মোবাইলের জন্য স্কুলছাত্রের আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

মোবাইলের জন্য স্কুলছাত্রের আত্মহত্যা

আর্থিক সচ্ছলতা না থাকায় কৃষক বাবা তার স্কুল পড়ুয়া সন্তানেকে মোবাইল কিনে দিতে পারেনি। বাবার ওপর অভিমান করে সে কারণে দশম শ্রেণির স্কুলছাত্র শফিকুল ইসলাম আত্মহত্যা করেছে।

শুক্রবার (১১ জুন) বিকেল ৪টায় মাদারীপুর সদরের ঘটমাঝি এলাকায় নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

সদর উপজেলার ঘটমাঝি গ্রামের কৃষক তালেব আকনের ছেলে শফিকুল ইসলাম স্থানীয় অ্যাডভোকেট দলিল উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। কিছুদিন ধরে বাবা তালেব আকনের কাছে একটি মোবাইল ফোন কিনে দেয়ার দাবি করে আসছিল সে। কিন্তু আর্থিক সচ্ছলতা না থাকায় ছেলেকে মোবাইল কিনে দিতে পারেননি কৃষক বাবা।

এ নিয়ে শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে পরিবারে কথা কাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে ছেলে ঘরের ভেতর থেকে দরজা আটকিয়ে দেয়। বিকেল ৪টা বেজে গেলেও শফিকুল বের না হলে পরিবারের লোকজন দরজা ভেঙে দেখে ঘরের ভেতরে ঢুকে দেখে দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে শফিকুল।

শফিকুলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে মাদারীপুর সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) চৌধুরী রেজাউল করিম জানান, এই ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv/আলী 

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামের শিল্পপতি আবু তাহের চৌধুরীর ইন্তেকাল

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামের শিল্পপতি আবু তাহের চৌধুরীর ইন্তেকাল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক প্রটোকল কর্মকর্তা আলাউদ্দিন নাসিমের শ্বশুর ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ পরিষদের সদস্য ডা: জাহানারা আরজুর পিতা চট্টগ্রামের বিশিষ্ট শিল্পপতি এবং সেন্ট্রাল ইনসুরেন্স কোম্পানীর সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ আবু তাহের চৌধুরী আজ সোমবার সন্ধ্যা ৬ টা ২৫ মিনিটে ইউনাইটেড হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। 

তার প্রথম নামাজে জানাজা আজ বাদ এশা গুলশান সোসাইটি জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দ্বিতীয় নামাজে জানাজা আগামীকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার সোনাপুর চৌধুরী বাড়ীর সামনে অনুষ্ঠিত হবে। পরে তার লাশ সেখানকার পারিবারিক কবরাস্থানে দাফন করা হবে। 

আরও পড়ুন:


করোনায় আক্রান্ত কনডেম সেলের ফাঁসির আসামি

টিকা নিলে কমে মৃত্যু ঝুঁকি: আইইডিসিআর

করোনা: কুষ্টিয়ায় একদিনে ৯ জনের মৃত্যু

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রয়োগ শুরু


পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের কাছে মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনার জন্য দোয়া চাওয়া হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ছাত্রীর অনশন, পালিয়েছে প্রেমিক

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ছাত্রীর অনশন, পালিয়েছে প্রেমিক

বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে অনশন করেছে অনার্স পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী। প্রেমিকার অনশনের কারণে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে  প্রেমিক রবিন। অনশনরত মেয়েটিকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ উটেছে প্রেমিক রবিনের পরিবারের সদস্যরা।

এই ঘটনা ঘটেছে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার বাংড়া ইউনিয়নের ধুনাইল গ্রামে। সোমবার সকালে কলেজছাত্রী বিয়ের দাবিতে সেখানে অনশন শুরু করে। বিষয়টি মুহূর্তেই এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।

অনশনকারী ছাত্রী জানান, ধুনাইল গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে রবিনের সঙ্গে তার পাঁচ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। প্রেমের একপর্যায়ে তারা মাঝে মধ্যে দেখা-সাক্ষাৎ করত। বেশ কয়েকবার ওই ছাত্রীর বাড়িতেও যাওয়া আসা করত। বিয়ের আশ্বাস দিয়ে প্রেমিক রবিন ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।

অনশনকারী কলেজছাত্রী বলেন, আমি আসার পর বাড়ি ছেড়ে রবিন পালিয়েছে। তার বাড়ির লোকজন আমাকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। হয় বিয়ে না হয় আত্মহত্যা ছাড়া এখন আমার আর কোনো পথ নেই।

সহকারী পুলিশ সুপার কালিহাতী সার্কেল শরিফুল হক বলেন, বিষয়টি শুনেছি দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন:


করোনায় আক্রান্ত কনডেম সেলের ফাঁসির আসামি

টিকা নিলে কমে মৃত্যু ঝুঁকি: আইইডিসিআর

করোনা: কুষ্টিয়ায় একদিনে ৯ জনের মৃত্যু


 

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাসমত আলী নেতা জানান, বিষয়টি জানার পরই উভয়পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসার সিদ্ধান্ত হয়েছে। বসার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। মেয়েটি এখনো অনশন চালিয়ে যাচ্ছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামের শিল্পপতি আবু তাহের চৌধুরীর ইন্তেকাল

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামের শিল্পপতি  আবু তাহের চৌধুরীর ইন্তেকাল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক প্রটোকল কর্মকর্তা আলাউদ্দিন নাসিমের শ্বশুর ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ পরিষদের সদস্য ডা: জাহানারা আরজুর পিতা চট্টগ্রামের বিশিষ্ট শিল্পপতি এবং সেন্ট্রাল ইনসুরেন্স কোম্পানীর সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ আবু তাহের চৌধুরী আজ সোমবার সন্ধ্যা ৬ টা ২৫ মিনিটে ইউনাইটেড হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। 

তার প্রথম নামাজে জানাজা আজ বাদ এশা গুলশান সোসাইটি জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দ্বিতীয় নামাজে জানাজা আগামীকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার সোনাপুর চৌধুরী বাড়ীর সামনে অনুষ্ঠিত হবে। পরে তার লাশ সেখানকার পারিবারিক কবরাস্থানে দাফন করা হবে। 

আরও পড়ুন:


করোনায় আক্রান্ত কনডেম সেলের ফাঁসির আসামি

টিকা নিলে কমে মৃত্যু ঝুঁকি: আইইডিসিআর

করোনা: কুষ্টিয়ায় একদিনে ৯ জনের মৃত্যু

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রয়োগ শুরু


 

পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের কাছে মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনার জন্য দোয়া চাওয়া হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

কুকুর-বিড়াল ছানার মধুর সম্পর্ক

অনলাইন ডেস্ক

কুকুর-বিড়াল ছানার মধুর সম্পর্ক

সচরাচর আমরা দেখি কুকুর বিড়ালের সাপে-নেউলে সম্পর্ক। কিন্তু মাঝে মধ্যে সেই সম্পর্কেও মায়া মমতার পরশ দেখা যায়। তেমনি একটি ঘটনা ঘটেছে টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামে। সেই গ্রামের পল্লী চিকিৎসক শ্রী আশিষ চন্দ্র বর্মণের বাড়ির উঠানে  মা হারা একটি বিড়াল ছানাকে দুগ্ধ পান করাচ্ছেন একটি কুকুর। 

জানা গেছে, দুইটি ছানা প্রসব করার পর মৃত্যু হয় মা বিড়ালের। এরপর দুধপানের অভাবে একটি ছানা মারা যায়। বেঁচে থাকে আরেকটি ছানা। মা হারা সেই ছানাকে দুগ্ধ পান করাতে প্রকৃতির খেয়ালে ছুটে আসে একটি কুকুর। সেই কুকুরটি শুরু করে বিড়াল ছানাটিকে মাতৃস্নেহ ও দুধ খাওয়ানো। এভাবে ধীরে ধীরে বেড়ে উঠছে মা হারা বিড়ালটি। বিরল দৃশ্য দেখে অবাক হয়েছেন ওই এলাকার মানুষ।

মা হারা একটি বিড়াল ছানাকে দুধ খাওয়াচ্ছে একটি কুকুর। যেন মায়া-মমতা সব কিছু দিয়েই আঁকড়ে ধরে রেখেছে কুকুরটি। বিড়াল ছানাটিও পরম আগ্রহে কুকুরের দুধ পান করছে অনায়াসে।

এ বিষয়ে আশিষ চন্দ্র বলেন, কুকুরটা অনেক দিন যাবত এভাবেই বিড়াল ছানাটাকে বুকের দুধ দিয়ে আসছে। এতে ধীরে ধীরে বেড়ে উঠছে বিড়ালটি।

আরও পড়ুন:


করোনায় আক্রান্ত কনডেম সেলের ফাঁসির আসামি

টিকা নিলে কমে মৃত্যু ঝুঁকি: আইইডিসিআর

করোনা: কুষ্টিয়ায় একদিনে ৯ জনের মৃত্যু


 

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ বলেন, কুকুর-বিড়ালের মধুর সম্পর্কের বিষয়টি বিরল। এ থেকে আমাদের অনেক কিছুই শিক্ষণীয় রয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিক্তিতে হেলেনার বাসা ও জয়যাত্রায় অভিযান

অনলাইন ডেস্ক

সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিক্তিতে হেলেনা জাহাঙ্গীর এর বাসা ও জয়যাত্রায় অভিযান চালানো হয়  বলে জানিয়েছে র‌্যাব। 

দুপুরে ব্রিফিংয়ে র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক জানান, হেলেনা জাহাঙ্গীরের  ১৫ থেকে ২০জনের  সাইবার মনিটরিং টিম ছিলো। 

আরও পড়ুন:


বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত করোনার মতো বারবার রূপ পরিবর্তন করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম

টিকা নেয়ার পরেও করোনা পজিটিভ ফারুকী

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা


 

যারা দেশি বিদেশীদের ব্যক্তিদের হেয় করা ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কাজ করতো। তার সব সম্পত্তি বৈধ নাকি অবৈধ তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর