ছেলে মো. জাহাঙ্গীর (৩৯), মিরসরাইয়ের সাহেরখালী ইউনিয়নের ৯ নম্বর পূর্ব ডোমখালী ওয়ার্ড এলাকার বাসিন্দা স্কুলছাত্র সাজ্জাদ হোসেন (১৬), যোগেন্দ্র শীলের স্ত্রী ভানুমতি শীল (৪০) ও বানেশ্বর দাশের স্ত্রী লাকি রানি দাশ (৩৮)।

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে এক ঘণ্টার মধ্যে বজ্রপাতে চারজন নিহত হয়েছেন। রোববার বিকেল ৪টা থেকে ৫টার মধ্যে উল্লাপাড়া উপজেলার বাঙ্গালা ও উধুনিয়া এবং শাহজাদপুর উপজেলার কায়েমপুর ও নরিনা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতেরা হলেন- শাহজাদপুরের কায়েমপুর ইউনিয়নের চর আঙ্গারু গ্রামের আমানত হোসেনের ছেলে আব্দুল্লাহ (২৬), নরিনা ইউনিয়নের বাতিয়া গ্রামের আলহাজ বাবুর্চি (৫০), সলঙ্গা ইউনিয়নের আঙ্গারু বাঘমারা গ্রামের রফিকুল ইসলাম (৪৫) ও উল্লাপাড়া উপজেলার উধুনিয়া ইউনিয়নের আগদিঘল গ্রামের শাহেদ আলীর ছেলে স্কুলছাত্র ফরিদুল ইসলাম (১৫)।

মাদারীপুর: জেলার শিবচরে বাদাম তুলতে গিয়ে বজ্রপাতে আয়েশা বেগম (৫০) নামের এক নারী নিহত হন। বিকেল ৪টায় উপজেলার চরজানাজাত ইউনিয়নের বালুরটেকে এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। নিহত আয়েশা একই এলাকার ছোরফান হাওলাদারের স্ত্রী।

ফেনী: জেলার সোনাগাজীতে বজ্রপাতে দুই শিশু নিহত হয়েছে। বেলা ১১টায় উপজেলার বগাদানা ইউনিয়নের আলামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, সাজেদা আক্তার (১২) ও আল আমীন (৬)। সাজেদা ওই গ্রামের আনু ফরায়েজি বাড়ির সোলেমান মিয়ার মেয়ে ও আল আমীন একই বাড়ির বাহার উদ্দিনের ছেলে। তারা দুজনই স্থানীয় কাটাখিলা ছমদিয়া দাখিল মাদরাসার শিক্ষার্থী।

নোয়াখালী: জেলার হাতিয়ায় ক্ষেতে কাজ করার সময় বজ্রপাতে মো. আবদুল মান্নান খোকন (৩৬) নামের এক কৃষক নিহত হয়েছেন। দুপুর সাড়ে ৩টায় উপজেলার সোনাদিয়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব মাইসচরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত খোকন একই গ্রামের মৃত সৈয়দ আহমদ মুন্সীর ছেলে।

পটুয়াখালী: জেলার মির্জাগঞ্জে ক্ষেতে চাষ করার সময় বজ্রপাতে আবদুল জলিল নামের এক ব্যক্তি নিহত হন। দুপুরে উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের তারাবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জলিল তারাবুনিয়া গ্রামের মৃত সেরজন আলী হাওলাদারের ছেলে।

মুন্সিগঞ্জ: জেলার সিরাজদিখানে বৃষ্টির মধ্যে ফুটবল খেলতে গিয়ে বজ্রপাতে অপূর্ব বর্মন (১৯) নামের এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন। বিকেল ৪টায় উপজেলার শেখরননগর মাঠে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও দুজন। নিহত অপূর্ব উপজেলার শেখরনগর ইউনিয়নের জেলেপাড়া গ্রামের স্বপন বর্মনের ছেলে ও আলী আজগর অ্যান্ড আব্দুল্লাহ কলেজের এইচএসসির পরীক্ষার্থী।

আরও পড়ুন:


পিকনিক-বিয়ে-জন্মদিনের অনুষ্ঠানে মানা

চলমান বিধি-নিষেধ ‘লকডাউন’ বাড়ল ১৬ জুন পর্যন্ত

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমল

কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে বেগম খালেদা জিয়াকে


মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের ঘিওরে বজ্রপাতে মো.শাহীন হোসেন (১৮) নামে এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঘিওর উপজেলার বৈলট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহীন হোসেন ঘিওর সদর ইউনিয়নের মুক্তার হোসেনের ছেলে। তিনি শিবালয়ের মহাদেবপুর ইউনিয়ন ডিগ্রি কলেজে এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বিপ্লব।

বরিশাল: বিকেল বরিশালের উজিরপুর উপজেলার সাতলা ইউনিয়নের উত্তর সাতলা গ্রামে বজ্রপাতে নান্টু বালী (৩০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি ওই এলাকার ইউনুস বালীর ছেলে ।

উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শওকত হোসেন নান্টু বালীর স্বজনদের বরাত দিয়ে জানান, বিকেলে মুষলধারে বৃষ্টির মধ্যে একাধিক বজ্রপাত হয়। এ সময় নান্টু বালী নিজ ঘরের সামনে দাঁড়িয়ে স্মার্ট ফোনে ভিডিও দেখছিলেন। হঠাৎ বিকট শব্দে বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। এতে নান্টু বালী ও তার কিছুটা দূরে দাঁড়িয়ে থাকা প্রতিবেশী মো. সুমন গুরুতর আহত হন।

তিনি আরও জানান, পরিবারের সদস্যরা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। হাসপাতালে পৌঁছার আগেই নান্টু বালীর মৃত্যু হয়য়। গুরুতর আহত সুমনের অবস্থাও আশঙ্কাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

খিলগাঁয়ে ড্রেনে পড়ে এক কিশোর নিখোঁজ, উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস

নিজস্ব প্রতিবেদক

খিলগাঁয়ে ড্রেনে পড়ে এক কিশোর নিখোঁজ, উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস

কিশোরকে উদ্ধারে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস

রাজধানীর খিলগাঁওয়ে ড্রেনে পড়ে এক কিশোরের নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার (২২ জুন) সকালে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। ওই কিশোরকে উদ্ধারে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের দুই ইউনিট।

ফায়ার সার্ভিসের খিলগাঁও স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আব্দুল মান্নান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা বলছেন, উত্তর বাসাবো ঝিলপাড় মসজিদের পাশের ড্রেনে এক কিশোর পড়ে গেছে। বোতল কুড়াতে গিয়ে সেখানে পড়ে যায় বলে জানান তারা।

সিনিয়র স্টেশন অফিসার আব্দুল মান্নানের নেতৃত্বে ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরের একটি ডুবুরি দল সেখানে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনো নিখোঁজ ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। উদ্ধার অভিযান চলমান আছে।

news24bd.tv এসএম

আরও পড়ুন


সেই রাতের পরীমণির আরও একটি ভিডিও ভাইরাল

ঢাকার ৭১ শতাংশ মানুষের শরীরে করোনার অ্যান্টিবডি: আইসিডিডিআরবি

সাতক্ষীতায় আজ সর্বোচ্চ মৃত্যু, শনাক্তের হার ৪৭ শতাংশ

ভ্যাকসিন দেয়নি দিল্লি, তাই ইলিশও পাঠাচ্ছে না ঢাকা


 

পরবর্তী খবর

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট মাকে বাঁচাতে গিয়ে ছেলেরও মৃত্যু

মনিরুল ইসলাম মনি, সাতক্ষীরা

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট মাকে বাঁচাতে গিয়ে ছেলেরও মৃত্যু

সাতক্ষীরায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তিনজন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে কালিগঞ্জ উপজেলায় মা ও ছেলে, আর কলারোয়ায় নিহত হয়েছেন এক কৃষক।

সোমবার (২১ জুন) সন্ধ্যার দিকে তারালী ইউনিয়নের বয়েরা গ্রামে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত হয়েছেন বয়েরা গ্রামের আরশাদ আলী সরদারের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৭৫) ও ছেলে রোকন সরদার (৪২)।

স্থানীয়রা জানান, উঠানে ভেজা কাপড় দিচ্ছিলেন মরিয়ম বেগম। এ সময় বাড়ির বিদ্যুতের তার থেকে তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। সঙ্গে সঙ্গে তিন ছেলে মাকে বাঁচাতে ঝাঁপিয়ে পড়ে। এ সময় মায়ের সঙ্গে ছেলে রোকন সরদার নিহত হয়। বাকি দুই ছেলে সেলিম সরদার ও কালাম সরদার আহত হয়েছে।

তারালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনামুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। কালিগঞ্জ থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

আরও পড়ুন:


জম্মু-কাশ্মীরে সংঘর্ষ: লস্কর-ই-তাইয়্যেবার কমান্ডারসহ নিহত ৩

যদি নারী অল্প পোশাক পরে ঘোরে তার প্রভাব পুরুষের উপর পড়তে বাধ্য: ইমরান

পুলিশ বিনা ওয়ারেন্টে সাইফুলকে ধরে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে: ফখরুল

২ হাত ও টুকরো করা পা এক নারীর, ধারণা পুলিশের


news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কর্ণফুলীতে পাথর বোঝাই জাহাজ ডুবি

অনলাইন ডেস্ক

কর্ণফুলীতে পাথর বোঝাই জাহাজ ডুবি

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীতে ‘এমভি রুহুল আমিন খান’ নামে পাথর বোঝাই একটি লাইটার জাহাজ ডুবে গেছে।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

মিরসরাইয়ে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনা, নিহত ২

অনলাইন ডেস্ক

মিরসরাইয়ে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনা, নিহত ২

মিরসরাই ইকোনমিক জোন এলাকায় একটি মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মো.জাবেদ হোসেন (৩০) ও নাজমুল হোসেন (১২) নামে দুজন নিহত হয়েছেন।

রোববার (২০ জুন) সন্ধায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় আহত আরও একজন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ২৬ নম্বর অর্থোপেডিক্স ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আরও পড়ুন:


ইরানের নতুন প্রেসিডেন্টের সংবাদ সম্মেলন কাল

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পরীক্ষা স্থগিত

‘ড্যাব’কে অনুরোধ জানাব ফখরুলের মানসিক পরীক্ষা করাতে: তথ্যমন্ত্রী


চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক)  হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শীলব্রত বড়ুয়া বলেন, মিরসরাই ইকোনমিক জোনে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডের সঙ্গে ধাক্কা লেগে তিনজন আরোহী আহত হয়। খবর পেয়ে তাদের উদ্ধার করে মিরসরাইয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। সেখান থেকে তিনজনকে রাত ৯টার দিকে চমেক হাসপাতালে আনা হলে মো.জাবেদ হোসেন ও নাজমুল হোসেন নামে দুইজনকে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মৃতদেহ দুইটি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ মর্গে রাখা হয়েছে। আহত দিদারুল আলম হাসপাতালের ২৬ নম্বর অর্থোপেডিক্স ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ধসে পড়ল নির্মাণাধীন বহুতল ভবন, চাপা পড়েছে কয়েকটি প্রাইভেট কার

অনলাইন ডেস্ক

ধসে পড়ল নির্মাণাধীন বহুতল ভবন, চাপা পড়েছে কয়েকটি প্রাইভেট কার

রাজশাহী নগরীতে নির্মাণাধীন একটি চারতলা ভবন ধসে পড়েছে। যার  দৈর্ঘ্য ছিল ৮০ ফুট এবং প্রস্থ ৪০ফুট।

রোববার (২০ জুন) দুপুরের দিকে নগরীর কয়েরদাঁড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে জানা গেছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সে জানায়, দৈর্ঘ্য প্রায় ৮০ ফুট এবং প্রস্থে ৪০ফুট ওই ভবনে কেউ না থাকলেও চাপা পড়েছে কয়েকটি প্রাইভেট কার। চারতলা পর্যন্ত নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছিল। ওপরে আরেক তলা তোলার জন্য বিম ওঠানো হয়েছিল। অত্যন্ত নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে ভবনটি নির্মাণ করা হচ্ছিল। এ কারণে ভবনটি ভেঙে পড়েছে।

জানা গেছে, ভবনটির মালিক ছিলেন স্থানীয় বাসিন্দা আক্তারুজ্জামান বাবলু নামে এক ব্যবসায়ী। প্রায় এক বছর আগে তিনি মারা গেছেন। এরপর থেকে বন্ধ ছিল নির্মাণকাজ। এখন ভবনের মালিকানায় আছেন তার ছোট ভাই নুরুজ্জামান পিটার। তবে রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে এই ভবনটির নকশার অনুমোদন নেওয়া হয়েছিল কিনা তা জানা যায়নি।

ফায়ার সার্ভিস বলছে, ভবনের নকশা অনুমোদন ছিল কিনা, কোনো ধরনের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার হয়েছিল তা তারা তদন্ত করে দেখবেন।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর