এখানে লকডাউন মানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি, আর সব কিছু চলবে!

রাখাল রাহা

এখানে লকডাউন মানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি, আর সব কিছু চলবে!

সরকার বলছে দেশে করোনা শনাক্তের হার ৫% এর নীচে না নামলে সে স্কুল-কলেজ খুলবে না! কিন্তু সরকার যেভাবে করোনা টেষ্ট করছে চাইলেই এই হার তার পক্ষে আরো কয়েক বছর ধরে ৫%-এর উপরে রাখা সম্ভব! তাহলে কি এভাবেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে বছরের পর বছর?

১৫১ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে! দেশে আত্মহত্যার হার বেড়েছে প্রায় ৪৫%! দুনিয়ার কোনো সভ্য দেশ এভাবে একটানা ৪৫৬ দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে করোনা মোকাবেলা করছে না! সবচেয়ে আক্রান্ত দেশগুলোও সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রেখে করোনা মোকাবেলা করছে!

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে করোনা দূর করার কসরৎ উত্তর কোরিয়া, বার্মা, কম্বোডিয়া, তুরস্ক, সৌদি আরব, ফিলিপাইন, ইরাক, আজারবাইজান, মাদাগাস্কার এরকম ১৬টি দেশ, যাদের অধিকাংশই করোনায় সবচেয়ে কম আক্রান্ত দেশ। সুতরাং দেখুন, কোনো সিঙ্গাপুর বা কানাডা নয়, বাংলাদেশ এই ১৬টি দেশের মধ্যে রয়েছে! আর এখানে লকডাউন মানে শুধুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি, আর সব কিছু চলবে! এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি! 

তাহলে এমন পরিস্থিতিতে কিভাবে আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো টিকবে, শিক্ষার্থীরা বাঁচবে?
কথা বলবেন সহজপাঠ (ঢাকা) ও ফুলকি (চট্টগ্রাম) স্কুল; উদয়ন (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়) ও ইকবাল সিদ্দিকী (গাজীপুর) কলেজ; এবং তামিরুল মিল্লাত (টঙ্গী) ও মাদ্রাসাতুল মদীনা (বগুড়া) মাদ্রাসার প্রধানগণ। 

আজ ১৫ই জুন ২০২১ মঙ্গলবার রাত ৯টায়। 

লাইভ সম্প্রচার লিংক :https://www.facebook.com/shishir.movement

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

টিউশনির টাকা না দিলে মামলা করার সুযোগ থাকা উচিত

রউফুল আলম

টিউশনির টাকা না দিলে মামলা করার সুযোগ থাকা উচিত

টিউশনি পেয়েছি এক সপ্তাহ হয়েছে। ছাত্রীকে উচ্চমাধ‍্যমিক রসায়ন পড়ানোর কথা। তিনদিন পড়িয়েছি।

দ্বিতীয় সপ্তাহে দেখি স্টুডেন্ট বায়োলজি বই নিয়ে আসছে। একটু অবাক হলাম। পড়ানোর কথা কেমেস্ট্রি। এখন দেখি বায়োলজিও পড়াতে হবে। না ও করতে পারছি না। শাড়ি কিনলে ব্লাউজের কাপড় ফ্রি—এ ধরণের অফার তো আমি দেইনি।

প্রথমবার পড়িয়ে দিলাম। অন‍্যদিন আবার নিয়ে আসলো। বললাম, দেখো কেমেস্ট্রি বইয়ের মধ‍্যে যদি বায়োলজি বই ঢুকিয়ে স‍্যান্ডউইচ বানাতে চাও, সেটা তোমার ব‍্যাপার। তবে সেই স‍্যান্ডইউচ নিয়ে আমার মোটেও আগ্রহ নেই। এই কথা শুনে, দুই চোখ বড়ো করে সে আমার দিকে উচ্চমাধ‍্যমিক একটা লুক দিলো।

দুই সপ্তাহ পড়ানো হলো। তৃতীয় সপ্তাহে একদিন আমি গিয়ে বসে আসি। স্টুডেন্টের খবর নেই। প্রায় আধঘণ্টা পড় এসে বলে, স‍্যার আসেন। সে ঘুম থেকে উঠে, প্রস্তুত হয়ে হেলে দুলে এসেছে! যথারীতি আমার মেজাজ গরম! মেজাজ গরম নিয়ে তো আর তাপউৎপাদী বিক্রিয়া (Exothermic reaction) পড়ানো যায় না! বললাম, আজকে তোমাকে শুধু তাপহারী বিক্রিয়া পড়াবো। স্টুডেন্ট বলে উঠলো—মানে!

দুদিন পর আবারো দেরি। অন‍্য টিচারের কাছে পড়তে গিয়েছে। সেখান থেকে আসতে আসেত আধঘন্টা দেরি। আর আমি লিভিং রুমে বসে বসে পত্রিকা মুখস্থ করছিলাম। সে সময় স্মার্টফোন ছিলো না। থাকলে হয়তো সঙ্গীত অজ্ঞ মাহফুজ স‍্যারের গান উপভোগ করতে পারতাম।

আমি পরে বাসায় এসে স্টুডেন্টকে ফোন করলাম। বললাম তোমাকে আর পড়াবো না। যার সময়জ্ঞান নেই, তাকে অন‍্যজ্ঞান দেয়ার কোন ইচ্ছে আমার নেই। আমার তিন সপ্তাহের টাকা, চেক বা মানি অর্ডার করে (তখন বিকাশ ছিলো না) পাঠিয়ে দিও। ঠিকানা দিয়ে দিলাম। এও বললাম, যদি টাকা না পাঠাও আমি কিন্তু থানায় যাবো।

আরও পড়ুন:

বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম

চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় দুই মামলা


টাকা পাঠায়নি। পড়ে আমি থানায় গিয়েছিলাম। থানায় গিয়ে পরিচয় হয় ইউনিভার্সিটির এক বড়ো ভাইয়ের সাথে। বললাম একটা মামলা করবো। টাকা আদায়ের লক্ষ‍্যে। তিনি আমার ঘটনা শুনে অনেক্ষন হাসলেন। বিষয়টা উনার কাছে হাসির হলেও, আমার কাছে মোটেও হাসির ছিলো না। মামলা করতে পারিনি। এ ধরণের মামলা নাকি করা যায় না।

পাওনা টাকা আদায়ের জন‍্য বাংলাদেশ পুলিশ আইনে সুষ্পষ্ট কোন এক্ট আছে কিনা তখন জানা ছিলো না। এখনো জানা নেই।

তবে এই বিষয়ে কঠোর আইন হওয়া উচিত। মামলার সুযোগ থাকা উচিত।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগ 'নেত্রী' ছিলেন না

আশরাফুল আলম খোকন

হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগ 'নেত্রী' ছিলেন না

হেলেনা জাহাঙ্গীর কখনো আওয়ামীলীগ “নেত্রী” ছিলেন না। ঢাকা শহর ব্যাপী রং বেরঙের পোস্টার ছাপিয়ে আর ফেসবুকে উদ্ভট লাইভ করে তিনি অনেক আগেই আলোচিত।

বছর দুয়েক হলো আওয়ামীলীগের উপ কমিটিতে হয়তো কোনো কায়দা কানুন(!) করে তিনি ঢুকেছেন। এর মানে কি হেলেনা জাহাঙ্গীর “নেত্রী” হয়ে গেলেন? উনি রাজনীতি কবে কোথায় করেছেন? তিনি নিজেও দাবী করেন, তিনি সোশ্যাল ওয়ার্ক করতেন।
 
“নেত্রী” অনেক বড় ও ওজনদার শব্দ। সুতরাং কেউ যদি সংবাদে কিংবা লেখায় সাবেক আওয়ামীলীগ “নেত্রী” লিখেন একটু সিক্সথ সেন্স কাজ করানো উচিত। কেউ লটারিতে অনেক অনেক টাকা পেয়ে গেলে যেমন আমরা তাকে ব্যবসায়ী বলিনা, ভাগ্যবান বলি। ঠিক তেমনি কোন অনুকম্পায় হঠাৎ মন্ত্রী এমপি কিংবা পদপদবী পেয়ে গেলেই তিনি “নেতা কিংবা নেত্রী” হবেন না। “নেতা-নেত্রী” খেতাব অনেক সাধনার ফসল। হুদাই লিখে লিখে কাউকে এই খেতাব দিয়েন না।

আরও পড়ুন


ক্ষমতার দাপট ও ফেরাউনের শেষ পরিণতি

স্বামীর পর্নকাণ্ড: এবার শিল্পা শেঠির সমর্থনে বলি-অভিনেত্রী

ফল খাওয়ার উপযুক্ত সময় কোনটি জেনে নিন

যাকে তাকে নেতা-নেত্রী বানিয়ে প্রকৃত নেতা নেত্রীকে ছোট করা হয়।

লেখাটি আশরাফুল আলম খকন- এর ফেসবুক থেকে নেওয়া (সোশ্যাল মিডিয়া বিভাগের লেখার আইনগত ও অন্যান্য দায় লেখকের নিজস্ব। এই বিভাগের কোনো লেখা সম্পাদকীয় নীতির প্রতিফলন নয়।)

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর

বেশিরভাগ অনলাইন টিভির মালিক তথাকথিত কিছু মহিলা উদ্যোক্তা

আশরাফুল আলম খোকন

বেশিরভাগ অনলাইন টিভির মালিক তথাকথিত কিছু মহিলা উদ্যোক্তা

মূলধারার পত্রিকা কিংবা টেলিভিশন এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তাদের দেখা যেত না। কিন্তু নাম সর্বস্ব এবং অনুমতিবিহীন এইসব অনলাইন টিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তাদের সরব উপস্থিতি থাকে। এই “তাদের” বলতে যাদের বুঝিয়েছি তারা বিভিন্ন পেশার হোমরা চোমরা। আর এই বেশির ভাগ অনলাইন টিভির মালিক হচ্ছে নামিদামি তথাকথিত কিছু মহিলা উদ্যোক্তা(!)। অনেক ছেলে উদ্যোক্তাও এই অনলাইন টিভি করেছেন। কিন্তু তাদের টিভির কোন অনুষ্ঠানে এইসব হোমরা চোমরাদের দেখা যায়না।

যেখানে একটি টিভি চ্যানেল চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন মূলধারার টিভি চ্যানেল এর মালিকরা সেখানে এই নামসর্বস্বরা নামীদামী হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠান করে। তাদের আয়ের উৎস কি কেউ জানেনা। ঐসব অনুষ্ঠানে ফুল নিয়ে সেজেগুজে হোমরা চোমরা’রা হাজির হয়ে যান। দেখলে মনে হয় বিয়ে বাড়িতে আসছেন।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন বেসামরিক পদে ছয় শতাধিক নিয়োগ


হেলেনা জাহাঙ্গীরের টিভির মতো এমন অবৈধ ভুঁইফোড় অনেক অনলাইন টিভি আছে। মাননীয় তথ্যমন্ত্রী বললেন, এর সবই অবৈধ। এটা বন্ধ হলে ওই অবৈধগুলোও বন্ধ হওয়া উচিত। অধিকাংশের কাজই হচ্ছে কোন না কোন ঝান্ধা আর ব্ল্যকমেইল করা।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

অনলাইন ডেস্ক

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সম্প্রতি নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জেরে আওয়ামী লীগ থেকে বাদ পড়া হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার পর আলোচিত অস্ট্রিয়া প্রবাসী সেফাত উল্লাহ সেফুদার নাম উঠে আসে। হেলেনার সঙ্গে সেফুদার নিয়মিত যোগাযোগ ছিলো বলে জানা যায়।

এবার হেলেনা ইস্যুতে মুখ খুলেছেন সেফুদা। তাকে সম্মানের সঙ্গে ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। গতকাল শুক্রবার ফেসবুক লাইভে এসে এ আহ্বান জানান তিনি।

ওই ভিডিও বার্তায় সেফুদা বলেন, আমার নাতি হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অসম্মানজনকভাবে, একজন সিআইপিকে অ্যারেস্ট করা হলো। আমার ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে। হেলেনা জাহাঙ্গীরের মেয়ে আমার ভাগ্নি জেসির একটি সাক্ষাৎকার দেখলাম একটি টেলিভিশনে। হেলানাকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে তিলকে তাল করে র‍্যাবদেরকে দিয়ে তছনছ করা হয়েছে। ভাবটা এমন যে, চোর ধরা পড়েছে।

সেফুদা আরও বলেন, আমার সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরের দেখা হয়নি। তবে টেলিফোনে কথা হতো। হেলেনা জাহাঙ্গীর একজন স্মার্ট নারী, তিনি দুঃসাহসের সঙ্গে কথা বলতেন। অবিলম্বে এবং সম্মানের সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে ছেড়ে দিতে হবে।

আরও পড়ুন


আফগানিস্তানের জাতিসংঘের দপ্তরে হামলা, এক পুলিশ নিহত

হত্যা চেষ্টার অভিযোগে আসামের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা মিজোরাম পুলিশের

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় আরও এক মামলা

হামলার শিকার ইসরাইলি জাহাজের ২ ক্রু নিহত


এদিকে, শুক্রবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অস্ট্রিয়া প্রবাসী আলোচিত সেফুদা নাতনী বলে ডাকতেন। সেফুদার সঙ্গে তার নিয়মিত যোগাযোগ ছিল এবং তার সঙ্গে লেনদেনও ছিল হেলেনা জাহাঙ্গীরের।

তিনি বলেন, সেফুদা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের মাধ্যমে দেশবাসীর নজর কাড়তে চেষ্টা করেন। তার সঙ্গে গ্রেপ্তারকৃতের নিয়মিত যোগাযোগ ও লেনদেন রয়েছে বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

এই যুক্তিতে লকডাউন উঠিয়ে দেওয়া যায়

অনলাইন ডেস্ক

এই যুক্তিতে লকডাউন উঠিয়ে দেওয়া যায়

অতিমারি ভাইরাস করোনায় দেশে মৃত্যু ও শনাক্ত যখন উদ্বেগজন পর্যায়ে ঠিক তখনই রফতানিমুখী শিল্প-কারখানা খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

সরকারের এমন সিদ্ধান্তে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন নতুনদেশ’র প্রধান সম্পাদক, শওগাত আলী সাগর।

এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি বলেছেন, গার্মেন্টস শ্রমিকরা কোভিডে আক্রান্ত হবেন না- এই ধরনের তথ্য যদি সরকারের কাছে থাকে, তা হলে একই ধরনের যুক্তিতে সারা দেশ থেকেই লকডাউন উঠিয়ে দেওয়া যায়।

তার স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

‌‘রপ্তাণিমূখী তৈরি পোশাক শিল্পকারখানায় যারা কাজ করেন বা করবেন- তাদের কোভিড স্পর্শ করবে না- এমন কোনো তথ্য উপাত্ত কী কোনো বৈজ্ঞানিক গবেষণায় পাওয়া গেছে? সরকার যে গার্মেন্টস কারখানাগুলো খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তার পেছনে কী তথ্য উপাত্ত কাজ করেছে?

তারা কীভাবে নিশ্চিত হলেন- গার্মেন্টসকর্মীরা নিজেরা কোভিড আক্রান্ত হবেন না- তারা যখন বাড়িতে কিংবা অন্যকোথাও যাবেন তখন কোভিড ভা্ইরাস ছড়াবেন না!

গার্মেন্টস শ্রমিকরা যে যুক্তিতে কোভিড সংক্রান্ত বিধিনিষেধ এর আওতামুক্ত থাকবেন- একই যুক্তিতে তো সারা দেশের মানুষই এই ধরনের বিধি নিষেধ থেকে অব্যহতি চাইতে পারেন!

গার্মেন্টস শ্রমিকরা কোভিডে আক্রান্ত হবেন না- এই ধরনের তথ্য যদি সরকারের কাছে থাকে, তা হলে একই ধরনের যুক্তিতে সারা দেশ থেকেই লকডাউন উঠিয়ে দেওয়া যায়।

শওগাত আলী সাগর, প্রধান সম্পাদক, নতুনদেশ, কানাডা।

আরও পড়ুন:


বিট লবনের যত উপকার

ধানখেতে ৮ ফুট অজগর

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল ভাঙচুরকারীদের গ্রেপ্তার দাবি হানিফের


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর