ঢাকা বোট ক্লাবের সদস্য হতে লাগে ১৮ লাখ টাকা

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা বোট ক্লাবের সদস্য হতে লাগে ১৮ লাখ টাকা

বর্তমানে আলোচিত এক নাম ‌‘ঢাকা বোট ক্লাব’। এ ক্লাবটি হঠাৎ করেই দেশবাসীর আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। যে ক্লাবের সদস্য হতে গুনতে হয় ১০ থেকে ১৮ লাখ টাকা।

কাঁটাতারের বেড়া, অসংখ্য ক্লোজ সার্কিট ক্যামরাসহ প্রবেশে থাকতে হবে বিশেষ কোড। ১০ জুন রাতে এ ক্লাবটির ভেতরে কী ঘটেছিল অভিনেত্রী পরীমনির সঙ্গে? জানতে তদন্তে নেমেছেন গোয়েন্দারা।

কালো রংয়ের বিশাল ৩ তলা ভবনটি নিয়ে সোমবার (১৪ জুন) সকাল থেকেই শুরু হয় নানা জল্পনা-কল্পনা।

আরও পড়ুন:


নাসিরের বাসায় উঠতি বয়সী তরুণীদের দিয়ে চলত অনৈতিক কার্যকলাপ

মাত্র ৫ হাজার টাকা পেয়েই হত্যার মিশনে নামে খুনিরা

ময়মনসিংহে বাসচাপায় নিহত ২


এদিন ক্লাবের প্রাঙ্গনজুড়ে নিরাপত্তা প্রহরীদের নজিরবিহীন টহল। প্রবেশ নিষেধ ছিল সংবাদমাধ্যমেরও। ১০ জুন রাতে পরীমনির সাথে কী ঘটেছিল সে বিষয়ে জানাতে নারাজ ক্লাবটির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। তাদের দাবি বড় স্যাররাই জানেন সব।

অভিজাত ক্লাবটিতে প্রায়ইশ সদস্যদের কেউ কেউ মদ্যপ হয়ে অন্যদের বিরক্ত করার ঘটনা ঘটতো বলে জানান ক্লাবটিরই একজন এক্সিকিউটিভ সদস্য। আর এমনটা খুবই সামান্য ঘটনা বলেও দাবি এই ক্লাব সদস্যের।

এদিকে, স্থানীয়দের দাবি ক্লাবটিতে প্রায় প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলে পার্টি। যেখানে নারীদের উপস্থিতিই সবচেয়ে বেশি।

তুরাগে নদীর কিছু অংশ জুড়ে ক্লাবটি নির্মাণ হয়েছিল বলে কয়েক বছর আগে সেখানে উচ্ছেদ অভিযানও চালাতে হয়েছিল বিআইডব্লিউটিএকে।

অভিনেত্রী পরীমনির ঘটনা তদন্তে ক্লাবটিতে ইতিমধ্যে পরিদর্শন করেছেন পুলিশ, এসবি ও র‍্যাব কর্মকর্তারা। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ক্লাবটির কর্মচারীদের। ঘটনার দিনের সিসি টিভি ফুটেজ উদ্ধারের চেষ্টাও চলছে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

খালেদা জিয়াকে আম পাঠিয়েছে পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক

খালেদা জিয়াকে আম পাঠিয়েছে পাকিস্তান

পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে আম উপহার পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় ঢাকার পাকিস্তান দূতাবাসের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার বাসায় এসব আম পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

বিএনপির একাধিক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ প্রসঙ্গে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স গণমাধ্যমকে বলেন, ‘শুধু পাকিস্তানের পক্ষ থেকে আম নয়, জাপান থেকে চকলেট দেয়া হয়, সৌদি আরবের পক্ষ থেকে খেজুর, রাশিয়া, ইন্ডিয়া, ইউরোপসহ বিভিন্ন দূতাবাস থেকে উপহার আসে। সেটা শুধু বিএনপি বা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জন্য না, এটা রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং আরও কয়েকটি রাজনৈতিক দলের কাছেও পাঠানো হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকেও ঢাকার সকল দূতাবাসে এবং আন্তর্জাতিক সংস্থায় উপহার পাঠানো হয়। বিভিন্ন সিজনে এসব ফলমূল পাঠানো হয়। পহেলা বৈশাখে পিঠাপুলি, যদি কোনো দূতাবাস বা সংস্থায় নারী থাকেন, ক্ষেত্রবিশেষে সেখানে শাড়িসহ নানা উপহার পাঠানো হয়। এগুলো মূলত সৌজন্যতার অংশ।’

গতকাল রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও উপহার হিসেবে আম পাঠায় পাকিস্তান।

পাকিস্তান হাইকমিশন সূত্র জানায়, গত বছরের মতো এবারও পাকিস্তান সরকার বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জন্য উপহার হিসেবে তাজা আম পাঠিয়েছে।

আরও পড়ুন


শেখ কামাল: বহুমাত্রিক প্রতিভাবান সংগঠক

বিচার চাওয়ার অধিকার পর্যন্ত জিয়াউর রহমান কেড়ে নিয়েছিলেন: কাদের

বরিশাল শেবাচিমে অক্সিজেনের দাবীতে বাসদের বিক্ষোভ


 

এর আগে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের জন্য হাঁড়িভাঙা আম পাঠান। আমগুলো পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দফতরে হস্তান্তর করা হলে বঙ্গবন্ধুকন্যার প্রশংসা করা হয়।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

হাসপাতাল করার আর জায়গা নেই, এখন হোটেল খুঁজছি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

হাসপাতাল করার আর জায়গা নেই, এখন হোটেল খুঁজছি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশে হাসপাতাল করার আর জায়গা নেই এবং হাসপাতালও খালি জানিয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, আমরা এখন হোটেল খুঁজছি, যাতে মৃদু আক্রান্তদের সেখানে রাখতে পারি।

আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে বিধিনিষেধ নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে তিনি গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনায় আক্রান্ত হলেই সবাইকে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন পড়ে না। মৃদু আক্রান্ত রোগীদের জন্য আমরা আলাদা হোটেল ভাড়া করার চিন্তা করেছি, যেখানে ডাক্তার, নার্স ও ওষুধপত্র থাকবে। অক্সিজেনের ব্যবস্থাও রাখা হবে।


আরও পড়ুন

ডিএনসিসি এলাকায় এডিস মশা বিস্তার রোধকল্পে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকার বেশি জরিমানা

বাড়ছে রোগীর চাপ : চালু হচ্ছে আরও দুই করোনা ইউনিট

১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে


তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে হাসপাতালে ৯০ শতাংশ শয্যা পূর্ণ হয়ে গেছে। আইসিইউ এরই মধ্যে ৯৫ শতাংশ পূর্ণ। এসব বিবেচনা করে আমরা ইতোমধ্যে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করছি। সেখানে ইমিডিয়েটলি আমরা হয়তো ৫০০/৬০০ শয্যা রেডি করতে পারব। পরে তা এক হাজার শয্যায় নেওয়া যাবে।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

 

পরবর্তী খবর

নতুন নিয়মে চলবে গণপরিবহন

অনলাইন ডেস্ক

নতুন নিয়মে চলবে গণপরিবহন

১১ আগস্ট থেকে গণপরিবহন চলবে নতুন নিয়মে। এসময় পরিবহনের চালক ও তার সহকারী এবং ১৮ বছরের বেশি বয়সের যাত্রীদের করোনার টিকা গ্রহণের সনদ সঙ্গে রাখতে রাখতে হবে। এছাড়া গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে রোটেশন পদ্ধতি অনুসরণ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) ভার্চুয়ালি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সচিবালয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। 

মন্ত্রী বলেন, ‘১০ তারিখ পর্যন্ত আমরা বিধিনিষেধ বৃদ্ধি করেছি। ১১ তারিখ থেকে ইনশাহ আল্লাহ সব খুলবে।’

কিছু শিল্প-কারখানা খুলে দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অন্যান্য কারখানাও আমরা খুলে দেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ১১ তারিখ থেকে দোকানপাট, যানবাহনও চলবে। তবে সব একত্রে না। আমরা লোকাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটরকে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে অনুরোধ করবো, বাই রোটেশনে যাতে চলে।’

উদাহরণ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘মনে করেন, গাজীপুর থেকে ১০০ গাড়ি প্রতিদিন ঢাকায় আসে। ১০০ না, ৩০টি আসুক বা ৫০টি আসুক। আজ এগুলো যাবে তো কাল অন্যগুলো যাবে। এরকম তারা নির্ধারণ করে দেবেন। শ্রমিক, পরিবহন নেতা এবং পরিবহনর মালিকদের সঙ্গে কথা বলে এগুলো বাস্তবায়ন করা হবে।’

‘লঞ্চ, স্টিমার, রেল আছে, সেগুলোও চলবে। কিন্তু অতীতে যে পরিমাণে  চলেছিল, সে পরিমাণ না চলে সীমিত আকারে...। কর্তৃপক্ষ সেগুলো নির্ধারণ করে জনগণকে অবহিত করবেন। যেমন রেল হয়তো ১০টা চলতো, এখন ৫টা চলবে। কোনটা কখন ছাড়বে এবং কিভাবে যাবে, এগুলো স্ব স্ব মন্ত্রণালয় ও ডিপার্টমেন্ট জনগণকে অবহিত করবে।’

এদিকে সবকিছু খুলে দেওয়ার ঘোষণা আসলেও এর সঙ্গে শর্ত জুড়ে দিয়েছে সরকার। ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে যারা টিকা নিয়েছেন, শুধুমাত্র তারাই ঘর থেকে হতে পারবেন। টিকা নেওয়ায় ব্যতীত কেউ মুভমেন্ট করলে তাকে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে।

আরও পড়ুন:


১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে

৭, ৮, ৯ আগস্ট ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছি: মোজাম্মেল হক

১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া ঘোরাফেরা করলে শাস্তি


 

এ বিষয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, অবশ্যই সবাইকে ভ্যাকসিন নিতে হবে। দেশব্যাপী ১৪ হাজার কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ১১ তারিখ থেকে কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করবে। টিকা ছাড়া ১৮ বছরের বেশি কেউ চলাচল করলে তাকে সাজার আওতায় আনা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

মাস্ক না পরলে জরিমানার ক্ষমতা পাচ্ছে পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

মাস্ক না পরলে জরিমানার ক্ষমতা পাচ্ছে পুলিশ

করোনা মহামারির মধ্যে মাস্ক না পরে ঘরের বাইরে গেলে পুলিশ শাস্তি দিতে পারবে। এ জন্য পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়ার কথা ভাবছে সরকার। প্রয়োজনে এ বিষয়ে অধ্যাদেশ জারি করার কথাও ভাবা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) করোনা পরিস্থিতি নিয়ে এক সভা শেষে সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সবাইকে মাস্ক পরতে হবে, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এটাকে সঠিকভাবে এনফোর্স করতে পুলিশকে ক্ষমতা দেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। যাতে করে যারা মাস্ক পরবে না তাদের জরিমানা করতে পারে। এ জন্য অধ্যাদেশ লাগবে। আলোচনা হয়েছে, আমরা সেদিকেও যাব।

আরও পড়ুন:


১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে

৭, ৮, ৯ আগস্ট ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছি: মোজাম্মেল হক

১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া ঘোরাফেরা করলে শাস্তি


 

সভার সভাপতি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, চলমান কঠোর বিধি-নিষেধ আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। আগামী ১১ আগস্ট থেকে সারাদেশের দোকানপাট খুলে দেওয়া হবে। সীমিত পরিসরে পর্যায়ক্রমে যানবাহন চলবে, খুলবে অফিস। ১১ আগস্টের পরে টিকা না নিয়ে কেউ মুভমেন্ট করলে শাস্তি হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

এর আগে মঙ্গলবার করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ধাক্কা রুখতে চলমান বিধি-নিষেধ আরো পাঁচদিন বাড়িয়েছে সরকার। সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চলমান বিধিনিষেধ চলবে ১০ আগস্ট পর্যন্ত।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সাতক্ষীরায় করোনা উপসর্গে চারজনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩১

মনিরুল ইসলাম মনি, সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরায় করোনা উপসর্গে চারজনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩১

সাতক্ষীরা করোনা ডেডিকেটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার উপসর্গ নিয়ে দুই নারীসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

এ নিয়ে, ভাইরাসটির উপসর্গ নিয়ে আজ পর্যন্ত ৫৫৪ জনের মুত্যু হয়েছে। আর আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরো ৮৫ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০৪ জনের নমুনা পরীক্ষা শেষে ৩১ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। যা শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ।

এনিয়ে, জেলায় আজ পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৭৮৯ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৫৭৫ জন।

এদিকে, ভাইরাসের কারণে পাঁচদিন বন্ধ থাকার পর আবারও শুরু হয়েছে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটিপিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা।

সাতক্ষীরা মেডিকেলের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ডা. অভিজিৎ বিশ্বাস জানান, আরটিপিসিআর ল্যাবে ধারণ ক্ষমতার বাইরে কাজ করা হয়েছে। এই ল্যাবের স্বাভাবিক পরীক্ষণ ক্ষমতা দিনে ৯৪টি। অথচ দিনে ৪শতাধিক পরীক্ষা করা হয়েছে। যে কারণে ভাইরাসে পরিপূর্ণ হয়ে গিয়েছিল ল্যাবটি।

পাঁচদিন জীবানুমুক্ত করার পরে আবারও কাজ শুরু করা হয়েছে। সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শাফায়াত জানান, জেলায় বর্তমানে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে মোট ২১৬ জন করোনা রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বাকীরা হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আরও পড়ুন:


১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে

৭, ৮, ৯ আগস্ট ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছি: মোজাম্মেল হক

১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া ঘোরাফেরা করলে শাস্তি


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর