ফেসবুকে জমজমাট দেহব্যবসা : সমীক্ষা
ফেসবুকে জমজমাট দেহব্যবসা : সমীক্ষা

ফেসবুকে জমজমাট দেহব্যবসা : সমীক্ষা

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেই ফুলে ফেঁপে উঠছে দেহব্যবসা। ফেসবুক, স্ন্যাপচ্যাট, উইচ্যাট, ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমেই ফাঁদ পেতে অনেক মেয়েকেই দেহব্যবসায় নামানো হয়েছে বলে জানায় দ্য হিউম্যান ট্রাফিকিং ইনস্টিটিউট নামের ওই সংস্থাটি। তাদের দাবি এমন ঘটনার মধ্যে প্রায় ৫৯ শতাংশই জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সংস্থার সমীক্ষার রিপোর্টে আরও বলা হয় ,বেশিরভাগ নাবালক-নাবালিকাদেরই টার্গেট করা হয়।

তাদের লোভনীয় কাজের অফার দেওয়া হয়। যাতে কম কাজে বেশি আয় করা যায়। আর এভাবেই দেহব্যবসার চোরাবালির দিকে ঠেলে দেওয়া হয়।

সংস্থার সিইও ভিক্টর বুওত্রোসের জানান, মানব পাচারকারীরা খুবই সহজ জনপ্রিয় একটি মাধ্যমের খোঁজে থাকেন।

যাতে তা ব্যবহার করে অনায়াসে মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়। আর সেক্ষেত্রে ফেসবুক তাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি হাতিয়ার। আর এক্ষেত্রে মহিলারাই বেশি ভুক্তভোগী হয়ে থাকেন বলে দাবি মার্কিন সংস্থার।

যদিও এই তথ্যের তীব্র বিরোধিতা করেছেন ফেসবুকের মুখপাত্র জিন মোরান।

বিবৃতি জারি করে তিনি জানিয়েছেন, ফেসবুকে দেহব্যবসা, শিশুনিগ্রহের মতো জঘন্য ঘটনা একেবারেই বরদাস্ত করা হয় না। ফেসবুক একাধিক অ্যান্টি-ট্র্যাফিকিং সংস্থার সঙ্গেও যুক্ত।  

news24bd.tv/আলী