কোন সেবায় কত চার্জ নিতে পারবে ব্যাংক

অনলাইন ডেস্ক

কোন সেবায় কত চার্জ নিতে পারবে ব্যাংক

আমানতকারী/বিনিয়োগকারী/গ্রাহকদের স্বার্থ সংরক্ষণে ব্যাংকসমূহকে বিভিন্ন ধরনের চার্জ/ফি/কমিশন ইত্যাদির পরিমাণ/হার নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় এ ব্যাংকটি গতকাল রাতে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে দেশে কার্যরত সকল তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়েছে। 

এতে আমানত সংক্রান্ত চার্জের বিষয়ে বলা হয়েছে, সঞ্চয়ী হিসাব খোলার ক্ষেত্রে গ্রাহকরা ৫০০ টাকা এবং চলতি হিসাব খোলার ক্ষেত্রে এক হাজার টাকা জমাকরণপূর্বক নিজ নিজ নামে ব্যাংক হিসাব খুলতে পারবেন। তবে, বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত হিসাব খোলার ক্ষেত্রে ন্যূনতম জমার বাধ্যবাধকতা হতে অব্যাহতিপ্রাপ্ত থাকবে। সঞ্চয়ী হিসাবে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত গড় আমানত স্থিতির ক্ষেত্রে হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ ফি আদায় করা যাবে না। ১০ হাজার টাকার অধিক গড় আমানত স্থিতির ক্ষেত্রে প্রতি ছয় মাস পর পর রক্ষণাবেক্ষণ ফি আদায় করা যাবে। ১০ হাজার টাকার বেশি কিন্তু ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত গড় আমানত স্থিতির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা। ২৫ হাজার টাকার বেশি থেকে দুই লাখ টাকা পর্যন্ত গড় আমানত স্থিতির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা। দুই লাখ টাকার অধিক থেকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত গড় আমানত স্থিতির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২৫০ টাকা। ১০ লাখ টাকার অধিক গড় আমানত স্থিতির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা। চলতি হিসাবে প্রতি ছয় মাস পর পর সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা ও স্পেশাল নোটিশ ডিপোজিট (এসএনডি) হিসাবে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা আদায় করা যাবে।

বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত হিসাবসমূহে কোনো প্রকার হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ ফি আদায় করা যাবে না। একই ব্যাংকের অন্য শাখায় হিসাব স্থানান্তরের ক্ষেত্রে একই জেলায় সর্বোচ্চ ৫০ টাকা এবং অন্য জেলায় সর্বোচ্চ ১০০ টাকা ফি আদায় করা যাবে। বিভিন্ন মাসিক সঞ্চয়ী হিসাব (ডিপোজিট পেনশন স্কীম) বা এফডিআর বা অন্য কোনো মেয়াদি আমানত মেয়াদপূর্তির আগে নগদায়নের ক্ষেত্রে নগদায়ন ফি বা অনুরূপ ফি আরোপ করা যাবে না। হিসাব বন্ধকরণের ক্ষেত্রে হিসাব বন্ধকরণ চার্জ হিসেবে সঞ্চয়ী হিসাবে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা, চলতি হিসাবে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা এবং এসএনডি হিসাবে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা আদায় করা যাবে। তবে বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত হিসাবসমূহে হিসাব বন্ধকরণ বাবদ কোনো ফি আদায় করা যাবে না।

বিভিন্ন ধরনের হিসাবের বিপরীতে চেক বই ইস্যুর ক্ষেত্রে প্রকৃত খরচের ভিত্তিতে চার্জ নির্ধারণ করতে হবে। চেক বই হারানোর ক্ষেত্রে নতুন চেক বই ইস্যু বাবদ প্রকৃত খরচ ছাড়া অতিরিক্ত চার্জ/প্রসেসিং ফি আদায় করা যাবে না।

বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত হিসাব বলতে দেশের আর্থিক সেবা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীকে ব্যাংকিং সেবার আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে কৃষক, মুক্তিযোদ্ধা, দুঃস্থ, ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্ন শ্রমিক, পথশিশু ও কর্মজীবী শিশু-কিশোর, ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচীর সুবিধাভোগী, তৈরি পোষাক শিল্পে কর্মরত শ্রমিক, পাদুকা ও চামড়াজাত পণ্য প্রস্তুতকারী ক্ষুদ্র কারখানার কারিগর এবং স্কুল ব্যাংকিং হিসাবধারীদের ব্যাংক হিসাবসহ সব ধরনের ১০, ৫০ ও ১০০ টাকায় খোলা হিসাবসমূহ এবং বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক সময়ে নির্দেশিত অনুরূপ হিসাবসমূহকে বোঝাবে। হিসাবধারী বছরে দুইবার ব্যাংক স্টেটমেন্ট পাবে চার্জ ছাড়াই। এর বেশি নিলে চার্জ দিতে হবে ১শ টাকা।

ঋণ দেওয়া সংক্রান্ত:
ঋণ প্রসেসিং ফি হিসেবে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণের ক্ষেত্রে মোট মঞ্জুরী করা ঋণের সর্বোচ্চ ০.৫০ শতাংশ আদায় করা যাবে, তবে এর পরিমাণ ১৫ হাজার টাকার বেশি হবে না। ৫০ লাখ টাকার বেশি পরিমাণ ঋণের ক্ষেত্রে এ হার হবে সর্বোচ্চ ০.৩০ শতাংশ, তবে এর পরিমাণ ২০ হাজার  টাকার বেশি হবে না। ঋণ আবেদন ফি নামে কোনো ফি আদায় করা যাবে না।

কটেজ, মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি এন্টারপ্রাইজ এবং কৃষি খাতে ঋণ পুনঃতফসিলিকরণ/পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে ঋণ প্রসেসিং/পুনঃতফসিলিকরণ/পুনর্গঠন ফি ইত্যাদি নামে কোনো ফি/চার্জ/কমিশন আদায় করা যাবে না। তবে, সিএমএসএমই ও কৃষি খাত ছাড়া অন্যান্য খাতে ঋণ পুনঃতফসিলিকরণ/পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে পুনঃতফসিলিকরণ/পুনর্গঠন ফি বাবদ সর্বোচ্চ ০.২৫ শতাংশ আদায় করা যাবে, তবে এর পরিমাণ ১০ হাজার টাকার বেশি হবে না।

আরও পড়ুন:


আম্পায়ারের ওপর চড়াও হয়ে লাথি দিয়ে স্ট্যাম্প ভাঙলেন সাকিব (ভিডিও)

রাজশাহী মেডিকেলে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ১৫ জনের মৃত্যু

সুযোগ পেলে নায়ক হিসেবে অভিনয় করতে রাজি বেরোবি উপাচার্য কলিমউল্লাহ

পাওনা টাকা না দেওয়ায় প্রায় ৬ কোটি টাকার বাড়ি ভেঙে দিলেন মিস্ত্রি


 

গ্রাহকের গৃহীত ঋণ নির্দিষ্ট মেয়াদের পূর্বে পরিশোধের ক্ষেত্রে বকেয়া ঋণের সর্বোচ্চ ০.৫০ শতাংশ আর্লি সেটেলমেন্ট ফি আদায় করা যাবে। তবে, কটেজ, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র খাতে প্রদত্ত ঋণ এবং চলতি ঋণ বা ডিমান্ড লোনের ক্ষেত্রে মেয়াদপূর্তির আগে সমন্বয়ের ক্ষেত্রে আর্লি সেটেলেমেন্ট ফি আদায় করা যাবে না। সিডিউল অব চার্জেসের সর্বশেষ হালনাগাদকৃত পূর্ণ তালিকা স্ব স্ব ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়, সকল শাখা, উপশাখা ও এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটসমূহের দর্শনীয় স্থানে/নোটিশ বোর্ডে এবং ব্যাংকের ওয়েবসাইটের হোম পেজ এ প্রদর্শন করতে হবে। ঘোষিত/প্রকাশিত তালিকা বহির্ভূত কোনো চার্জ/ফি/কমিশন আরোপ করা যাবে না।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ

লকডাউন বাড়া‌নো হয়েছে ১০ আগস্ট পর্যন্ত। লকডাউন চলাকা‌লে রোববার বন্ধ থাকবে ব্যাংক। তবে সোমবার ও মঙ্গলবার লেনদেন চলবে। ওই দুই দিন লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এই তথ্য জানা গেছে।

এদিকে, করোনার সংক্রমণ কমাতে সব ধরনের অফিস বন্ধ রেখে ১ থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত কঠোর বিধি-নিষেধ কার্যকর করে সরকার।

এরপর কোরবানির ঈদের আগে গত ১৫ জুলাই থেকে আটদিনের জন্য সব বিধিনিষেধে তুলে নেওয়া হয়।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

লকডাউনে ব্যাংকে বাড়লো লেনদেনের সময়

অনলাইন ডেস্ক

লকডাউনে ব্যাংকে বাড়লো লেনদেনের সময়

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ঘোষিত বিধিনিষেধ আগামী ১০ আগস্ট (মঙ্গলবার) পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। বিধিনিষেধ চলাকালে আগামী শুক্রবার ও শনিবার সাপ্তাহিক বন্ধের পাশাপাশি ৮ আগস্ট (রবিবার) ব্যাংক বন্ধ থাকবে। এরপর ৯ ও ১০ আগস্ট সীমিত পরিসরে ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম।

‌তি‌নি জানান, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধ আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বা‌ড়ি‌য়ে‌ছে। এ প‌রি‌পে‌ক্ষি‌তে আগামী রোববার ব্যাংক বন্ধ থাকবে। আর ৯ ও ১০ আগস্ট সীমিত পরিসরে চলবে ব্যাংকিং কার্যক্রম। এসময় সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ব্যাংকে লেনদেন হবে। লেনদেন-পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম বিকেল সা‌ড়ে ৪টার মধ্যে শেষ করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ

দিনাজপুরে হেরোইন-ইয়াবাসহ মা, মেয়ে ও ছেলে আটক

আবারও বাংলাদেশের জয়কে কটাক্ষ ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের

পর্নোগ্রাফি: আঁচল-নায়লা নাঈম ও শিলাসহ অনেকেই র‍্যাবের নজরদারিতে

বেরিয়ে আসছে পরীমনির অন্ধকার জগতের চাঞ্চল্যকর তথ্য


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

করোনায় বিপাকে যশোরের ক্রিকেট ব্যাট তৈরির উদ্যোক্তারা

রিপন হোসেন, যশোর

মানসম্মত ক্রিকেট ব্যাট তৈরি করে সারাদেশে ‘ব্যাট গ্রাম’ নামে পরিচিতি পেয়েছে যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রাম। কিন্তু করোনার কারণে চরম অর্থনৈতিক সঙ্কটে পড়েছেন উদ্যোক্তারা। সারাদেশে মাঠে নেই ক্রিকেটাররা। এ অবস্থায় বিক্রি হচ্ছে না ব্যাটও।  

লোকসানের কারণে এরই মধ্যে পেশা পরিবর্তনও করেছেন অনেকে। যশোর শহর থেকে ১৩ কিলোমিটার দূরে সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রাম। প্রায় ২৫ বছর ধরে মানসম্মত ব্যাট  তৈরির জন্য এই গ্রাম এখন ক্রিকেট ব্যাটের গ্রাম হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। তাদের তৈরি ব্যাট দিয়ে সারা দেশের খুদে ক্রিকেটাররা মাঠ মাতাচ্ছে।

করোনার কারণে ব্যাটের চাহিদা আশঙ্কাজনকভাবে কমে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন উদ্যোক্তারা। তারা জানান, গেল দেড় বছর ধরে বিক্রি না থাকায় লোকসান গুণতে হচ্ছে তাদের। এ অবস্থায় কারখানা বন্ধ করে দিয়েছেও অনেকে।

আরও পড়ুন


জাপানে এত বেশি ভূমিকম্প কেন হয়?

জাপানে অলিম্পিক আসরের মধ্যেই ভয়াবহ ভূমিকম্প

সাকিব-মোস্তাফিজ আইপিএল খেলতে পারবেন

গোয়েন্দার হাতে পিয়াসার ১৭ গোপন ভিডিও, মৌ’র বিয়ে ১১টি


তবে এ শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে সহজ শর্তে ঋণ চান উদ্যোক্তারা। যশোরের নরেন্দ্রপুরের মিস্ত্রিপাড়ার ব্যাটের কারিগররা এখন আন্তর্জাতিকমানের ব্যাট বানাতে চান। তাদের দাবি, ‘উইলো’ কাঠ পেলে তারা কাঠের বলে ক্রিকেট খেলার ব্যাটও তৈরি করতে পারবেন। আর সেই ব্যাট নিয়ে মাঠে নামতে পারবেন তামিম, সাকিবদের মত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকারাও।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ব্যাংক বন্ধ আজ

অনলাইন ডেস্ক

ব্যাংক বন্ধ আজ

করোনার সংক্রমণ অব্যাহতভাবে বাড়তে থাকায় পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী বুধবার (৪ আগস্ট) ব্যাংক বন্ধ থাকবে। এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী একই কারণে গত রোববারও (১ আগস্ট) ব্যাংক বন্ধ ছিল।

২৮ জুলাই বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপারভিশন নতুন নির্দেশনা জারি করে। 

নির্দেশনা অনুযায়ী, ১ ও ৪ আগস্ট ব্যাংক বন্ধ থাকবে। ২, ৩ ও ৫ আগস্ট সকাল ১০টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত ব্যাংকে লেনদেন হবে। লেনদেন-পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শেষে করতে ৪টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা রাখা যাবে।

আরও পড়ুন:


করতালি দিয়ে মাঠেই টাইগারদের অভিনন্দন জানালো অস্ট্রেলিয়া

যে দুটি খারাপ অভ্যাস ত্যাগের বিনিময়ে জান্নাত

৪ আগস্ট: ইতিহাসে আজকের এই দিনে


বিধিনিষেধের মধ্যে ব্যাংকিং কার্যক্রমের ক্ষেত্রে ১৩ জুলাই জারি করা অন্যান্য নির্দেশনা বহাল থাকবে। এ দিকে ব্যাংকের মতো আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো বুধবার বন্ধ থাকবে। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

বৃহত্তর চালের মোকাম নওগাঁয় দাম বাড়ছে দফায় দফায়

বাবুল আখতার রানা, নওগাঁ

দেশের বৃহত্তর ধান-চালের মোকাম নওগাঁয় সব ধরনের চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ২-৩ টাকা। দফায় দফায় চালের দাম বৃদ্ধি পাওযায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, বেশি দামে ধান কিনে মজুদ করে রেখেছে মিলাররা। এ কারণেই চালের বাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে।  

দেশের বৃহত্তর ধান-চাল উৎপাদনের জেলা নওগাঁ। সারাদেশের চালের চাহিদার সিংহভাগ মেটানো হয় এ জেলা থেকে। ঈদের পরে কাটারিভোগ, জিরাশাইলসহ বিভিন্ন জাতের ধানের দাম বেড়ে যাওয়ায় চালের দাম বেড়েছে।

আরও পড়ুন:


আবারও বাড়ল লকডাউন

জানানো হলো দোকানপাট খোলার তারিখ

টিকা নেওয়া ছাড়া কেউ অফিস-দোকান-ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আসতে পারবে না


ঈদের আগে কাটারিভোগ চাল ছিল প্রতি কেজি ৫৫-৫৬ টাকা বর্তমানে ৫৮-৬০ টাকা, স্বর্না-৫ ছিল ৪২-৪৩ টাকা বর্তমানে ৪৮-৫০ টাকা, জিরাশাইল  ৪৫ টাকা কেজির জিরাশাইল বর্তমানে ৪৮ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

দফায় দফায় চালের দর বৃদ্ধিতে  বিপাকে পড়েছেন ক্রেতারা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাজার থেকে বেশি দামে ধান কিনে মজুদ করে রেখেছে মিলাররা। বেশি দামে বাজার থেকে ধান কিনে চাল উৎপাদন করতে খরচ বেশি পড়ায় চালের দাম বেড়েছে।

চালের দর নিয়ন্ত্রণে বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করার দাবি জানিয়েছেন এই মিল মালিক। চলতি বছর নওগাঁয় ইরি-বোরো ধানের আবাদ হয়েছে ১ লাখ ৮৭ হাজার ৭৬০ হেক্টর জমিতে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর