বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট

অনলাইন ডেস্ক

বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট

ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্ট্রার (এনইআইআর) সিস্টেম ব্যবহার করে অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট শনাক্তের পাশাপাশি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হবে। আগামী ১ জুলাই থেকে এ কার্যক্রম শুরু করবে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

ফলে ১ জুলাই থেকে কেউ নেটওয়ার্কের বাইরে থাকা ও অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে বর্তমানে ব্যবহার হওয়া সব ধরনের মোবাইল হ্যান্ডসেট স্বয়ংক্রিয়ভাবে এনইআইআর পদ্ধতিতে নিবন্ধিত হবে। ফলে এসব মোবাইল হ্যান্ডসেট বন্ধ হবে না।

গতকাল বুধবার বিটিআরসির তরঙ্গ বিভাগের পক্ষ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। সেখানে বলা হয়, এনইআইআর সম্পর্কে জনমনে বিভ্রান্তি দূর করার জন্য গ্রাহক কর্তৃক বর্তমানে মোবাইল ফোন নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা হ্যান্ডসেটগুলো ৩০ জুন তারিখের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধিত হবে। ফলে ১ জুলাই থেকে এসব মোবাইল সেটসমূহ বন্ধ করা হবে না।

বিটিআরসির তরঙ্গ বিভাগের পরিচালক ড. মো. সোহেল রানা স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তি বলা হয়, বর্তমানে দেশে মোবাইল ফোন গ্রাহক সংখ্যা ১৬ কোটির অধিক। মোবাইল ফোন গ্রাহকদের চাহিদা পূরণের জন্য প্রতি বছর বিদেশ থেকে প্রায় দেড় কোটি মোবাইল হ্যান্ডসেট আমদানি করা হয়। এছাড়া প্রায় দুই কোটি মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট দেশেই উৎপাদন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘বৈধভাবে আমদানির পাশাপাশি কর ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবেও হ্যান্ডসেট আমদানির অভিযোগ রয়েছে। মোবাইল হ্যান্ডসেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে সার্বিকভাবে শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য আগামী ১ জুলাই থেকে অবৈধপথে আসা এবং নেটওয়ার্কের বাইরে থাকা মোবাইল ফোন দেশে চালু করা যাবে না। এসব মোবাইল হ্যান্ডসেটের সংযোগ বন্ধ করে দেওয়া হবে। তবে অবৈধপথে আসা কিন্তু বর্তমানে সচল থাকা মোবাইল হ্যান্ডসেট বন্ধ করা হবে না।’

বিটিআরসির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শহিদুল আলম জানান, জুলাইয়ের আগে গ্রাহকরা যে সব অননুমোদিত বা অবৈধভাবে আসা হ্যান্ডসেট ব্যবহার শুরু করেছেন তাদের নিবন্ধন কার্যক্রমের অনুমোদনের আওতায় আনা হবে। অর্থাৎ সচল মোবাইল ফোন বন্ধ করা হবে না।

বিটিআরসি সূত্র জানায়, এসএমএসের মাধ্যমে ডাটাবেস ব্যবহার করে আমদানি করা হ্যান্ডসেটগুলোর বৈধতা পরীক্ষা করা যাবে। এনইআইআর পদ্ধতি ১৫ দিনের অস্থায়ী সময়ের জন্য কাজ করবে এবং এর ট্রায়াল রান জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

বিদেশ থেকে কেনা বা উপহার পাওয়া হ্যান্ডসেটগুলো বিটিআরসিতে বৈধ কাগজপত্র জমা দিয়ে নিবন্ধন করা যাবে। যদি কোনো ব্যবহারকারী তার হ্যান্ডসেটটি বিক্রি করতে চান, তবে তাকে নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটের মাধ্যমে হ্যান্ডসেটটি নিবন্ধনভুক্ত করে নতুন ব্যবহারকারীর নামের অধীনে ডাটাবেসে পুনরায় নিবন্ধন করাতে হবে।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

বাসায় আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি, ৯৯৯-এ তরুণীর ফোন কলে উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক

বাসায় আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি, ৯৯৯-এ তরুণীর ফোন কলে উদ্ধার

চাঁদপুরে জোর করে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি করানোর অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে চাঁদপুর সদর থানার পুলিশ। জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে ভুক্তভোগী তরুণী কল দিলে তাকে উদ্ধার করা হয়।

২৪ জুলাই ২০২১, শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় চাঁদপুর সদর থানাধীন ওয়ারলেস স্কুলের পাশের একটি ভবন থেকে কান্নাজড়িত স্বরে একজন তরুণী (১৮) ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে জানান, তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানায়। সাড়ে তিনমাস পূর্বে তাকে মাহি এবং তার স্বামী রিপন নামে এক দম্পতি তাদের বাসায় কাজের কথা বলে নিয়ে আসে। কিন্তু তাকে দিয়ে ঘরের কাজের পরিবর্তে জোর করে পতিতাবৃত্তি করানো হচ্ছিল।

এ ধরণের কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হতো। এখন সে এক সহৃদয় খদ্দেরের ফোন থেকে টয়লেটে লুকিয়ে ৯৯৯ এ ফোন করেছে। কলার ৯৯৯ এর কাছে তাকে উদ্ধারের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ জানায়।

৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি চাঁদপুর সদর থানায় জানিয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ জানায়। সংবাদ পেয়ে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল অবিলম্বে ঘটনাস্থলে যায়।


আরও পড়ুন:

চীনে গুদামে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৪

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

পিএসজির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ল পচেত্তিনোর

হাইতি প্রেসিডেন্টের সৎকার অনুষ্ঠান থেকে পালিয়েছে মার্কিন প্রতিনিধিদল


পরে চাঁদপুর সদর থানার সাব ইন্সপেক্টর (উপ পরিদর্শক) মোঃ রাশেদুজ্জামান ৯৯৯ কে ফোনে জানান তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করেন এবং আটকে রেখে জোর পূর্বক পতিতাবৃত্তির অভিযোগে মাহি আক্তার বর্ষা ওরফে মাকসুদা বেগম মাহি (২৬), স্বামী- রিপন গনি, পিতা- আয়নাল হাওলাদার, গ্রাম- মাজারগেট, থানা- টুঙ্গিপাড়া, জেলা- গোপালগঞ্জ কে আটক করেন।

এ সংক্রান্তে থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

অনলাইন ডেস্ক

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহার করে বিশ্বের  লাখ লাখ মানুষ রাতে ভালো ঘুমাতে পারছে। রাস্তায় চলাচল করতে পারছে নিশ্চিন্তে । এমন দাবি করেছে ইসরায়েলি সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান- এনএসও গ্রুপ।

দেশে দেশে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ফোনে আড়ি পাতা নিয়ে সমালোচনার মধ্যে নিজেদের এমন বক্তব্য দিয়েছে এনএসও গ্রুপ।

আরও পড়ুন:

বাড্ডায় লরির ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু

আফগানিস্তানে তালেবানদের সহিংসতা থামাতে কারফিউ জারি

মুম্বাই পুলিশের জেরার মুখে শিল্পা

সুরা হাশরের শেষ তিন আয়াত পাঠের ফজিলত

ইসরায়েলের সাবেক সাইবার গোয়েন্দাদের হাত ধরে ২০১০ সালে গড়ে ওঠে এনএসও গ্রুপ। তাদের তৈরি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহার করে বিশ্বের অন্তত ৪৫টি দেশে সাংবাদিক, মানবাধিকারকর্মী, রাজনীতিবিদসহ বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের স্মার্টফোনে আড়ি পাতা হয়েছে বলে সম্প্রতি খবর প্রকাশিত হয়েছে।

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর

বেজোস ও ব্র্যানসনকে নভোচারী বলা যাবে না

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের সবচেয়ে ধনাঢ্য ব্যক্তি জেফ বেজোস এবং আরেক মার্কিন ধনকুবের রিচার্ড ব্র্যানসন মহাকাশ ভ্রমণ করে এলেও, তাদেরকে নভোচারী বলা যাবে না। 

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন এডমিনিস্টেশন জানিয়েছে, নিয়ম অনুযায়ী একজন নভোচারী মহাকাশযানের একজন ক্রু হিসেবে এবং এর নিরপদ উড্ডয়ন, ভ্রমণ ও ভূমিতে নেমে আসার ক্ষেত্রে কাজ করে। কাজেই বেজোস এবং ব্র্যানসন, কেউই সেরকম কোন দায়িত্ব পালন না করায়, তাদের এস্ট্রোনট বলা যাবে না বলে জানিয়েছে এফ.এ.এ।


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 গেলো ২১ জুলাই আরো তিনজন যাত্রী নিয়ে জেফ বেজোস মহাকাশে খুব স্বল্প সময়ের জন্য যাত্রা করেন। এর কিছুদিন আগে একইরকমভাবে মহাকাশ ঘুরে এসেছেন স্যার রিচার্ড ব্র্যানসন। কিন্তু তারা শুধুমাত্র দর্শণার্থী হয়ে মহাকাশযানের যাত্রী ছিলেন। যে কারণে ২০০৪ সালে পর এফ.এ.এ তাদের নতুন উইং প্রোগ্রামে এই প্রথম নিয়মের পরিবর্তন করলো। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বাংলাদেশে আসছে ফেসবুকের বিকল্প সোশ্যাল মিডিয়া

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশে আসছে ফেসবুকের বিকল্প সোশ্যাল মিডিয়া

আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে দেশকে আত্মনির্ভরশীল করার লক্ষ্যে ‘যোগাযোগ’ নামে ফেসবুকের বিকল্প নিজস্ব সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম আসছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি জানান, এই অ্যাপসের মাধ্যমে দেশের উদ্যোক্তারা তথ্য, উপাত্ত এবং যোগাযোগের ক্ষেত্রে নিজেদের মধ্যে একটি নিজস্ব অনলাইন মার্কেটপ্লেস ও গ্রুপ তৈরি করতে পারবে। তাছাড়া উদ্যোক্তাদের আর বিদেশ নির্ভর হতে হবে না।

আরও পড়ুন

লাশবাহী গাড়ির সঙ্গে ফিরছেন যাত্রীরা

২১ কোটি ডোজ ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে

আইসিইউ না পেয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে করোনা রোগীদের

দাপটে চলছে রিকশা ও ইজিবাইক

গতকাল শুক্রবার উইমেন ই-কমার্স (উই) আয়োজিত ‘এন্টারপ্রেনারশীপ মাস্টারক্লাস সিরিজ ২’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ তথ্য দেন প্রতিমন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে ইতিমধ্যেই জুম অনলাইনের বিকল্প ‘বৈঠক’অনলাইন প্লাটফর্ম এবং করোনা প্রতিরোধে ভ্যাকসিন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ‘সুরক্ষা’অ্যাপস তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া হোয়াটসঅ্যাপের অল্টারনেটিভ হিসেবে ‘আলাপন’নামেরও একটি প্লাটফর্ম তৈরি করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের লক্ষ্য ২০২১ সালের মধ্যে আইসিটি সেক্টরে ২০ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। এর মধ্যে সফলতার সঙ্গে ১৫ লাখের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হয়েছে। 

নারী উদ্যোক্তাদের সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করতে আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

বৈদ্যুতিক গাড়ির জন্য দ্বিগুণের বেশি চার্জিং স্টেশন স্থাপন করবে ইলেকট্রিফাই আমেরিকা

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় বৈদ্যুতিক গাড়ির জন্য বর্তমানের চেয়ে দ্বিগুণের বেশি চার্জিং স্টেশন স্থাপন করবে ইলেকট্রিফাই আমেরিকা।

নিঃসরণ কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ার দায়ে জার্মান গাড়ি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ফক্সওয়াগনের অর্থে প্রতিষ্ঠিত বৈদ্যুতিক গাড়ি চার্জিং নেটওয়ার্ক ইলেকট্রিফাই আমেরিকা সম্প্রতি এ উদ্যোগ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ২০২৫ সালের মধ্যে তারা তাদের নেটওয়ার্কে ১ হাজার ৮০০ ফাস্ট চার্জিং স্টেশন এবং ১০ হাজার একক চার্জার যুক্ত করবে। আগামী ১০ বছরে বৈদ্যুতিক গাড়ির অবকাঠামো খাতে ২০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ প্রতিশ্রুতির আওতায় এসব চার্জিং স্টেশন স্থাপন করা হবে বলে জানায় ইলেকট্রিফাই আমেরিকা।

আরও পড়ুন:

আনন্দ ভ্রমণে গিয়ে মাদরাসাছাত্রের মৃত্যু

রাস্তায় ফেলে চলে যাওয়া চামড়াগুলোতে পচন ধরে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে

মুনিয়ার মৃত্যুর সঙ্গে সায়েম সোবহান আনভীরের জড়িত থাকার প্রমাণ পায়নি পুলিশ


 

গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো গ্রাহকদের জন্য বৈদ্যুতিক গাড়ি উৎপাদন বাড়িয়েছে, যাতে এসব গাড়ির গতিপথ বৃদ্ধি পায় এবং দ্রুত চার্জ গ্রহণ করতে পারে। তবে বর্তমানে যেসব চার্জিং স্টেশন রয়েছে, সেগুলো এসব গাড়িতে দ্রুত চার্জ সরবরাহ করার মতো উপযুক্ত ভাবে তৈরী নয়।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর