লাঞ্ছনার সাজা তিন থাপ্পড়!
Breaking News
লাঞ্ছনার সাজা তিন থাপ্পড়!

লাঞ্ছনার সাজা তিন থাপ্পড়!

অনলাইন ডেস্ক

থানায় অভিযোগ করলে গ্রামে থাকতে না পারার ভয়ে মেয়ের শ্লীলতাহানির অভিযোগ নিয়ে গ্রামের মাতবরের কাছে যান নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের কৃষক। সেই সালিশে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে শাস্তি হিসেবে তিনটি থাপ্পড় ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।  

ভিক্টিমের স্বজনেরা অভিযোগ করেছেন, অভিযুক্ত ব্যক্তি ও তাঁর স্বজনেরা গ্রামের প্রভাবশালী। তাই এই বিচার মেনে নিতে হয়েছে তাদের।


আরও পড়ুন:

চলমান ‘বিধি নিষেধ’ আরও এক মাস বাড়ল

স্বাধীনতার মূল শর্ত হচ্ছে বাক, চিন্তা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা: ফখরুল

এখনও খোঁজ মেলেনি আবু ত্ব-হা আদনানের, যা বলছে পুলিশ

রোনালদোকাণ্ডের পর এবার টেবিল থেকে বিয়ারের বোতল সরালেন পগবা


অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম খোদাবক্স (৪৪)। সালিস বৈঠকে বিচারের কাজ করেন তাঁর চাচাতো ভাই সেকেন্দারসহ গ্রামের মাতবর রাজ্জাক মণ্ডল।  
ভিক্টিমের স্বজনরা বলেন, শ্লীলতাহানির সত্যতা পাওয়ার পরও বৈঠকে দোষী ব্যক্তিকে উপযুক্ত সাজা দেওয়া হয়নি। বিচারের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে জোর করে সাদা স্টাম্পে ছাত্রী ও বাবার স্বাক্ষর করে নেওয়া হয়েছে।

নবম শ্রেণির ছাত্রী ওই ভুক্তভোগীর  স্বজনেরা জানান, ১০ জুন বিকেলে কিশোরী বাড়িতে নিজের কক্ষে একাই ছিল। প্রতিবেশী খোদাবক্স ঘরে ঢুকে তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। কিশোরীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে খোদাবক্স পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা গ্রামের মাতবরের কাছে বিচার দাবি করেন। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মেয়েটির বাবাকে  বলা হয়, অভিযুক্তকে তিনটি থাপ্পড় মারতে পাশাপাশি তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

;