নোয়াখালী-৫ আসন, মওদুদের উত্তরসূরী হতে চান স্ত্রীসহ ৭ জন

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালী-৫ আসন, মওদুদের উত্তরসূরী হতে চান স্ত্রীসহ ৭ জন

কবিরহাট-কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নিয়ে নোয়াখালী-৫ সংসদীয় আসন। এই আসন ভিআইপি আসন হিসেবেও পরিচিত। জীবদ্দশায় বিএনপির নেতৃত্বে নিজের আসনসহ নোয়াখালীতে সর্বেসর্বা ছিলেন প্রয়াত ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। সাবেক প্রধানমন্ত্রী, উপরাষ্ট্রপতি এবং বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের মৃত্যুর পর এ আসনে বিএনপির নেতৃত্ব কে দেবেন তাই নিয়ে আলোচনা চলছে। 

এই আসনে মওদুদের উত্তরসূরী হিসেবে বিএনপির হাল ধরতে চান তার সহধর্মীনি হাসনা জসীম উদদীন মওদুদসহ ৭জন। নেতৃত্ব প্রত্যাশীদের মধ্যে দলের ত্যাগী-পরিক্ষিত নেতা যেমন আছেন, তেমনি আছেন নতুন বিএনপি নেতাও। এ পরিস্থিতিতে যে কোনো মুহূর্তে আসতে পারে নতুন নেতৃত্বের ঘোষণা। বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের কথা বলে এমন আভাস পাওয়া গেছে।

নেতৃত্ব প্রত্যাশীদের মধ্যে আলোচনায় রয়েছেন প্রয়াত ব্যরিস্টার মওদুদ আহমদের সহধর্মীনি সাবেক সংসদ সদস্য হাসনা জসীম উদদীন মওদুদ, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও নোয়াখালী জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম হায়দার বিএসসি, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বজলুল করিম চৌধুরী আবেদ, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ফোরকান ই আলম, ২০ দলীয় জোট সমর্থিত কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শিল্পপতি ফখরুল ইসলাম ও অ্যাডভোকেট পারভীন কাউছার মুন্নি।
   
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান বলেন, বিএনপির সাংগঠনিক নেতৃত্ব দেয়ার ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত মওদুদ আহমদের সহধর্মীনি হাসনা জসীম উদদীন মওদুদ এগিয়ে রয়েছেন।

স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানায়, নোয়াখালী-৫ আসনের বিএনপি ছিল মওদুদ আহমদের মতো পাহাড়সম যোগ্যতার অধিকারী রাজনীতিবিদের নেতৃত্বে। আগামী দিনের রাজনীতিতে মওদুদ আহমদের প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধাবোধের ওপর নির্ভর করবে দলীয় নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষের কাছে বিএনপির গ্রহণযোগ্যতা। এইটা ভুলে গেলে চলবে না।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক মেহেদী হাসান টিপু বলেন, শিল্পপতি ফখরুল ইসলাম মাঠ পর্যায়ের বিএনপির নেতাকর্মীদের সুখে-দুঃখে পাশে রয়েছেন। দলকে সু-সংগঠিত করতে তাকে দলের নেতৃত্বে সুযোগ দেওয়া উচিত।

হাসনা জসীম উদদীন মওদুদ বলেন, প্রিয়জন হারিয়ে আমি এখনো শোকের মধ্যে আছি। তবে আমাদের দল থেকে যখন যে সিদ্ধান্ত আসবে, সে হিসেবে আমি করণীয় ঠিক করব এবং সেটাই পালন করব। তবে এলাকার মানুষ চাইলে আমি বিয়টি প্রাধান্য দেব।

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও নোয়াখালী জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম হায়দার বিএসসি বলেন, এখানে বলতে গেলে বিএনপির অস্তিই ছিল না। সদর-কোম্পানীগঞ্জে বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থাটা আমি তৈরি করেছি।

বজলুল করিম চৌধুরী আবেদ বলেন, মওদুদ সাহেবই এলাকার রাজনীতিতে আমাকে উৎসাহিত করেন। আমি চাচ্ছি না, মওদুদ সাহেবের মৃত্যুর পরপরই এ বিষয় নিয়ে কথা বলতে। বরং আমি চাচ্ছি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এলাকায় খোঁজ খবর নিয়ে ভবিষ্যৎ রাজনীতির জন্য যাকে যোগ্য মনে করবেন তাকেই এলাকার রাজনীতির সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড দেখভালের জন্য দায়িত্ব দিবেন। দলকে ভালোবেসে দলের দায়িত্ব নিতে আমার আগ্রহ থাকাটা স্বাভাবিক। তবে দলের হাইকমান্ড যে সিদ্ধান্ত নিবে তা মেনেই আমরা রাজনীতি করব।

ফোরকান ই আলম বলেন, দল যদি আমাকে দায়িত্ব দেয় আমি দায়িত্ব পালনে আগ্রহী।

ফখরুল ইসলাম বলেন, এখন অনেককে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।  দল কাকে দিবে এটা দলের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে। 

অ্যাডভোকেট পারভীন কাউছার মুন্নি বলেন, আমি ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলাম। বিভিন্নভাবে দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। দলের কাছে আমার বক্তব্য তুলে ধরব। দল যে সিদ্ধান্ত দিবে আমরা তা মেনে দলের জন্য কাজ করব।

এ বিষয়ে বিএনপির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম বলেন, যারা তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে দলের কাজ করবে তারাই নতুন নেতৃত্বে উঠে আসবেন।

স্থানীয়দের ধারণা, এ আসনটিতে যে প্রার্থী জয় পান, তার দল সরকার গঠন করে। ১৯৯১ সালের পঞ্চম সংসদ নির্বাচনের সময় থেকেই এ আসনে লড়ে আসছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও মওদুদ আহমদ। যেবার মওদুদ জিতেছেন, সেবার বিএনপি সরকার গঠন করেছে, যেবার ওবায়দুল কাদের জিতেছেন, সেবার আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করেছে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১৬ মার্চ সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের মৃত্যু হয়। ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ ১৯৪০ সালের ২৪ মে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মানিকপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। 

আরও পড়ুন


অভিনব কায়দায় ব্যাংকে চুরি করতে গিয়ে আটক

নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করে কবিরাজ, অতঃপর

পাকিস্তানের সংসদে বাজেট অধিবেশনের সময় মারামারি (ভিডিও)

চলমান ‘বিধি নিষেধ’ আরও এক মাস বাড়ল


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

সবাইকে আমি দোষ দেব না: তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

সবাইকে আমি দোষ দেব না: তথ্যমন্ত্রী

গার্মেন্টস মালিকদের আরেকটু সচেতন হওয়া প্রয়োজন ছিল বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। 

 সোমবার (০২ আগস্ট) দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী বলেন, গার্মেন্টস মালিকরা বলেছিলেন, ঢাকার আশেপাশে যে শ্রমিকরা আছে, তাদেরকে নিয়েই আপাতত শুরু করবেন। কিন্তু এক্ষেত্রে কোনো কোনো মালিক সেটির ব্যত্যয় ঘটিয়েছেন। তাদের পক্ষ থেকে শ্রমিকদেরকে ফোন করা হয়েছে, কাজে যোগ দেওয়ার জন্য। অর্থাৎ যারা ঢাকার বাইরে চলে গেছেন তাদের আসতে বলা হয়েছে। 

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমি মনে করি এক্ষেত্রে গার্মেন্টস মালিকদের আরেকটু সচেতন হওয়া প্রয়োজন ছিল। সবাইকে আমি দোষ দেব না, কিন্তু যারা শ্রমিকদের কাছে বার্তা পাঠিয়েছেন কাজে যোগদান করতেই হবে, সেই বার্তা পাঠানোর ক্ষেত্রে একটু ভুল ছিল। তারা যেটি বলেছিলেন, ঢাকার আশেপাশে বা ঢাকার শ্রমিকদের নিয়ে চালু করবে, সেটি হলে এভাবে দৌড়ঝাঁপ করে শ্রমিকদের আসতে হতো না। শ্রমিকদের সুবিধার্থেই কয়েক ঘণ্টার জন্য গণপরিবহন চালু করা হয়েছিল বলেও জানান তিনি। 

মন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে আবার গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে, এ বছরের মধ্যেই ১০ কোটি ডোজ টিকা দেশে আসবে। সম্ভব হলে প্রতিমাসে এক কোটি লোককে টিকা দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: 


বগুড়ায় এই প্রথম এত মৃত্যু

তথ্য লুকিয়ে সরকারের কী লাভ?

পিয়াসা-মৌয়ের বিরুদ্ধে গুলশান-মোহাম্মদপুরে মামলার প্রস্তুতি


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ব্রিফিংকালে ওবায়দুর কাদের

তথ্য লুকিয়ে সরকারের কী লাভ?

অনলাইন ডেস্ক

তথ্য লুকিয়ে সরকারের কী লাভ?

বিএনপিকে সরকারের বিরুদ্ধে বিদ্বেষপ্রসূত মিথ্যাচার বাদ দিয়ে করোনায় অসহায় ও আক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি আজ সোমবার সকালে তাঁর বাসভবনে ব্রিফিংকালে এ আহবান জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ মাঠে থেকে জনমানুষের পাশে রয়েছে, অন্যদিকে বিএনপি গৃহকোণে অবস্থান করছে।

করোনা সংকটে সরকার নাকি কিছুই করছে না, বিএনপিই নাকি জনগণের সাথে রয়েছে, বিএনপি মহাসচিবের এসব আজগুবি এবং কাল্পনিক বক্তব্যের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন এটা তাদের অক্ষমতা আর ব্যর্থতা আড়াল করার অপপ্রয়াস। 

বিএনপি করোনা সংকটে জনগণকে পাশে আছে, এ কথা পাগলেও বিশ্বাস করে না বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। 

বিএনপি গৃহকোনে আইসোলেশনে থেকে গোয়েবলসীয় কায়দায় বাক্য চর্চা করছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন সংকট দেখলে বিএনপি নেতারা শামুকের মতো খোলসের আড়ালে গুটিয়ে থাকা আর পলায়নপরতা জনগণের কাছে এখন স্পষ্ট।

যারা নির্বাচনে অংশ নিয়ে নির্বাচনের দিন ঘরে বসে থাকে আর আন্দোলনের ডাক দিয়ে দরজা-জানালা বন্ধ করে পুলিশের গতিবিধি দেখে, তারা নাকি করোনাকালে জনমানুষের সাথে রয়েছে, একথা এখন কেউই বিশ্বাস করে না বলেও মনে করেন ওবায়দুল কাদের।

সরকার নাকি করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে লুকোচুরি করছে, বিএনপি নেতাদের এই হাস্যকর অভিযোগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন করোনার নমুনা পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন, ফলাফলসহ প্রতিটি বিষয়ে প্রযুক্তির সহায়তায় এবং বিভিন্ন অ্যাপসের মাধ্যমে সম্পন্ন হচ্ছে, এখানে তথ্য লুকানোর কোনো সুযোগ নেই।

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন এসব তথ্য লুকিয়ে সরকারের কী লাভ?

এ করোনাকালে বিএনপিকে হাজার পাওয়ারের বাতি জালিয়েও কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, তারা করোনা সংকটকে দেখছে চোখ বন্ধ করে অন্ধের হাতি দেখার মতো করে।

গার্মেন্টস খুলে দেওয়ার বিষয়ে বিএনপি মহাসচিবের নেতিবাচক মন্তব্য সম্পর্কে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ফখরুল সাহেব একদিকে শ্রমিকদের স্বার্থ নিয়ে কথা বলেন, অপরদিকে গার্মেন্টস খুলে দিলেও আবার বিরোধিতা করেন।

ইতিমধ্যেই বিশ্ববাজারে পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশ থেকে ভিয়েতনাম এগিয়ে গেছে, করোনাকালে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় পোশাক রপ্তানি কমেছে, এই প্রেক্ষাপটে রপ্তানি আদেশসমূহ কোনোভাবে বাতিল হোক - তা চায় না, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন জীবন ও জীবিকার সাথে সমন্বয় করে অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সরকার সচেষ্ট।

তিনি বলেন, দেশের ভবিষ্যত এবং কল্যাণ চিন্তা করেই সরকার বিশেষজ্ঞদের সাথে আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে।

ভ্যাকসিন নিয়ে বর্তমানে কোনো সংকট নেই, অথচ একটি মহল ভ্যাকসিন সংকট আছে বলে আতঙ্ক তৈরির অপপ্রয়াস চালাচ্ছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এই স্বার্থান্বেষী মহল সংকটে মানুষের মনোবল ভেঙে দেওয়ার অপচেষ্টা করছে। 

সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী একদিকে টিকাদান কার্যক্রম চলতে থাকবে, অন্যদিকে ভ্যাকসিন আসাও অব্যাহত থাকবে জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, একসাথে কয়েক কোটি ভ্যাকসিন জমিয়ে রেখে কার্যক্রম শুরু করার কথা যারা ভাবছেন, তারা সঠিক বলছেন না।

তিনি আরো বলেন, ভ্যাকসিন একদিকে আসতে থাকবে পাশাপাশি ভ্যাকসিন প্রদানের কর্মসূচিও চলতে থাকবে।এ নিয়ে সংশয়ের কোনো অবকাশ নেই।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন  আগামী সাত আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে দেশব্যাপি গ্রামপর্যায়ে গণটিকাদান কার্যক্রম, এ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সমন্বয়ের মাধ্যমে সম্পন্ন করতে ইতিমধ্যে সরকার প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

তিনি সংশ্লিষ্টদের ভ্যাকসিন প্রদানের প্রটোকল অনুসরণ করে ধৈর্যের সাথে গ্রামের মানুষদের টিকা প্রদানের আহবান জানান। 

ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কেন্দ্র থেকে জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের টিকাদান কর্মসূচি সফল করতে প্রশাসনকে সহযোগিতার আহবান জানান।

আওয়ামী লীগ করোনার শুরু থেকে জনমানুষের পাশে রয়েছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, টিকাদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী জনমানুষের পাশে থাকবে দলের নেতাকর্মীরা।

আরও পড়ুন: 

বগুড়ায় এই প্রথম এত মৃত্যু

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

টিকার অধিকার নিয়ে নয়-ছয় বরদাস্ত নয়: বদিউল আলম

অনলাইন ডেস্ক

টিকার অধিকার নিয়ে নয়-ছয় বরদাস্ত নয়: বদিউল আলম

নিজ জন্মস্থান পটিয়ায় টিকা বাণিজ্যের হোতাদের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়ে আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম বলেছেন, পটিয়াবাসীর টিকার অধিকার নিয়ে নয়-ছয় বরদাস্ত করা হবে না।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে সাধারণ মানুষের টিকার অধিকার নিয়ে কোনো অনিয়ম সহ্য করা হবে না।

টিকা দানের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক প্রচেষ্টার ফসল যাতে কোনো লুটেরা দুর্নীতিবাজের কারণে প্রশ্নবিদ্ধ না হয়, সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সতর্ক থাকতে অনুরোধ জানান তিনি।

পটিয়ার সংসদ সদস্য হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর ‘পোষ্যদের’ বিরুদ্ধে টিকা প্রদানে অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতা ও অবৈধ অর্থ লেনদেনের অভিযোগে যখন তোলপাড়- চলছে আলোচনা, তখনই এমন হুঁশিয়ারি দিলেন যুবনেতা বদিউল আলম।

অভিযোগের সঠিক তদন্ত করে অপরাধী যতই শক্তিশালী হোক না কেনো তার শাস্তির দাবি জানান এই যুবলীগ নেতা।

শোকাবহ আগস্ট মাসের প্রথম দিনে কুসুমপুরা ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডে ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে এ সব কথা বলেন যুবলীগের এই কেন্দ্রীয় নেতা।

তিনি বলেন, আমি মানবসেবার ব্রত নিয়ে রাজনীতি করি। পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বলেছেন ‘মানুষের কর্মের মধ্যে উত্তম কর্ম হলো মানুষের সেবা করা।’

পরবর্তী খবর

টিকা প্রাপ্তির নিশ্চয়তা ছাড়া মাসে কোটি ডোজ দেওয়ার ঘোষণা প্রতারণা: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

টিকা প্রাপ্তির নিশ্চয়তা ছাড়া মাসে কোটি ডোজ দেওয়ার ঘোষণা প্রতারণা: ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার এখন পর্যন্ত টিকা সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও বিতরণের সুনির্দিষ্ট রোডম্যাপ জনগণের সামনে দিতে পারেনি। টিকা প্রাপ্তির কোনো নিশ্চয়তা ছাড়াই প্রতি মাসে এক কোটি ডোজ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার, যা জনগণের সঙ্গে প্রতারণা ছাড়া কিছুই নয়। 

রোববার (১ আগস্ট) এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শনিবার (৩১ জুলাই) বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভার সিদ্ধান্ত জানাতে আজ এ সংবাদ সম্মেলন করেন দলটির মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এসব উক্তি এখন হাস্যকর হয়ে উঠেছে। এগুলো যে ফাঁকা বুলি, এটা বুঝতে আর জনগণের বাকি নেই।

মির্জা ফখরুল জানান, দেশে করোনার  উর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভা। তারা বলেছে, সরকারের নীতি ও অব্যবস্থাপনার কারণে বেশির ভাগ আক্রান্ত মানুষ পরীক্ষা করতে পারছে না। মানুষ হাসপাতালে কোনো শয্যা পাচ্ছে না। অক্সিজেন পাচ্ছে না। আইসিইউ পাচ্ছে না। জেলা হাসপাতালগুলোর পরিস্থিতি উন্নত করার কোনো চেষ্টা সরকারের নেই।

বিএনপির অভিযোগ, সরকার উদ্দেশ্যমূলকভাবে সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যার প্রকৃত চিত্র না দিয়ে অসত্য তথ্য দিচ্ছে। হাসপাতালে সংবাদকর্মীদের তথ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে বাধা-নিষেধ আরোপ করেছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার ভয়ে সংবাদকর্মীরা প্রকৃত তথ্য তুলে ধরতে পারছেন না। 

এছাড়া ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় সরকারকে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বিএনপি। 

আরও পড়ুন:


সঙ্কটে মানুষের পাশে দাঁড়ালে বঙ্গবন্ধুর আত্মা শান্তি পাবে: কাদের

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ

বিশ্বাস করতে হবে আমরা টি-টোয়েন্টিতেও ভালো দল: ডমিঙ্গো


সরকারের পদত্যাগ দাবি করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভা বলেছে, অপরিকল্পিত লকডাউনে জনগণের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। দুর্গত মানুষের কাছে সরকারের সহযোগিতা পৌঁছাচ্ছে না। লকডাউনের মধ্যে রপ্তানিমুখী কলকারখানা খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তে শ্রমিকেরা মারাত্মক ভোগান্তিতে পড়েছে। সরকারের এ ধরনের সিদ্ধান্তকে প্রহসন বলে উল্লেখ করেছে বিএনপি। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় চরম ব্যর্থতার জন্য সরকারের পদত্যাগ করা উচিত বলে মনে করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভা।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড ১৫ আগস্ট: কাদের

অনলাইন ডেস্ক

ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড ১৫ আগস্ট: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক ধারায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হবে। চলমান করোনা সঙ্কটে অসহায়, দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ালেই বঙ্গবন্ধুর প্রতি সঠিক সম্মান প্রদর্শন হবে এবং তার আত্মা শান্তি পাবে।

রোববার (১ আগস্ট) ওবায়দুল কাদের তার বাসভবনে ব্রিফিংকালে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড ছিল ১৫ আগস্ট। নির্মমতার দিক থেকে এমন রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের নজির পৃথিবীতে আর নেই। 

জগতে অন্যান্য হত্যাকাণ্ডে নিষ্পাপ শিশুকে হত্যা করা হয়নি। টার্গেট করা হয়নি অবলা নারীকে, অন্তঃসত্ত্বা নারীকে। সেদিন শুধু বঙ্গবন্ধুই নন, তার সহধর্মিণী মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা বেগম মুজিবসহ নৃশংসভাবে নিহত হন পরিবারের অন্য সদস্যরা। 

১৫ আগস্টের নির্মম হত্যাযজ্ঞ ঘটিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা থেমে থাকেনি, তারা পরবর্তীতে ৩ নভেম্বর জাতীয় চার নেতাকে জেলের অভ্যন্তরে কারাকক্ষে হত্যা করে। ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা ছিল একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা।

তিনি আরও বলেন, ১৫ আগস্ট প্রাইম টার্গেট ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আর ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রাইম টার্গেট ছিল বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

১৫ ও ২১ আগস্টের হত্যাকাণ্ডের কুশীলবরা এখনো সক্রিয়, তারা উন্নয়ন, শান্তি ও স্বস্তির বাংলাদেশ চায় না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধ আগামীর পথে এগিয়ে যাওয়া তাদের গাত্রদাহ। তারা চায় সংঘাতে জর্জরিত রক্তময় প্রান্তর। আগস্ট এলেই বঙ্গবন্ধু কন্যার নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ১৯৮১ সালে তিনি দেশে ফিরে আসার পর তাকে প্রায় ২০ বার হত্যার চেষ্টা করা হয়। যারা খুনের কুশীলব ছিল তাদের অপমৃত্যু হয়েছে। ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করেনি, ক্ষমা করেও না। 

আরও পড়ুন:


বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম

চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় দুই মামলা


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর