নওগাঁয় ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার শাস্তি তিন থাপ্পড়, জরিমানার টাকাও মাতব্বরের পকেটে

বাবুল আখতার রানা, নওগাঁ

নওগাঁয় ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার শাস্তি তিন থাপ্পড়, জরিমানার টাকাও মাতব্বরের পকেটে

থানায় অভিযোগ করলে গ্রামে থাকতে দেবে না এমন শঙ্কায় মেয়ের শ্লীলতাহানির অভিযোগ নিয়ে গ্রামের মাতব্বরের কাছে যান মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুর ইউনিয়নের এক কৃষক। এরপর সালিশ বৈঠক ডেকে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে শাস্তি হিসেবে তিন থাপ্পড় ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ছাত্রীর স্বজনদের অভিযোগ, অভিযুক্ত ব্যক্তি ও তাঁর স্বজনেরা গ্রামের প্রভাবশালী হওয়ায় এমন বিচার মেনে নিতে হয়েছে তাঁদের। গত রোববার রাতে গ্রাম্য ওই সালিশ বৈঠক হয়। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম খোদাবক্স মন্ডল (৪৫)। সালিস বৈঠকে বিচারের কাজ করেন তাঁর চাচাতো ভাই সেকেন্দার আলীসহ গ্রামের মাতব্বর আব্দুর রাজ্জাক মন্ডল।

এ বিষয়ে কথা হয় ছাত্রীর বড় ভাই ও ভাবির সঙ্গে। তাঁরা বলেন, সালিশ বৈঠকে শ্লীলতাহানির সত্যতা পাওয়ার পরও দোষী ব্যক্তিকে উপযুক্ত সাজা দেওয়া হয়নি। বিচারের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে জোর করে সাদা স্টাম্পে ছাত্রী ও বাবার স্বাক্ষর করে নেওয়া হয়েছে। বিচার সুষ্ঠ না হলেও মাতব্বরদের সিদ্ধান্তই মানতে হবে। এর বাইরে গেলে গ্রামেই থাকা যাবে না হয়তো।

ভুক্তভোগী মেয়ে একটি বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। তার স্বজনেরা জানান, গত ১০ জুন বিকেলে কিশোরী বাড়িতে নিজের কক্ষে একাই ছিল। প্রতিবেশী খোদাবক্স তখন ঘরে ঢুকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। কিশোরীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে খোদাবক্স পালিয়ে যান। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা গ্রামের মাতব্বরের কাছে বিচার দাবি করেন।

মাতব্বরেরা বিষয়টি নিয়ে গত রোববার রাতে সালিশ-বৈঠকে বসেন। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মেয়েটির বাবাকে অভিযুক্ত খোদাবক্সকে তিনটি থাপ্পড় মারতে বলা হয়। এ ছাড়া খোদাবক্সকে জরিমানা করা হয় ২০ হাজার টাকা।

স্কুলছাত্রীর বড় ভাই অভিযোগ করেন, খোদাবক্সের বিরুদ্ধে এর আগেও এক নারীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছিল। কিন্তু গ্রামের মধ্যে তিনি ও তাঁর স্বজনেরা প্রভাবশালী। তাঁর চাচাতো ভাই সেকেন্দার গ্রামের প্রধান মাতব্বর। সেকেন্দারের প্রভাব খাটিয়ে গ্রামের মাতব্বরদের দিয়ে এমন লঘু শাস্তির ব্যবস্থা করেছেন। জরিমানার টাকাও সেকেন্দার নিজে রেখে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন


যানজট থেকে মুক্তি দিতে জয়দেবপুর-কমলাপুর বিশেষ ট্রেন

পরমাণু যুদ্ধ এড়িয়ে চলতে পুতিন-বাইডেনের যৌথ বিবৃতি

৬ মাস ধরে ২০ বছর বয়সী মেয়েকে খুঁজে পাচ্ছেন না পুলিশ বাবা

আবু ত্ব-হা আদনানকে খুঁজে দিতে জাতীয় দলের ক্রিকেটার শুভর আহ্বান


এ বিষয়ে সেকেন্দার আলী বলেন, বৈঠকে মাতব্বরেরা সবাই সিদ্ধান্ত নেন জরিমানার ২০ হাজার টাকা তাঁর (সেকেন্দার) কাছে রাখা হবে এবং মেয়েটির যখন বিয়ে হবে, তখন এই টাকা খরচ করা হবে। কারণ, মেয়েটির বাবা খুব গরিব। এই টাকা তাঁদের হাতে দিলে তা খরচ হয়ে যাবে।

শ্লীলতাহানির সালিশ বৈঠকে বিচারের বিষয়ে মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ বলেন, তিনি এ ঘটনা সম্পর্কে কিছু জানেন না। থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে মহাদেবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, বুধবার দিবাগত রাতে এ রকম একটি ঘটনা শুনেছি। তবে বিস্তারিত জানি না। সরেজমিন পরিদর্শন করে এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

গাজীপুরে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত সর্দার নিহত

অনলাইন ডেস্ক

গাজীপুরে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত সর্দার নিহত

গাজীপুরের র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত সর্দার পারভেজ আহমেদ নিহত হয়েছে। এসময় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন।

শনিবার (৩১ জুলাই) রাতে উপজেলার সাতচুঙ্গিপাড় এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের ঘটনাটি ঘটে। এসময় ডাকাত সর্দার পারভেজের কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। মরদেহটির ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন:

বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম

চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় দুই মামলা


র‌্যাব-১ এর গণমাধ্যম শাখার সহকারি পরিচালক মোশফিকুল রহিম তুষার জানান, গতকাল রাতে উপজেলার সাতচুঙ্গিপাড় এলাকায় মাদকের অভিযান পরিচালনা করার সময় র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্যে গুলি ছুড়ে পারভেজ ও তার দুই সহযোগী। পরে র‌্যাব ও পাল্টা গুলি ছুড়লে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে পারভেজের মৃত্যু হয়। বাকি দুজন পালিয়ে যায়। এসময় দুইজন র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। 

তিনি আরও জানান, নিহত পারভেজের বিরুদ্ধে ডাকাতি, মাদক, হত্যাচেষ্টাসহ ২৩টি মামলা রয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ট্রাফিক পুলিশের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ট্রাফিক পুলিশের মৃত্যু

রাজধানীর শের-ই-বাংলা নগরে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় এক ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল নিহত হয়েছেন। রোববার (১ আগস্ট) সকাল ১১টার দিকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত হেলাল (৫০) ট্রাফিক তেজাগাঁও বিভাগের মোহাম্মদপুর জোনে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি গাজিপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায়।

গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক বেলা পৌনে ১২টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

চীন ও অস্ট্রেলিয়ায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুশিয়ারি

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন বেসামরিক পদে ছয় শতাধিক নিয়োগ


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের সামনের দায়িত্ব পালন করছিলেন হেলাল। বেলা ১১ টার দিকে হাসপাতালের সামনে একটি মাইক্রোবাসকে থামার সিগনাল দিলে সেটি প্রথমে হালকা থামলেও পরক্ষণেই আবার হেলালকে ধাক্কা দেয়। পরে তাকে উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয়।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে গাড়ির চাপ বেড়েছে

মোহাম্মদ আল-আমীন, গাজীপুর

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে গাড়ির চাপ বেড়েছে

গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে গাড়ির চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। রবিবার সকাল থেকে গাড়ির চাপ বৃদ্ধি ও যাত্রীদের চাপ অনেক বেশি লক্ষ্য করা যায়।

এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে গ্রামের বাড়ি থেকে কর্মস্থলের ফেরা সাধারন যাত্রীরা।

অন্যদিকে, নিয়ম ও স্বাস্থ্য বিধি না মানায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতি নিয়ত বাড়ছে। কঠোর লকডাউনের দশম দিনে গাজীপুরের কালিয়াকৈর চন্দ্রায় সকাল থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যাত্রীদের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা যায়।

আরও পড়ুন


৮ আগস্ট থেকে ১৮ বছর বয়সীরাও টিকা নিতে পারবেন

হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগ 'নেত্রী' ছিলেন না

বিরিয়ানিতে চকোলেটের বিস্ময়কর ভিডিও নেটমাধ্যমে ভাইরাল

স্বামীর পর্নকাণ্ড: এবার শিল্পা শেঠির সমর্থনে বলি-অভিনেত্রী

দূর পাল্লার গণপরিবহন কম থাকায় অটো রিক্সা, ভ্যানগাড়ি, সিএনজি ও ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল যোগে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে, গাজীপুর ও ঢাকা প্রবেশ করছেন কর্মস্থলে যোগ দেয়া, সাধারন যাত্রীরা। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে তাদের। 

news24bd.tv রিমু  

 

 

 

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে চিকিৎসার অভাবে বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠন

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে চিকিৎসার অভাবে বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠন

নোয়াখালীর সেনবাগে চিকিৎসার অভাবে মনোয়ারা বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার রাতে নোয়াখালীর সেনবাগ সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের ছেলে মো. দেলোয়ার ওরফে স্বপন (৩৫) এ অভিযোগ করেন। তিনি জানান, শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে বারোটায় শ্বাসকষ্ট ও হার্টের সমস্যা নিয়ে তার বৃদ্ধা মাকে সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। এ সময় জরুরি বিভাগ ও হাসপাতালের ভেতরে প্রবেশ করা গেটে তালা ঝুলতে দেখে কর্তব্যরতদের ডাকাডাকি শুরু করেন তিনি।

এ সময় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জরুরি সেবা না দিয়ে বেসরকারি ক্লিনিক থেকে ইসিজি করে নিয়ে আসতে বলেন। ততক্ষণে তার মায়ের শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে সেনবাগ প্রেসক্লাব অক্সিজেন ব্যাংকের হটলাইনে ফোন করলে ওই বৃদ্ধাকে রাত পৌনে একটার সময় অক্সিজেন সাপোর্ট দেয়া হয়।

পরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে স্বপন তার মাকে নিয়ে শহরের সেন্ট্রাল হসপিটালে নিয়ে আসেন। এখানে ডাক্তার না থাকায় ইসিজিসহ প্রয়োজনীয় সেবা না পেয়ে রাত একটায় আবারও সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চত্বরে নিয়ে আসেন।

তখন হাসপাতালের জরুরি বিভাগে না নিয়ে একজন মহিলা চিকিৎসক সিএনজিতে থাকা বৃদ্ধাকে দেখে মৃত ঘোষণা করেন। চরম অবহেলা ও চিকিৎসার অভাবে বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ এনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন তার সন্তান স্বপনসহ উপস্থিত তার স্বজনরা।

এ ব্যাপারে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. জাহানারা আরজু জানান, রাত একটায় খবর পেয়ে বৃদ্ধাকে দেখেছি তার কার্ডিয়াক ও শ্বাসকষ্ট ছিলো। মুহূর্তের মধ্যে তিনি মারা যান।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

চীন ও অস্ট্রেলিয়ায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুশিয়ারি

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন বেসামরিক পদে ছয় শতাধিক নিয়োগ


আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, করোনাকালীন সময়ে জরুরি বিভাগের একটি গেটে তালা ছিলো। কর্তব্যরত চিকিৎসক খবর পেয়ে রোগীকে দেখতে আসেন।

নোয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার জানান, সেনবাগ সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অনাকাঙ্খিত ঘটনায় সোনাইমুড়ীর ইউএইচএফপিও ডা. মইনুল ইসলামকে প্রধান করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

দুপুরের পরও ঢাকায় ঢুকতে পারবে শ্রমিকবাহী গাড়ি

অনলাইন ডেস্ক

দুপুরের পরও ঢাকায় ঢুকতে পারবে শ্রমিকবাহী গাড়ি

চলমান লকডাউনে চালু হওয়া রপ্তানিমুখী শিল্প ও কলকারখানার শ্রমিকদের বহনকারী গাড়ি দুপুর ১২টার পরও ঢাকায় প্রবেশ করতে পারবে বলে জানিয়েছেন বাস মালিক সমিতির নেতা ও পুলিশের কর্মকর্তারা।

গত শুক্রবারে জানানো হয়, রপ্তানিমুখী শিল্প ও কলকারখানা খোলা হবে রোববার। এমন ঘোষণা শোনার পর থেকেই চাকরি বাঁচাতে হেঁটে, ছোট যানবাহন ও ফেরিতে করে ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় কর্মস্থলে ছুটে যান কর্মীরা। যাত্রাপথে অবর্ণনীয় ভোগান্তিতে পড়তে হয় তাদের।

গতকাল শনিবার (৩১ জুলাই) রাত সাড়ে ৯টার দিকে তথ্য অধিদপ্তর জানায়, সে সময় থেকে আজ রোববার (০১ আগস্ট) দুপুর ১২টা পর্যন্ত চলবে গণপরিবহন।

ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘গার্মেন্টস শ্রমিকদের নিয়ে যেসব বাস বিভিন্ন জেলা থেকে বের হয়েছে, সেগুলো যদি পথে আটকেও যায় তবে ঢাকায় প্রবেশ করতে কোনো সমস্যা হবে না বলে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদেরকে নিশ্চিত করেছে। এসব গাড়িকে দুপুর ১২টার পরেও কোনো ঝামেলা ছাড়াই ঢাকায় ঢুকতে দেয়া হবে। এসব গাড়ি তো রাস্তায় থাকতে পারবে না।’

পুলিশ জানিয়েছে, দুপুর ১২টার পর অন্যান্য দিনের মতোই তাদের চেকপোস্টগুলো কার্যক্রম শুরু করবে। তবে সেখানে শ্রমিকদের আনা-নেয়ার কাজে নিয়োজিত কোনো গাড়িকে প্রশ্নের মুখে পড়তে হবে না। তাদের নির্বিঘ্নে ঢাকায় প্রবেশ করতে এবং ঢাকা থেকে বের হতে দেয়া হবে।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশসহ চার দেশে দুবাইগামী ফ্লাইট বন্ধ ৭ আগস্ট পর্যন্ত

চীন ও অস্ট্রেলিয়ায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুশিয়ারি

হেলেনাকে সম্মানের সঙ্গে ছাড়তে বললেন সেফুদা

সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন বেসামরিক পদে ছয় শতাধিক নিয়োগ


গাবতলী ট্রাফিক পুলিশ বক্সের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা গাজী মাহবুব আলম বলেন, ‘গাবতলীতে পুলিশের চেকপোস্ট বসানো হয়েছিল। সেটা গতকাল থেকে নেই। তবে দুপুর ১২টার পর আবারও চেকপোস্ট বসানো হবে।

তবে অন্যান্য ব্যক্তিগত যানবাহনগুলোকে আগের দিনগুলার মতোই যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে যাতায়াত করতে হবে বলে জানায় পুলিশ।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর