অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে

ইউরোপের দেশ উত্তর মেসিডোনিয়াতে ২০ বাংলাদেশি আটক

অনলাইন ডেস্ক

ইউরোপের দেশ উত্তর মেসিডোনিয়াতে ২০ বাংলাদেশি আটক

দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের দেশ উত্তর মেসিডোনিয়াতে শনিবার ২০ বাংলাদেশি অভিবাসন-প্রত্যাশীকে আটক করা হয়েছে। উত্তর মেসিডোনিয়ার স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের বরাত দিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যম। অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে তাদেরকে আটক করা হয়েছে।

স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের বিবৃতি অনুযায়ী, শনিবার নিয়মিত টহলের সময় একটি ভ্যান থেকে তাদের আটক করা হয়। সার্বিয়ার সঙ্গে দেশটির সীমান্তের কাছাকাছি একটি মহাসড়ক থেকে তাদের আটক করা হয়। 

এদের মধ্যে নয়জনের বয়স আঠারো বছরের নিচে। তাদেরকে বহন করা ভ্যানের ড্রাইভার ছিলেন একজন উত্তর মেসিডোনিয়ান যার বয়স অনুমানিক ৪৪ বছর। বর্তমানে তাকে পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে।

বর্তমানে আটক হওয়া এসব অভিবাসন-প্রত্যাশীকে মেসিডোনিয়ার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর জেভেলিয়াতে রাখা হয়েছে।

মেসিডোনিয়ার পুলিশ বলছে, এরা সবাই বলকান উপদ্বীপের সবচেয়ে দক্ষিণের দেশ গ্রিস থেকে মেসিডোনিয়াতে প্রবেশ করেছিলেন। তাই খুব শিগগিরই তাদেরকে গ্রিসে ফেরত পাঠানো হবে।

অবৈধভাবে ইতালি, ফ্রান্স, স্পেন ও পর্তুগালসহ সেনজেনভুক্ত বিভিন্ন দেশে অনুপ্রবেশের জন্য বর্তমানে বলকানের এ রুটটি ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছে। বিগত কয়েক বছর ধরে তুরস্ক ও গ্রিস থেকে ইতালি, ফ্রান্স, স্পেন ও পর্তুগালের মতো সেনজেনভুক্ত দেশগুলোতে অনুপ্রবেশের লক্ষ্যে উত্তর মেসিডোনিয়া, সার্বিয়া, মন্টিনিগ্রো ও বসনিয়া অ্যান্ড হার্জেগোভিনার মতো বলকান পেনিনসুলার দেশগুলোকে অনেক অভিবাসন-প্রত্যাশী ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করছেন।

আরও পড়ুন:


শিক্ষা প্রতিষ্ঠনের চলমান ছুটি বাড়ল

উপ-নির্বাচনে তিন আসনের আ.লীগের প্রার্থী ঘোষণা

১০০ কোটি টিকা দরিদ্র দেশগুলোতে দেবে বিশ্ব নেতারা

ফের ফিলিস্তিনি কিশোরকে হত্যা করল ইসরায়েল


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

তুরস্কে বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত ডাকটিকিট অবমুক্ত

অনলাইন ডেস্ক

তুরস্কে বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত ডাকটিকিট অবমুক্ত

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে তৈরি ডাকটিকিট অবমুক্ত করেছে তুরস্ক।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মসুদ মান্নান এবং তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাংস্কৃতিক উইংয়ের মহাপরিচালক ডেনিজ চাকারার মধ্যে এক বিশেষ বৈঠকে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত একটি ডাকটিকেট অবমুক্ত করা হয়।

বাংলাদেশ দূতাবাস আঙ্কারার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈঠকে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে গণতন্ত্র, শান্তি এবং ধর্মনিরপেক্ষতার এক মূর্ত প্রতীক ছিলেন। 

আরও পড়ুন:


এবার তিউনিসিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে বহিষ্কার করলেন প্রেসিডেন্ট

মাহফুজ আনামের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে সম্পাদক পরিষদ থেকে নঈম নিজামের পদত্যাগ

গ্রামীণফোনকে হু্মায়ূন পরিবারের আইনি নোটিশ


তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন মানবতা, জনগণের ক্ষমতা এবং আর্থ-সামাজিক মুক্তির অগ্রদূত।

বঙ্গবন্ধুর স্বরণে ছবিসহ ডাকটিকিট অবমুক্তির মধ্যে দিয়ে দুই দেশের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে বলে উভয়েই মত প্রকাশ করেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী 'মুজিব বর্ষ' উদযাপনের সময়ে ডাকটিকিটটি অবমুক্ত করায় রাষ্ট্রদূত মসুদ মান্নান তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও দেশটির ডাকবিভাগকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

তুরস্কে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকটিকেট অবমুক্তকরণ

অনলাইন ডেস্ক

তুরস্কে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকটিকেট অবমুক্তকরণ

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মস্য়ূদ মান্নান এনডিসি  এবং  তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাংস্কৃতিক উইংয়ের মহাপরিচালক মান্যবর মিসেস ডেনিজ চাকার -এর মধ্যে অনুষ্ঠিত একটি বিশেষ বৈঠকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে তুরস্কের ডাকবিভাগ কর্তৃক  প্রকাশিত একটি ডাকটিকেট অবমুক্ত করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে  এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠককালে রাষ্ট্রদূত হাজার বছরের শ্রেষ্ট বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে গণতন্ত্র, শান্তি এবং ধর্মনিরপেক্ষতার এক মূর্ত প্রতীক ছিলেন। 

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন মানবতা, জনগণের ক্ষমতা এবং আর্থ-সামাজিক মুক্তির অগ্রদূত।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

 
বঙ্গবন্ধুর স্বরণে ছবিসহ ডাকটিকেট অবমুক্তির মধ্যে দিয়ে দু’দেশের সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে বলে উভয়েই সহমত প্রকাশ করেন। পরিশেষে জাতির জনক বঙ্গন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী “মুজিব বর্ষ” উদযাপনের সময়ে ডাকটিকেটটি অবমুক্ত করায় রাষ্ট্রদূত তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও ডকিবিভাগকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দক্ষিণ কোরিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন

অনলাইন ডেস্ক

দক্ষিণ কোরিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে সিউলে বাংলাদেশ দূতাবাস সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়নসে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাসের গ্রন্থাগারে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় ও দূতাবাসের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে, দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম ও বিশ্ববিদ্যালয়টির গ্রন্থাগারের প্রেসিডেন্ট ইয়ং-চেওল কিম যৌথভাবে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’টি উদ্বোধন করেন।

কোরিয়ান ভাষায় অনুবাদকৃত ‘বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ’, ‘বঙ্গবন্ধু দ্য পিপলস হিরো’ ও বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র পাশাপাশি  ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’-এ রয়েছে ইংরেজি ভাষায় লিখিত জাতির পিতার জীবন ও রাজনৈতিক দর্শন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাস এবং বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সম্পর্কিত বেশ কিছু তথ্যসমৃদ্ধ বই। 


দশ বছর আগে যা ঘটেছে তার জন্য আমি দায়ী নই : প্রভা

‘চুম্বন বা অন্তরঙ্গ দৃশ্যয়নের আগে একান্তে সময় কাটাই’


 

‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’-এর এসব বই থেকে দক্ষিণ কোরিয়াসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের তরুণ প্রজন্ম বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন, স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় তার অসামান্য আত্মত্যাগ ও অনন্য ভূমিকাসহ বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে পারবে। এর ফলে, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক চেতনা ও আদর্শ দক্ষিণ কোরিয়ার গণ্ডী পেরিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের তরুণ প্রজন্মের মধ্যে ছড়িয়ে পড়বে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে কানাডায় শোক

লায়লা নুসরাত, কানাডা থেকে

ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে কানাডায় শোক

একুশে পদকপ্রাপ্ত জনপ্রিয় গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে কানাডায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

তাঁর মৃত্যুর খবর বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন ব্যক্তি, বুদ্ধিজীবী সাংবাদিক, সাহিত্যিক, সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

শোক প্রকাশ করতে গিয়ে কানাডার ‌‘নতুন দেশ’ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ও সাংবাদিক শওগাত আলী সাগর বলেন, তার মৃত্যু বাঙালি জাতির জীবনে এক অপূরণীয় ক্ষতি। কর্মের মাধ্যমে তিনি বেঁচে থাকবেন আমাদের হৃদয়ে। মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

কানাডার ‘প্রবাস বাংলা ভয়েস’ এর প্রধান সম্পাদক আহসান রাজীব বুলবুল বলেন,  প্রথিতযশা এই শিল্পীর মৃত্যু আমাদের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। গণজাগরণ আর গানের মাধ্যমে জাগরিত করা জাতির আলো যেন ধীরে ধীরে নিভে যাচ্ছে। মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অফ ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন বলেন, আমরা এক গুণী ব্যক্তিত্ব ও অভিভাবককে হারালাম। তাঁর কর্মের মাধ্যমে তিনি বেঁচে থাকবেন আমাদের মাঝে। মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অফ ক্যালগেরির সহসভাপতি মো. কাদির বলেন, এ এক অপূরণীয় ক্ষতি। সংগীতে ও বাংলাদেশের জন্য তার অবদান জাতি সারা জীবন মনে রাখবে। মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব প্রকৌশলী ও রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী আবদুল্লা রফিক বলেন, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র ও স্বাধীনতা যুদ্ধে তাঁর অবদানের জন্য তিনি জাতির কাছে চিরদিন স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

সিলেট এসোসিয়েশন অফ ক্যালগেরির সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, তার মূত্যুতে দেশের সংস্কৃতি অঙ্গনের এক নক্ষত্রের পতন হলো। তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী কিরন বনিক শংকর বলেন,  ঋষিজ শিল্পীগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা, জনপ্রিয় গণসংগীতশিল্রী ফকির আলমগীর আমার মাঝে আর নেই, বিশ্বাস করতে পারছি না। বাংলাদেশের প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তার ভূমিকা আর তার অনবদ্য সকল গানের মাধ্যমে ফকির আলমগীর আমাদের মাঝে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। আমাদের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এটি একটি অপূরণীয় ক্ষতি। তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি আর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী সোহাগ হাসান বলেন, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র ও গণ জাগরণের পথিকৃৎ ফকির আলমগীর এর মৃত্যু সঙ্গীত অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি। শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা ও কালজয়ী এই শিল্পীর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

বিশিষ্ট কলামিস্ট উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান বলেন, একটি নক্ষত্রের বিদায়। স্বাধীনতা থেকে প্রতিটি অধিকার আদায়ের আন্দোলন সংগ্রামে গনজাগরণ সৃষ্টিতে অসামান্য অবদানের মাধ্যমে তিনি আজীবন জাতির হ্রদয়ে বেঁচে থাকবেন। আমি তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি, সাথে সাথে প্রার্থনা করি পরম করুণাময় যেন তাঁর পরিবারকে সেই শোক কাটিয়ে উঠার শক্তি দান করেন।

এছাড়াও কানাডায় ফকির আলমগীরের মূত্যুতে বিভিন্ন সংগঠন শোক প্রকাশ করেছেন ও তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর তথ্য

গার্মেন্টস খোলার ব্যাপারে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কখন লকডাউন বাড়ানো লাগবে না জানালেন তথ্যমন্ত্রী

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ‍মৃত্যুর রেকর্ড


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে নিউইয়র্কে শোকসভা

অনলাইন ডেস্ক

ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে নিউইয়র্কে শোকসভা

কণ্ঠযোদ্ধা ফকির আলমগীরের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করলেন একাত্তরের স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের দুই সহযোদ্ধা রথীন্দ্রনাথ রায় এবং শহীদ হাসান। অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে তারা উল্লেখ করেন, করোনার থাবায় প্রথিতযশা শিল্পী-সাংস্কৃতিক কর্মীরা হারিয়ে যাচ্ছেন। ফকির আলমগীরের মতো সজীব একজন মানুষও রক্ষা পেলেন না এই মহামারির কবল থেকে। একাত্তরের দিনগুলো ছাড়াও পরবর্তী সময়ে ফকিরের স্মৃতিচারণ করেন এই দুই কণ্ঠযোদ্ধা।

ফকির আলমগীরের মৃত্যু সংবাদ জানার পরই সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের যুক্তরাষ্ট্র শাখা এক শোক সভার আয়োজন করে নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রাশেদ আহমেদ। ফকির আলমগীরের স্মৃতিচারণের পর তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে আরও বক্তব্য রাখেন সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের যুক্তরাষ্ট্র শাখার যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল কাদের মিয়া এবং নির্বাহী সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

বিশিষ্টজনদের মধ্যে আরও ছিলেন সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের ভাইস প্রেসিডেন্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার চুন্নু, নির্বাহী সদস্য শামীম আকতার শরিফ, আওয়ামী লীগ নেতা নাজিমউদ্দিন এবং এ টি এম মাসুদ। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর